X
শনিবার, ২৩ অক্টোবর ২০২১, ৭ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ডিজিটাল উপকূল-২

খবর পেতে দিন গুনতে হয় না তাদের

আপডেট : ১৬ মে ২০২১, ২৩:২৫

বছর দুয়েক আগেও এ দ্বীপের মানুষকে খবর দেখতে বাজারের দোকানে রাত ৮টা পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হতো টেলিভিশন দেখতে। ৫ মিনিটের খবর দেখতে দিতে হতো ৫-১০ টাকা। ছাপা কাগজের খবর পড়তে অপেক্ষা করতে হতো সপ্তাহ। সেই দ্বীপের চিত্র আমূল বদলেছে। সহজলভ্য ইন্টারনেট আর স্মার্ট ফোনের কল্যাণে মিলছে দেশ-দুনিয়ার সব খবর, মুহূর্তেই। বলছিলাম নোয়াখালীর দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার কথা।

হাতিয়ায় এখন সবার হাতেই স্মার্ট ডিভাইস। খবর তো পাচ্ছেনই, বিদেশে থাকা স্বজনদের সঙ্গে ভিডিও কলে কথাও বলছেন দ্বীপবাসী।

ইন্টারনেটের কারণে হাতিয়ায় এখন পত্রিকার গ্রাহক কমেছে। হকারকে নদী পেরিয়ে পত্রিকা সংগ্রহ করতে হয় না। উপজেলা সদর থেকে ৫ থেকে ৭ দিনের ডাকযোগের পথ পাড়ি দিয়ে গ্রামে পত্রিকা পাঠানোর দিনও ফুরিয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, সাত লাখ মানুষের বাসস্থান হাতিয়ায় বই-ম্যাগাজিন গেলেও কাগুজে পত্রিকার গ্রাহক নেই বললেই চলে।

দ্বীপবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দুর্গম নদীপথ হওয়ায় রাজধানী থেকে হাতিয়ার মূল ভূখণ্ডে দৈনিক পত্রিকা পৌঁছাতে একদিনেরও বেশি সময় লাগে। আর দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া থাকলে সময় লাগে আরও বেশি। স্বাভাবিক সময়ে দিনের পত্রিকা উপজেলা সদরে পৌঁছে সন্ধ্যায়। সেখান থেকে দ্বীপের অন্যান্য গ্রাম, ইউনিয়ন, বাজার বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যায় ডাকযোগে। এতে লেগে যায় সপ্তাহখানেক।

কথা হয় দ্বীপ উপজেলার হকার আবুল কাশেমের সঙ্গে। তিনি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, সবার হাতে এখন স্মার্ট ফোন। একদিন আগের নিউজ কেউ পড়তে চায় না। গ্রাম এলাকার মানুষ তো পত্রিকা কেনাই বন্ধ করে দিয়েছে।

কথা হয় নিঝুম দ্বীপের শিক্ষক সামছুদ্দিনের সঙ্গে। তিনি বলেন, পত্রিকার চেহারা যে কবে দেখেছি বলতে পারবো না। কিন্তু প্রতিদিন খবর দেখি। মোবাইল-ফেসবুকেই তো সব চলে আসে। প্রতিদিন কয়েকবার শীর্ষস্থানীয় অনলাইন ও পত্রিকাগুলোর ওয়েবসাইট দেখে নিলেই হয়।

শুধু হাতিয়া নয়, ভোলার মনপুরার ঢালচরের চিত্রও একই। এ চরেও সরেজমিন কোনও পত্রিকা পাওয়া গেলো না। কিন্তু চরের মানুষ সব খবর জানে। উপকূলের অন্যান্য এলাকায় শক্তিশালী মোবাইল নেটওয়ার্ক ও ইন্টারনেট সুবিধার কারণেই এমনটা সম্ভব হয়েছে।

একই চিত্র চরফ্যাশনেও। এখানে পত্রিকা পৌঁছালেও সন্ধ্যা হয়ে যায়। সাগরে সতর্ক সংকেত থাকলে ওইদিনের পত্রিকা পড়া হয় না কারও।

জানতে চাইলে স্থানীয় সাংবাদিক শিপু ফরাজী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রতিদিন বিকাল ৩টার পর পত্রিকা আসে। কখনও আকাশ একটু খারাপ থাকলে আসে না। আমরা সকালে ফোনেই পত্রিকা দেখে ফেলি।’

তিনি বলেন, ‘এ উপজেলার অনেকের ঘরে এখন ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট আছে। ওয়াইফাই ব্যবহার করে সবাই। দুর্যোগ মুহূর্তেও ইন্টারনেট বন্ধ থাকে না।’

কক্সবাজারের মহেশখালীতেও কাগুজে পত্রিকা পৌঁছে অনেক দেরিতে। কোনও এলাকায় একেবারেই যায় না। এখানেও আছে থ্রিজি-ফোরজি সেবা।

মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাহফুজুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘এখানে ইন্টারনেটের স্পিড ভালোই। পত্রিকা আসুক না আসুক, খবর সবাই ঠিকই পায়।’

জানতে চাইলে বরিশাল বিভাগীয় তথ্য অফিসের পরিচালক জাকির হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘উপকূলীয় এলাকার দুর্গম চরের মানুষও এখন ইন্টারনেটের সব সুবিধা পাচ্ছেন। দুর্যোগের বার্তা মুহূর্তে তারা ফেসবুকেই পায়। দুর্গম সাগরের মধ্য থেকেও ইন্টারনেটে কথা বলতে পারেন তারা।’

তিনি আরও বলেন, ‘দুর্গম এলাকাগুলোর মধ্যে পটুয়াখালী, ভোলা, বরগুনা, মনপুরা, চরফ্যাশনসহ কিছু এলাকা রয়েছে একেবারেই সাগর পাড়ে। ওইসব এলাকাতেও এখন ইন্টারনেট আছে। প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের এটুআই প্রকল্পের মাধ্যমে দুর্গম এলাকাগুলোতে অনেক কাজ হয়েছে। যে কারণে করোনাকালে আমাদের অফিসিয়াল কাজও সচল ছিল।’

হাতিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক দেশ রূপান্তরের হাতিয়া প্রতিনিধি মানিক মজুমদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমার বাড়িতে পত্রিকা পৌঁছে দুই দিন পর। কিন্তু আমি তো সেটার জন্য বসে থাকি না। আমার রুটিন হলো ঘুম থেকে উঠে আগে ওয়েবসাইটে খবর পড়া।’

/এফএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

উপকূলীয় অঞ্চলে ‘ওয়ান টাইম প্লাস্টিক’ বন্ধে বিশেষ উদ্যোগ

উপকূলীয় অঞ্চলে ‘ওয়ান টাইম প্লাস্টিক’ বন্ধে বিশেষ উদ্যোগ

অভিন্ন প্ল্যাটফর্মে ডিজিটাল পশুর হাটের যাত্রা শুরু

অভিন্ন প্ল্যাটফর্মে ডিজিটাল পশুর হাটের যাত্রা শুরু

টেকসই বেড়িবাঁধের অভাবে ঝুঁকির মুখে উপকূলের জীবন-জীবিকা

টেকসই বেড়িবাঁধের অভাবে ঝুঁকির মুখে উপকূলের জীবন-জীবিকা

সাগরে বসেই অনলাইনে মাছ বিক্রি করছেন জেলেরা

সাগরে বসেই অনলাইনে মাছ বিক্রি করছেন জেলেরা

সৌদিতে বাংলাদেশির কারাদণ্ড: আইনজীবী নিয়োগে টাকা দিচ্ছে কল্যাণ বোর্ড

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২২:০০

বাংলাদেশি যুবক মো. আবুল বাশারকে গত  ২৬ সেপ্টেম্বর মাদক দ্রব্য আইনে ২০ বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে সৌদি আরবের একটি আদালত। দেশটিতে প্রবেশের সময় তার ব্যাগে ইয়াবা পাওয়ায়  এই সাজা দেওয়া হয়। তবে অভিযোগ রয়েছে, সেই ইয়াবা তার ব্যাগে ‘আচারের প্যাকট’ বলে  ঢুকিয়ে দেন বিমানবন্দরে পরিচ্ছন্নতার কাজে নিয়োজিত এসআর সুপারভাইজার নুর মোহাম্মদ।

এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করার কথা জানিয়েছিল জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট। সেজন্য আইনজীবী নিয়োগে অর্থ ছাড় দিয়েছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড। সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জেদ্দা কনস্যুলেট সূত্রে জানা যায়, এর আগে আইনজীবী নিয়োগের বিষয়ে ঢাকায় চিঠি পাঠানো হয়। চিঠিতে বলা হয়,  আবুল বাশারের পক্ষে যাবতীয় তথ্য-উপাত্ত-যুক্তি আপিল আদালতে নির্ভুল ও যথাযথভাবে উপস্থাপনের জন্য একজন সৌদি আইনজীবী নিয়োগ দেওয়া প্রয়োজন। একজন নির্দোষ ব্যক্তি যেন অযথা ভুক্তভোগী না হন এবং ভুল বিচারপ্রাপ্তির আশঙ্কা যথাসম্ভব প্রতিরোধে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা হিসেবে আইনজীবী নিয়োগের জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দের কথা ঢাকায় চিঠি দিয়ে অনুরোধ জানায় জেদ্দার বাংলাদেশ কনস্যুলেট। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ২১ অক্টোবর ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড ৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকা অর্থ ছাড় দিয়ে চিঠি পাঠায় বাংলাদেশ কনস্যুলেটের লেবার উইং বরাবর।

ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের উপপরিচালক মো. জাহিদ আনোয়ারের সই করা চিঠিতে বলা হয়, ‘অ্যামফিটামিন বহনের অভিযোগে প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মী  আবুল বাশারকে সৌদি আরবের আদালত ২০ বছরের কারাদণ্ড দিযেছে। তাকে মুক্ত করার লক্ষ্যে আদালতে আপিল শুনানিতে আইনজীবী নিয়োগের জন্য কন্স্যুলেটের চাহিদা অনুযায়ী,  ৬ লাখ ৮৫ হাজার টাকা ২০২১-২২ অর্থবছরের ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে দূতাবাসের অনুকূলে ‘আইনগত সহায়তা বাবদ খাতে’ বরাদ্দকৃত বাজেট হতে কতিপয় শর্ত সাপেক্ষে  ব্যয়ের অনুমোদন দেওয়া হলো।’

জেদ্দার বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কর্মকর্তারা জানান, বাশারের বিরুদ্ধে মাদক মামলায় ২০ বছরের সাজা দেন সৌদির আদালত। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের বিষয়ে বিস্তারিত উল্লেখপূর্বক বিষয়টি সহানুভূতির সঙ্গে বিবেচনা করার জন্য কনস্যুলেটের পক্ষ থেকে সৌদি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নোট ভারবাল এবং মক্কার সোমাইশীতে সামারি কোর্ট কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি দেওয়া হয় এবং কনস্যুলেটের পক্ষ হতে প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

এর আগে দূতাবাসের কর্মকর্তারা জানান,  ২০ বছর সাজা ঘোষণার পর এক মাসের মধ্যে আপিল করার সুযোগ আছে। বাশারের জন্য আপিল করার প্রস্তুতি নিয়েছে কনস্যুলেট। এজন্য ঢাকা থেকে প্রকৃত দায়ী ব্যক্তির বিরুদ্ধে বাংলাদেশে দায়ের করা মামলার এজাহার এবং এয়ারপোর্ট আর্মড পুলিশের (এপিবিএন) কাছ থেকে বিশেষ প্রতিবেদন সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়া এই ঘটনার আরও  প্রমাণ থাকলে তা পাঠিয়ে সহায়তা করার জন্য ঢাকায় চিঠি দেওয়া হয়।

আবুল বাশারের মুক্তির জন্য প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদের সঙ্গে দেখা করেছেন তার স্ত্রী রাবেয়া। স্বামীকে মুক্ত করার জন্য লিখিতভাবে তিনি অনুরোধ জানান মন্ত্রীকে। সেই সময় মন্ত্রী তাকে সহায়তা করার আশ্বাস দেন। তখন মন্ত্রী বলেছিলেন,  আপিলের বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

/এসও/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

রাজধানীর সবুজবাগে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার

রাজধানীর সবুজবাগে স্কুলছাত্রের লাশ উদ্ধার

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

সেন্টমার্টিন থেকে ৩২ হাজার ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

রংপুরে হামলা: ‘অপপ্রচার চালিয়ে আলোচনায় আসতে চেয়েছিল সৈকত’

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২০:৪০

সাম্প্রদায়িক সহিংসতা বন্ধ ও দোষীদের বিচারের দাবিতে ঢাকাসহ সারা দেশে প্রতিবাদ, অনশন ও বিক্ষোভ মিছিল অব্যাহত আছে। শনিবার (২৩ অক্টোবর) রাজধানীসহ মানিকগঞ্জ, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, চট্টগ্রাম, পটুয়াখালী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, নোয়াখালী, জামালপুরে গণঅবস্থান, অনশনসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

শনিবার সকাল ১১টায় সারা দেশে ‘সুজন’-এর উদ্যোগে দ্য হাঙ্গার প্রজেক্ট, ইয়ুথ এন্ডিং হাঙ্গার, জাতীয় কন্যাশিশু অ্যাডভোকেসি ফোরাম, বিকশিত নারী নেটওয়ার্কসহ সমমনা সংগঠনগুলোকে নিয়ে মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করা হয়। ঢাকার মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয় জাতীয় সংসদ ভবনের সামনে। সমমনা সংগঠনের মধ্যে গণস্বাক্ষরতা অভিযান, মানবাধিকার উন্নয়ন কেন্দ্র, এবং রিসার্চ অ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট অরগানাইজেশন এই মানববন্ধনে যোগ দেয়। 

.

মানববন্ধনে সুজনের সহসভাপতি ও মানবাধিকারকর্মী ড. হামিদা হোসেন, সুজন সম্পাপদক ড. বদিউল আলম মজুমদার, বিকশিত নারী নেটওয়ার্কের সভাপতি রাশেদা আক্তার শেলীসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মানববন্ধনটি সঞ্চালনা করেন সুজনের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী দিলীপ কুমার সরকার।          

বদিউল আলম মজুমদার বলেন, ‘আমাদের ঘরে আগুন লেগেছে, আমরা কেউই নিরাপদ নই। এটা আমাদের জন্য জেগে ওঠার ঘণ্টাধ্বনি। দীর্ঘদিন ধরে বিচারহীনতার সংস্কৃতি, দোষারোপের সংস্কৃতির কারণে অপরাধীরা ধরা ছোঁয়ার বাইরে থেকে যাচ্ছে।’

.

তিনি বলেন, ‘চট্টগ্রামের মিতু হত্যার পর আমরা দেখলাম— পুলিশ অনেক  মানুষকে গ্রেফতার করেছে, অথচ পরে দেখা গেলো সর্ষের মধ্যেই ভূত। অথচ কত মানুষের জীবন জীবিকা নষ্ট করে দেওয়া হলো। সাম্প্রতিক হামলাগুলোর ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পাচ্ছি, আমাদের তরুণরা অনেক ক্ষেত্রে সামনের কাতারে ছিল, এটি আমাদের জন্য অত্যন্ত আশঙ্কাজনক একটি বিষয়। তরুণদের জন্য আমাদের এখনই একটি জাতীয় কর্মসূচি নিতে হবে।’

হামিদা হোসেন বলেন, ‘প্রশাসন ও পুলিশ ঠিক মতো কাজ করছে না। এখন নাগরিকদের বিভিন্ন সক্রিয় কর্মসূচি নিতে হবে। বিভিন্ন নাগরিক সংগঠনকে একজোট হয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন, তথ্য প্রমাণ সংগ্রহ ইত্যাদি কাজ করতে হবে।’

‘সাম্প্রদায়িক হামলাকারী’ ও তাদের পেছনে থাকা চক্রান্তকারীদের বিচারে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠনের দাবি জানিয়েছে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। ট্রাইব্যুনাল গঠনসহ আট দফা দাবি জানিয়ে রাজধানীর শাহবাগে ‘গণঅনশন ও গণঅবস্থান’ কর্মসূচি শেষ করেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। সেই সঙ্গে ঘোষণা করা হয়েছে তিন দফা কর্মসূচিও।

.

পাশপাশি শনিবার সকাল ৬টা থেকে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে গণঅবস্থান কর্মসূচি শুরু করে হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। পরে তাদের সঙ্গে সংহতি জানিয়ে অবস্থান নেয় বিভিন্ন ধর্মীয় সংগঠন। এক পর্যায়ে একটি অংশ শাহবাগ মোড় অবরোধ করে। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মানবাধিকার কর্মী খুশি কবির পানি পান করিয়ে আন্দোলনকারীদের অনশন ভাঙান। পরে আয়োজকরা বিক্ষোভ মিছিল বের শাহবাগ মোড় ছেড়ে জাতীয় প্রেস ক্লাবের দিকে পদযাত্রা করেন। তাদের সঙ্গে যুক্ত হন অবরোধকারীরাও।

. কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনায় সারা দেশের সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলায় ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনর্নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানিয়েছেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট রানা দাশগুপ্ত।  শনিবার (২৩ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রাম নগরীর আন্দরকিল্লা মোড় এলাকায় সংগঠনটির উদ্যোগে আয়োজিত গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে উপস্থিত হয়ে তিনি এসব দাবি জানান। গণঅনশন ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচিতে সনাতন ধর্মাবলম্বী শত শত নারী পুরুষ অংশ নেন। এসময় তিনি ক্ষতিগ্রস্ত মন্দির, বাড়ি-ঘর পুনর্নির্মাণ, ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসন, যথাযথ ক্ষতিপূরণ ছাড়াও আহতদের চিকিৎসা এবং নিহতদের প্রতিটি পরিবারকে ২০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানান।

/এসও/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ইউজিসির খণ্ডকালীন সদস্য হলেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৯

বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) খণ্ডকালীন সদস্য মনোনীত হয়েছেন জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান। গত ১৭ অক্টোবর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে চিঠি দিয়ে এ বিষয়টি জানিয়েছে ইউজিসি। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতরের পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) মো. ফয়জুল করিম এসব তথ্য জানান। 

অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমানকে পাঠানো চিঠিতে জানানো হয়, ৫ অক্টোবর থেকে পরবর্তী দুই বছরের জন্য বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের খণ্ডকালীন সদস্য মনোনীত হয়েছেন তিনি। কমিশনের পক্ষ থেকে এজন্য তাকে অভিনন্দন জানানো হয়।

ইউজিসি কর্তৃপক্ষের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, অধ্যাপক ড. মো. মশিউর রহমান গত ৩১ মে থেকে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ৩০ মে তাঁকে এই নিয়োগ দিয়েছেন।

ড. মশিউর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক। সুইডেনের লুন্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি আছে তার। একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পোস্ট ডক্টরাল গবেষণা সম্পন্ন করেন তিনি।

/জেএইচ/

সম্পর্কিত

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

ঢাবির ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষায় প্রতি আসনের বিপরীতে প্রায় ৭৪ শিক্ষার্থী

জবি ছাত্রীর আত্মহত্যা, শিক্ষককে দায়ী করছেন স্বজন ও সহপাঠীরা

জবি ছাত্রীর আত্মহত্যা, শিক্ষককে দায়ী করছেন স্বজন ও সহপাঠীরা

সব শিক্ষা অফিসের ইন্টারনেট সেবা সংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে সরকার

সব শিক্ষা অফিসের ইন্টারনেট সেবা সংক্রান্ত তথ্য চেয়েছে সরকার

প্রাথমিকের অফিসে ই-ফাইলিং শুরু ৩১ অক্টোবর

প্রাথমিকের অফিসে ই-ফাইলিং শুরু ৩১ অক্টোবর

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ২০:০৯

দুর্গাপূজাকে কেন্দ্র করে দেশের কয়েকটি জেলায় সাম্প্রদায়িক হামলা, প্রতিমা ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের প্রতিবাদে মশাল সমাবেশ করেছে নারীবাদী সংগঠন ‘প্রজন্মান্তরে নারীবাদী মৈত্রী’।

শনিবার (২৩ অক্টোবর)  সন্ধ্যা ছয়টায় রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ‘সাম্প্রদায়িকতার বিষদাঁত গুঁড়িয়ে দেবো!’ ব্যানারে মশাল ও প্ল্যাকার্ড হাতে সমাবেশ করে সংগঠনটি। এ সময় সংগঠনটির সঙ্গে সংহতি জানিয়ে সেখানে উপস্থিত ছিলেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ‘ধর্ম আমার বাঁচার অধিকার হরণ করতে পারে না,,‘ধর্ম যার যার রাষ্ট্র সবার’, ‘রাষ্ট্রের কোনও ধর্ম নাই’,‘ধর্মভেদে বৈষম্য, নিপাত যাক, নিপাত যাক’, ‘সাম্প্রদায়িক সন্ত্রাস, বাংলাদেশের সর্বনাশ’, ‘সাম্প্রদায়িকতার কদাচার, ঘৃণা আর ধিক্কার’,‘সাম্প্রদায়িকতার বিষদাঁত ভাঙতে রাখো হাতে হাত’,‘সাম্প্রদায়িকতার সাম্প্রদায়িকতার বিষদাঁত, দেখে নেবো এক হাত’ ইত্যাদি স্লোগান দেন।

. অপরদিকে সাম্প্রদায়িক হামলার নিন্দা জানিয়ে ‘রুখে দাও ধর্ম সন্ত্রাস’ শিরোনামে টিএসসিতে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় চলচ্চিত্র সংসদ এবং স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে কবিতার মাধ্যমে প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আবৃত্তি সংসদ।

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

ফ্রান্সের প্রযুক্তিতে বদলাবে এয়ার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা

বাসের কনডাক্টর থেকে ৫০ কোটি টাকার মালিক

আপডেট : ২৩ অক্টোবর ২০২১, ১৯:৪৮

কখনও মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান, কখনও হোমল্যান্ড সিকিউরিটি অ্যান্ড সার্ভিসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হিসেবে নিজেকে পরিচয় দিতো শাহিরুল। চাকরির লোভ দেখিয়ে হাতিয়ে নিতো টাকা। অবশেষে শনিবার (২৩ অক্টোবর) ধরা পড়লো র‌্যাবের হাতে। তাকে গ্রেফতারের সময় জব্দ করা হয় তিনটি বিদেশি পিস্তল, একটি শটগান একটি এয়ার রাইফেল, ২৩৭ রাউন্ড গুলি, পাঁচটি ম্যাগাজিন ও চাকরির ভুয়া আবেদনপত্রের ফরম, ভুয়া মানি রিসিট, বিভিন্ন ব্যাংকের এটিএম কার্ড ও মোবাইল ফোন।

শনিবার সকালে রাজধানীর বনশ্রী থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বিকালে কাওরানবাজারের র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৪ এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক।

তিনি বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানা গেছে, শাহিরুল ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সৌখিন পরিবহনে কনডাক্টরের কাজ করতো। ২০০৩ সালে সিকিউরিটি সার্ভিসের দালালির কাজ শুরু করে। চাকরি দেওয়ার নামে লোকজনের সঙ্গে প্রতারণা শুরু করে তখন থেকে। ২০১৪ সালে নিজেই হোমল্যান্ড সিকিউরিটি অ্যান্ড গার্ড সার্ভিসেস নামে একটি নামসর্বস্ব প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলে। নিজেকে সেটার এমডি পরিচয় দিতো। প্রতারণা করতে নিজেকে মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানও বলতো মাঝে মাঝে।

অতিরিক্ত ডিআইজি মোজাম্মেল হক জানান, সুযোগ পেলেই শাহিরুল বিভিন্ন গণ্যমান্য ব্যক্তির সঙ্গে ছবি তুলে রাখতো। সেই ছবি দেখিয়েও চলতো প্রতারণা। সম্প্রতি আউটসোর্সিং-এর কাজে কর্মী নিয়োগের কথা বলেও প্রতারণার জাল বোনে। প্রশিক্ষণের নামে অনেকের কাছ থেকে সম্প্রতি ১০ লাখ টাকার মতো হাতিয়েছে প্রতারক শাহিরুল।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আরও জানা গেছে, শাহিরুলের রাজধানীতে দুটি বাড়ি রয়েছে। দুটি ফ্ল্যাটও রয়েছে। রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় আছে ২৩ কাঠা জমি। দুটি দামি গাড়িও আছে। সব মিলিয়ে তার কাছে ৫০ কোটি টাকা মূল্যের সম্পদের তথ্য পেয়েছে র‌্যাব।

/আরটি/এফএ/

সম্পর্কিত

সৌদিতে বাংলাদেশির কারাদণ্ড: আইনজীবী নিয়োগে টাকা দিচ্ছে কল্যাণ বোর্ড

সৌদিতে বাংলাদেশির কারাদণ্ড: আইনজীবী নিয়োগে টাকা দিচ্ছে কল্যাণ বোর্ড

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িক বিশৃঙ্খলার প্রতিবাদে সারা দেশে কর্মসূচি অব্যাহত

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে নারীবাদী সংগঠনের মশাল সমাবেশ

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

একশনএইডের ৩৮ বছর পথচলা উপলক্ষে দিনব্যাপী প্রদর্শনী 

সর্বশেষসর্বাধিক
quiz

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

উপকূলীয় অঞ্চলে ‘ওয়ান টাইম প্লাস্টিক’ বন্ধে বিশেষ উদ্যোগ

উপকূলীয় অঞ্চলে ‘ওয়ান টাইম প্লাস্টিক’ বন্ধে বিশেষ উদ্যোগ

অভিন্ন প্ল্যাটফর্মে ডিজিটাল পশুর হাটের যাত্রা শুরু

অভিন্ন প্ল্যাটফর্মে ডিজিটাল পশুর হাটের যাত্রা শুরু

টেকসই বেড়িবাঁধের অভাবে ঝুঁকির মুখে উপকূলের জীবন-জীবিকা

টেকসই বেড়িবাঁধের অভাবে ঝুঁকির মুখে উপকূলের জীবন-জীবিকা

সাগরে বসেই অনলাইনে মাছ বিক্রি করছেন জেলেরা

ডিজিটাল উপকূল-৭সাগরে বসেই অনলাইনে মাছ বিক্রি করছেন জেলেরা

উপকূলে অনলাইনে মানবসেবা

ডিজিটাল উপকূল-৬উপকূলে অনলাইনে মানবসেবা

ইন্টারনেটের আওতায় মহেশখালীর ৫০ হাজার মানুষ

ডিজিটাল উপকূল-৫ইন্টারনেটের আওতায় মহেশখালীর ৫০ হাজার মানুষ

দুর্গম চরে মিলছে ডিজিটাল তথ্যসেবা কেন্দ্রের সেবা

ডিজিটাল উপকূল-৪দুর্গম চরে মিলছে ডিজিটাল তথ্যসেবা কেন্দ্রের সেবা

উপকূলের ঘরে ঘরে ডিজিটাল ব্যাংক

ডিজিটাল উপকূল-৩উপকূলের ঘরে ঘরে ডিজিটাল ব্যাংক

সর্বশেষ

ক্যাম্পের দুষ্কৃতকারীরা রোহিঙ্গাদেরই অংশ

ক্যাম্পের দুষ্কৃতকারীরা রোহিঙ্গাদেরই অংশ

সামরিক প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করতে মোদিকে চিঠি

সামরিক প্রশিক্ষণ বাধ্যতামূলক করতে মোদিকে চিঠি

ভোটের পর রাজ্যের মর্যাদা ফিরে পাবে কাশ্মির: অমিত শাহ

ভোটের পর রাজ্যের মর্যাদা ফিরে পাবে কাশ্মির: অমিত শাহ

ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশ বিশ্বে নাম্বার ওয়ান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ধর্মীয় সম্প্রীতিতে বাংলাদেশ বিশ্বে নাম্বার ওয়ান: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

পূজামণ্ডপে কোরআন রাখার ঘটনা সাজানো: ইনু

© 2021 Bangla Tribune