X
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ৫ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

তিন সেট মোবাইলের জন্য বাঘার জহুরুল হত্যাকাণ্ড

আপডেট : ১৭ জানুয়ারি ২০২১, ০১:২৯

রাজশাহীর বাঘা উপজেলার মোবাইল সেলসম্যান জহুরুল ইসলাম (২৩) হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন করেছে পুলিশ। তিন আসামীকে গ্রেফতারের পর জানা যায় তিন সেট মোবাইলের দাম না দেওয়ার জন্য জহুরুলকে হত্যা করেছে তিন ক্রেতা। এর মধ্যে শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) বিকালে দুই আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। শনিবার (১৬ জানুয়ারি) বিকালে রাজশাহী জেলা পুলিশের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

গ্রেফতার তিন আসামি হলেন, নাটোরের লালপুর উপজেলার বালিতিতা ইসলামপুর গ্রামের আকমল হোসেনের ছেলে মাসুদ রানা (২৬), কাজিপাড়া গ্রামের মৃত সানাউল্লাহর ছেলে আমিনুল ইসলাম ওরফে শাওন (৩০) এবং বাঘার জোতকাদিরপুর গ্রামের ফারুক হোসেনের ছেলে মেহেদী হাসান ওরফে রকি (২৩)।

নিহত জহুরুল ইসলামের বাড়ি বাঘার মনিগ্রাম বাজারে। তার বাবার নাম রফিকুল ইসলাম। তিনি বাঘার পানিকুমড়া বাজারের মেহেদী হাসান মনির টেলিকম ও ইলেক্ট্রনিক্সের দোকানে সেলসম্যান হিসেবে চাকরি করতেন। গত ৬ জানুয়ারি বাঘার তেঁতুলিয়া শিকদারপাড়া গ্রামে তার রক্তাক্ত লাশ পাওয়া যায়। একটু দূরেই পড়ে ছিল তার মোটরসাইকেল। পড়ে ছিল হেলমেটও। তবে বিক্রির জন্য দোকান থেকে নিয়ে যাওয়া কিছু মোবাইল সেট তখন পাওয়া যায়নি। এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় নিহতের ভাই অজ্ঞাতনামা আসামি করে থানায় একটি মামলা করেন। হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই পুলিশ বিভিন্নভাবে বিষয়টি তদন্ত করছিল। অবশেষে রহস্য উন্মোচন হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে পুলিশ আরও জানিয়েছে, আসামি মাসুদ রানা ও শাওন নিহত জহুরুলের কাছ থেকে ব্যবহারের জন্য বাকিতে তিনটি মোবাইল সেট কিনেছিলেন। জহুরুল তাদের টাকার জন্য চাপ দিতেন। কিন্তু মাসুদ ও শাওন টাকা জোগাড় করতে পারছিলেন না। তাই তারা জহুরুলকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। এই পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ৫ জানুয়ারি সন্ধ্যায় টাকা দেওয়ার নাম করে কৌশলে একটি আমবাগানে ডাকা হয়। জহুরুল সেখানে গেলে শাওন ও মাসুদ তাকে কুপিয়ে হত্যা করেন। এরপর জহুরুলের কাছে থাকা ২৮টি মোবাইল সেট ও নগদ ২৫ হাজার টাকা নিয়ে পালিয়ে যান। এরপর মোবাইল সেটগুলো অন্য আসামি রকির কাছে রাখেন। পুলিশ সেগুলো উদ্ধার করেছে।

পুলিশের চারঘাট সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার নুরে আলম একটি টিম নিয়ে গিয়ে শুক্রবার তিনজনকে গ্রেফতার করেন। তিনি জানান, গ্রেফতারের পর আসামি শাওন ও মাসুদ হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করেছেন। শুক্রবারই বিকালে তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। জবানবন্দি গ্রহণ শেষ হলে আদালত তাদের কারাগারে পাঠিয়েছেন বলেও জানান এই পুলিশ কর্মকর্তা।

 

/এফএএন/

সম্পর্কিত

‘শ্রমের মূল্য চাইতে গিয়ে গুলি খাওয়া স্বাধীন দেশে কল্পনা করা যায় না’

‘শ্রমের মূল্য চাইতে গিয়ে গুলি খাওয়া স্বাধীন দেশে কল্পনা করা যায় না’

ধূমপান নিয়ন্ত্রণে কঠোর আইন নিয়ে ভাবছে সরকার

ধূমপান নিয়ন্ত্রণে কঠোর আইন নিয়ে ভাবছে সরকার

ক্ষমা চাইতে বলা নোটিশের জবাবে যা বললেন সুজন

ক্ষমা চাইতে বলা নোটিশের জবাবে যা বললেন সুজন

আইনজীবীদের মুভমেন্ট পাসের আওতামুক্ত চেয়ে আইজিপিকে চিঠি

আইনজীবীদের মুভমেন্ট পাসের আওতামুক্ত চেয়ে আইজিপিকে চিঠি

অভিজাত রেস্টুরেন্টে এমন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি হচ্ছে ইফতার!

অভিজাত রেস্টুরেন্টে এমন অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে তৈরি হচ্ছে ইফতার!

হেফাজতের ঢাকা মহানগরীর সভাপতি গ্রেফতার

হেফাজতের ঢাকা মহানগরীর সভাপতি গ্রেফতার

বাংলাদেশের মহিসোপানের দাবিতে ভারতের বিরোধিতা

বাংলাদেশের মহিসোপানের দাবিতে ভারতের বিরোধিতা

হেফাজত নেতা মাওলানা জুবায়ের রিমান্ডে

হেফাজত নেতা মাওলানা জুবায়ের রিমান্ডে

মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যপণ্য মজুত, ‘কাচ্চি ভাই’কে জরিমানা

মেয়াদোত্তীর্ণ খাদ্যপণ্য মজুত, ‘কাচ্চি ভাই’কে জরিমানা

করোনায় পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ: সদর দফতরের বক্তব্য

করোনায় পুলিশের বিরুদ্ধে হয়রানির অভিযোগ: সদর দফতরের বক্তব্য

হেফাজত নেতাদের আটকে কৌশলী আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

হেফাজত নেতাদের আটকে কৌশলী আইনশৃঙ্খলা বাহিনী

বাসার দরজা ভেঙে অধ্যাপক তারেক শামসুর রেহমানের মরদেহ উদ্ধার

বাসার দরজা ভেঙে অধ্যাপক তারেক শামসুর রেহমানের মরদেহ উদ্ধার

সর্বশেষ

মেসির জোড়া গোলে বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন

মেসির জোড়া গোলে বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন

কান ধরে ব্যবসা ছেড়ে দিতে চাই, বললেন অ্যাপেক্স এমডি

কান ধরে ব্যবসা ছেড়ে দিতে চাই, বললেন অ্যাপেক্স এমডি

২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে নিভে গেল চলচ্চিত্রের দুই নক্ষত্র

২৪ ঘণ্টার ব্যবধানে নিভে গেল চলচ্চিত্রের দুই নক্ষত্র

ম্যান সিটিকে হারিয়ে চেলসি ফাইনালে

ম্যান সিটিকে হারিয়ে চেলসি ফাইনালে

দেড় শতাধিক ছবির নায়ক ওয়াসিম আর নেই

দেড় শতাধিক ছবির নায়ক ওয়াসিম আর নেই

আলহামদুলিল্লাহ সব ঠিকঠাক আছে: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক এফ এম সিদ্দিকী

আলহামদুলিল্লাহ সব ঠিকঠাক আছে: খালেদা জিয়ার চিকিৎসক এফ এম সিদ্দিকী

‘খালেদা জিয়া বলেছেন সবার প্রপারলি মাস্ক পরা উচিত’

‘খালেদা জিয়া বলেছেন সবার প্রপারলি মাস্ক পরা উচিত’

অন্যমনস্কতার ভেতর বয়ে যাওয়া নিঃশব্দ মর্মর

অন্যমনস্কতার ভেতর বয়ে যাওয়া নিঃশব্দ মর্মর

পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর গ্রেফতার

পুত্রবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে শ্বশুর গ্রেফতার

মেনে নেওয়া হবে শ্রমিকদের দাবি

বাঁশখালী হত্যাকাণ্ডমেনে নেওয়া হবে শ্রমিকদের দাবি

মেক্সিকো থেকে কাদের মির্জার ছেলেকে হত্যার হুমকি!

মেক্সিকো থেকে কাদের মির্জার ছেলেকে হত্যার হুমকি!

রোহিতের ৪ হাজার, মুম্বাইয়ের সঙ্গেও পারলো না হায়দরাবাদ

রোহিতের ৪ হাজার, মুম্বাইয়ের সঙ্গেও পারলো না হায়দরাবাদ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মসজিদ থেকে বের করে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

মসজিদ থেকে বের করে বৃদ্ধকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

জামিন পেয়েছেন সাংবাদিক শাহীন

জামিন পেয়েছেন সাংবাদিক শাহীন

স্কুলশিক্ষার্থীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে প্রতারণা, শিক্ষক গ্রেফতার

স্কুলশিক্ষার্থীর আপত্তিকর ভিডিও ধারণ করে প্রতারণা, শিক্ষক গ্রেফতার

ছয় বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির দুই শিক্ষার্থীর হত্যা মামলা

ছয় বছরেও শেষ হয়নি হাবিপ্রবির দুই শিক্ষার্থীর হত্যা মামলা

রফিকুল ইসলাম মাদানীকে শনিবার আনা হবে থানায়

রফিকুল ইসলাম মাদানীকে শনিবার আনা হবে থানায়

উপবৃত্তির টাকায় হ্যাকারদের নজর

উপবৃত্তির টাকায় হ্যাকারদের নজর

মসজিদের টাকায় ভাগ বসানোয় বাধা দেওয়ায় সংঘর্ষ, নিহত ১

মসজিদের টাকায় ভাগ বসানোয় বাধা দেওয়ায় সংঘর্ষ, নিহত ১

২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেন কাদের মির্জা

২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিলেন কাদের মির্জা

লকডাউনে দোকান খোলা রাখায় ৮৭ মামলা

লকডাউনে দোকান খোলা রাখায় ৮৭ মামলা

করোনা নিয়ন্ত্রণ: খাগড়াছড়িতে দেড় হাজার মানুষকে জরিমানা

করোনা নিয়ন্ত্রণ: খাগড়াছড়িতে দেড় হাজার মানুষকে জরিমানা

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune