ওমানের আক্রমণ রুখবে কে?

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ১৬:০৬, নভেম্বর ১৪, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৬:০৭, নভেম্বর ১৪, ২০১৯

বাংলাদেশ ফুটবল দলের অনুশীলন (ফাইল ছবি)বিশ্বকাপ বাছাই পর্বে বাংলাদেশকে ম্যাচের বড় অংশ জুড়ে নিজেদের রক্ষণ সামলাতে ব্যস্ত থাকতে হচ্ছে। নিজেদের ঘর সামলে আক্রমণে ওঠে জেমি ডে’র দল। সহজ কথায়, বাংলাদেশের রক্ষণকে দিতে হচ্ছে সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষা। এবার সামনে শক্তিশালী ওমান। যাদের ‍আক্রমণভাগে ভয় ছড়ানো সব ফরোয়ার্ড।

বাংলাদেশের ডিফেন্ডারদের জন্য তাই আজ (বৃহস্পতিবার) আরও কঠিন পরীক্ষা। বাংলাদেশ সময় রাত ৯টায় ওমানের মাঠে নামবে লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। যদিও হাল ছাড়ছেন না ইয়াসিন-রায়হানরা। আল মুকবালি-আল ঘাসানির মতো খেলোয়াড়দের নিয়ে গড়া ওমানের আক্রমণ ঠেকাতে প্রস্তুত তারা। যেখানে অনুপ্রেরণা জোগাচ্ছে কাতার ও ভারতের বিপক্ষে ম্যাচ দুটি।

বাংলাদেশের এখনকার দলে রক্ষণভাগে ইয়াসিন খানই বড় নাম। অভিজ্ঞতায় তিনি অন্যদের চেয়ে এগিয়ে। সবশেষ ভারতের বিপক্ষে ম্যাচে শুরুতে এক ফরোয়ার্ডের সঙ্গে সংঘর্ষে মাথায় ব্যান্ডেজ নিয়ে খেলেছেন। ব্যথা নিয়েও হাল ছাড়েননি। দেশের জন্য বুক চিতিয়ে লড়াই করার ইচ্ছা বুকে লালন করা এই ডিফেন্ডার ওমানের বিপক্ষেও নিজের সেরাটা দিতে চান।

বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেছেন, ‘নিজের দায়িত্ববোধ থেকে মাঠে খেলি। ভারতের বিপক্ষে মাথায় আঘাত পেয়ে যদি আমি মাঠ ছাড়তাম, তাহলে আমাদের খেলায় ছন্দপতন হতে পারতো। সেটা জেনেই নিজের জায়গা ছাড়িনি। শেষ পর্যন্ত লড়ে গেছি। ওমানের বিপক্ষে নিজের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন আছি। এই ম্যাচে লক্ষ্য থাকবে যথাসম্ভব ভুল কম করতে। প্রতিপক্ষের সব আক্রমণ রুখে দেওয়ার চেষ্টা থাকবে।’

ঘরোয়া ফুটবলের পাশাপাশি জাতীয় দলে টানা ম্যাচ খেলায় কিছুটা ক্লান্তি ভর ‍করেছে ইয়াসিনের ওপর। যদিও সেটাকে খুব একটা আমলে নিচ্ছেন না এই ডিফেন্ডার, ‘ক্লান্তি কিছুটা আছে। তবে সেটা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করে যাচ্ছি। আশা করছি আমরা ইতিবাচক ফুটবল খেলতে পারব।’

রক্ষণে ইয়াসিনের সঙ্গে অন্যরা তরুণ। যদিও রিয়াদুল হাসান রাফি, বিশ্বনাথ ঘোষ কিংবা টুটুল হোসেন রায়হানও পিছিয়ে নেই। সমান তালে ইয়াসিনকে সঙ্গ দিয়ে যাচ্ছেন তারা। সতীর্থদের প্রশংসা ঝরেছে তার কণ্ঠে, ‘আসলে আমরা সবাই যে যার জায়গা থেকে চেষ্টা করে গেছি, যেন দল ভালো অবস্থানে থাকে। রিয়াদুল-বিশ্বনাথরা অপেক্ষাকৃত তরুণ হলেও তারাও নিজেদের দায়িত্ব সম্পর্কে সচেতন। আশা করছি আজও সবাই মিলে ভালো কিছু করে দেখাতে পারব।’

ডিফেন্সের পরের ধাপে সবচেয়ে বড় দায়িত্ব থাকে গোলরক্ষকের কাঁধে। বাংলাদেশ গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা নিজের জায়গা থেকে সেরাটা দিয়ে লড়ে যাচ্ছেন। ওমান ম্যাচে তিনি বেশ সতর্ক, ‘প্রতিপক্ষ যেন কোনও সুযোগ না পায়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা করব তাদের আক্রমণগুলো নষ্ট করে দিতে।’

/টিএ/কেআর/

লাইভ

টপ