X
শুক্রবার, ২৫ জুন ২০২১, ১১ আষাঢ় ১৪২৮

সেকশনস

ঈদের পর ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার আশঙ্কা স্বাস্থ্যমন্ত্রীর

আপডেট : ১০ মে ২০২১, ১৮:১০

ঈদকে কেন্দ্র করে ঢাকা ছাড়ছে মানুষ। সেখানে স্বাস্থ্যবিধি মানা হচ্ছে না। শহরাঞ্চলে বেপরোয়াভাবে মানুষ শপিং মল ও যানবাহনে গাদাগাদি করে মানুষ চলাফেরা করছে। এভাবে চলতে দিলে ঈদের পর দেশে ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থার সৃষ্টি হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

সোমবার (১০ মে) দেশের চারটি বর্ডার এলাকার বিভাগীয় পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে অনলাইন জুম অ্যাপের মধ্যমে ‘ভারতীয় নতুন ভ্যারিয়েন্ট মোকাবিলায় করণীয়’ বিষয়াদি নিয়ে জরুরি দিক নির্দেশনামূলক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে তিন এ কথা বলেন।

গ্রামমুখী মানুষের সিদ্ধান্তকে ‘সুইসাইড’ সিদ্ধান্তের শামিল উল্লেখ করে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ঈদে ঘরমুখো মানুষ লকডাউনের সামান্য শিথিলতার সুযোগ নিয়ে দল বেঁধে গাদাগাদি করে, স্বাস্থ্যবিধির কোনোরকম তোয়াক্কা না করে, যেভাবে ফেরি পারাপারসহ এক জেলা থেকে অন্য জেলায় যাতায়াত করছে, তা একেবারে সুইসাইড সিদ্ধান্তের শামিল।’

তিনি বলেন, ‘পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে নতুন ভ্যারিয়েন্টের কারণে প্রতিদিন হাজারো মানুষ মারা যাচ্ছে। ভারতীয় নতুন ভ্যারিয়েন্টটি এখন নেপালে ছড়িয়ে গিয়ে সেখানে ভয়াবহতা সৃষ্টি করেছে। এই ভ্যারিয়েন্ট এখন আমাদের দেশেও চলে এসেছে। এরকম ক্রিটিকাল সময়ে এই ভাইরাস দেহে নিয়ে ঈদে ঘরমুখো মানুষ যদি গ্রামে চলে যায়, তাহলে গ্রামে থাকা পরিবার-পরিজনসহ গ্রামবাসী গণহারে আক্রান্ত হতে পারে।’

জাহিদ মালেক বলেন, ‘একইসঙ্গে শহরাঞ্চলেও মানুষ এখন বেপরোয়া চলাফেরা করছে। ঢাকাসহ দেশের বড় বড় বিভাগীয় শহরে শপিং মলসহ বিভিন্ন যানবাহনে গাদাগাদি করে মানুষ যাতায়াত করছে। এভাবে চলতে দিলে ঈদের পর দেশে ভারত ও নেপালের মতো ভয়াবহ অবস্থা সৃষ্টি হতে পারে।’

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব লোকমান হোসেন মিয়ার সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন— স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশিদ আলম, অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদি সেব্রিনা ফ্লোরা,খুলনা,চট্টগ্রাম,রংপুর ও সিলেট বিভাগের রেঞ্জ ডিআইজি, বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, সিভিল সার্জনসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

 

/জেএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

প্রযুক্তি পণ্যের সংকটকালে নকল পণ্যে বাজার সয়লাব

প্রযুক্তি পণ্যের সংকটকালে নকল পণ্যে বাজার সয়লাব

রাজশাহী মেডিক্যালে একদিনে আরও ১৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে একদিনে আরও ১৪ মৃত্যু

সর্বশেষ

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

ধর্ষণের কথা আমলে নেয়নি মা, সৎ বাবাকে পুলিশে দিলো কিশোরী

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

নজরদারির দুর্বলতায় ছাপাখানায় জাল রেভিনিউ স্টাম্প তৈরি

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

খুলনায় শনাক্ত ৫০ হাজার ছাড়ানোর দিনে ২৩ মৃত্যু

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

কাজের কথা বলে পাচারের চেষ্টা, নিয়ে নেওয়া হতো কিডনি

মাদকাসক্তদের ৮০ ভাগই কিশোর

মাদকাসক্তদের ৮০ ভাগই কিশোর

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নির্যাতন থেকে বাঁচতে ভাড়াটে খুনি দিয়ে ছেলেকে হত্যা

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

নতুন করে বেড়েছে ১০ পণ্যের দাম

বলিউড তারকাদের ডাকনামগুলো শুনেছেন?

বলিউড তারকাদের ডাকনামগুলো শুনেছেন?

মুলতান পিএসএলের ‘সুলতান’

মুলতান পিএসএলের ‘সুলতান’

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

মনপুরায় জাতীয় গ্রিড থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহের দাবি

মনপুরায় জাতীয় গ্রিড থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহের দাবি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

ঢাকায় চার দিনেই ১০৭ শতাংশ বেড়েছে করোনা শনাক্ত 

বেসরকারি পর্যায়ে অ্যান্টিজেন পরীক্ষার অনুমোদন দিচ্ছে সরকার

বেসরকারি পর্যায়ে অ্যান্টিজেন পরীক্ষার অনুমোদন দিচ্ছে সরকার

চূড়ান্ত তালিকায় যুক্ত হলো আরও ২৯৭৩ বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম

চূড়ান্ত তালিকায় যুক্ত হলো আরও ২৯৭৩ বীর মুক্তিযোদ্ধার নাম

কোভিশিল্ডের টিকা এক কোটি ১ লাখ ডোজ শেষ

কোভিশিল্ডের টিকা এক কোটি ১ লাখ ডোজ শেষ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ নতুন সেনাপ্রধানের

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাৎ নতুন সেনাপ্রধানের

© 2021 Bangla Tribune