X
বুধবার, ২১ এপ্রিল ২০২১, ৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বচ্ছতা আনতে নীতিমালা হচ্ছে

আপডেট : ০১ মার্চ ২০২১, ১৭:১২

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে আয়-ব্যয়ে স্বচ্ছতা আনতে নীতিমালা করছে সরকার। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ নীতিমালার একটি খসড়াও প্রস্তুত করেছে। খসড়াটির যাচাই-বাছাই চলছে। পাশাপাশি আর্থিক দুর্নীতি, কর্মচারী নিয়োগ ও অন্যান্য দুর্নীতি রোধে শক্তিশালী হচ্ছে পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদফতর (ডিআইএ)। 

জানতে চাইলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, ‘বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আয়-ব্যয়ে স্বচ্ছতার জন্য একটি নীতিমালা করা হচ্ছে।  ইতোমধ্যে একটি খসড়াও করে ফেলেছি। কীভাবে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের অর্থ ব্যবস্থাপনা পরিচালিত হবে তার একটি গাইডলাইন থাকছে নীতিমালায়।  পাশাপাশি আমরা পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদফতরে জনবল কাঠামো বাড়াতে নতুন অর্গানোগ্রামের খসড়া করছি।  ইতোমধ্যে কিছু কাজ শুরু হয়েছে। আমরা অনেকটা এগিয়ে গেছি। ’

সচিব বলেন, ‘পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদফতর শক্তিশালী করতেই হবে। বর্তমান অর্গানোগ্রাম যখন করা হয়েছিল তখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কম ছিল। তারা (ডিআইএ) একটি অর্গানোগ্রামের ড্রাফট আমাকে শেয়ার করেছে। সম্প্রতি একটি বৈঠকও করেছি। কিছু কারেকশন রয়েছে। ’

মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রায় সময় অভিযোগ পাওয়া যাচ্ছে। তদন্ত করে অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। কিন্তু আর্থিক দুর্নীতি ও কর্মচারী নিয়োগে অনিয়ম কমছে না। কোনও কোনও ক্ষেত্রে বেড়ে গেছে। সে কারণে আয়-ব্যয়ে স্বচ্ছতা আনতে নীতিমালা করা হচ্ছে। পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদফতর শক্তিশালী করা হচ্ছে।

বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে অনিয়ম-দুর্নীতি রোধে সরকারের পদক্ষেপের বিষয়ে সচিব মো. মাহবুব হোসেন বলেন, ‘আমরা অনলাইনে অডিট শুরু করছি। প্রথম তথ্য অনলাইনে একটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে চাওয়া হবে। শুধু তাই নয়, সংশ্লিষ্ট ওই প্রতিষ্ঠানের তথ্য অন্য প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকেও নেওয়া হবে।  ডিআইয়ের কর্মকর্তারা যখন পরিদর্শনে যান তখন পাশের এক প্রতিষ্ঠানের কাছে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের তথ্য নেবেন। এভাবে প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আয়-ব্যয় এবং শিক্ষা কার্যক্রমসহ অন্যান্য অনিয়ম দেখা হবে। এমন প্রবিশন রেখে ডিআইয়ের অর্গানোগ্রামে পরিবর্তন আনা হবে।

প্রসঙ্গত, দেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো পরিদর্শন ও নিরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষা ক্ষেত্রে স্বচ্ছতা জবাবদিহিতা বাধ্যতামূলক সরকারি নিয়ম-নীতি অনুসরণ, সরকারি অর্থের সদ্ব্যবহার এবং শিক্ষার মানোন্নয়ন নিশ্চিত করতে ১৯৮০ সালের ১ অক্টোবর পরিদর্শন ও নিরীক্ষা অধিদফতর (ডিআইএ) প্রতিষ্ঠা লাভ করে। অধিদফতরের প্রধান হচ্ছেন পরিচালক। পরিচালকসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ মোট ১৩০টি পদ রয়েছে।  এর মধ্যে প্রথম শ্রেণির পদ ৩৫টি। এসব পদের মধ্যে পরিচালক, যুগ্ম পরিচালক, প্রশাসনিক কর্মকর্তারা অফিসিয়াল দায়িত্ব পালন করেন। অন্যান্য পদের মধ্যে উপ-পরিদর্শক, চার জন, পরিদর্শক ১২ জন এবং সহকারী পরিদর্শক ১২ জন।  এছাড়া অডিট অফিসার রয়েছেন ৪ জন।  পরিদর্শক, সহকারী পরিদর্শক ও অডিট অফিসারের পদ শূন্য রয়েছে ১০টি। এছাড়া পদোন্নতি পাওয়া কয়েকজন ৫ জন ইনসিটু থাকায় পরিদর্শনে পাঠানো যায় না। ফলে পরিদর্শন কাজ ব্যবহৃত হচ্ছে।

দেশে বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সংখ্যা ৩৫ হাজারেও বেশি।

 

/এমআর/

সর্বশেষ

সুপার লিগ থেকে সরে দাঁড়িয়েছে ৬ ক্লাব

সুপার লিগ থেকে সরে দাঁড়িয়েছে ৬ ক্লাব

তীব্র পানির সংকটে লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

তীব্র পানির সংকটে লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

গ্রামীণ জনপদে শহরের ছোঁয়া

দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ

দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট হারিয়েছে বাংলাদেশ

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

তুরস্কে অনুষ্ঠিতব্য আফগান শান্তি আলোচনা স্থগিত

নেটফ্লিক্সে নতুন: আসছে আলো-অন্ধকারের লড়াই

নেটফ্লিক্সে নতুন: আসছে আলো-অন্ধকারের লড়াই

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

লকডাউনে বাঙ্গি চাষিদের মাথায় হাত

তিন পেসার নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

তিন পেসার নিয়ে ব্যাটিংয়ে বাংলাদেশ

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

জর্জ ফ্লয়েড হত্যাকাণ্ড, পুলিশ কর্মকর্তা ডেরেক দোষী সাব্যস্ত

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

ধানে চিটা, কৃষকের মাথায় হাত

বুনো হাতির আতঙ্কে কাপ্তাই, চালু হবে সোলার ফেন্সিং

বুনো হাতির আতঙ্কে কাপ্তাই, চালু হবে সোলার ফেন্সিং

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

তীব্র পানির সংকটে লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

তীব্র পানির সংকটে লকডাউন ভেঙে রাস্তায় মানুষ

দানবাক্স খুললেই সোনা-দানা পাওয়া যায় যে মসজিদে

দানবাক্স খুললেই সোনা-দানা পাওয়া যায় যে মসজিদে

সেহরিতে কিছু না খেলে রোজা হবে?

সেহরিতে কিছু না খেলে রোজা হবে?

মধ্যরাতে হেফাজত নেতা মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন গ্রেফতার

মধ্যরাতে হেফাজত নেতা মাওলানা আতাউল্লাহ আমীন গ্রেফতার

তিন দিনে বিদেশ গেছেন সাড়ে ৮ হাজার প্রবাসী

তিন দিনে বিদেশ গেছেন সাড়ে ৮ হাজার প্রবাসী

আইনজীবীর সঙ্গে পুলিশের অসৌজন্যমূলক আচরণ, ঢাকা বারের প্রতিবাদ

আইনজীবীর সঙ্গে পুলিশের অসৌজন্যমূলক আচরণ, ঢাকা বারের প্রতিবাদ

ফুরিয়ে যাচ্ছে টিকার স্টক

ফুরিয়ে যাচ্ছে টিকার স্টক

পরিবারের সদস্যদের এসিড মেরে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

পরিবারের সদস্যদের এসিড মেরে যুবকের আত্মহত্যার চেষ্টা

আজও তাপমাত্রার রেকর্ড, রাজশাহীতে ৪০.৩ ডিগ্রি 

আজও তাপমাত্রার রেকর্ড, রাজশাহীতে ৪০.৩ ডিগ্রি 

সবার বাসায় ইফতার ডেলিভারি দিয়ে নিজেরা সারেন রাস্তায়

সবার বাসায় ইফতার ডেলিভারি দিয়ে নিজেরা সারেন রাস্তায়

Bangla Tribune is one of the most revered online newspapers in Bangladesh, due to its reputation of neutral coverage and incisive analysis.
© 2021 Bangla Tribune