X
বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
২৬ মাঘ ১৪২৯

তিনি সাধারণ শিক্ষার্থীদের নেতা

জুবলী রহমত
৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৮:২৮আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৩০

ও ক্যাপ্টেন, মাই ক্যাপ্টেন- শব্দগুলো শুনলেই রবিন উইলিয়ামস অভিনীত বিখ্যাত আমেরিকান চলচ্চিত্র ‘ডেড পয়েটস সোসাইটি’র একটি দৃশ্যের কথা মাথায় চলে আসে। যেখানে ছাত্ররা সব কিছুর বিপক্ষে গিয়ে তাদের শিক্ষক জন কেটিংকে (রবিন উইলিয়ামস) বলে ‘ও ক্যাপ্টেন, মাই ক্যাপ্টেন।’ ডেড পয়েটস সোসাইটিতে ইংরেজী শিক্ষক জন কেটিং তার ছাত্রদের দেখিয়েছেন কীভাবে নিয়মের বাইরে যেতে হয়, কীভাবে পুরোনো শেকলকে ভেঙে নতুনকে বরণ করে নিতে হয় কিংবা কীভাবে নতুন স্বপ্ন দেখতে হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অসংখ্য শিক্ষার্থীর কাছে ক্যাপ্টেন একজনই। বলছিলাম ঢাবি ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ডাকসুর সাবেক এজিএস সাদ্দাম হোসেনের কথা। মেধা, মনন ও প্রগতিশীলতা- এই তিনের মিশ্রণে দীর্ঘদিনের মরচে ধরা শেকলে কীভাবে নতুন প্রাণ দিতে হয় তা তিনি দেখিয়েছেন। দেখিয়েছেন রাজনৈতিক ছাত্র সংগঠনের নেতৃত্বে থেকে কীভাবে শিক্ষার্থীদের প্রতিনিধিত্ব করতে হয়। সর্বশেষ ডাকসু নির্বাচনের ফলাফলেই প্রতীয়মান হয় শিক্ষার্থীদের কতটুকু আস্থাভাজন হতে পেরেছেন তিনি। দীর্ঘ আটাশ বছরের অচলায়তন ভেঙে ছাত্র সংসদ নির্বাচনে সাদ্দামের ভূমিকাই সবচেয়ে বেশি।

 

‘জয় বাংলা বাইক সার্ভিস’ চালু করার পেছনে রয়েছে সাদ্দাম হসেনের অবদান

সাংস্কৃতিকভাবে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বদলানো নিয়ে অবিরত কাজ করছেন এই নেতা। ঢাবি ছাত্রলীগের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রথম লোকসংগীত উৎসব, প্রথমবারের মতো সমাবর্তনে কনভোসার্ট কিংবা আন্তঃহল সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা সেই পরিবর্তনের ফল।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার সময় পরীক্ষার্থীদের বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে হয়। পরীক্ষার কেন্দ্র খোঁজা এবং সময় মতো সেখানে পৌঁছাতে পারা তাদের মধ্যে অন্যতম। পরীক্ষার্থীরা যেন চিন্তাহীনভাবে পরীক্ষা দিতে পারে, তার জন্য ঢাবি ছাত্রলীগ ‘জয় বাংলা বাইক সার্ভিস’ নামের একটি সেবা শুরু করেছে। ২০১৮ সাল থেকেই তারা এই সেবা দিয়ে যাচ্ছে। যেখানে ঢাবি ছাত্রলীগের কর্মীরা পরীক্ষার্থীদের সময়মতো কেন্দ্রে পৌঁছে দিয়ে আসেন ঢাকার যেকোনো প্রান্তে। সাদ্দাম হোসেনের এই মডেলটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশাপাশি  এখন বাংলাদেশের অনেক পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও গ্রহণ করেছে।

সাদ্দাম হোসেন

 

করোনাকালীন বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকা সত্ত্বেও শিক্ষার্থীদের কাছে পরিবহন ফি আদায় করা হয়। বিষয়টি নিয়ে সিনেটে ছাত্র প্রতিনিধি সাদ্দাম কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হন এবং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শিক্ষার্থীদের কাছে সেই অর্থ আবার ফেরত দিতে বাধ্য হয়। শুধু তাই নয়, লেদার ইন্সটিটিউটে অতিরিক্ত ফি আদায়, বিজ্ঞান অনুষদের সাপ্লিমেন্টারি পরীক্ষার দাবিতে আন্দোলন কিংবা মেয়েদের হলের সময়সূচি বাড়ানো নিয়েও কাজ করে গেছেন ছাত্রদের এই প্রতিনিধি। শিক্ষার্থীদের প্রত্যেকটি  আন্দোলনে তাদের পাশে দাঁড়ানো থেকে শুরু করে সেই দাবি আদায় পর্যন্ত কাজ করেছেন সাদ্দাম হোসেন।

 

বিউটি সার্কাস সিনেমার প্রচারণায়

দর্শন বিভাগের রোকেয়া হলের আবাসিক শিক্ষার্থী রিফা জাকিয়া বলেন, মেয়েদের হলে প্রবেশের সময় বৃদ্ধির জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে আমরা দীর্ঘদিন থেকেই দাবী জানিয়ে আসছিলাম। যখন কোনও ফল পাচ্ছিলাম না, তখন আমরা সাদ্দাম ভাইকে গিয়ে আমাদের দাবি জানিয়েছিলাম। সাদ্দাম ভাইয়ের চেষ্টার ফলেই আজ মেয়েদের হলের প্রবেশের সময় রাত ৯টা থেকে ১০টা করা হয়েছে।

আন্দোলনে যেমন শিক্ষার্থীদের পাশে থাকেন, তেমনি বইমেলায় প্রত্যেক কর্মীকে বই কিনে দেওয়া, একসাথে সিনেমাহলে গিয়ে চলচ্চিত্র উপভোগ করা, মঞ্চনাটক উপভোগ করা, টি এস সিতে যাত্রা পালার আয়োজন করা, বাংলা চলচ্চিত্র মুক্তি পাবার আগে সবাইকে নিয়ে প্রচারণায় যাওয়া কিংবা একসাথে বৃষ্টিতে ফুটবল খেলা সবই করে থাকেন শিক্ষার্থীদের অলিখিত ক্যাপ্টেন সাদ্দাম হোসেন৷

ফুট ওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষার্থী নূর নবী পুলক বলেন, ইন্সটিটিউট অব লেদার ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজির মাস্টার্সের ভর্তি ফি অনেক ব্যয়বহুল ছিল। যা মধ্যবিত্ত পরিবারের শিক্ষার্থীদের পক্ষে বহন করা অনেক কষ্টসাধ্য ব্যাপার হয়ে গিয়েছিলো। সাদ্দাম ভাই ইন্সটিটিউট পরিচালক ও বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের কাছে দাবি জানানোর মাধ্যমে এই ফির প্রায় ১১ হাজার টাকা কমানো হয়। এটি আমাদের কাছে অকল্পনীয় ছিল।

বিশ্ববিদ্যালয়ের থিয়েটার অ্যান্ড পারফর্মেন্স স্ট্যাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী দেবলীনা বলেন, আমরা খুব অবাক হই যখন একজন ছাত্রনেতা দলবল নিয়ে মঞ্চ নাটক উপভোগ করতে আসেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক পরিমণ্ডল পরিবর্তনে এটি বেশ উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে বলে আমি মনে করি।

তথাকথিত চলনসই সমালোচনা মুখর বক্তব্যের জায়গায় সাদ্দাম হোসেন কথা বলেন আসন্ন চতুর্থ শিল্প বিপ্লব নিয়ে। কথার প্রাসঙ্গিকতায় আওড়ান রবীন্দ্রনাথের কিংবা জীবনানন্দের চার লাইন পদ্য, স্বপ্ন দেখান নতুন এক পৃথিবীর যেখানকার ভাষা হলো মৈত্রী।

/এনএ/
সর্বশেষ খবর
শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসূচি জানালো সরকার
শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের কর্মসূচি জানালো সরকার
বঙ্গবন্ধু সেতুর টোলপ্লাজায় গাড়িচাপায় যুবক নিহত
বঙ্গবন্ধু সেতুর টোলপ্লাজায় গাড়িচাপায় যুবক নিহত
এক মাসের বেতন দেবেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট
তুরস্কে ভূমিকম্পএক মাসের বেতন দেবেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট
মেঘলা আকাশ আর বায়ুদূষণে ঢেকে আছে ঢাকা
মেঘলা আকাশ আর বায়ুদূষণে ঢেকে আছে ঢাকা
সর্বাধিক পঠিত
ইরফান সেলিমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
নৌবাহিনীর কর্মকর্তাকে হত্যাচেষ্টাইরফান সেলিমের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা
ইউক্রেনের একমাত্র সাবমেরিন কোথায়?
ইউক্রেনের একমাত্র সাবমেরিন কোথায়?
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতের সেই নাজিরকে বদলি করলো কোর্ট প্রশাসন
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আদালতের সেই নাজিরকে বদলি করলো কোর্ট প্রশাসন
জবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে প্রশ্ন সরবরাহের অভিযোগ
জবি শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে প্রশ্ন সরবরাহের অভিযোগ
শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে চাঁদা দাবি, রুয়েট ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৩
শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে চাঁদা দাবি, রুয়েট ছাত্রলীগ নেতাসহ গ্রেফতার ৩