X
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ২৮ বৈশাখ ১৪২৮

সেকশনস

বিআরটিসি’র জন্য টাকা চাইতেও লজ্জা লাগে: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ০৩ মে ২০২১, ১৭:৪৮

স্মার্ট কার্ড সংগ্রহ করে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষকে (বিআরটিএ) দ্রুত ড্রাইভিং লাইসেন্স সরবরাহের নির্দেশ দিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এজন্য তিনি কার্ড সরবরাহকারী ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে তাগাদা দিতে বলেছেন। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন-বিআরটিসিকে উদ্দেশ করে তিনি বলেন, এত গাড়ি থাকার পরেও বিআরটিসির কেন লোকসান হয়, এটি দেখতে হবে। বিআরটিসি'র জন্য টাকা চাইতেও লজ্জা লাগে।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সোমবার (৩ মে) ময়মনসিংহ সড়ক জোন, বিআরটিএ ও বিআরটিসি কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় এ নির্দেশনা দেন। তিনি তার সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সভায় যুক্ত হন।

কার্ড স্বল্পতার কারণে দীর্ঘদিন ড্রাইভিং লাইসেন্স সরবরাহ বন্ধ থাকার প্রসঙ্গ টেনে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, ‘কার্ড সংগ্রহ করে ড্রাইভিং লাইসেন্স সরবরাহ করা জরুরি। বিআরটিএ-কে ধাপে ধাপে হলেও কার্ড সরবরাহ করতে হবে। বিষয়টি এখন সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিতে হবে। ড্রাইভিং লাইসেন্সের জন্য লেখালেখিও হচ্ছে। বিভিন্ন জায়গা থেকে আমরা অভিযোগ পাচ্ছি। যে প্রতিষ্ঠান কার্ড সরবরাহ করছে, তারা যেন দ্রুত তা করে। প্রয়োজনে এ ব্যাপারে ভারতীয় দূতাবাসের সঙ্গে কথা বলতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘দালাল চক্র থেকে বিআরটিএ-কে মুক্ত করতে হবে। কাজে স্বচ্ছতা আনতে হবে।’

কর্মকর্তাদের উদ্দেশ করে মন্ত্রী বলেন, ‘নির্মাণকাজের এক বছরের মধ্যে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও নবীনগর-চন্দ্রার রাস্তা নষ্ট হয়ে গেছে। এ রকম রাস্তা করার চেয়ে না করাই ভালো। নকশার ত্রুটিগুলো আমাদের দেখা উচিত, এটা কিন্তু যথাযথভাবে দেখা হচ্ছে না। নকশার ত্রুটির কারণে বিভিন্ন জায়গায় রাস্তার কাজ সঠিকভাবে হচ্ছে না বলে অভিযোগ আসছে।’

তিনি বলেন, ‘যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়া কোনও ঠিকাদার নির্মাণকাজে দেরি করলে কার্যাদেশ বাতিল করুন। প্রয়োজনে তাদের কালো তালিকাভুক্ত করতে হবে।’

বিআরটিসিজন্য টাকা চাইতে লজ্জা লাগে

বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন- বিআরটিসিকে উদ্দেশ করে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, ‘বিআরটিসিকে লোকসানি প্রতিষ্ঠানের ধারা থেকে বেরিয়ে লাভজনক প্রতিষ্ঠানে রূপ দিতে হবে। এত গাড়ি থাকার পরেও বিআরটিসির কেন লোকসান হয়, এটি দেখতে হবে। সরকারকে বারবার ভর্তুকি দিতে হয়। একটি লোকসানি প্রতিষ্ঠানকে বারবার শুধু টাকা দেওয়া। বিআরটিসির জন্য টাকা চাইতেও লজ্জা লাগে। এত গাড়ি হলো. তারপরও বিআরটিসির লাভজনক ধারায় ফিরে আসা অধরা রয়ে গেলো।’

সবাইকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে যার যার দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দিয়ে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা ভালো কাজে পুরস্কার দেবো। খারাপ কাজে তিরস্কারও পেতে হবে।’

 

/ইএইচএস/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

বৃদ্ধ দম্পতিকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, হামলাকারী গ্রেফতার

বৃদ্ধ দম্পতিকে নির্যাতনের ভিডিও ভাইরাল, হামলাকারী গ্রেফতার

বাঘ হত্যাকারী ধরিয়ে দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

বাঘ হত্যাকারী ধরিয়ে দিলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার

কোম্পানীগঞ্জে ওবায়দুল কাদেরের বাড়িতে আগুন দেওয়ার হুমকিতে জিডি

কোম্পানীগঞ্জে ওবায়দুল কাদেরের বাড়িতে আগুন দেওয়ার হুমকিতে জিডি

৯৭ শতাংশ অভিভাবক স্কুল খোলার পক্ষে: জরিপ

৯৭ শতাংশ অভিভাবক স্কুল খোলার পক্ষে: জরিপ

ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে?

ফেসবুক কি শুনতে পায়, কীভাবে নজরদারি করে?

ভ্রাম্যমাণ ছিনতাইকারীদের ‘গাড়ি গ্রুপ’

ভ্রাম্যমাণ ছিনতাইকারীদের ‘গাড়ি গ্রুপ’

কোথাও নেই যেন স্বাস্থ্যবিধি! (ফটোস্টোরি)

কোথাও নেই যেন স্বাস্থ্যবিধি! (ফটোস্টোরি)

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিক্রি: ভূমি অফিসের দুই কর্মকর্তাকে বদলি

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বিক্রি: ভূমি অফিসের দুই কর্মকর্তাকে বদলি

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে তিন পরামর্শ

নীলক্ষেতে জাল সনদসহ গ্রেফতার ২

নীলক্ষেতে জাল সনদসহ গ্রেফতার ২

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

গা ঘেঁষে চলছে শপিং

গা ঘেঁষে চলছে শপিং

সর্বশেষ

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

আহত গার্মেন্টস শ্রমিককে হাসপাতালে দেখতে গেলেন শ্রম প্রতিমন্ত্রী

ভ্যাকসিন ছাড়া সৌদি আরব গেলে নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন

ভ্যাকসিন ছাড়া সৌদি আরব গেলে নিজ খরচে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টিন

নিজের স্বপ্নপুরুষের সঙ্গে কয়েক জন্মের তফাতে জুলেখার মিলন

নিজের স্বপ্নপুরুষের সঙ্গে কয়েক জন্মের তফাতে জুলেখার মিলন

অবিশ্বাস্য গল্প বলেছি বিশ্বাসযোগ্য ভঙ্গিতে : রাশিদা সুলতানা

অবিশ্বাস্য গল্প বলেছি বিশ্বাসযোগ্য ভঙ্গিতে : রাশিদা সুলতানা

উপকূলের আঁধার কাটালো সৌরবাতি

ডিজিটাল উপকূল- ১উপকূলের আঁধার কাটালো সৌরবাতি

মালয়েশিয়ায় পাচারের সময় ৬ রোহিঙ্গা নারী-শিশু উদ্ধার, আটক ১

মালয়েশিয়ায় পাচারের সময় ৬ রোহিঙ্গা নারী-শিশু উদ্ধার, আটক ১

বার্সা-রিয়াল জোটে থাকলে বাদ রোনালদোরা

বার্সা-রিয়াল জোটে থাকলে বাদ রোনালদোরা

এআইইউবি-তে ৫জি প্রযুক্তি বিষয়ে ওয়েবিনার 

এআইইউবি-তে ৫জি প্রযুক্তি বিষয়ে ওয়েবিনার 

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বিপণিবিতান ও সড়কে জরিমানা

স্বাস্থ্যবিধি না মানায় বিপণিবিতান ও সড়কে জরিমানা

বরিশাল সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে নির্মিত হচ্ছে ‘ইমাম ভবন’

বরিশাল সিটি করপোরেশনের উদ্যোগে নির্মিত হচ্ছে ‘ইমাম ভবন’

নিঃসঙ্গ জীবনের গল্প

নিঃসঙ্গ জীবনের গল্প

লকডাউন
সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

চীনা রাষ্ট্রদূতের মন্তব্যে বিস্মিত কূটনীতিকরা

ঈদের পর ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

ঈদের পর ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ

সীমান্ত এলাকায় ব্যাপকহারে করোনা টেস্টের নির্দেশ

গাছ কাটার বিষয়ে জানাতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন!

গাছ কাটার বিষয়ে জানাতে জরুরি সংবাদ সম্মেলন!

'যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের কোয়াডে থাকলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে'

'যুক্তরাষ্ট্র-ভারতের কোয়াডে থাকলে ঢাকা-বেইজিং সম্পর্ক খারাপ হবে'

দুর্যোগের কবলে দেশ, বঙ্গবন্ধুর জরুরি নির্দেশ

দুর্যোগের কবলে দেশ, বঙ্গবন্ধুর জরুরি নির্দেশ

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

মহিমান্বিত রাতে প্রার্থনারত মুসল্লিরা

৯৩ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

৯৩ লাখ টিকা দেওয়া শেষ

করোনার টিকা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের: ডব্লিউটিও  

করোনার টিকা তৈরির সক্ষমতা রয়েছে বাংলাদেশের: ডব্লিউটিও  

দ্বিতীয় দফায় ৭ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার চূড়ান্ত তালিকা

দ্বিতীয় দফায় ৭ হাজার বীর মুক্তিযোদ্ধার চূড়ান্ত তালিকা

© 2021 Bangla Tribune