সেকশনস

বোলিংয়ে উজ্জ্বল সাকিব, জয়ে ফিরলো জেমকন খুলনা

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২০, ২২:৪৮

জয়ে ফিরেছে জেমকন খুলনা। টানা দুই হারের পর আজ (সোমবার) বেক্সিমকো ঢাকার বিপক্ষে ৩৭ রানে জিতেছে মাহমুদউল্লাহরা। জয়ের নায়ক নিঃসন্দেহে বোলাররা। শুভাগত হোম ও শহিদুল ইসলামের দারুণ বোলিংয়ের সঙ্গে আলো ছড়িয়েছেন সাকিব আল হাসান। ব্যাটিংয়ে স্বরূপে ফিরতে না পারলেও এই অলরাউন্ডার ৪ ওভারে দুই মেডেনে ৮ রান খরচায় নিয়েছেন ১ উইকেট।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি কাপে ব্যাটিং ব্যর্থতায় খুলনার স্কোর খুব বেশিদূর যেতে পারেনি। মাহমুদউল্লাহর দৃঢ়তায় ২০ ওভারে ৮ উইকেটে করে ১৪৬ রান। যদিও দুর্দান্ত বোলিংয়ে ঢাকাকে ১০৯ রানে গুটিয়ে খুলনা দুই ম্যাচ পর পেয়েছে জয়ের দেখা।

১৪৭ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরুতেই হোঁচট খায় ঢাকা। পরপর দুই ওভারে শুভাগত ও সাকিবের ঘূর্ণিতে সাজঘরে ফেরেন দুই ওপেনার তানজিদ হাসান (৪) ও মোহাম্মদ নাঈম (১)। এরপর মুশফিকুর রহিম ও রবিউল ইসলাম মিলে সাকিবকে দুই ওভার মেডেন দিয়ে আস্কিং রেট বাড়িয়ে ফেলেন। টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে বেশি ২৪ মেডেন পেয়েছেন সুনীল নারাইন। সাকিব ২১ মেডেন নিয়ে যৌথভাবে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন স্যামুয়েল বদ্রির সঙ্গে।

টুর্নামেন্টে প্রথমবার সুযোগ পাওয়া রবিউল সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেননি। ৯ বলে ৪ রানে আউট হয়েছেন তিনি। চতুর্থ উইকেটে ইয়াসির আলীকে সঙ্গে নিয়ে মুশফিক দলের হার ঠেকাতে চেষ্টা চালান। দুজনের জুটিতে যোগ হয় ৫৭ রান। ব্যক্তিগত ২১ রানে হাসান মুরাদের বলে বোল্ড হয়ে সাজঘরে ফেরেন ইয়াসির।

সঙ্গীকে হারিয়ে যেন নিজেকেও হারালের মুশফিক! শুভাগতের বলে স্লগ সুইপ করতে গিয়ে আউট ঢাকার অধিনায়ক। যাওয়ার আগে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৭ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। মুশফিকের বিদায়ে জয়ের আশা ফিকে হয় যায় ঢাকার।

মুশফিক ও ইয়াসির ছাড়া ঢাকার কোনও ব্যাটসম্যানই যেতে পারেননি দুই অঙ্কের ঘরে। শুভাগত ও সাকিবের ঘূর্ণির সঙ্গে শহিদুলের পেসে শেষ পর্যন্ত ১৯.২ ওভারে ১০৯ রানে অলআউট হয় ঢাকা।

টুর্নামেন্টে প্রথমবার সুযোগ পাওয়া শুভাগত ঢাকার গুরুত্বপূর্ণ ব্যাটসম্যান মুশফিকের পাশাপাশি ওপেনার তানজিদ ও শফিকুলের উইকেটও নিয়েছেন। ৩.২ ওভারে ১৩ রান খরচায় ৩ উইকেটে ম্যাচসেরার পুরস্কারও পেয়েছেন তিনি। এছাড়া শহিদুল ৩০ রানে ৩ উইকেট, হাসান মুরাদ ২২ রানে ২ উইকেট ও সাকিব ৮ রানে নেন ১ উইকেট।

এর আগে টস হেরে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ পায় জেমকন খুলনা। মাহমুদউল্লাহর ৪৫ রানে ভর দিয়ে লড়াই করার মতো স্কোর গড়ে তারা। তাতে অবশ্য বেক্সিমকো ঢাকার ভূমিকাও রয়েছে! পুরো ইনিংসে তিনটি ক্যাচ ছেড়েছেন নাঈম-আকররা। পাশাপাশি মিস ফিল্ডিং তো ছিলই। ঢাকার ফিল্ডারদের পাশে রেখে খুলনা নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১৪৬ রান সংগ্রহ করে।

বোলিংয়ে সফল হলেও ব্যাট হাতে আজও ব্যর্থ  হয়েছেন সাকিব। নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে ফেরা এই অলরাউন্ডার নতুন পজিশন ওপেনিংয়ে মানিয়ে নিতে পারছেন না নিজেকে। আক্রমণাত্মক শুরুতে ভালো কিছু ইঙ্গিত দিলেও খুলনা তারকাকে থামতে হয়েছে মাত্র ১১ রানে। তাকে বিদায় করা রুবেল হোসেন বল হাতে ছিলেন দুর্দান্ত। আগের দুই ম্যাচে নিজের ছায়া হয়ে থাকা এই পেসার ২৮ রানে ৩ উইকেট তুলে নিয়ে ঢাকার সেরা।

আগের তিন ম্যাচের ধারাবাহিকতায় আজও শুরুতেই ভেঙে পড়ে ‍খুলনার টপ অর্ডার। নাসুম আহমেদের বলে এনামুল হক (৫) বোল্ড হলে হারায় প্রথম উইকেট। খানিক পর রুবেলের দারুণ এক ডেলিভারিতে স্টাম্প উপড়ে যায় সাকিবের। ওপেনার হিসেবে দ্বিতীয় ম্যাচ খেলা এই অলরাউন্ডার ৯ বলে ১১ রান করে আউট হয়েছেন। ইমরুল কায়েসকে এক ধাপ পিছিয়ে জহুরুল ইসলামকে ওয়ান ডাউনে আনলেও পরিস্থিতি পাল্টায়নি। জহুরুল আউট ৪ রানে।

৩০ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়া খুলনাকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন ইমরুল-মাহমুদউল্লাহ। চতুর্থ উইকেটে দুজন যোগ করেন ৫৬ রান। ইমরুল ২৭ বলে ৪ বান্ডারিতে ২৯ রান করে আউট হন। মাহমুদউল্লাহ ৪৭ বলে ৩ চারে ৪৫ রান করে ইনিংসের শেষ ওভারে আউট হন।

এছাড়া ১১ বলে ১৯ রান এসেছে আরিফুলের ব্যাট। দলের স্কোর ১৫০-এর কাছাকাছি যেতে অবদান রেখেছেন প্রথমবার সুযোগ পাওয়া শুভাগত হোম। ৫ বলে ১ চার ও ১ ছক্কায় খেলেছেন ১৫ রানের ইনিংস।

বল হাতে দারুণ দিন কাটিয়েছেন রুবেল। সাকিব ছাড়াও মাহমুদউল্লাহ ও আরিফুল তার শিকার। গুরুত্বপূর্ণ ৩ উইকেট পেতে ৪ ওভারে তার খরচ ২৮ রান। এছাড়া শফিকুল ইসলাম ৩৪ রানে নিয়েছেন ২ উইকেট।

/আরআই/কেআর/

সম্পর্কিত

শচীনদের কাছে রফিকদের হার

শচীনদের কাছে রফিকদের হার

প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই ক্রিকেটে টেস্ট মর্যাদা এসেছে: তথ্যমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রীর হাত ধরেই ক্রিকেটে টেস্ট মর্যাদা এসেছে: তথ্যমন্ত্রী

প্রিমিয়ার লিগে এবার ৩০ সেকেন্ডে গোল!

প্রিমিয়ার লিগে এবার ৩০ সেকেন্ডে গোল!

ভূমিকম্পে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন শরিফুল!

ভূমিকম্পে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন শরিফুল!

বাফুফে টার্ফ পরিদর্শনে দক্ষিণের মেয়র

বাফুফে টার্ফ পরিদর্শনে দক্ষিণের মেয়র

পান্তের সেঞ্চুরিতে উদ্ধার ভারত    

পান্তের সেঞ্চুরিতে উদ্ধার ভারত   

শেষ টি-টোয়েন্টিতে জমা থাকলো সব রোমাঞ্চ

শেষ টি-টোয়েন্টিতে জমা থাকলো সব রোমাঞ্চ

কোহলির ‘শূন্য’ রেকর্ড

কোহলির ‘শূন্য’ রেকর্ড

সর্বশেষ

কার্টুনিস্ট কিশোরের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানা যাবে রবিবার

কার্টুনিস্ট কিশোরের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানা যাবে রবিবার

সুস্থ ধারার কনটেন্ট তৈরি করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান পলকের

সুস্থ ধারার কনটেন্ট তৈরি করতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহ্বান পলকের

জাতিসংঘের সব দাফতরিক ভাষায় ৭ মার্চের ভাষণ বিষয়ক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

জাতিসংঘের সব দাফতরিক ভাষায় ৭ মার্চের ভাষণ বিষয়ক গ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

সৌর ব্যতিচারের কারণে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সম্প্রচারে বিঘ্ন ঘটতে পারে

সৌর ব্যতিচারের কারণে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের সম্প্রচারে বিঘ্ন ঘটতে পারে

মির্জাগঞ্জে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মির্জাগঞ্জে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

নির্বাচিত হাংরি গল্প

নির্বাচিত হাংরি গল্প

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১১ কোটি ৬৪ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১১ কোটি ৬৪ লাখ ছাড়িয়েছে

রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক

রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের নবনির্বাচিত কমিটির অভিষেক

ডাকঘরের মাধ্যমে প্রত্যন্ত গ্রামে পৌঁছে যাবে ই-কমার্স

ডাকঘরের মাধ্যমে প্রত্যন্ত গ্রামে পৌঁছে যাবে ই-কমার্স

বার্নিকাটের গড়িবহরে হামলা: ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

বার্নিকাটের গড়িবহরে হামলা: ছাত্রলীগ নেতাসহ ৯ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে: বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী

বাংলাদেশ উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে: বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী

ডিএনসিসিকে পরিবেশবান্ধব পরিকল্পনা নেওয়ার আহ্বান

ডিএনসিসিকে পরিবেশবান্ধব পরিকল্পনা নেওয়ার আহ্বান

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

শচীনদের কাছে রফিকদের হার

প্রিমিয়ার লিগে এবার ৩০ সেকেন্ডে গোল!

ভূমিকম্পে আতঙ্কিত হয়ে পড়েছিলেন শরিফুল!

বাফুফে টার্ফ পরিদর্শনে দক্ষিণের মেয়র

পান্তের সেঞ্চুরিতে উদ্ধার ভারত   

শেষ টি-টোয়েন্টিতে জমা থাকলো সব রোমাঞ্চ

কোহলির ‘শূন্য’ রেকর্ড

খেলা চলাকালীন এলো করোনা আক্রান্তের খবর, সাইফদের ম্যাচ বাতিল

টিভিতে আজ

নিউজিল্যান্ডে ভূমিকম্প, নিরাপদে আছেন তামিম-মুশফিকরা


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.