X
বৃহস্পতিবার, ২৪ জুন ২০২১, ১০ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

চরফ্যাশনে দুই ভাইকে হত্যার রহস্য উদ্ঘাটন, ভাড়াটে খুনি গ্রেফতার

আপডেট : ০৪ মে ২০২১, ২২:০০

ভোলার চরফ্যাশনে দুই ভাইকে হত্যার পর আগুনে পুড়িয়ে ফেলার ঘটনায় ভাড়াটে খুনি শরিফুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ভোলা পুলিশের একটি টিম অভিযান চালিয়ে চট্টগ্রাম থেকে তাকে গ্রেফতার করে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে সে হত্যার দায় স্বীকার করেছে। এ নিয়ে এই মামলায় চার জনকে গ্রেফতার করা হলো। মঙ্গলবার (৪ মে) দুপুরে ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মো. কায়সার সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

পুলিশ সুপার জানান, এ ঘটনায় গ্রেফতার আসামি শরিফুল ইসলাম ছিল ভাড়াটে খুনি। দুই সহোদরকে খুন করতে তাকে আড়াই লাখ টাকায় ভাড়া করে চট্টগ্রাম থেকে চরফ্যাশনে আনা হয়েছিল। হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী বেলালসহ চার জন হত্যার সঙ্গে জড়িত। ডাবল মার্ডার ঘটনার এক মাসের মধ্যে পুলিশ হত্যারহস্য উদ্ঘাটন করেছে। জমি বিক্রির টাকা চাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঞ্চল্যকর এ ডাবল মার্ডারের ঘটনা ঘটেছে। গত ৮ এপ্রিল চরফ্যাশনের আসলামপুর ইউনিয়নে শ্বাসরোধ করে তপন ও দুলাল নামে দুই ভাইকে হত্যা করে শরীর থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করে লাশ আগুনে পুড়িয়ে দেয় আসামিরা। পরে মাথা দুটি পার্শ্ববর্তী একটি সেপটিক ট্যাংকে ফেলে দেয়। ২১ এপ্রিল পুলিশ মাথা দুটি উদ্ধার এবং নিহতদের পরিচয় শনাক্ত ও তিন আসামিকে গ্রেফতার করে। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী অন্য আসামিদের গ্রেফতার করে পুলিশ।

যে কারণে হত্যা করা হয় দুই ভাইকে

প্রায় তিন বছর আগে চরফ্যাশন পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের মাস্টার বাড়ির মৃত উপেন্দ্র সরকারের ছেলে অমিত সরকার তপন (৫৫) ও দুলাল সরকার (৫২) তাদের বসত ভিটাসহ জমি বিক্রি করতে চান। এ বিষয়ে তাদের বাড়ির পাশের আবু মাঝি ওই জমির ভালো দাম পাইয়ে দেবে এবং তার কাছে ভালো ক্রেতা রয়েছে বলে জানান। পরে আবু মাঝি আসলামপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা তার জামাই মো. বেল্লালের (৩২) সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন অমিত তপন ও দুলালকে। এরপর যোগ হয় বেল্লালের ভাই আবুল কাসেম। বেল্লাল ও তার লোকজনের সঙ্গে ৪৬ শতাংশ জমি বিক্রির দরদাম ঠিক হয় ২০ লাখ টাকা। এর মধ্যে বেল্লালরা তিন লাখ টাকা বায়না দিয়ে বাকি টাকা জমির নতুন দলিল করার আগে পরিশোধের আশ্বাস দেয় দুই ভাইকে।

এই ঘটনার কিছুদিন পর বেল্লাল দুই ভাইকে জমির দলিল দেওয়ার জন্য চাপ দিলে তারা বাকি টাকা দাবি করেন। কিন্তু দলিল না দেওয়া পর্যন্ত কোনও টাকা দেওয়া হবে না বলে জানায় বেল্লাল ও তার লোকজন। এরপর অমিত ও দুলাল ভারতে চলে যান। কিছুদিন পর বেল্লালরা তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে বাংলাদেশে এসে বাকি টাকা বুঝে নিয়ে দলিল দেওয়ার জন্য বলে। তাদের কথামতো দুই ভাই চরফ্যাশন আসেন। এরপর বেল্লাল ও অন্যরা তাদের দলিল দিতে চাপ প্রয়োগ করে। বেশ কিছুদিন পর তারা দুই ভাইকে ৬০ হাজার টাকা দেয় এবং দলিল দেওয়ার পর বাকি টাকা বুঝিয়ে দেওয়ার আশ্বাস দেয়। এক পর্যায়ে তাদের আশ্বাসে তপন ও দুলাল দলিল দেন। দলিল দিলেও তাদের বাকি টাকা বুঝিয়ে দেওয়া হয়নি। টাকার জন্য তারা চাপ দিলে তাদের তারিখ দিতে থাকে বেল্লাল।

যেভাবে হত্যা করা হয় 

তপন ও দুলাল দলিল দেওয়ার পরও তাদের বাকি টাকার জন্য ঘুরাতে থাকে বেল্লাল। পরে নিরুপায় হয়ে তপন ও দুলাল তাদের এক ভাইকে দিয়ে ‘অগ্রখরিদ’ মামলা করেন। এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয় বেল্লাল গংরা। পরে তাদের দুই ভাইকে হত্যার করার পরিকল্পনা করে তারা। এজন্য তারা শরিফুল ইসলামকে দুই লাখ ৫০ হাজার টাকায় ভাড়া করে। পরে আসামিরা চক্রান্ত করে গত ৭ এপ্রিল রাতে দুই ভাইকে বাকি টাকা নেওয়ার জন্য আসলামপুর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের আসলামপুর গ্রামে আসতে বলে। দুই ভাই সেখানে গেলে কৌশলে সুন্দরী ব্রিজ সংলগ্ন ভূঁইয়ার বাগানে নিয়ে তাদের শ্বাসরোধ করে হত্যা করে বেল্লাল গংরা। অস্ত্র দিয়ে শরীর থেকে মাথা আলাদা করে সুন্দরী খালে ফেলে দেয়।

এরপর নিহতদের কেউ যাতে চিনতে না পারে সেজন্য গভীর রাতে তাদের শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়। ঘটনার পর দিন ৮ এপ্রিল বাগানে মস্তকবিহীন পোড়া অজ্ঞাত দুই ব্যক্তির মরদেহ দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়। ময়নাতদন্তের পর বেওয়ারিশ লাশ হিসেবে আনজুমান মফিদুল ইসলাম ভোলা শাখা তাদের মুসলিম হিসেবে ভোলায় দাফন করে। পুলিশ নিহতদের মাথা খুঁজতে শুরু করলে ওই রাতেই আসামিরা খাল থেকে মাথা দুটি উঠিয়ে ওই এলাকার ফরাজী বাড়ির মহিবুল্লাহ বাড়ির বাথরুমের সেপটিক ট্যাঙ্কিতে লুকিয়ে রাখে। পরে পুলিশ ঘটনার ১৪ দিন পর ২২ এপ্রিল বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে দুটি মাথা ওই সেফটিক ট্যাংকি থেকে উদ্ধার করে। এরপর বেল্লাল, আবু মাঝি ও আবুল কাশেমকে গ্রেফতার করে। তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী ২৩ এপ্রিল শুক্রবার সকালে হত্যায় ব্যবহৃত অস্ত্র সুন্দরী খাল থেকে উদ্ধার করা হয়। এছাড়া আসামিদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী এ হত্যাকাণ্ডে জড়িত ভাড়াটে খুনি শরিফুলকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতার শরিফুল হত্যার দায় স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

 

/এমএএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

মা-বাবার ঝগড়ায় দায়ের কোপে সন্তানের মৃত্যু

মা-বাবার ঝগড়ায় দায়ের কোপে সন্তানের মৃত্যু

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ডিআইজি প্রিজনস পার্থ গোপালের দেশ ত্যাগে নিষেধাজ্ঞা

ক্যাসিনো হোতা এনু-রুপনের জামিন বিষয়ে রায় ১৪ জুলাই

ক্যাসিনো হোতা এনু-রুপনের জামিন বিষয়ে রায় ১৪ জুলাই

নাসির-অমির রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

নাসির-অমির রিমান্ড শুনানিতে যা বললেন আইনজীবীরা

ক্রিকেটার নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ৩১ আগস্ট

ক্রিকেটার নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ৩১ আগস্ট

নৌবাহিনীর প্রশিক্ষককে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নৌবাহিনীর প্রশিক্ষককে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

দুদকের বরখাস্ত পরিচালক বাছিরের জামিন আবেদন

দুদকের বরখাস্ত পরিচালক বাছিরের জামিন আবেদন

দাঁড়িয়ে থাকা মোটরসাইকেলে ট্রাকের ধাক্কায় দুই আরোহী নিহত

দাঁড়িয়ে থাকা মোটরসাইকেলে ট্রাকের ধাক্কায় দুই আরোহী নিহত

নাসির-অমি ৫ দিনের রিমান্ডে

নাসির-অমি ৫ দিনের রিমান্ডে

ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তায় পুলিশের ৭ পরামর্শ

ফেসবুক অ্যাকাউন্টের নিরাপত্তায় পুলিশের ৭ পরামর্শ

ফেসবুক হ্যাক করে প্রতারণা, যুবক গ্রেফতার

ফেসবুক হ্যাক করে প্রতারণা, যুবক গ্রেফতার

অমিকে আরও দুই মামলায় গ্রেফতারের আবেদন মঞ্জুর

অমিকে আরও দুই মামলায় গ্রেফতারের আবেদন মঞ্জুর

সর্বশেষ

ব্রাজিলের কাছে হেরে আর্জেন্টাইন রেফারিকে দুষলেন কলম্বিয়া কোচ

ব্রাজিলের কাছে হেরে আর্জেন্টাইন রেফারিকে দুষলেন কলম্বিয়া কোচ

খুলনার ৩ হাসপাতালে আরও ৬ মৃত্যু

খুলনার ৩ হাসপাতালে আরও ৬ মৃত্যু

তৃতীয় দিনের মতো বন্ধ দূরপাল্লার গণপরিবহন

তৃতীয় দিনের মতো বন্ধ দূরপাল্লার গণপরিবহন

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না রাখা গেলে ভারতের মতো অবস্থা হবে

সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না রাখা গেলে ভারতের মতো অবস্থা হবে

রাজশাহী মেডিক্যালে একদিনে সর্বোচ্চ ১৮ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে একদিনে সর্বোচ্চ ১৮ মৃত্যু

চট্টগ্রামে উপজেলাগুলোতে রোগী বাড়ছে

চট্টগ্রামে উপজেলাগুলোতে রোগী বাড়ছে

ইউরোর শেষ ষোলোয় কারা দেখে নিন

ইউরোর শেষ ষোলোয় কারা দেখে নিন

বাড়িতে হামলার প্রতিবাদে সড়কে ওবায়দুল কাদেরের দুই বোন

বাড়িতে হামলার প্রতিবাদে সড়কে ওবায়দুল কাদেরের দুই বোন

শত বছরের বোতল বন্দি চিঠিতে কী লেখা ছিলো?

শত বছরের বোতল বন্দি চিঠিতে কী লেখা ছিলো?

এইচটি ইমামের ছেলে এমপি তানভিরের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা

এইচটি ইমামের ছেলে এমপি তানভিরের নাম ভাঙিয়ে প্রতারণা

দেশের উত্তরাঞ্চলে গড়ে উঠবে গ্যাসভিত্তিক শিল্প

দেশের উত্তরাঞ্চলে গড়ে উঠবে গ্যাসভিত্তিক শিল্প

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মা-বাবার ঝগড়ায় দায়ের কোপে সন্তানের মৃত্যু

মা-বাবার ঝগড়ায় দায়ের কোপে সন্তানের মৃত্যু

নৌবাহিনীর প্রশিক্ষককে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

নৌবাহিনীর প্রশিক্ষককে মারধরের অভিযোগে ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

দাঁড়িয়ে থাকা মোটরসাইকেলে ট্রাকের ধাক্কায় দুই আরোহী নিহত

দাঁড়িয়ে থাকা মোটরসাইকেলে ট্রাকের ধাক্কায় দুই আরোহী নিহত

ভাসানচর থেকে পালানো ১৪ রোহিঙ্গা আটক

ভাসানচর থেকে পালানো ১৪ রোহিঙ্গা আটক

নির্বাচনি সহিংসতা: নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যসহ কারাগারে ৩

নির্বাচনি সহিংসতা: নবনির্বাচিত ইউপি সদস্যসহ কারাগারে ৩

নিজের সব সম্পদ দান করবেন তোফায়েল আহমেদ

নিজের সব সম্পদ দান করবেন তোফায়েল আহমেদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সহিংসতা: হেফাজত নেতা মনির গ্রেফতার

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সহিংসতা: হেফাজত নেতা মনির গ্রেফতার

পিরোজপুরে ১৮ ইউপিতে নৌকা, ১১টিতে স্বতন্ত্র জয়ী

পিরোজপুরে ১৮ ইউপিতে নৌকা, ১১টিতে স্বতন্ত্র জয়ী

© 2021 Bangla Tribune