X
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

পালিত হচ্ছে ‍আগাম ঈদ, জামাত শেষে কোলাকুলি!

আপডেট : ২৪ মে ২০২০, ১৫:৫২

ঈদের জামাত সৌদি আরবের সঙ্গে মিল থেকে আজ রবিবার (২৪ মে) দেশের বিভিন্ন জেলায় ঈদ উদযাপন হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদ জামাত, জামাত শেষে কোলাকুলি ও হাত মেলাতে মানা থাকলেও তা মানা হয়েনি ঠিকমতো। প্রতিনিধিদের পাঠানো তথ্য ও ছবি নিয়ে প্রতিবেদনটি করা হলো।

বরিশাল

বরিশালের ৬টি উপজেলার কিছু গ্রামে রবিবার আগাম ঈদুল ফিতর পালিত হচ্ছে। এসব গ্রামে বসবাসরত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ শাহ সুফি দরবার শরিফ, সাতকানিয়া মির্জাখালী দরবার শরিফ এবং আহমাদিয়া জামাত অনুসারীরা দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদ উদযাপন করে আসছেন।

বরিশালের বাবুগঞ্জ উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ২০টি গ্রামের প্রায় ২ হাজার অনুসারীসহ জেলার হিজলা, মেহেন্দিগঞ্জ, মুলাদী, বাকেরগঞ্জের সুন্দরকাঠি, মহানগরীসহ সদর উপজেলার প্রায় ৫ হাজার অনুসারী প্রতি বছরের মতো এবারও একদিন আগে ঈদ উদযাপন করেছে।

ঈদের জামাত

বরিশাল নগরীর ২৩নং ওয়ার্ডের তাজকাঠি, জিয়া সড়ক, টিয়াখালী, সিকদার বাড়িসহ সদর উপজেলার সাহেবের হাট এলাকায় ‍সকাল ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নগরীর ২৩নং ওয়ার্ডের তাজকাঠি এলাকার হাজিবাড়ি জামে মসজিদে ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। মাওলানা দেলোয়ার হোসেন নামাজে ইমামতি করেন।

শরীয়তপুর

শরীয়তপুরের সুরেশ্বর দরবার শরিফে আজ রবিবার (২৪ মে) পবিত্র ঈদুল ফিতর পালিত হচ্ছে। সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে প্রতি বছরই সুরেশ্বর দরবার শরিফের অনুসারীরা ঈদ উদযাপন করে থাকেন। 

মধ্যপ্রাচ্যে শনিবার (২৩ মে) চাঁদ দেখা যাওয়ায় রবিবার ওইসব দেশে ঈদ উদযাপিত হচ্ছে। তাদের সঙ্গে মিল রেখে সুরেশ্বর দরবার শরিফের প্রতিষ্ঠাতা হজরত জান শরীফ শাহ সুরেশ্বরীর অনুসারীরাও ঈদ পালন করছেন। সকাল ৯টায় ও সকাল ১০টায় ঈদের দু’টি জামাত অনুষ্ঠিত হয়। জেলা ও জেলার বাইরে বিভিন্ন স্থানে থাকা সুরেশ্বর দরবার শরিফের অনুসারীরা প্রতিবছর এই জামাতে অংশ নিলেও এ বছর উপস্থিতি অনেক কম ছিল।অনেক অনুসারীই এবার দরবার শরিফে না এসে তাদের নিজ নিজ বাড়িতে ঈদ উদযাপন করছেন।

ঈদের জামাত

সুরেশ্বর দরবার শরিফের গদিনশীন পীর সৈয়দ কামাল নূরী জানান, বিশ্বের যেখানেই চাঁদ দেখা যাক না কেন, সেই হিসাব করেই আমরা ঈদ উদযাপন করে থাকি। প্রায় দেড়শ’ বছর ধরে এই নিয়ম চলে আসছে। তবে প্রতিবছর দরবার শরিফে অনেক বড় করে ঈদের নামাজের আয়োজন করলেও এ বছর করোনা সংকটের কারণে সংক্ষিপ্তভাবে করা হয়েছে।

দিনাজপুর
দিনাজপুরের সদর, চিরিরবন্দর, পার্বতীপুর, বিরামপুর ও কাহারোল উপজেলার কিছু এলাকায় সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদুল ফিতর উদযাপন করছে প্রায় ২ হাজার পরিবার। এসব পরিবারের মুসল্লিরা বিভিন্ন স্থানে ঈদের নামাজ আদায় করেছেন।
রবিবার সকাল ৮টায় দিনাজপুর শহরের বাসুনিয়াপট্টিতে একটি কমিউনিটি সেন্টারে (পার্টি সেন্টার) অনুষ্ঠিত ঈদের জামায়াতে প্রায় দুইশ মুসল্লি অংশ নেন। এছাড়াও জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার সাইতাড়া ও রাবার ড্যাম এলাকা, কাহারোল উপজেলার জয়নন্দ ও গড়েয়া বাজার, বিরামপুর এবং পার্বতীপুর উপজেলায় ঈদের জামাত হয়।

হিলি

দিনাজপুরের বিরামপুরে সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে দু’টি ইউনিয়নের কয়েকটি গ্রামের মানুষ ঈদ করেছেন। সকালে ঈদের জামাত শেষে কোলাকুলি করতে নিষেধ ও সামাজিক দূরত্ব মানার নির্দেশনা থাকলেও কোনোটিই পালন করা হয়নি।  

মসজিদে ঈদের জামাত
রবিবার সকাল ৮টায় বিরামপুর উপজেলার জোতবানি ইউনিয়নের খয়েরবাড়ি-মির্জাপুর গ্রামের জামে মসজিদে এবং ৭টা ৪৫ মিনিটে বিনাইল ইউনিয়নের আয়ড়া বাজার জামে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। দু’টি জামাতে ১৫টি গ্রামের প্রায় ১০০ মানুষ নামাজ আদায় করেন। ঈদের জামাতে পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও উপস্থিত ছিলেন। দূরদূরান্তের গ্রামগুলো থেকে কেউ ভ্যানে আবার কেউ সাইকেলে, কেউবা মোটরসাইকেলে এসে জামাতে অংশ নেন। বিশৃঙ্খলা এড়াতে পুলিশের পক্ষ থেকেও নেওয়া হয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা। 

মাওলানা দেলোয়ার হোসেন কাজি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সৌদি আরবের সঙ্গে বাংলাদেশের সময়ের পার্থক্য মাত্র তিন ঘণ্টা। এই তিন ঘণ্টার ব্যবধানে দিনের পরিবর্তন হয় না, তাই সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে একদিন আগে এই ঈদের নামাজ আদায় করা। হজরত মুহাম্মদ (সা.) জন্মগ্রহণ করে ১২ রবিউল আওয়াল সোমবার কিন্তু যদি দিন ধরা হয় তাহলে আমাদের দেশে সেই দিন হয় মঙ্গলবার। আবার রমজানে ২৭ তারিখে আমরা লাইলাতুল কদর রাতে ইবাদতের মাধ্যমে আল্লাহকে খুঁজি। কিন্তু দিন হিসেবে আমরা একদিন পর সেই রাতকে খুঁজতেছি। এমন বিভিন্ন চিন্তা ও হাদিসি ব্যাখ্যার কারণেই সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদ উদযাপন করছি।’

নামাজ শেষে কোলাকুলি

তিনি আরও বলেন, আমরা ১৯৯৭ সাল থেকে এভাবে নামাজ আদায়ের পরিকল্পনা থাকলেও ২০১৩ সাল থেকে আমরা সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে এই গ্রামে ঈদের নামাজ আদায় করছি। তবে গতবারের চেয়ে এবার মুসল্লির সংখ্যা কিছুটা বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিরামপুর থানার ওসি মনিরুজ্জামান মনির বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আগাম ঈদের জামাতে যাতে কোনও বিশৃঙ্খলা না ঘটে সেজন্য পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছিল। মসজিদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছিল। শান্তিপূর্ণভাবেই ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সামাজিক দূরত্ব মানা হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, মুসল্লির সংখ্যা কম ছিল। একটিতে ২০ জনের মতো অপরটিতে ৩০ জনের মতো মুসল্লি ছিল। দুটি ইউনিয়নে ছোট দুটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ঈদের জামাত

লালমনিরহাট

স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদুল ফিতরের  নামাজ আদায় করলেন লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার কয়েকটি গ্রামের শতাধিক পরিবার। 
রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কালীগঞ্জ উপজেলার মুন্সিপাড়া জামে মসজিদে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। বৃষ্টির কারণে জামাতে মুসল্লির সংখ্যা ছিল না।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভাণ্ডার, সুন্দ্রহবী, কাকিনা, চাপারহাট, চন্দ্রপুর, আমিনগঞ্জ ও মুন্সীপাড়া গ্রামের প্রায় শতাধিক মুসল্লি নামাজ আদায় করেছেন। প্রতিবছর সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে একদিন আগে রোজা ও ঈদ করেন এসব গ্রামের মুসল্লিরা।
এদিকে করোনার কারণে ঈদের জামাত মুন্সিপাড়ায় ঈদগাহ মাঠে না হলেও সরকারি নির্দেশনা মেনে মসজিদে জামাত করেছেন তারা।

মসজিদে ঈদের জামাত
মুন্সীপাড়া জামে মসজিদের ইমাম মাজেদুল বলেন, স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে মুসল্লিরা নামাজ আদায় করেছেন।
কালীগঞ্জ উপজেলার হাড়িশহরের মুন্সিপাড়ার ঈদগাহ মাঠের সভাপতি মাওলানা মাছুম বিল্লাহ্ বলেন, সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে গত কয়েক বছর ধরে এই এলাকার মানুষ ঈদুল ফিতর, ঈদুল আজহা, শবে-কদর, শবে মেরাজসহ বিভিন্ন ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করে আসছেন। সেই হিসাবে ঈদ পালন করা হয়েছে।
কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভাণ্ডার ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুর ইসলাম জানান, উপজেলার কয়েকটি গ্রামের মানুষ একদিন আগে থেকে ধর্মীয় উৎসব পালন থাকেন। তারা আজ ঈদ উদযাপন করছেন।

ঝিনাইদহ

সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সঙ্গে মিল রেখে ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডের ১০ গ্রামের অর্ধশত পরিবার ঈদুল ফিতর উদযাপন করছে। রবিবার সকাল ৭টায় এসব পরিবারের সদস্যরা পৌরসভাধীন চটকাবাড়ীয়া দক্ষিণপাড়া জামে মসজিদে পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন।

হরিণাকুণ্ডু উপজেলার বৈঠাপাড়া, কুলবাড়িয়া, রামনগর, দখলপুর, পায়রাডাঙ্গাসহ ১০ গ্রামের অর্ধশত মুসল্লি মাওলানা রেজাউল ইসলামের ইমামতিতে এ ঈদ জামাতে অংশ নেন।
বজলুর রহমান নামে একজন বলেন, ১৫ বছর ধরে তারা সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোর সঙ্গে মিল রেখে ঈদ উদযাপন করছেন। করোনার প্রভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা স্থানে নামাজ আদায় করতে না পারায় এবার অনেক মুসল্লি ঈদের নামাজে শরিক হতে পারেননি।

লক্ষ্মীপুর

সামাজিক দূরত্ব বজায় সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে লক্ষ্মীপুরে ১১ গ্রামে রবিবার ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছে। জেলার রামগঞ্জ উপজেলার নোয়াগাঁও, জয়পুরা, বিঘা, বারো ঘরিয়া, হোটাটিয়া, শরশোই, কাঞ্চনপুর ও রায়পুর উপজেলার কলাকোপা ও সদর উপজেলার বশিকপুরসহ ১১ গ্রামের প্রায় সহস্রাধিক মুসল্লি ঈদুল ফিতর উদযাপন করছেন।

সকাল ৭টায় রামগঞ্জ উপজেলার খানকায়ে মাদানিয়া কাসেমিয়া মাদ্রাসায় ও নোয়াগাঁও বাজারের দক্ষিণ-পূর্ব নোয়াগাঁও ঈদগাহ ময়দানে ঈদের নামাজের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন মাওলানা রুহুল আমিন। এসব গ্রামের প্রায় সহস্রাধিক মুসল্লি পৃথক পৃথক ভাবে নিজ নিজ ঈদগাহ মাঠে ঈদের নামাজ আদায় করেন।

মাওলানা ইসহাক (রা.) অনুসারী হিসেবে এসব এলাকার মানুষ পবিত্র ভূমি মক্কা ও মদিনার সঙ্গে সঙ্গতি রেখে ঈদসহ সব ধর্মীয় উৎসব পালন করে আসছে। এসব গ্রামের মুসল্লিরা গত ৩৯ বছর যাবত সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে ঈদ উদযাপন করে আসছেন।

নারায়ণগঞ্জ

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার লামাপাড়া এলাকায়  পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল পৌনে ১০টায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে হযরত শাহ্ সুফী মমতাজিয়া এতিমখানা ও হেফজখানা মাদ্রাসায় ‘জাহাগিরিয়া তরিকার’ অনুসারীরা সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে তারা ঈদ উদযাপন করে। প্রতি বছরের মতো এবারও ঈদের জামাতে অংশ নিতে গাজীপুরের টঙ্গী, ঢাকার কেরানীগঞ্জ, পুরাতন ঢাকা, ডেমরা, সাভার এবং নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ, বন্দর ও সোনারগাঁ উপজেলা থেকে মুসল্লিরা অংশ নেয়। ঈদের জামাতের ইমামের দায়িত্ব পালন করেন হযরত শাহ্ সুফী মমতাজিয়া মাদ্রাসার হাফেজ মাওলানা আলাউদ্দিন। নামাজ শেষে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিনের কাছে মোনাজাত করে দোয়া করা হয়। তবে এবার স্বাস্থ্যবিধি মেনে একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি থেকে সবাই বিরত থাকেন। নামাজ শেষে একে অপরের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। 

জামালপুর

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে রবিবার সকাল ৭টায় ১৩টি গ্রামের মানুষ ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন। দক্ষিণ বলারদিয়ার জামে মসজিদ ঈদগাহ মাঠের ইমাম মাওলানা আজিম উদ্দিন বলেন, ‘আমার পেছনে ১৩টি গ্রামের ৬ শতাধিক মুসল্লি ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন।’
দক্ষিণ বলারদিয়ার আজিম উদ্দিন মাস্টারের বাড়ি জামে মসজিদ সূত্রে জানা যায়, পৌরসভার দক্ষিণ বলারদিয়ার আজিম উদ্দিন মাস্টারের বাড়ি জামে মসজিদ মাঠে প্রতিবছরের মতো এ বছরও মুলবাড়ি, বলারদিয়ার, সাতপোয়া, সাঞ্চারপাড়, পঞ্চপীর, পাখাডুবি, বালিয়া, বনগ্রাম, হোসনাবাদ, বাউসী, পুঠিয়ারপাড়, বগারপাড়, পাটাবুগা ১৩টি গ্রামের ৬ শতাধিক মানুষ ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন।
দক্ষিণ বলারদিয়ার জামে মসজিদ মাঠে সকাল ৭টায় ইমাম মাওলানা আজিম উদ্দিন ঈদুল ফিতরের নামাজে ইমাম হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।
বলারদিয়ার গ্রামের শাহা আলী (৬২) বলেন, ‘মধ্য প্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে আমরা ১৫ বছর ধরে ঈদুল ফিতরের নামাজ পড়ে আসছি।’
এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ফজলুল করিম বলেন, এরা প্রতিবারের মতো সৌদি আরব তথা মধ্য প্রাচ্যের সঙ্গে মিল রেখে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেছেন।

 

/এসটি/এমওএফ/

সম্পর্কিত

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

ব্যবসায়ীর কাছে ২ কোটি টাকা দাবি, পরিদর্শক বদলি এসআই বরখাস্ত

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ০২:৩৭

বগুড়ায় এক বিড়ি ব্যবসায়ীকে মামলার ভয় দেখিয়ে চাঁদা আদায়ের অভিযোগে ডিবি পুলিশের সাইবার ইউনিটের ইনচার্জ পরিদর্শক ও উপপরিদর্শকের  বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় শনিবার অভিযুক্ত উপপরিদর্শক শওকত আলমকে সাময়িক বরখাস্ত ও পরিদর্শক এমরান মাহমুদ তুহিনকে রাজশাহী রেঞ্জ অফিসে সংযুক্ত করা হয়। পরে রবিবার তাদের রাজশাহীর রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সে বদলি করা হয়েছে।

এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দারের নেতৃত্বে তিন সদস্যদের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। পুলিশ সুপার (এসপি) আলী আশরাফ ভুঞা বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ‘ব্যবসায়ীর লিখিত অভিযোগ ও তদন্ত কমিটি সত্যতা পাওয়ায় দুই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।’

তবে অভিযুক্তরা তাদের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ দৃঢ়ভাবে অস্বীকার করে বলেছেন, এটা তাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র।

অভিযোগে জানা গেছে, ডিবি পুলিশের সাইবার ইউনিটের ওই দুই কর্মকর্তা গত ২৭ মে বগুড়া সদরের শিকারপুর গ্রামে মাস্টার বিড়ি ফ্যাক্টরিতে যান। সেখানে বিপুল পরিমাণ জাল ব্যান্ডরোল আছে অভিযোগ করে মালিক হেলালকে ডাকা হয়। গুদামে ব্যান্ডরোল থাকলেও হেলাল সেগুলো বৈধ দাবি করেন। পুলিশ কর্মকর্তারা ব্যান্ডরোলসহ ওই ব্যবসায়ীকে ডিবি অফিসে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতি নেন। এক পর্যায়ে বলেন, পুলিশ সুপারকে ম্যানেজ করতে পারলে মামলা হবে না। বিনিময়ে দুই কোটি টাকা দাবি করা হয়। ব্যবসায়ী হেলাল ২৫ লাখ টাকা দিতে রাজি হন। তাৎক্ষণিকভাবে ১০ লাখ টাকা ও এক সপ্তাহ পরে অবশিষ্ট ১৫ লাখ টাকা দেওয়ার কথা হয়। ব্যবসায়ী হেলাল নয় লাখ টাকা সংগ্রহ করে রাতেই পুলিশ কর্মকর্তাদের দেন।

পরবর্তী সময়ে ব্যবসায়ী হেলাল অবশিষ্ট টাকা দিতে টালবাহানা ও অপারগতা প্রকাশ করেন। পুলিশ কর্মকর্তাদের চাপে বিব্রত ওই ব্যবসায়ী গত ১৩ জুলাই বিষয়টি পুলিশ সুপারকে অবহিত করেন। পুলিশ সুপার তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবসায়ীকে তার কার্যালয়ে ডেকে আনেন। বিস্তারিত শোনার পর তার কাছ থেকে লিখিত অভিযোগ নেন। এসপি জেনে যাওয়ায় পুলিশ কর্মকর্তারা চাঁদাবাজির ওই নয় লাখ টাকা ফেরত দেন।

পুলিশ সুপার পরদিন এ ঘটনা তদন্ত করে রিপোর্ট দিতে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) আলী হায়দার চৌধুরীকে প্রধান এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) আবদুর রশিদ ও কোর্ট পরিদর্শক সুব্রত ব্যানার্জীকে সদস্য করে কমিটি গঠন করেন। কমিটি তদন্ত করে সত্যতা পাওয়ায় শনিবার রাতে অভিযুক্ত সাইবার পুলিশের উপপরিদর্শক শওকত আলমকে সাময়িক বরখাস্ত করে বগুড়া পুলিশ লাইন্সে ক্লোজড এবং পরিদর্শক এমরান মাহমুদ তুহিনকে রাজশাহী রেঞ্জ অফিসে সংযুক্ত করেন। রবিবার দুজনকে রাজশাহীর রেঞ্জ রিজার্ভ ফোর্সে বদলি করা হয়েছে।

পুলিশ সুপার জানান, ব্যবসায়ীকে মামলার ভয় দেখিয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ তদন্তে সত্যতা পাওয়ায় বগুড়া ডিবি পুলিশের সাইবার ইউনিটের এই দুই সদস্যের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পরবর্তী সময়ে তাদের বিরুদ্ধে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

কবিরাজের পানিপড়া খেয়ে নিস্তেজ শিশুকে টয়লেটে ফেলে দেন মা

কবিরাজের পানিপড়া খেয়ে নিস্তেজ শিশুকে টয়লেটে ফেলে দেন মা

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

ঢাকার পথে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

ঢাকার পথে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

কবিরাজের পানিপড়া খেয়ে নিস্তেজ শিশুকে টয়লেটে ফেলে দেন মা

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ০০:৪৭

বগুড়ার ধুনটে ৩৮ দিনের শিশু আঁখি খাতুন হত্যার রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। হার্টে ছিদ্র থাকায় শিশুটিকে কবিরাজের কাছে নেওয়া হয়। কবিরাজের ফিটকিরির পানিপড়া খেয়ে তার মৃত্যু হয়। ভয়ে মা আদুরি খাতুন শিশুটিকে টয়লেটে ফেলে দিয়ে নিখোঁজের নাটক সাজান।

এ ঘটনায় আদুরি খাতুন (২৩) ও কবিরাজ কেছাম আলী শেখকে (৪৫) গ্রেফতার করে পুলিশ। রবিবার (২৫ জুলাই) বিকালে বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুকের আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন কেছাম আলী।

এর আগে শনিবার (২৪ জুলাই) বিকালে একই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন আদুরি। এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন ধুনট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কৃপা সিন্ধু বালা।

ধুনট থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাহিদুল হক ও মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) আবদুর রাজ্জাক জানান, উপজেলার পারধুনট গ্রামের হোসেন প্রামাণিকের ছেলে ওয়াসিম প্রামাণিক সাত বছর আগে চান্দারপাড়া গ্রামের আয়তুল্লাহ মন্ডলের মেয়ে আদুরি খাতুনকে বিয়ে করেন। তাদের সংসারে আতিক প্রামাণিক নামে ছয় বছরের এক ছেলে আছে। গত জুন মাসে আদুরি কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। নাম রাখা হয় আঁখি খাতুন। জন্মের পর থেকে শিশুটি শ্বাসকষ্টসহ নানা রোগে ভুগছিল। তাকে ধুনট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। 

শ্বাসকষ্ট দেখে শিশুটিকে বগুড়ার শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে রেফার্ড করেন চিকিৎসক। সেখানে পাঁচ দিন চিকিৎসা নেওয়ার পর চিকিৎসক জানান, শিশুটির হার্টে ছিদ্র আছে। বড় হলে প্রতিবন্ধী হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

হাসপাতালে থাকা অবস্থায় কয়েকটি শিশুর মৃত্যু দেখে আদুরি ভয় পেয়ে যান। তিনি হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র নিয়ে গত ১৬ জুলাই মেয়েকে চান্দারপাড়া গ্রামে বাবার বাড়ি নিয়ে যান। পরদিন সকালে ওই গ্রামের মৃত রহিম বক্স শেখের ছেলে কবিরাজ কেছাম আলী শেখের কাছে যান। কেছাম তাকে জানান, শিশুটির ওপর জিনের নজর পড়েছে। তিনি চিকিৎসার জন্য কলাপড়া, তাবিজ ও ফিটকিরি মেশানো পানিপড়া দেন। পাশাপাশি স্থানীয় মসজিদে মোমবাতি প্রজ্বালন করতে বলেন। বাড়ি এসে বিকালে আঁখিকে কলা, তাবিজ ধোয়া ও ফিটকিরি মেশানো পানি খাওয়ান মা। এসব খাওয়ার পর শিশুটি ঘুমিয়ে পড়ে। এ সময় শিশুটির নানি চম্পা খাতুন 
মসজিদে মোমবাতি জ্বালাতে যান। 

আঁখি ঘুম থেকে উঠলে দুধ খাওয়ানোর পর আবারও ফিটকিরি মেশানো পানি খাওয়ান মা। সেই সঙ্গে নিজেও খান। ফিটকিরি মেশানো পানি খেয়ে আঁখি নিস্তেজ হয়ে পড়ে। এতে ভয় পেয়ে শিশুটিকে মৃত ভেবে বাড়ির টয়লেটের ট্যাংকে ফেলে দেন মা। এরপর নিজে অসুস্থ ও সন্তান নিখোঁজের নাটক সাজান। চিকিৎসার জন্য নিজে স্থানীয় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। 

১৮ জুলাই টয়লেটের ট্যাংক থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় শিশুর বাবা ওয়াসিম ধুনট থানায় অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা করেন।

মামলা তদন্ত করতে গিয়ে তদন্ত কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক জানতে পারেন, শিশুটির হত্যাকাণ্ডে মা আদুরি জড়িত। তাকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে ঘটনার বর্ণনা দেন। শনিবার বিকালে আদালতে স্বীকারোক্তি দেন। পরে তাকে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আবদুর রাজ্জাক বলেন, ঘটনার পর থেকে আত্মগোপনে থাকা কবিরাজ কেছাম আলী শেখকে রবিবার সকালে গ্রেফতার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে শিশুটিকে কলাপড়া, পানিপড়া ও ফিককিরি মেশানো পানি খাওয়ানোর কথা স্বীকার করেন তিনি। বিকালে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেওয়ার পর তাকেও কারাগারে পাঠানো হয়।

/এএম/

সম্পর্কিত

ব্যবসায়ীর কাছে ২ কোটি টাকা দাবি, পরিদর্শক বদলি এসআই বরখাস্ত

ব্যবসায়ীর কাছে ২ কোটি টাকা দাবি, পরিদর্শক বদলি এসআই বরখাস্ত

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০২১, ০০:২৯

গাজীপুরের শ্রীপুরে আগুনে ৩৬টি বসতঘর পুড়ে গেলেও বেঁচে গেছে দুই জোড়া কবুতর। শনিবার (২৪ জুলাই) দিবাগত রাত ১২টার দিকে শ্রীপুর কেওয়া দক্ষিণ খণ্ড এলাকার ফখরুদ্দিন টেক্সটাইল সংলগ্ন ওসমান গনির মালিকানাধীন বাড়িতে এ আগুনের ঘটনা ঘটে।

ওসমান গনি জানান, ওই বাড়ির দু’একটি পরিবার ছাড়া অন্য ভাড়াটিয়ারা ঈদের ছুটিতে গ্রামের বাড়ি চলে যান। ফলে সবগুলো ঘর ছিল তালাবদ্ধ। আগুনে বাড়ির মালামালসহ ঘরগুলো সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। কোনও কিছুই অক্ষত থাকেনি। ওই ঘরগুলোর একটিতে সপরিবারের ভাড়া থাকতেন নর সুন্দর নূর হোসেন। তার বাড়ি ময়মনসিংহের কোতয়ালি থানা এলাকায়। আগুনের খবর পেয়ে রবিবার (২৫ জুলাই) সকাল ১১টার দিকে স্থানীয়দের সঙ্গে নিয়ে তিনি তার ঘরের দরজা খুলে সবকিছুই পোড়া অবস্থায় দেখতে পান। পরে বাথরুমের দরজা খুলে কবুতরগুলোকে জীবন্ত অবস্থায় দেখতে পান।

নূর হোসেন জানান, ঈদের ছুটিতে বাড়ি যাওয়ার সময় বিদেশি জাতের এই কবুতরগুলোকে বাথরুমের ভেতরে খাঁচায় আটকে রেখে খাবার দিয়ে যান।

প্রসঙ্গত, এই আগুনে ৩৬টি ঘরের কোনও আসবাবপত্র ও অন্যান্য সামগ্রীসহ কোনও কিছুই অক্ষত পাওয়া যায়নি। এমনকি প্রতিটি কক্ষের বাথরুমের দরজা ও টিনের চালগুলোও পুড়ে যায়। তবে কবুতর থাকা বাথরুম চাল ও দরজা আগুন থেকে অক্ষত ছিল।

আরও খবর:  শ্রীপুরে আগুনে পুড়লো ৩৬ বসতঘর

 
/এমএএ/

সম্পর্কিত

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২৩:৫৫

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে এ কে অক্সিজেন লিমিটেড কারখানায় অভিযান চালিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতের সঙ্গে থাকা আনসার সদস্যরা ওই কারখানার কয়েকজন শ্রমিককে মারধর করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মারধর করায় শ্রমিকরা উৎপাদন কাজ বন্ধ করে দিয়ে সেখানে বিক্ষোভ করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিকুল ইসলামের নেতৃত্বে শনিবার দুপুর ১টায় উপজেলার বরপা এলাকার কারখানাটিতে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

কারখানায় কর্মরত কয়েকজন শ্রমিক জানান, অভিযানের সময় করোনা হাসপাতালে সরবরাহের জন্য অক্সিজেন উৎপাদনের কথা জানালেও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতেই আনসার বাহিনীর সদস্যরা তাদের ধাওয়া করেন। কয়েকজন শ্রমিককে তারা মারধরও করেন। তাদের মারধরে নজরুল ইসলাম নামে এক শ্রমিক গুরুতর আহত হলে তাকে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। এ সময় অন্য শ্রমিকরা উৎপাদন কাজ বন্ধ করে দিয়ে কারখানার ভেতরে বিক্ষোভ শুরু করেন। তখন ভ্রাম্যমাণ আদালত সেখান থেকে দ্রুত চলে যায়। সন্ধ্যা পৌনে ৭টা পর্যন্ত শ্রমিকরা বিক্ষোভ করলে প্রায় ছয় ঘণ্টা অক্সিজেন উৎপাদন বন্ধ থাকে। পরে খবর পেয়ে জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কারখানার মালিকপক্ষের সঙ্গে কথা বলে দুঃখ প্রকাশ করলে ৭টার দিকে শ্রমিকরা পুনরায় কাজে যোগ দেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘স্থানীয় লোক মারফত আমরা জানতে পারি বরপা এরাকায় এ কে অক্সিজেন লি. নামের একটি কারখানায় অক্সিজেনের পাশাপাশি লোহার রড উৎপাদন কাজ চলছে। লকডাউনে শিল্প-কারখানা বন্ধ রাখার বিধিনিষেধ অমান্য করে এখানে লোহাজাতীয় সামগ্রী উৎপাদন চলছে শুনে আমরা সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করি। সেখানে গেলে আমাদের দেখে শ্রমিকরা ভয়ে দৌড়ে পালিয়ে যান। আমরা তখন কারখানার কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলি। তাদের কাছ থেকে অক্সিজেন উৎপাদনের বিষয়টি জানতে পেরে আমরা সেখান থেকে চলে আসি।’ তবে আনসার সদস্যরা কোনও শ্রমিককে মারধর করেনি বলে তিনি দাবি করেন।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শাহ নুসরাত জাহান বলেন, ‘লকডাউন বাস্তবায়নের লক্ষ্যেই বিভিন্ন কারখানায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান পরিচালনা করছেন। এটা উপজেলা প্রশাসনের নিয়মিত কাজের অংশ। তবে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ওই কারখানায় গিয়ে অক্সিজেন উৎপাদনের কথা জানতে পেরে চলে আসেন।’

শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ ব্যাপারে আমরা কোনও প্রমাণ বা অভিযোগ পাইনি। যদি তদন্তে এ রকম কোনও প্রমাণ পাওয়া যায় তাহলে অবশ্যই আমরা ব্যবস্থা নেবো।’

/এমএএ/

সম্পর্কিত

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২৩:৫৮

মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক নারায়ণগঞ্জ পৌরসভার দুই বারের চেয়ারম্যান আলী আহম্মদ চুনকার স্ত্রী এবং নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর মা মমতাজ বেগম মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

ঠান্ডাজনিত রোগে রবিবার (২৫ জুলাই) বিকাল ৫টায় নিজ বাড়িতে তার মৃত্যু হয়। তার বয়স হয়েছিল ৭৩ বছর। রবিবার বাদ এশা বাড়ির পাশের বেপারিপাড়া জামে মসজিদে তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে নগরীর মাসদাইর পৌর কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। তিনি তিন মেয়ে, দুই ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তার ছোট ছেলে আহম্মদ আলী রেজা উজ্জ্বল নারায়ণগঞ্জ মহানগর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। মায়ের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তিনি।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

সর্বশেষ

উল্কার ঝলকে আলোকিত নরওয়ে!

উল্কার ঝলকে আলোকিত নরওয়ে!

বিদ্যুতের অভিযোগ সেল নিয়ে জানা নেই গ্রাহকের

বিদ্যুতের অভিযোগ সেল নিয়ে জানা নেই গ্রাহকের

ভারী বৃষ্টিপাতের পর লন্ডনে আকস্মিক বন্যা

ভারী বৃষ্টিপাতের পর লন্ডনে আকস্মিক বন্যা

ব্যবসায়ীর কাছে ২ কোটি টাকা দাবি, পরিদর্শক বদলি এসআই বরখাস্ত

ব্যবসায়ীর কাছে ২ কোটি টাকা দাবি, পরিদর্শক বদলি এসআই বরখাস্ত

পাথরের ধাক্কায় বিধ্বস্ত সেতু, ৯ পর্যটক নিহত

পাথরের ধাক্কায় বিধ্বস্ত সেতু, ৯ পর্যটক নিহত

কবিরাজের পানিপড়া খেয়ে নিস্তেজ শিশুকে টয়লেটে ফেলে দেন মা

কবিরাজের পানিপড়া খেয়ে নিস্তেজ শিশুকে টয়লেটে ফেলে দেন মা

ভারতের কাছে টি-টোয়েন্টিতেও হারে শুরু শ্রীলঙ্কার

ভারতের কাছে টি-টোয়েন্টিতেও হারে শুরু শ্রীলঙ্কার

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

ভালো খেলতে পারাকেই বড় করে দেখছেন সৌম্য 

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

পুড়ে গেছে ৩৬টি বসতঘর, বেঁচে আছে কবুতরগুলো

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

অক্সিজেন কারখানায় অভিযানে শ্রমিকদের মারধরের অভিযোগ

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

মেয়র আইভীর মায়ের মৃত্যু

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

স্কুলশিক্ষার্থীকে আটকে রেখে ধর্ষণের অভিযোগ

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

নৌ পুলিশের ওপর হামলা: প্রধান আসামি গ্রেফতার

সাতক্ষীরায় করোনার চেয়ে উপসর্গে মৃত্যু ছয় গুণ

সাতক্ষীরায় করোনার চেয়ে উপসর্গে মৃত্যু ছয় গুণ

© 2021 Bangla Tribune