X
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

মন্তব্য প্রতিবেদন

শেষ পর্যন্ত কি পদত্যাগ করবেন বরিস জনসন?

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১৬:২৫
image

ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া সংক্রান্ত জটিলতার মধ্যেই করোনার সেকেন্ড ওয়েভ, ব্রিটেনের মতো বড় একটি কল্যাণভিত্তিক রাষ্ট্রকেও জটিল পরিস্থিতির মধ্যে ফেলে দিয়েছে। একইভাবে ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন ও করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় ব্যর্থতার পাশাপাশি ব্যক্তিগত জীবনের টানাপড়েনের জেরে দায়িত্ব থেকে সরে যাওয়ার মতো পরিস্থিতিতে পড়ছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনও। পরিস্থিতি ক্রমেই তার পদত্যাগ অনিবার্য করে তুলছে। হ্রাস পেয়েছে তার জনপ্রিয়তাও। ব্রিটেনের রাজনীতি বিশ্লেষকরা বলছেন, এটা আঁচ করতে পেরে বরিস নিজেই এখন নিজের পদত্যাগের প্রেক্ষাপট সৃষ্টি করছেন।

এক ব্রেক্সিট ইস্যুকে কেন্দ্র করে ব্রিটেনের সাম্প্রতিক ইতিহাসের সফলতম টোরি প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনকে বিদায় নিতে হয়েছে। তারপর ক্যামেরনের স্থলাভিষিক্ত হওয়া থেরেসা মে-কেও শেষ পর্যন্ত ক্যামেরনের পথেই হাঁটতে হয়। সামনে বরিস জনসন যদি পদত্যাগ করেন, তবে ব্রেক্সিট ইস্যু নিয়ে এটি হবে টানা তৃতীয় কোন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বিদায়।

ইউরোপের ভবিষ্যত নিয়ে ১৯৭৫ সালে ব্রিটেনে অনুষ্ঠিত গণভোটের পর তৎকালীন লেবার নেতা, প্রধানমন্ত্রী হ্যারল্ড উইলসনকে যেভাবে পদত্যাগ করতে হয়েছিল, বরিস জনসনকেও সে পথে সহসাই হাঁটতে হতে পারে। দুই দফায় প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করা হ্যারন্ডকে দ্বিতীয় দফায় দায়িত্ব নেবার মাত্র এক বছরের মাথায় পদত্যাগ করতে হয়। বরিসও তার প্রধানমন্ত্রিত্বের এমন এক সময়ে দাঁড়িয়ে।

গত এক বছরে ব্যক্তিগত জীবনের নানা কেলেংকারির কারণে বরিস তার জনপ্রিয়তা হারিয়েছেন। নিজে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর খুব কাছ থেকে ফিরে এসেছেন। এরপর নতুন প্রেমিকার গর্ভজাত সন্তানের পিতাও হয়েছেন তিনি। এটি তার প্রেমিকার প্রথম সন্তান হলেও বরিসের ষষ্ঠ সন্তান। এরইমধ্যে সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, পরিবার সামলাতে গিয়ে অর্থনৈতিক টানাপড়েনে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। এর মধ্যেই আবার ব্রিটেনজুড়ে করোনা বিপর্যয়ের মুখোমুখি হতে হয়েছে বরিসকে।

সামনে এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে দাড়িয়ে আছে ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের ইস্যু। গত বছর নির্বাচনি বৈতরণী পেরুবার সময় বরিস জনসন যেভাবে অনেকটা ‘তুড়ি মেরে করে দেবার মত সহজ এক ব্রেক্সিটের’ প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ব্রিটিশ জনগনকে, পরিস্থিতি এখন আর সে জায়গাটিতে নেই। আইরিশ সীমান্ত নিয়ে বিরোধসহ নানা কারনে চুক্তিসহ ব্রেক্সিট বাস্তবায়ন ক্রমেই জটিল হয়ে উঠছে বরিসের জন্য।

এর মধ্যে আবার করোনা মহামারি ব্রিটেনের অর্থনীতিকে বড় ধরনের ধাক্কার মুখোমুখি দাঁড় করিয়ে দিয়েছে। দুয়ারে দাঁড়িয়ে করোনার সেকেন্ড ওয়েভ। সেই অত্যাসন্ন সেকেন্ড ওয়েভের সামনে ব্রিটিশ সরকার অনেকটাই অপ্রস্তুত। সমন্বয়হীনতার জেরে অনেকটা অসহায় পরিস্থিতি।

ব্রিটিশ সাংবাদিক ও সাবেক এমইপি (মেম্বার অব ইউরোপিয়ান পার্লামেন্ট) পেট্রিক ও ফ্লায়েন তার সাম্প্রতিক এক লেখায় বলেছেন, বরিস জনসনকে পরিস্থিতির কারণে এখন হয়তো বিশ্লেষকদের ধারণার থেকেও আগে পদত্যাগ করতে হতে পারে।

কাছের মানুষদের উদ্বৃতিকে পুঁজি করে চলতি সপ্তাহে নিজের দুঃখ বেদনার নতুন গল্প নিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যমে হাজির হয়েছেন বরিস জনসন। তিনি বলেছেন, আগে যখন তিনি কনজারভেটিভ পার্টির একজন আইনপ্রণেতা ছিলেন, তখন কেবল পত্রিকাতে কলাম লিখেই বছরে সাড়ে ৩ লাখ পাউন্ডের বেশি রোজগার করতেন। বক্তৃতা দিয়ে রোজগার হত বিশাল বাড়তি অর্থ। এখন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বেতন পান বছরে মাত্র দেড় লাখ পাউন্ড। তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে কেবল একজন পরিচ্ছন্নতাকর্মীর সুবিধা পান। আর্থিক অনটনে তার সর্বশেষ শিশুসন্তানের দেখভালের জন্য একজন কর্মীও রাখতে পারছেন না তিনি। মোদ্দাকথা, অর্থাভাবে ভাল নেই বরিস জনসন, এই দাবি তার কাছের বন্ধুদের।

নিজের ছয় সন্তানের মধ্যে চার সন্তানকে আর্থিকভাবে সহযোগিতা করতে হয় বরিস জনসনকে। সাবেক স্ত্রীর সাথে সাম্প্রতিক ব্যয়বহুল ডিভোর্সও তাকে আর্থিকভাবে আরও বিপর্যস্ত অবস্থার মুখোমুখি করেছে। ওই প্রতিবেদনে বরিস জনসনের ব্যক্তিগত, দল ও সরকারের কাছের মানুষদের উদ্বৃত করে বলা হয়েছে, ''বরিস সবমিলিয়ে এখন ক্লান্ত, বিপর্যস্ত। আর্থিকভাবে খুব দুরাবস্থায় আছেন তিনি। করোনায় মৃত্যুর দুয়ার থেকে প্রাণ নিয়ে ফিরলেও বিশ্রামের সময় পাননি। তাই, শারীরিকভাবেও তিনি ভালো নেই। তার চেহারাতে সেই ভালো না থাকার ছাপ খুব স্পষ্ট। তিনি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে এখন আর শারীরিকভাবে ফিট ও নন।''

বিশ্লেষকরা বলছেন, বরিসের আর্থিক, শারীরিক ও মানসিকভাবে ভাল না থাকবার খবরটি তার আসন্ন বিদায়ের প্রেক্ষাপটেরই অনেকটা পরিচ্ছন্ন পুর্বাভাস। ইউগভের জরিপে দু সপ্তাহ আগেই উঠে এসেছে, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে বরিস ব্রিটিশ জনগনের কাছে জনপ্রিয়তা হারাচ্ছেন। ঐ জরিপের ফলাফলে বলা হয়, ৩৫ শতাংশের বেশি ব্রিটিশ জনগন মনে করেন লেবার লিডার স্যার কির ষ্টামার বরিসের চেয়ে ভাল সরকার প্রধান হতে পারেন, যেখানে বরিসের পক্ষে জনমত নেমে এসেছে ত্রিশ শতাংশে। বাঙালি ও এশিয়ান কনজারভেটিভ সমর্থকদের যে ছোট শ্রেনী,সেখানেও বরিস জনপ্রিয়তা ও নেতা হিসেবে ভোটারদের আস্থা দুটোই হারিয়েছেন।

নিজ দলের দুই সর্বশেষ সাবেক ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিট ক্যামেরন ও থেরেসা মের বিদায়ের কল কাঠিটি দলের ভেতর থেকে সবচেয়ে বেশি আগ্রহ নিয়ে যিনি নাড়াচাড়া করছিলেন,তিনি এই বরিস জনসন। থেরেসার সরকারকে অস্থিতিশীল করতে সরকারে ও দলে থেকে যা যা করার; তার সবই বরিস করেছেন। তার মতো করে প্রধানমন্ত্রিত্বের জন্য রাতারাতি অবস্থান আর আগের বক্তব্য পাল্টে মরিয়া কসরৎ করতে এর আগে কখনও দেখা যায়নি।

লন্ডনের মেয়র থাকা অবস্থায় লন্ডনকে সাধারণ মানুষের জন্য আন-এফোর্ডেবল করে তুলেছিলেন বরিস, এ অভিযোগ তার সমালোচকদের। সে সময় একটি সাক্ষাতকারে বরিস ১৭ বার বলেছিলেন, তিনি পরবর্তীতে আইনপ্রণেতা পদে প্রার্থী হবেন না। এর একমাস পরই তিনি অক্সব্রীজ এলাকা থেকে এমপি নির্বাচনে অংশ নিয়ে জয়ী হন। এই প্রধানমন্ত্রীর অনেক ব্রিটিশ সমালোচক এখন তাকে ব্রিটিশ ডোনাল্ড ট্রাম্প বলে ব্যাঙ্গ বিদ্রুপ করেন।

স্ত্রী মেরিনা উইলারের সাথে ২৫ বছরের সংসার ভেঙ্গে বিচ্ছেদের প্রক্রিয়া শেষ করেছেন বরিস। কিন্তু তার বহুল প্রতিশ্রুত ইউরোপ থেকে ব্রিটেনের বিচ্ছেদের চুড়ান্ত প্রক্রিয়া এখনও অসম্পন্ন। নিজের চেয়ে ২৩ বছরের ছোট বান্ধবী কেরি স্যামন্ডসের সন্তানের বাবা হলেও সংবাদমাধ্যমগুলোতে তাদের বিয়ের যে ডামাডোল বাজছিললো, সেগুলো এখন ম্রিয়মান। প্রধানমন্ত্রী থাকা অবস্থায় বরিস ক্লারাকে বিয়ে করলে জন্ম দিতে পারতেন নতুন এক ইতিহাসের। কারণ গত ২৫১ বছরে ব্রিটেনের ইতিহাসে কোন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী রাষ্ট্রক্ষমতায় থেকে বিয়ের পিড়িঁতে বসেন নি। পদ ছাড়বার আগে সে রেকর্ড আর বুঝি ভাঙা হল হল না বরিস জনসনের। তবে ব্রিটেনের রাজনীতির ইতিহাসে নিজের রাজনৈতিক অবস্থানের ঘন ঘন পরিবর্তন, ব্যক্তিগত জীবন, পলিটিক্যাল এন্টারটেইনার হিসেবে নানা কর্মকাণ্ড ও মন্তব্য দিয়ে নানা মাত্রার রেকর্ড এরই মধ্যে গড়েছেন বরিস জনসন।

৮০০ বছর ধরে ব্রিটেন লিখিত সংবিধান ছাড়াই চলছে। ব্রেক্সিট ও করোনার পাশাপাশি সামাজিক, ভূ-রাজনৈতিক এবং মনস্তাত্বিক অনেক অ-নিষ্পন্ন বিষয় এখন ব্রিটিশ জনগণের সামনে। ব্রিটেনের তাই এখন শক্তিশালী একটা সরকার খুব দরকার। তার জন্য অনিবার্য হয়ে উঠেছে সক্ষমতা সম্পন্ন একজন দক্ষ প্রধানমন্ত্রীর।

/এফইউ/বিএ/

সম্পর্কিত

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

বাইডেন-ম্যাক্রোঁ ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ ফোনালাপ, যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছেন ফরাসি দূত

বাইডেন-ম্যাক্রোঁ ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ ফোনালাপ, যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছেন ফরাসি দূত

চীনা ফোন ফেলে দিন: লিথুনিয়া

চীনা ফোন ফেলে দিন: লিথুনিয়া

এক আলিঙ্গনের জন্য ৫৮ বছর অপেক্ষা

এক আলিঙ্গনের জন্য ৫৮ বছর অপেক্ষা

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে প্রস্তুত উ.কোরিয়া : কিম ইয়ো

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:০০

দক্ষিণ কোরিয়া যদি তাদের ‘শত্রুতাপূর্ণ নীতি’ থেকে সরে আসে তবেই দেশটির সঙ্গে পুনরায় আলোচনা শুরু করা যেতে পারে। এমন মন্তব্য করেছেন উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের বোন কিম ইয়ো জং। ১৯৫০-৫৩ সালের কোরীয় যুদ্ধ অবসানে দ.কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন-এর আহ্বানের পর প্রতিক্রিয়া জানালেন তিনি।

সম্প্রতি জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনের এক ভাষণে কোরীয় যুদ্ধ বন্ধে আনুষ্ঠানিকভাবে ঘোষণার আহ্বান জানান দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে ইন। মুন বলেন, কোরীয় যুদ্ধের সমাপ্তির জন্য আমি বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহযোগিতার জোর আহ্বান জানাচ্ছি।

তার এমন আহ্বানকে শুক্রবার এক বিবৃতিতে প্রশংসনীয় উল্লেখ করেছেন কিম ইয়ো। দ. কোরিয়ার উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আলোচনার আগে অবশ্যই দ্বিমুখী মনোভাব, অযৌক্তিক পক্ষপাত, খারাপ অভ্যাস পরিহার করতে হবে। এছাড়া আমাদের আত্মরক্ষার অধিকারের ন্যায়সঙ্গত অনুশীলনে দোষ দেওয়া বন্ধ করা প্রয়োজন’।

আর যখনই এই শর্তগুলো পূরণ করা সম্ভব তখনই দু’পক্ষ মুখোমুখি আলোচনায় বসে কোরীয় যুদ্ধ বন্ধ করা সম্ভব।

মুন এর আগেও যুদ্ধ বন্ধের চেষ্টা চালান। তখন তিনি বলেন, যুদ্ধ বন্ধের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণে সহায়তা করবে। কিন্তু ওয়াশিংটন জানিয়েছে, আগে পিয়ংইয়ং-কে অবশ্যই পরমাণু অস্ত্র ছাড়তে হবে।  

১৯৫০ সালের ২৫ জুন শুরু হয় কোরীয় যুদ্ধ। ওই সময় দক্ষিণ কোরিয়ার বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধে উত্তর কোরীয় ট্যাংক ও সেনারা সীমান্ত অতিক্রম করে। যুদ্ধে দক্ষিণ কোরিয়ার হয়ে উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশ নেয় যুক্তরাষ্ট্র। ৭০ বছর আগের ওই যুদ্ধে উত্তর কোরিয়ায় নিহত হন কয়েক হাজার মার্কিন সেনা। এর তিন বছরের মাথায় একটি চুক্তি সইয়ের মধ্যে দিয়ে যুদ্ধবিরতিতে পৌঁছায় দুই দেশ। কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে কোরীয় যুদ্ধের এখনও ইতি টানা হয়নি।

/এলকে/

সম্পর্কিত

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আহ্বান দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আহ্বান দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের

তিন বিশ্ব শক্তির চুক্তিতে পারমাণবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা শুরু হতে পারে: উ. কোরিয়া

আকাস চুক্তির কারণে অস্ত্র প্রতিযোগিতা শুরুর আশঙ্কা উ. কোরিয়ার

ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ স্থাপনা সম্প্রসারণ করছে উত্তর কোরিয়া

ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ স্থাপনা সম্প্রসারণ করছে উত্তর কোরিয়া

বৃদ্ধ ও গৃহপালিত পশু ছাড়া কেউ নেই, যেন এক ভুতুড়ে শহর

বৃদ্ধ ও গৃহপালিত পশু ছাড়া কেউ নেই, যেন এক ভুতুড়ে শহর

ভারতে ৯ মাস ধরে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, ২৮ জন আটক

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:৫৯

ভারতের মহারাষ্ট্রের থানে ১৫ বছরে এক কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে ২৮ জনকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশ বলছে, ওই কিশোরীকে টানা ৯ মাস ধরে ধষর্ণ করে অভিযুক্তরা। এ ঘটনায় বিস্তর তদন্তে নেমেছে প্রশাসন।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি তাদের খবরে জানিয়েছে, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে তার ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু হয়। এ ঘটনায় জড়িতদের মুম্বাই থেকে আটক করা হয়েছে।

স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়েছে, প্রথমে ওই কিশোরীর প্রেমিক তাকে ধর্ষণ করে এবং এর ভিডিও ধারণ করে। পরে ওই ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে দিনের পর দিন তার প্রেমিক ও বন্ধুরা মিলে ধর্ষণ করে আসছিল।

নির্যাতিত ওই মেয়ে বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) থানায় এ বিষয়ে অভিযোগ করে। মহারাষ্ট্রের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার দত্তরায় কারালে জানিয়েছেন, কিশোরী নিজেই থানায় এসে গত নয় মাসে তার ওপর হওয়া নির্যাতনের বর্ণনা দিয়েছে। তাকে  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ভারতের গত বছরে ২৮ হাজার ৪৬টি ধর্ষণের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

/এলকে/

সম্পর্কিত

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

ভবানীপুর জিতে বিজেপিকে দুর্বল করতে চান মমতা

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

উচ্ছেদ অভিযান ঘিরে রণক্ষেত্র আসাম, পুলিশের গুলিতে নিহত ২

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

অকাস জোটে ভারত-জাপানকে রাখছে না যুক্তরাষ্ট্র

মিয়ানমারে ফের সংঘর্ষ, ভারতে পালাচ্ছে মানুষ

মিয়ানমারে ফের সংঘর্ষ, ভারতে পালাচ্ছে মানুষ

কাতালোনিয়ার স্বাধীনতাকামী নেতা পুজদেমন ইতালিতে গ্রেফতার

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৩:১৩

স্পেনের কাতালোনিয়ার বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা কার্লেস পুজদেমন ইতালি থেকে গ্রেফতার হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) ইতালির সার্দিনিয়া দ্বীপে ভ্রমণের সময় গ্রেফতার হন তিনি। স্পেন সরকারের একটি অ্যারেস্ট ওয়ারেন্টের ভিত্তিতে তাকে আটক করা হয়েছে।  

পুজদেমনের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ এনেছে স্পেন। দেশটির দাবি, ২০১৭ সালে কাতালানের স্বাধীনতার দাবিতে অবৈধ গণভোট আয়োজনে মুখ্য ভূমিকা পালন করেন এই আলোচিত কাতালান নেতা।

২০১৭ সালে কাতালোনিয়ার স্বাধীনতার দাবিতে বিক্ষোভ

তিনি স্বায়ত্বশাসিত কাতালোনিয়া অঞ্চলের সাবেক প্রেসিডেন্ট ছিলেন। সেখানে গণভোটের আয়োজনের পর রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টি হওয়ায় স্পেন থেকে পালিয়ে যান। এরপর থেকেই বেলজিয়ামে অবস্থান করছিলেন তিনি।

কার্লেস পুজদেমনের আইনজীবী বলছেন, স্থানীয় সময় শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) তাকে আদালতে তোলা হবে। এছাড়া তাকে প্রত্যর্পণ করা হতে পারে। তাকে গ্রেপ্তারে টুইট বার্তায় নিন্দা জানিয়েছেন কাতালোনিয়ার নতুন প্রেসিডেন্ট পেরে আরাগোনস। আরাগোনস নিজেও একজন বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা। 

/এলকে/

সম্পর্কিত

সব শ্রমিকের জন্য হেলথ পাস বাধ্যতামূলক করলো ইতালি

সব শ্রমিকের জন্য হেলথ পাস বাধ্যতামূলক করলো ইতালি

কাবুল বিমানবন্দরে ইতালির সামরিক বিমানে গুলি

কাবুল বিমানবন্দরে ইতালির সামরিক বিমানে গুলি

ইতালির এই শহরে মাত্র ১০০ টাকায় মিলবে বাড়ি!

ইতালির এই শহরে মাত্র ১০০ টাকায় মিলবে বাড়ি!

২ হাজার বছরের পুরনো গাছ বাঁচাতে স্থানীয়দের 'যুদ্ধ'

২ হাজার বছরের পুরনো গাছ বাঁচাতে স্থানীয়দের 'যুদ্ধ'

কমলা হ্যারিসে মুগ্ধ নরেন্দ্র মোদি

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০৫

প্রথম সাক্ষাতেই কমলা হ্যারিসে মুগ্ধ হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রথম মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস-কে সকলের কাছে ‘অনুপ্রেরণা’ বলেন তিনি। আগামীতে ভারতে আসার জন্যও আমন্ত্রণ জানান কমলা হ্যারিসকে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) হোয়াইট হাউসে মুখোমুখি হন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস ও ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আফগানিস্তান, কোভিড পরিস্থিতিসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা হয় মোদি-কমলার।

এদিন কমলার প্রশংসা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট পদের নির্বাচনে আপনার লড়াই অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ও ঐতিহাসিক একটি পর্ব ছিল। গোটা বিশ্বজুড়েই আপনি অনুপ্রেরণা। আমি নিশ্চিত যে প্রেসিডেন্ট বাইডেন ও আপনার নেতৃত্বে দিল্লি ও ওয়াশিংটনের মধ্য দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছবে’।

মোদি আরও বলেন, ‘ভারত ও আমেরিকার মূল্যবোধ অনেকটাই একই রকম, রাজনৈতিক স্বার্থও এক। সকল ভারতীয়ই আপনার জন্য অপেক্ষা করছে, সেই কারণে আমি আপনাকে ভারত সফরে আসার জন্য আমন্ত্রণ জানাচ্ছি’।

/এলকে/

সম্পর্কিত

মোদি-কমলার বৈঠক, পাকিস্তানকে সন্ত্রাসীদের সমর্থন বন্ধ করা উচিত: কমলা

মোদি-কমলার বৈঠক, পাকিস্তানকে সন্ত্রাসীদের সমর্থন বন্ধ করা উচিত: কমলা

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক হামলায় হতাহত ১৩, হামলাকারীর আত্মহত্যা

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক হামলায় হতাহত ১৩, হামলাকারীর আত্মহত্যা

মোদি-কমলার বৈঠক, পাকিস্তানকে সন্ত্রাসীদের সমর্থন বন্ধ করা উচিত: কমলা

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:৪৩

যুক্তরাষ্ট্রে মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিসের সঙ্গে প্রথমবার সাক্ষাৎ হয়েছে ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। হোয়াইট হাউসে এক ঘণ্টার বৈঠকে দিল্লি-ওয়াশিংটনের কূটনৈতিক সম্পর্ক, আফগানিস্তান ও পাকিস্তানের প্রসঙ্গসহ নানা বিষয়ে কমলার সঙ্গে আলোচনা হয় মোদির।

আলোচনা নিয়ে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষবর্ধন শ্রিংলা জানান, পাকিস্তান সীমান্তে সন্ত্রাসী কার্যক্রমে সমর্থন দিয়ে আসায় প্রধানমন্ত্রী মোদি মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলার কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেন। কমলা হ্যারিস প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে সহমত পোষণ করেন যে ভারত বিগত কয়েক দশক ধরে সন্ত্রাসবাদের শিকার হয়ে এসেছে। এই ধরণের সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর প্রতি পাকিস্তানের সমর্থনকে লাগাম টানার কথাও বলেন তিনি। বিষয়টির উপর নজরদারি চালানোর প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর সাথে একমত হন মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট।

কমলা পাকিস্তানকে পদক্ষেপ নিতে বলেছেন যাতে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীগুলো মার্কিন নিরাপত্তা এবং ভারতের নিরাপত্তার উপর প্রভাব না ফেলে।

বৈঠক প্রসঙ্গে শ্রিংলা আরও জানান, প্রধানমন্ত্রী মোদীর সঙ্গে ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলার বৈঠকে উষ্ণতা ও সৌহার্দ্যের প্রতিফলন ঘটে। আলোচনায় সন্ত্রাসবাদের সমস্যা ছাড়াও উঠে আসে কোভিড, জলবায়ু পরিবর্তন, প্রযুক্তি খাতে সহযোগিতাসহ সাইবার নিরাপত্তার বিষয়।

এদিকে গত জুনে ভারতে করোনার চূড়ান্ত অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্রের সহায়তার কথা মনে করিয়ে কমলা হ্যারিসকে ধন্যবাদ জানান মোদি। বলেন, বিপদের সময় ভারতের পাশে দাঁড়িয়ে সত্যিকারের বন্ধুত্বের পরিচয় দিয়েছেন। ভারত সব সময় তা মনে রাখবে বলেও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নরেন্দ্র মোদি।

/এলকে/

সম্পর্কিত

কমলা হ্যারিসে মুগ্ধ নরেন্দ্র মোদি

কমলা হ্যারিসে মুগ্ধ নরেন্দ্র মোদি

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক হামলায় হতাহত ১৩, হামলাকারীর আত্মহত্যা

যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুক হামলায় হতাহত ১৩, হামলাকারীর আত্মহত্যা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

সৌদি আরবের সঙ্গে আলোচনায় ব্যাপক অগ্রগতি হয়েছে: ইরান

বাইডেন-ম্যাক্রোঁ ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ ফোনালাপ, যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছেন ফরাসি দূত

বাইডেন-ম্যাক্রোঁ ‘বন্ধুত্বপূর্ণ’ ফোনালাপ, যুক্তরাষ্ট্রে ফিরছেন ফরাসি দূত

চীনা ফোন ফেলে দিন: লিথুনিয়া

চীনা ফোন ফেলে দিন: লিথুনিয়া

এক আলিঙ্গনের জন্য ৫৮ বছর অপেক্ষা

এক আলিঙ্গনের জন্য ৫৮ বছর অপেক্ষা

নষ্ট হওয়ার পথে ২৪ কোটি ডোজ টিকা

নষ্ট হওয়ার পথে ২৪ কোটি ডোজ টিকা

কোভিশিল্ডকে স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

কোভিশিল্ডকে স্বীকৃতি দিলো যুক্তরাজ্য

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

তালেবানের সঙ্গে বৈঠক রাশিয়ার

ছয় সন্তান থাকার কথা স্বীকার করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

ছয় সন্তান থাকার কথা স্বীকার করলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

সাবমেরিন বিতর্কের পর একযোগে কাজ করার অঙ্গীকার মোদি-ম্যাক্রোঁর

সর্বশেষ

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে প্রস্তুত উ.কোরিয়া : কিম ইয়ো

‘কোরীয় যুদ্ধ’ বন্ধে প্রস্তুত উ.কোরিয়া : কিম ইয়ো

‘দেশকে কীভাবে এগিয়ে নেওয়া যায় সেই সাংবাদিকতা করতে হবে’

‘দেশকে কীভাবে এগিয়ে নেওয়া যায় সেই সাংবাদিকতা করতে হবে’

বাড্ডায় ১০ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২

বাড্ডায় ১০ কেজি গাঁজাসহ গ্রেফতার ২

জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছেন ব্যবসায়ী ফজলুল হক বাবু

জাতীয় পার্টিতে যোগ দিয়েছেন ব্যবসায়ী ফজলুল হক বাবু

ঘরের শত্রু নিয়ে সতর্ক হোন, প্রধানমন্ত্রীকে ইনু

ঘরের শত্রু নিয়ে সতর্ক হোন, প্রধানমন্ত্রীকে ইনু

© 2021 Bangla Tribune