X
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৮

সেকশনস

বদলি আসামির সাজাখাটার ঘটনায় ৩ আইনজীবীকে তলব

আপডেট : ০৭ জুন ২০২১, ১৩:৩৮

হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত হয়ে আসামি কুলসুম আক্তার কুলসুমী নামের এক নারীর পরিবর্তে সাজাভোগকারী মিনুকে মুক্তির পাশাপাশি তিন আইনজীবীকে তলব করেছেন হাইকোর্ট। তারা হলেন- চট্রগ্রাম নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট এমএ নাসের, অ্যাডভোকেট নুরুল আনোয়ার এবং অ্যাডভোকেট বিবেকানন্দ চৌধুরী।

কুলসুমার পরিবর্তে মিনুকে কারাগারে পাঠানোর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা থাকায় তাদের তলব করা হয়েছে। ওই তিন আইনজীবীর পাশাপাশি চট্টগ্রাম জজ কোর্টের ক্লার্ক সৌরভকেও আগামী ২৮ জুন তলব করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে আদালত মামলার মূল আসামিকে গ্রেফতারের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

এ সংক্রান্ত মামলার শুনানি শেষে সোমবার (৭ জুন) বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এসব আদেশ দেন।

আদালতে মিনুর পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো. শিশির মনির। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল এএম আমিন উদ্দিন ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ।

প্রসঙ্গত, কারাগারের একটি বালাম বই দেখতে গিয়ে মিনুর সাজাখাটার বিষয়টি উঠে আসে। সেখানে দেখা যায়, একজনের পরিবর্তে যাবজ্জীবন সাজা খাটছেন আরেক নারী। পরবর্তীতে বিষয়টি আদালতের নজরে আনা হলে এ মামলার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হাইকোর্টে পাঠানোর আদেশ দেন চট্টগ্রামের আদালত।

কোনওকিছুর মিল না থাকায় একজনের স্থলে আরেকজন জেলখাটার বিষয়টি আদালতের নজরে আনেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. শফিকুল ইসলাম খান।

মহানগর দায়রা জজ আদালতের অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউট (পিপি) মো. নোমান চৌধুরী বলেন, আদালতে সংরক্ষিত ছবি সম্বলিত নথিপত্র দেখে কুলসুম আক্তার কুলসুমী আর মিনু এক নয় বলে নিশ্চিত হয়েছেন। যেহেতু ইতোমধ্যে এ মামলার রায়ের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করা হয়েছে তাই মামলার উপ-নথি দ্রুত সময়ের হাইকোর্টে পাঠানো হয়।

হত্যা মামলায় আদালত যাবজ্জীবনসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক বছরের কারাদণ্ড দেন কুলসুম আক্তার কুলসুমীকে। কিন্তু আদালতে আত্মসমর্পণ করে জেল খাটছেন মিনু নামে এক নারী। নামের মিল না থাকার পরও কুলসুম আক্তার কুলসুমীর বদলে মিনু প্রায় ৩ বছরের অধিক সময় ধরে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন।

পরে গত ২৩ মার্চ মিনুর নথি হাইকোর্টে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভুঁঞার আদালত এ আদেশ দেন। পরে মামলার নথি হাইকোর্টে এলে এ বিষয়ে শুনানি হয়।

 

 

/বিআই/এনএইচ/

সম্পর্কিত

গুলশানে ব্যবসায়ীর বহুতল ভবনের নিচে পড়েছিল স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

গুলশানে ব্যবসায়ীর বহুতল ভবনের নিচে পড়েছিল স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

রোহিঙ্গা তরুণীর পরিচয়পত্র তৈরি, সাবেক কাউন্সিলরসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

রোহিঙ্গা তরুণীর পরিচয়পত্র তৈরি, সাবেক কাউন্সিলরসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা

নাসির ও অমির বিরুদ্ধে মাদক আইনেও মামলা হচ্ছে

নাসির ও অমির বিরুদ্ধে মাদক আইনেও মামলা হচ্ছে

অন্তরঙ্গ সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করে নারীদের ফাঁদে ফেলতো আতিক

অন্তরঙ্গ সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করে নারীদের ফাঁদে ফেলতো আতিক

যাত্রাবাড়ীতে চার মাছ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

যাত্রাবাড়ীতে চার মাছ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

৪৮ হাজার প্রাথমিক শিক্ষকের আপিল

৪৮ হাজার প্রাথমিক শিক্ষকের আপিল

অবিলম্বে আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের সন্ধান চায় অ্যামনেস্টি

অবিলম্বে আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের সন্ধান চায় অ্যামনেস্টি

গ্রেফতারের আগে যা বললেন নাসির

গ্রেফতারের আগে যা বললেন নাসির

৪৯ মামলার ‘গায়েবি বাদী’কে খুঁজতে সিআইডিকে নির্দেশ হাইকোর্টের

৪৯ মামলার ‘গায়েবি বাদী’কে খুঁজতে সিআইডিকে নির্দেশ হাইকোর্টের

মামলার এজাহারে যা বললেন পরীমণি

মামলার এজাহারে যা বললেন পরীমণি

নাসির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা

নাসির মাহমুদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পরীমণির মামলা

ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে আরও ১৫০১ হাজতির জামিন

ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে আরও ১৫০১ হাজতির জামিন

সর্বশেষ

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত কানাডার সেই হামলাকারী

সন্ত্রাসবাদে অভিযুক্ত কানাডার সেই হামলাকারী

গোল মিসের মহড়ায় পয়েন্ট হারালো স্পেন

গোল মিসের মহড়ায় পয়েন্ট হারালো স্পেন

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি,  যুক্তরাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার হবে দেরিতে

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ঝুঁকি, যুক্তরাজ্যে লকডাউন প্রত্যাহার হবে দেরিতে

অবশেষে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন’

পরীমণিকে ধর্ষণ-হত্যাচেষ্টাঅবশেষে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ‘তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন’

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

ইয়াবা-স্বর্ণ ও টাকাসহ তিন রোহিঙ্গা গ্রেফতার

বায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

অপার সম্ভাবনায় গুরুত্ব কমবায়ু শক্তিকে উদযাপনের দিন আজ

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

স্পর্শকাতর সিদ্ধান্তের মুখে ইসরায়েলের নতুন সরকার

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

৩২ লাখ টাকা সহায়তা পেলেন মোংলা বন্দরের শ্রমিক-কর্মচারীরা

ইউরোর ৬১ বছরের ইতিহাস পাল্টে দিলেন পোলিশ গোলকিপার

ইউরোর ৬১ বছরের ইতিহাস পাল্টে দিলেন পোলিশ গোলকিপার

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

মতিঝিলে ছিনতাই চক্রের দুই সদস্য গ্রেফতার

সম্মুখ সারির যোদ্ধাদের কাজী এন্টারপ্রাইজ’র সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

করোনা মোকাবিলাসম্মুখ সারির যোদ্ধাদের কাজী এন্টারপ্রাইজ’র সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ

একসঙ্গে চার মেয়ে সন্তানের জন্ম

একসঙ্গে চার মেয়ে সন্তানের জন্ম

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গুলশানে ব্যবসায়ীর বহুতল ভবনের নিচে পড়েছিল স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

গুলশানে ব্যবসায়ীর বহুতল ভবনের নিচে পড়েছিল স্ত্রীর রক্তাক্ত লাশ

নাসির ও অমির বিরুদ্ধে মাদক আইনেও মামলা হচ্ছে

নাসির ও অমির বিরুদ্ধে মাদক আইনেও মামলা হচ্ছে

অন্তরঙ্গ সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করে নারীদের ফাঁদে ফেলতো আতিক

অন্তরঙ্গ সম্পর্কের ভিডিও ধারণ করে নারীদের ফাঁদে ফেলতো আতিক

যাত্রাবাড়ীতে চার মাছ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

যাত্রাবাড়ীতে চার মাছ ব্যবসায়ীকে জরিমানা

৪৮ হাজার প্রাথমিক শিক্ষকের আপিল

৪৮ হাজার প্রাথমিক শিক্ষকের আপিল

অবিলম্বে আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের সন্ধান চায় অ্যামনেস্টি

অবিলম্বে আবু ত্ব-হা মুহাম্মদ আদনানের সন্ধান চায় অ্যামনেস্টি

গ্রেফতারের আগে যা বললেন নাসির

গ্রেফতারের আগে যা বললেন নাসির

৪৯ মামলার ‘গায়েবি বাদী’কে খুঁজতে সিআইডিকে নির্দেশ হাইকোর্টের

৪৯ মামলার ‘গায়েবি বাদী’কে খুঁজতে সিআইডিকে নির্দেশ হাইকোর্টের

মামলার এজাহারে যা বললেন পরীমণি

মামলার এজাহারে যা বললেন পরীমণি

ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে আরও ১৫০১ হাজতির জামিন

ভার্চুয়াল আদালতের মাধ্যমে আরও ১৫০১ হাজতির জামিন

© 2021 Bangla Tribune