X
সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪
১০ আষাঢ় ১৪৩১
এশিয়ান গেমস

নিগারদের হাত ধরে প্রথম পদক বাংলাদেশের

স্পোর্টস ডেস্ক
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৯:৫৪আপডেট : ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ১৬:৫৬

এশিয়ান গেমসে নারী ক্রিকেটারদের হাত ধরে বাংলাদেশ প্রথম পদক জিতলো। সোমবার হাংজুর পিংফেং ক্যাম্পাস ক্রিকেট ফিল্ডে তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে পাকিস্তানকে হারিয়েছেন নিগার সুলতানা জ্যোতিরা। 

৫ উইকেটে জিতে ব্রোঞ্জ পেলো বাংলাদেশ। আগে ব্যাটিংয়ে নেমে পাকিস্তান ২০ ওভারে ৯ উইকেটে করে ৬৪ রান। বাংলাদেশ ১৮.২ ওভারে ৫ উইকেটে লক্ষ্য অতিক্রম করে।

পাকিস্তানকে ইনিংসের পঞ্চম বলেই ধাক্কা দেন মারুফা আক্তার। শাওয়াল জুলফিকার শূন্য রানে বোল্ড হন। পরের ওভারে আরেক ওপেনার আমিনকে (১) মারুফার ক্যাচ বানান নাহিদা আক্তার। এরপর নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে পাকিস্তান।

১৫তম ওভারে জোড়া আঘাত করেন স্বর্ণা আক্তার। শেষ ওভারে আরও একটি উইকেট নিয়ে তিনি বাংলাদেশের সফল বোলার। পাকিস্তানের পক্ষে সর্বোচ্চ ১৭ রান করেন আলিয়া রিয়াজ। এছাড়া অধিনায়ক নিদা দার ১৪ রানে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখেন।

স্বর্ণা আক্তার ম্যাচ জিতিয়ে মাঠ ছাড়েন

লক্ষ্যে নেমে শামীমা সুলতানা ও সাথি রানীর ওপেনিং জুটিতে ভালো শুরু করে বাংলাদেশ। ২৭ রানে এই জুটি ভাঙে পঞ্চম ওভারে। ১৩ রান করেন শামীমা। নাশরা সান্ধু বল হাতে নিয়ে বাংলাদেশের ঘাম ছুটান। টানা তিন ওভারে ১৩ রানের ব্যবধানে তিন উইকেট নিলে বিপদে পড়ে বাংলাদেশ।

পাওয়ার প্লে শেষ হওয়ার পর সাথি ১৩ রানে নাশরার শিকার। নিজের পরের দুই ওভারে পাকিস্তানি বোলার ফেরান নিগার (২) ও সোবহানা মোস্তারিকে (৫)। বাংলাদেশ এই বিপদ কাটিয়ে ওঠে স্বর্ণার ব্যাটে হাল ধরেন। জয় থেকে ৮ রান দূরে থাকতে তার সঙ্গী রিতু ৭ রানে থামেন। বাকি পথ পাড়ি দেন স্বর্ণা ও সুলতানা খাতুন। স্বর্ণা ইনিংস সেরা ১৪ রানে অপরাজিত ছিলেন। 

৯ বছর পর এশিয়ান গেমসে পদক পেলো নারী ক্রিকেট দল। এর আগে ২০১৪ সালের ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে হেরে বাংলাদেশ রৌপ্য পদক জিতেছিল। এবার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে সেই দলকে হারিয়ে ব্রোঞ্জ জিতলো। এই টুর্নামেন্টে তৃতীয়বার পদক পেলেন বাংলাদেশের নারী ক্রিকেটাররা। ২০১০ সালে চীনে প্রথমবার তাদের গলায় রুপার পদক শোভা পায়। ওইবারও ফাইনালে তারা পাকিস্তানের কাছে হেরে রানার্সআপ হয়।

/এফএইচএম/
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
সুন্দরবনে “বর্ষা উৎসব”
সুন্দরবনে “বর্ষা উৎসব”
বেঁচে আছেন ইসরায়েলি সেনাদের জিপে বাঁধা ফিলিস্তিনি
বেঁচে আছেন ইসরায়েলি সেনাদের জিপে বাঁধা ফিলিস্তিনি
সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে তীব্র যানজট
সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে তীব্র যানজট
‘নির্বাচনে যারা ভোট চাইতে আসেন, ভাঙনের সময় তাদের দেখা যায় না’
পদ্মার তীরে ভাঙন‘নির্বাচনে যারা ভোট চাইতে আসেন, ভাঙনের সময় তাদের দেখা যায় না’
সর্বাধিক পঠিত
ভারত, অস্ট্রেলিয়া, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের সেমিফাইনালে ওঠার সমীকরণ
ভারত, অস্ট্রেলিয়া, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের সেমিফাইনালে ওঠার সমীকরণ
হিজবুল্লাহ’য় যোগ দিতে ইচ্ছুক ইরান-সমর্থিত হাজারো যোদ্ধা
ইসরায়েলের বিরুদ্ধে যুদ্ধহিজবুল্লাহ’য় যোগ দিতে ইচ্ছুক ইরান-সমর্থিত হাজারো যোদ্ধা
‘কক্সবাজারে সেনানিবাস না থাকলে দখল করে নিতো আরাকান আর্মি’
‘কক্সবাজারে সেনানিবাস না থাকলে দখল করে নিতো আরাকান আর্মি’
ওসিকে ধাক্কা দিয়ে চাকরি হারালেন সেই এএসআই
ওসিকে ধাক্কা দিয়ে চাকরি হারালেন সেই এএসআই
আঠাবিহীন কাঁঠাল চাষে চমক, তিন মাসেই ফল, দেবে বারো মাস
আঠাবিহীন কাঁঠাল চাষে চমক, তিন মাসেই ফল, দেবে বারো মাস