নির্ভার থাকছেন শফিউল

Send
রবিউল ইসলাম, চট্টগ্রাম থেকে
প্রকাশিত : ১৬:০৭, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:৩৩, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৯

519A3356আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ৯ বছরের ক্যারিয়ার শফিউল ইসলামের। উত্থান পতনে ভরা এই লম্বা ক্যারিয়ারে থিতু হতে পারেননি জাতীয় দলে। প্রতিনিয়ত ইনজুরি আর ফিটনেসের সঙ্গে লড়াই করে যাচ্ছেন বাংলাদেশের এই পেসার। প্রায় এক দশকের ক্যারিয়ারে এখন তিনি ঠিক কোথায় দাঁড়িয়ে সেটা নিয়ে ভাবেন না তিনি। নির্ভার থেকে সামনের চ্যালেঞ্জগুলো মোকাবিলা করতে চান ২৯ বছর বয়সী এই পেসার।

২০১০ সালের জানুয়ারিতে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডে খেলে আন্তর্জাতিক অভিষেক হয় শফিউলের। কয়েক সপ্তাহের ব্যবধানে টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি ক্যাপও পান তিনি। এত লম্বা ক্যারিয়ার, অথচ খেলেছেন ১১ টেস্ট, ৫৯ ওয়ানডে ও ১৩ টি-টোয়েন্টি! ২০১৭ সালের অক্টোবরে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি খেলার পর দীর্ঘদিন ছিলেন জাতীয় দলের বাইরে। গত জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে আবার ফেরেন জাতীয় দলে। প্রায় দুই বছর সুযোগ পেলেন টি-টোয়েন্টিতেও।

শফিউল ফিরেই জানান দিয়েছেন ফুরিয়ে যাননি তিনি। ৩৬ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন তিন উইকেট। কীভাবে এই কঠিন সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি? জবাবে বললেন, ‘ভাবি, নিয়মিত মাঠে আছি। এটা করলে পারফরম্যান্স ভালো হয়। চাপও কম পড়ে। সবচেয়ে বড় কথা নির্ভার থাকার চেষ্টা করি।’

জাতীয় দলে শফিউলের অনিয়মিত হওয়ার বড় কারণ ছিল চোট। দলে ডাক পেলেই কোনও না কোনও ইনজুরিতে ছিটকে গিয়েছেন প্রায় সময়। তাই ইনজুরি এড়াতে সবসময় সতর্ক থাকেন তিনি, ‘আমি চেষ্টা করছি যেন ইনজুরি মুক্ত থাকা যায়। সবসময় চাই- যখনই ফিরি, দেশের জন্য যেন কিছু করতে পারি। নিজের সেরাটা দেওয়ার চেষ্টা করি। আর ইনজুরিতে যেন না পড়ি সেই চেষ্টাও থাকে।’

বোলিং কোচ শার্ল ল্যাঙ্গেভেল্টের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা নতুন হলেও স্বস্তি শফিউলের। কারণ তার বোলিং কৌশলে খুব বেশি পরিবর্তন আনতে হয়নি। কেবল লেন্থ নিয়েই নতুন কোচ কাজ করছেন বলে জানান এই ডানহাতি পেসার, ‘টুর্নামেন্ট চলার সময় কোচরা খুব বেশি পরিবর্তন আনার চেষ্টা করেন না। আমার লেন্থ যেন ভালো হয় এবং যেটা করি তা যেন নিখুঁত থাকে সেটায় জোর দিয়েছেন তিনি (ল্যাঙ্গেভেল্ট)।’

খারাপ সময় এলে পড়তে চান না শফিউল। দৃঢ়তার সঙ্গে সেটা মোকাবিলা করতে চান তিনি, ‘ভালো থাকলে স্বাচ্ছন্দ্যে বল করতে পারি। ভালো দিন যাচ্ছে, পারফরম্যান্স ভালো হচ্ছে। কিন্তু এটাই তো শেষ নয়। খারাপ সময় এলে তখনও যেন ভালোভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পারি সেজন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত থাকি।’

/আরআই/এফএইচএম/

লাইভ

টপ