X
বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ২৩ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

বাঁশখালীতে শ্রমিক হত্যার বিচার দাবিতে শাহবাগে সমাবেশ

আপডেট : ২৩ এপ্রিল ২০২১, ২০:৫১

চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে শ্রমিক হত্যার বিচার এবং করোনাকালে কর্মহীন হয়ে পড়া মানুষের ঘরে খাদ্য পৌঁছানোর দাবিতে সমাবেশ করেছে আটটি সংগঠন। শুক্রবার (২৩ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ৩টায় শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে এ সমাবেশ করে তারা।

সমাবেশ সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা এবং সঞ্চালনা করেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট (মার্ক্সবাদ) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি সালমান সিদ্দিকী।

সমাবেশে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা বলেন, ‘বাঁশখালীতে শ্রমিক হত্যার বিচার, শ্রমিকদের নামে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার, করোনাকালে জনগণের চিকিৎসাসেবা, খাদ্য নিরাপত্তা ও কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা দিতে হবে। সরকার  লকডাউনের নামে জনগণের ওপর দুঃশাসনের খড়গ চালাচ্ছে। তার সর্বশেষ নজির আমরা বাঁশখালীতে দেখেছি। লকডাউন অর্থই এই সরকার বোঝে না। মানুষের খাদ্য নিশ্চত না করে লকডাউন কোনোভাবে সফল হতে পারে না। সরকার যেমন মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার দিতে ব্যর্থ, তেমনি লকডাউন কার্যকর করতেও ব্যর্থ।’

তিনি বলেন, ‘বাঁশখালীতে শ্রমিক হত্যাকাণ্ড কোনও বিচ্ছিন্ন ঘটনা নয়, সরকারের দমন নীতির বহিঃপ্রকাশ। এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে আমরা সর্বস্তরের জনগণের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’

বিপ্লবী ছাত্র মৈত্রী সাধারণ সম্পাদক দিলিপ রায় বলেন, ‘এটা খুবই দুঃখজনক, একজন শ্রমিক রাষ্ট্রীয় বাহিনীর হাতে নিহত হন।’

সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বিপ্লবী ছাত্র যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আতিফ অনিক, বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন (একাংশের) সভাপতি মিতু সরকার। এতে সংহতি জানিয়ে আরও বক্তব্য রাখেন দেলোয়ার হোসেনসহ অনেকে।

 

/আইএ/

সর্বশেষ

বাসের ভেতর সেই একই চিত্র

বাসের ভেতর সেই একই চিত্র

জানমালের ক্ষতির আশঙ্কায় রাবি উপাচার্যের জামাতার জিডি

জানমালের ক্ষতির আশঙ্কায় রাবি উপাচার্যের জামাতার জিডি

ঐতিহ্যবাহী এ মসজিদে নামাজ পড়েছিলেন বঙ্গবন্ধু

ঐতিহ্যবাহী এ মসজিদে নামাজ পড়েছিলেন বঙ্গবন্ধু

পরিদর্শককে পিটিয়ে সার্জেন্ট ও টিএসআই ক্লোজড

পরিদর্শককে পিটিয়ে সার্জেন্ট ও টিএসআই ক্লোজড

২০ দিন পর রাজপথে নেমেছে গণপরিবহন

২০ দিন পর রাজপথে নেমেছে গণপরিবহন

ইন্দোনেশিয়ার বিমানবন্দরে করোনা টেস্ট নিয়ে জালিয়াতি

ইন্দোনেশিয়ার বিমানবন্দরে করোনা টেস্ট নিয়ে জালিয়াতি

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ছাড়িয়েছে

করোনা শনাক্তের সংখ্যা ১৫ কোটি ৫৮ লাখ ছাড়িয়েছে

ট্রাকের নিচে পড়ে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

ট্রাকের নিচে পড়ে মোটরসাইকেল আরোহীর মৃত্যু

রাজধানীতে ভিক্ষুক বেড়েছে কয়েক গুণ

রাজধানীতে ভিক্ষুক বেড়েছে কয়েক গুণ

কোন কোন আত্মীয়কে জাকাত দেওয়া যায় না?

কোন কোন আত্মীয়কে জাকাত দেওয়া যায় না?

ট্রাকচাপায় শাবি ছাত্র নিহত

ট্রাকচাপায় শাবি ছাত্র নিহত

স্বস্তির বৃষ্টিতে ফল-ফসলের উপকার

স্বস্তির বৃষ্টিতে ফল-ফসলের উপকার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন বাংলাদেশের রাজনীতিকরা

পশ্চিমবঙ্গের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন বাংলাদেশের রাজনীতিকরা

খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে শামীম এস্কান্দারের চিঠি

খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে শামীম এস্কান্দারের চিঠি

‘যতদিন করোনার দুর্যোগ থাকবে ততদিন মানুষের পাশে থাকবে আ.লীগ’

‘যতদিন করোনার দুর্যোগ থাকবে ততদিন মানুষের পাশে থাকবে আ.লীগ’

সরকারের উদাসীনতায় করোনা নিয়ন্ত্রণের বাইরে: মির্জা ফখরুল

সরকারের উদাসীনতায় করোনা নিয়ন্ত্রণের বাইরে: মির্জা ফখরুল

সরকারের দোষ খোঁজা বিএনপির মজ্জাগত অভ্যাস: কাদের

সরকারের দোষ খোঁজা বিএনপির মজ্জাগত অভ্যাস: কাদের

কওমি মাদরাসার শিক্ষকদের জন্য ইসলামী ঐক্যজোটের অনুদান দাবি

কওমি মাদরাসার শিক্ষকদের জন্য ইসলামী ঐক্যজোটের অনুদান দাবি

খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল

খালেদা জিয়ার অবস্থা স্থিতিশীল

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার প্রস্তুতি সম্পন্ন, অনুমতির অপেক্ষা

খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসার প্রস্তুতি সম্পন্ন, অনুমতির অপেক্ষা

খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পরিবারের আবেদন

খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে পরিবারের আবেদন

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে যা বললেন ডা. জাহিদ

খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে যা বললেন ডা. জাহিদ

© 2021 Bangla Tribune