সেকশনস

মার্চ-এপ্রিলে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে: ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী

আপডেট : ২০ জানুয়ারি ২০২১, ২১:০৯

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেছেন, বাংলাদেশের উন্নয়নে চীন পরীক্ষিত ও বিশ্বস্ত বন্ধু। পদ্মা সেতুসহ অনেক বড় বড় স্থাপনা নির্মাণে চীন কারিগরি ও আর্থিক সহায়তা প্রদানের মাধ্যমে আমাদের পাশে রয়েছে। তিনি বলেন, ‘মিয়ানমার থেকে বলপূর্বক বাস্তুচ্যুত  রোহিঙ্গাদেরকে তাদের দেশে প্রত্যাবাসনে চীন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমরা আশাবাদী। আগামী মার্চ বা এপ্রিলে এটা শুরু হতে পারে।’

বুধবার (২০ জানুয়ারি) মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত রোহিঙ্গাদের জন্য চীন সরকারের জরুরি চাল সহায়তাবিষয়ক অনলাইন সার্টিফিকেট স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন ।

প্রতিমন্ত্রী ডা. এনামুর রহমান বলেন, ‘মানবিক কারণে এক মিলিয়নেরও বেশি রোহিঙ্গাকে বাংলাদেশ সরকার আশ্রয় দিয়েছে। যত তাড়াতাড়ি তাদেরকে সম্ভব নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন করানো যায়, ততই সবার জন্য মঙ্গল।’

অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ফিরিয়ে নিতে বাংলাদেশের দেওয়া তালিকা থেকে ৪১ হাজার ৭১৯ জন রোহিঙ্গাকে শনাক্ত করেছে মিয়ানমার। এই তালিকা ধরে আগামী মার্চ-এপ্রিলে প্রত্যাবাসন শুরু হতে পারে বলে আশা প্রকাশ  যায়।’

চলমান আলোচনা অনুযায়ী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের অগ্রগতির বিষয়ে জানতে চাইলে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) বাংলাদেশ, মিয়ানমার ও চীনের সচিব পর্যায়ে বৈঠক হয়েছে। সেখানে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের বিষয়ে পজিটিভ আলোচনা হয়েছে। মিয়ানমার রিয়ালাইজ করেছে যে, তাদেরকে ফিরিয়ে নেওয়া দরকার। বাংলাদেশও ফিল করে তারা (রোহিঙ্গা) সম্মানের সঙ্গে নাগরিক অধিকার নিয়ে ফিরে যাক। চীন সরকারও চায় বাংলাদেশের উন্নয়নের স্বার্থে তাদের ফিরে যাওয়া উচিত।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের গ্রামভিত্তিক রিপ্যাট্রিয়েশনটা চায়। কিন্তু মিয়ানমার সরকার চায় বাংলাদেশ সরকার যে তালিকা দিয়েছে এবং যে তালিকাটা তারা ভেরিফায়েড করেছে, সেই তালিকা অনুযায়ী ফেরত নিতে। এই জায়গায় মঙ্গলবারের বৈঠক শেষ হয়েছে। আশা করি, পরবর্তী মিটিংয়ে আরও অ্যামিকেবল সলিউশন আসবে।’ আমরা বৈঠকে  চীন ও মিয়ানমারের যে সদিচ্ছা দেখেছি, সবাই আশা করছে, তিনটি পক্ষই আশা করছে— আগামী মার্চ-এপ্রিলের মধ্যে প্রত্যাবাসানটা শুরু হবে। আমরা একটা ভাল ফলাফলের অপেক্ষায় আছি।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের বক্তব্য ও মঙ্গলবারের বৈঠকের পরিপ্রেক্ষিতে চীনের রাষ্ট্রদূত বলেছেন, তাদের শতভাগ ইচ্ছা বাংলাদেশের সঙ্গে তাদের যে গুরুত্বপূর্ণ সম্পর্ক, সেই সম্পর্ক তারা বজায় রাখবেন। বাংলাদেশের সকল সমস্যা সমাধানের জন্য তারা আমাদের পাশে থাকবেন। স্পেশালি রোহিঙ্গাদের ফেরত পাঠাতে তারা কাজ করে যাবেন।’

দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় থেকে ৮ লাখ ২৯ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে জানিয়ে এনামুর রহমান আরও বলেন, ‘সেখান থেকে তারা (পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়) সাড়ে ৫ লাখ রোহিঙ্গার তালিকা মিয়ানমার সরকারের কাছে পাঠিয়েছে। মিয়ানমার সরকার ৪১ হাজার ৭১৯ জনকে ভেরিফায়েড করেছে। তাদেরকে নেওয়ার কথা তারা জানিয়েছে।’

হস্তান্তর চুক্তির আওতায় রোহিঙ্গাদের জন্য চীন সরকার ২ হাজার ৫৫৪ মেট্রিক টন চাল দিয়েছে জানিয়ে ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘গত ডিসেম্বরে এই চাল আমরা পেয়েছি। চাল এখনও রোহিঙ্গাদের বিতরণ করা হচ্ছে। এজন্য আজকে একটি সাইনিং হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন শরণার্থী প্রত্যাবর্তন কমিশনার (অতিরিক্ত সচিব) শাহ রেজওয়ান হায়াত, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের যুগ্ম সচিব শাহরিয়ার কাদের সিদ্দিকী এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মিয়ানমারবিষয়ক মহাপরিচালক দেলোয়ার হোসেন ।

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোহসিন এবং চীন সরকারের পক্ষে বাংলাদেশে চীনের রাষ্ট্রদূত লি জিমিং স্বাক্ষর করেন ।

/জেইউ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

৩০ দিনের মধ্যে হাজী সেলিমকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

৩০ দিনের মধ্যে হাজী সেলিমকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির নকল আসামিকে কেন দেওয়া হবে না: হাইকোর্ট

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির নকল আসামিকে কেন দেওয়া হবে না: হাইকোর্ট

টমেটো নদীতে ফেলছেন কৃষক!

টমেটো নদীতে ফেলছেন কৃষক!

ডিআইজি মিজানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আরও ২ জনের সাক্ষ্য

ডিআইজি মিজানসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আরও ২ জনের সাক্ষ্য

শনাক্ত বেড়েই চলেছে

শনাক্ত বেড়েই চলেছে

বিএনপি নারী প্রতিবন্ধকতাকারীদের পৃষ্ঠপোষক: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি নারী প্রতিবন্ধকতাকারীদের পৃষ্ঠপোষক: ওবায়দুল কাদের

ভারতকে কানেকটিভিটি দিয়ে নতুন যুগের সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

ভারতকে কানেকটিভিটি দিয়ে নতুন যুগের সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

মন্ত্রিসভার বৈঠকে চার আইনের চূড়ান্ত অনুমোদন

মন্ত্রিসভার বৈঠকে চার আইনের চূড়ান্ত অনুমোদন

সাকিব আল হাসান কালীপূজায় নাকি মসজিদে যাবে, এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার: হাইকোর্ট

সাকিব আল হাসান কালীপূজায় নাকি মসজিদে যাবে, এটা তার ব্যক্তিগত ব্যাপার: হাইকোর্ট

গাজীপুরের সাবেক মেয়র মান্নানের সাজা কেন বৃদ্ধি করা হবে না

গাজীপুরের সাবেক মেয়র মান্নানের সাজা কেন বৃদ্ধি করা হবে না

নারায়ণগঞ্জে কারখানার কেমিক্যাল ও বর্জ্যে দূষণ-দুর্ভোগ চরমে

নারায়ণগঞ্জে কারখানার কেমিক্যাল ও বর্জ্যে দূষণ-দুর্ভোগ চরমে

সর্বশেষ

মিনুসহ বিএনপির চার নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন

মিনুসহ বিএনপির চার নেতার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলার আবেদন

তামিমরা করোনা নেগেটিভ, বুধবার কুইন্সটাউন যাচ্ছে পুরো দল

তামিমরা করোনা নেগেটিভ, বুধবার কুইন্সটাউন যাচ্ছে পুরো দল

খোলাবাজারে চুনাপাথর বিক্রি করছে লাফার্জ, ব্যবসায়ী-শ্রমিকদের প্রতিবাদ

খোলাবাজারে চুনাপাথর বিক্রি করছে লাফার্জ, ব্যবসায়ী-শ্রমিকদের প্রতিবাদ

৩০ দিনের মধ্যে হাজী সেলিমকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

৩০ দিনের মধ্যে হাজী সেলিমকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

তালেবানের অংশগ্রহণে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার চাইছে যুক্তরাষ্ট্র

তালেবানের অংশগ্রহণে অন্তর্বর্তীকালীন সরকার চাইছে যুক্তরাষ্ট্র

৩০ দিনের মধ্যে হাজী সেলিমকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

৩০ দিনের মধ্যে হাজী সেলিমকে আত্মসমর্পণের নির্দেশ

জেলার দাবিতে ১ কিলোমিটার দীর্ঘ মানববন্ধন

জেলার দাবিতে ১ কিলোমিটার দীর্ঘ মানববন্ধন

কোভ্যাক্সিন নিরাপদ, কার্যকারিতা জানতে চূড়ান্ত পরীক্ষা প্রয়োজন: ল্যানসেট

কোভ্যাক্সিন নিরাপদ, কার্যকারিতা জানতে চূড়ান্ত পরীক্ষা প্রয়োজন: ল্যানসেট

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির নকল আসামিকে কেন দেওয়া হবে না: হাইকোর্ট

স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির নকল আসামিকে কেন দেওয়া হবে না: হাইকোর্ট

মার্কিন সংবাদমাধ্যমে হ্যারি-মেগানের সাক্ষাৎকার: জরুরি বৈঠকে ব্রিটিশ রাজপরিবার

মার্কিন সংবাদমাধ্যমে হ্যারি-মেগানের সাক্ষাৎকার: জরুরি বৈঠকে ব্রিটিশ রাজপরিবার

টমেটো নদীতে ফেলছেন কৃষক!

টমেটো নদীতে ফেলছেন কৃষক!

হাজী সেলিমের ১০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ বহাল

হাজী সেলিমের ১০ বছরের কারাদণ্ডাদেশ বহাল

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

শনাক্ত বেড়েই চলেছে

শনাক্ত বেড়েই চলেছে

বিএনপি নারী প্রতিবন্ধকতাকারীদের পৃষ্ঠপোষক: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি নারী প্রতিবন্ধকতাকারীদের পৃষ্ঠপোষক: ওবায়দুল কাদের

ভারতকে কানেকটিভিটি দিয়ে নতুন যুগের সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

ভারতকে কানেকটিভিটি দিয়ে নতুন যুগের সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশ: প্রধানমন্ত্রী

মন্ত্রিসভার বৈঠকে চার আইনের চূড়ান্ত অনুমোদন

মন্ত্রিসভার বৈঠকে চার আইনের চূড়ান্ত অনুমোদন

১৭ মে’র মধ্যে ১ লাখ ৩০ হাজার আবাসিক শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে

১৭ মে’র মধ্যে ১ লাখ ৩০ হাজার আবাসিক শিক্ষার্থীকে টিকা দেওয়া হবে

বড় হচ্ছে শিশু হাসপাতাল, বাড়বে সেবার মান

বড় হচ্ছে শিশু হাসপাতাল, বাড়বে সেবার মান

৭ মার্চের ভাষণের একদিনের ব্যবধানে বদলে যেতে থাকে দৃশ্যপট

অগ্নিঝরা মার্চ৭ মার্চের ভাষণের একদিনের ব্যবধানে বদলে যেতে থাকে দৃশ্যপট

মার্চ মাস আমার মনে প্রিয় স্মৃতি বয়ে আনে: বঙ্গবন্ধু

মার্চ মাস আমার মনে প্রিয় স্মৃতি বয়ে আনে: বঙ্গবন্ধু


[email protected]
© 2021 Bangla Tribune
Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.