সেকশনস

তথ্য ও প্রমাণ থাকার পরেও তদন্তে ধীরগতি: শিক্ষার্থীর বাবা

আপডেট : ১৫ জানুয়ারি ২০২১, ১৯:৫৩

তথ্য ও প্রমাণ থাকার পরেও মামলার অগ্রগতি খুব একটা নেই। ধীরগতিতে তদন্তকাজ চলছে বলে অভিযোগ করেছেন রাজধানীর কলাবাগানে ধর্ষণ ও হত্যার শিকার স্কুল শিক্ষার্থীর বাবা।

শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) ধানমন্ডির তাকওয়া মসজিদে বাদ আসর শিক্ষার্থীর আত্মার মাগফিরাত কামনায় দোয়ার পর বাংলা ট্রিবিউনকে এ কথা বলেন তিনি।

শিক্ষার্থীর বাবা বলেন, ‘যখন ছেলেটা (ফারদিন ইফতেখার দিহান) আদালতে জবানবন্দি দিলো যে সে নিজে এই কাজ করেছে। এরপরও এত পরীক্ষা-নিরীক্ষার কথা আসে কীভাবে? সে জড়িত কী জড়িত না, কেন প্রশাসন নিশ্চিত হতে পারছে না। সে তো নিজেই স্বীকারোক্তি দিয়েছে জড়িত। তাই যত দ্রুত সম্ভব মামলার কার্যক্রম এগিয়ে নিয়ে যাওয়া উচিত।’

তিনি বলেন, ‘পুলিশকে মামলার অগ্রগতির কথা বলতে গেলেই তারা জানায়, ডিএনএ রিপোর্ট হাতে আসার পর অনেক কিছু সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। কিন্তু এই ডিএনএ রিপোর্ট তো সহজে আসছে না। প্রথমে বললো, কয়েক দিন সময় লাগবে, তারপরে বললো পনের দিন লাগবে, এখন বলছে দুই মাস। আমরা আশঙ্কা করছি, মামলার যদি এখন কোনও অগ্রগতি না হয়, পরবর্তীতে কিছুই হবে না।’

থানা হেফাজত থেকে ছেড়ে দেওয়া আসামির তিন বন্ধুর সম্পর্কে শিক্ষার্থীর বাবা বলেন, ‘আমরা এখনও মনে করি এ ঘটনার সঙ্গে ওই তিন ছেলে জড়িত। আমরা উকিলের সঙ্গে পরামর্শ করেছি। আমরা আদালতে দরখাস্ত দেবো তাদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য। আগামী ২৬ তারিখে মামলা আবারও আদালতে উঠবে। সেদিন এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’ 

আসামি পক্ষের পরিবার সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘তারা এখন পর্যন্ত আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেনি। আর যোগাযোগ করবেই বা কীভাবে? সমস্যা তো গোড়াতেই।’

এর আগে বাদ আসর এই মসজিদে দোয়ার আয়োজন করা হয়। সেখানে নিহত শিক্ষার্থীর বাবা-মাসহ পরিবারের অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, গত ৭ জানুয়ারি রাতে এ ঘটনায় দিহানকে আসামি করে কলাবাগান থানায় ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, ফারদিন ইফতেখার দিহান বৃহস্পতিবার (৭ জানুয়ারি) দুপুর আনুমানিক ১২টার দিকে স্কুলছাত্রীকে প্রেমে প্রলুব্ধ করে মোবাইল ফোনে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর ৬৩/৪, লেক সার্কাস ডলফিন গলি, পান্থপথ, কলাবাগানের ফাঁকা বাসায় মেয়েটিকে নিয়ে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণ করে। ধর্ষণের সময় প্রচুর রক্তক্ষরণে মেয়েটি অচেতন হয়ে পড়ে। তখন বিবাদী দিহান ধর্ষণের বিষয়টি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্য মেয়েটিকে নিয়ে আনোয়ার খান মডার্ন মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগে যায়। সেখানে ভিকটিমের মৃত্যু হয়। সংবাদ পেয়ে কলাবাগান থানা পুলিশের একটি দল দ্রুত হাসপাতালে যায়।

খবর পেয়ে দিহানের তিন বন্ধু হাসপাতালে গেলে পুলিশ তাদেরও আটক করে এবং চার জনকে কলাবাগান থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। পরে দিহানের তিন বন্ধুকে ছেড়ে দেয় পুলিশ। অভিযুক্ত দিহান বর্তমানে কারাগারে রয়েছে।

আরও পড়ুন:

দিহানের বয়স নিয়ে বিভ্রান্তি কেন?

কে এই ফারদিন দিহান?

লজ্জিত দিহানের পরিবার, দেয়নি আইনজীবীও

ঘটনার পর ভাইকে ফোন করে যা বলেছিল দিহান

কলাবাগানে কিশোরীকে ধর্ষণের পর হত্যা: দিহানের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

ধর্ষণকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে মেয়েটিকে হাসপাতালে নেয় দিহান

কলাবাগানের ঘটনায় ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ এনে মামলা

কলাবাগানে কিশোরী হত্যা, গ্রেফতার ৩

রাজধানীতে জন্মদিনে ডেকে কিশোরীকে নির্যাতনের পর হত্যার অভিযোগ

/এসএইচ/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

ঘাটতি নেই, তবু চালের দাম বাড়ছেই

ঘাটতি নেই, তবু চালের দাম বাড়ছেই

পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

পানিতে ডুবে স্কুলছাত্রের মৃত্যু

কুষ্টিয়া ও পটুয়াখালীতে দুই গৃহবধূর লাশ

কুষ্টিয়া ও পটুয়াখালীতে দুই গৃহবধূর লাশ

মাদক বিক্রিতে বাধা, বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

মাদক বিক্রিতে বাধা, বৃদ্ধকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ

ট্রলি ও ভটভটির ধাক্কায় তিন জেলায় নিহত ৩

ট্রলি ও ভটভটির ধাক্কায় তিন জেলায় নিহত ৩

ভুয়া ডিবি ও সাংবাদিক পরিচয়ে ৪ প্রতারক গ্রেফতার

ভুয়া ডিবি ও সাংবাদিক পরিচয়ে ৪ প্রতারক গ্রেফতার

গাইবান্ধায় ৪ পুলিশ হত্যার ৮ বছর, শেষ হয়নি বিচার কাজ

গাইবান্ধায় ৪ পুলিশ হত্যার ৮ বছর, শেষ হয়নি বিচার কাজ

সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ হওয়ার দুই সপ্তাহ পর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা

সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ হওয়ার দুই সপ্তাহ পর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা

কাওরান বাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে: পুড়েছে অর্ধশতাধিক দোকান

কাওরান বাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে: পুড়েছে অর্ধশতাধিক দোকান

খাদ্য গুদাম থে‌কে উধাও গরিবের ১৮৫ মেট্রিকটন চাল!

খাদ্য গুদাম থে‌কে উধাও গরিবের ১৮৫ মেট্রিকটন চাল!

‘আইনের অপপ্রয়োগ আপেক্ষিক ব্যাপার’

‘আইনের অপপ্রয়োগ আপেক্ষিক ব্যাপার’

সর্বশেষ

উৎসবমুখর পরিবেশে নান্দাইল পৌরসভার নির্বাচন চলছে

উৎসবমুখর পরিবেশে নান্দাইল পৌরসভার নির্বাচন চলছে

কেশবপুরে প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোটগ্রহণ

কেশবপুরে প্রথমবারের মতো ইভিএমে ভোটগ্রহণ

হবিগঞ্জে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে চলছে ভোটগ্রহণ 

হবিগঞ্জে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে চলছে ভোটগ্রহণ 

মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ট্রিলিয়ন ডলারের ‘করোনা তহবিল বিল’ পাস

মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ট্রিলিয়ন ডলারের ‘করোনা তহবিল বিল’ পাস

যুক্তরাষ্ট্রে জনসনের এক ডোজের ভ্যাকসিন অনুমোদন

যুক্তরাষ্ট্রে জনসনের এক ডোজের ভ্যাকসিন অনুমোদন

ঘাটতি নেই, তবু চালের দাম বাড়ছেই

ঘাটতি নেই, তবু চালের দাম বাড়ছেই

যোগ্যতানুসারে হিজড়াদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে

যোগ্যতানুসারে হিজড়াদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে

পঞ্চম ধাপে পৌর নির্বাচন শুরু

পঞ্চম ধাপে পৌর নির্বাচন শুরু

দুষ্কৃতিকারীদের দিন ঘনিয়ে এসেছে

দুষ্কৃতিকারীদের দিন ঘনিয়ে এসেছে

কালীগঞ্জ পৌরসভায় নির্বিঘ্নে ভোট দেওয়ার পরিবেশ চান প্রার্থীরা

কালীগঞ্জ পৌরসভায় নির্বিঘ্নে ভোট দেওয়ার পরিবেশ চান প্রার্থীরা

বন্যপ্রাণীর বিলুপ্তি ও অবৈধ বাণিজ্য ঠেকাতে গণমাধ্যমকর্মীদের দায়িত্বশীলতা জরুরি

বন্যপ্রাণীর বিলুপ্তি ও অবৈধ বাণিজ্য ঠেকাতে গণমাধ্যমকর্মীদের দায়িত্বশীলতা জরুরি

মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে মসজিদের সম্পত্তি দখলচেষ্টার অভিযোগ

মেয়র আইভীর বিরুদ্ধে মসজিদের সম্পত্তি দখলচেষ্টার অভিযোগ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ হওয়ার দুই সপ্তাহ পর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা

সংক্ষিপ্ত সিলেবাস শেষ হওয়ার দুই সপ্তাহ পর এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা

কাওরান বাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে: পুড়েছে অর্ধশতাধিক দোকান

কাওরান বাজারের আগুন নিয়ন্ত্রণে: পুড়েছে অর্ধশতাধিক দোকান

খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কোন শ্রেণির কতদিন ক্লাস?

খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, কোন শ্রেণির কতদিন ক্লাস?

কাওরান বাজারে হাসিনা মার্কেটে আগুন

কাওরান বাজারে হাসিনা মার্কেটে আগুন

বন্ধ থাকবে প্রাক-প্রাথমিক

বন্ধ থাকবে প্রাক-প্রাথমিক

রমজানে খোলা থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

রমজানে খোলা থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান

রাজধানীতে দুর্বৃত্তের গুলিতে আহত যুবলীগ নেতা হাসপাতালে

রাজধানীতে দুর্বৃত্তের গুলিতে আহত যুবলীগ নেতা হাসপাতালে

ওপর থেকে পড়ে মারা যায় মৌমিতা

ওপর থেকে পড়ে মারা যায় মৌমিতা


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.