X
মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই ২০২১, ১২ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

আ.লীগ নেতাদের অস্ত্রের মহড়া, মুখ খুলছেন না গণপূর্তের কর্মকর্তারা

আপডেট : ১৩ জুন ২০২১, ০২:১৭
image

পাবনায় গণপূর্ত বিভাগের কার্যালয়ে অস্ত্র নিয়ে মহড়া দিয়েছেন আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা। পেশায় ঠিকাদার, আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতারা কেন এমন মহড়া দিয়েছেন সে বিষয়ে মুখ খুলছেন না গণপূর্ত বিভাগের কর্মকর্তারা। এমনকি থানায় অভিযোগও দেননি তারা।

সম্প্রতি ঘটে যাওয়া এ ঘটনায় গণপূর্ত বিভাগে কর্মরতদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। লিখিত অভিযোগ না পেলেও বিষয়টি তদন্ত করছে সরকারের একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা ও পুলিশ।

গণপূর্ত বিভাগ সূত্র জানায়, সম্প্রতি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক হাজী ফারুক, পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ আর খান মামুন এবং জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য শেখ লালুর নেতৃত্বে প্রায় ২৫-৩০ জনের একটি দল একাধিক আগ্নেয়াস্ত্র হাতে গণপূর্ত ভবনে আসেন। এ সময় হেলমেট পরিহিত অবস্থায় ছিলেন অনেকেই। তারা বিভিন্ন কক্ষে প্রবেশ করে নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারুল আজিমের খোঁজ করেন। একপর্যায়ে তারা উপসহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমানের কক্ষে গিয়ে তার টেবিলের ওপর আগ্নেয়াস্ত্র রেখে অপেক্ষা করতে থাকেন। কিছুক্ষণ পর তারা বের হয়ে যান।

এ ঘটনার পর বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার লোকজন এসে অফিস থেকে ওই দিনের সিসিটিভি ফুটেজ সংগ্রহ করে নিয়ে যান। এরই মধ্যে প্রভাবশালী ঠিকাদার ও রাজনৈতিক ব্যক্তিদের চাপে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়। সর্বশেষ গত সপ্তাহে জেলা আইন কমিটির সভায় বিষয়টি উত্থাপন করা হলে জানাজানি হয়ে যায়।

এদিকে, সাংবাদিকদের হাতে আসা সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায়, ৬ জুন দুপুর ১২টা দুই মিনিটে গোলাপি পাঞ্জাবি ও টুপি পরিহিত আওয়ামী লীগ নেতা হাজী ফারুক আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে জামার হাতা গুটিয়ে গণপূর্ত ভবনে প্রবেশ করছেন। তার পেছনে রয়েছেন হাফশার্ট ও মাস্ক পরিহিত অবস্থায় শর্টগান হাতে পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ আর খান মামুন ও সাদাকালো টি-শার্ট পরিহিত যুবলীগ নেতা শেখ লালু। অস্ত্র নিয়ে তারা গণপূর্ত ভবনের বিভিন্ন কক্ষে প্রবেশ করেন। বাইরে সশস্ত্র সহযোগীরা অপেক্ষায় থাকেন। ১২টা ১২ মিনিটে তারা অস্ত্র প্রদর্শন করেই বের হয়ে চলে যান।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পাবনা গণপূর্ত বিভাগের কয়েকজন কর্মকর্তা জানান, বিভিন্ন সময়ে স্থানীয় সন্ত্রাসীদের নিয়ে প্রভাব বিস্তার করে উন্নয়নকাজের কোটি কোটি টাকার টেন্ডার ভাগিয়ে নেন ক্ষমতাসীন দলের ঠিকাদাররা। তাদের দাপটে অনেক পেশাদার ঠিকাদার গণপূর্ত বিভাগে টেন্ডার জমা দিতে পারেন না। টেন্ডার নিয়ে তাদের মধ্যে বিভিন্ন গ্রুপের দ্বন্দ্ব রয়েছে। পাশাপাশি গণপূর্ত বিভাগের প্রকৌশলী ও কর্মকর্তাদের নিজেদের পক্ষে রাখতে নানাভাবে চাপ প্রয়োগ করেন তারা। কিছুদিন ধরে প্রভাব ও ক্ষমতার দাপট দেখাতে তারা বিভিন্ন সময় শোডাউন, শক্তি প্রদর্শন শুরু করছেন। তবে অস্ত্র নিয়ে মহড়ার ঘটনাটি প্রথম। এ নিয়ে চরম আতঙ্কে আছেন গণপূর্ত বিভাগে কর্মরতরা।

গণপূর্ত বিভাগের পাবনার উপসহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান বলেন, ঠিকাদাররা আমার কক্ষে এসেছিলেন। আমার টেবিলের ওপর অস্ত্র রেখে নির্বাহী প্রকৌশলীর কাছে এসেছেন বলে জানান। খারাপ আচরণ বা গালাগালি করেননি তারা।

বিল কিংবা টেন্ডার নিয়ে ক্ষোভ থেকেই তাদের এমন মহড়া কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, পাবনায় নতুন যোগদান করেছি। এসব বিষয়ে আমার জানা নেই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারুল আজিম বলেন, ঘটনার সময় আমি অফিসের বাইরে ছিলাম। তবে সিসিটিভি ফুটেজে অস্ত্র হাতে অনেকেই এসেছেন দেখেছি। তারা আমাকে সরাসরি কিংবা ফোনে কোনও হুমকি দেননি, কথাও হয়নি। তাই থানায় লিখিত অভিযোগ দিইনি।

অস্ত্র নিয়ে গণপূর্ত ভবনে প্রবেশের কারণ জানতে চাইলে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক সম্পাদক হাজী ফারুক বলেন, আমি গণপূর্ত বিভাগের ঠিকাদার নই। বিলসংক্রান্ত বিষয়ে কথা বলতে মামুন ও লালু আমাকে সেখানে নিয়ে যান। তবে এভাবে যাওয়া আমাদের উচিত হয়নি।

পৌর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ আর খান মামুন বলেন, নিজের নিরাপত্তার স্বার্থে বৈধ অস্ত্রটি নিয়ে আমি ব্যবসায়িক কাজে ইটভাটায় যাচ্ছিলাম। যাওয়ার পথে নির্বাহী প্রকৌশলী আনোয়ারুল আজিমের সঙ্গে কথা বলতে গণপূর্ত বিভাগে যাই। কিন্তু তিনি না থাকায় আমরা ফিরে আসি। তাকে ভয় দেখানোর জন্য অস্ত্র প্রদর্শন করা হয়নি। প্রতিপক্ষ ঠিকাদাররা বিষয়টিকে অন্যদিকে নেওয়ার চেষ্টা করছেন।

ঠিক একই ধরনের বক্তব্য দিয়ে যুবলীগ নেতা শেখ লালু বলেন, ভুলবশত আমরা অস্ত্র নিয়ে গণপূর্ত ভবনে ঢুকে পড়েছিলাম। পরে দ্রুত সময়ের মধ্যে চলে এসেছি।

তবে গণপূর্ত ভবনে অস্ত্রের মহড়ার ঘটনায় শহরজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় সরকার বিভাগের এক প্রকৌশলী বলেন, আওয়ামী লীগের নাম ভাঙিয়ে পাবনায় চিহ্নিত কিছু ঠিকাদার সব দফতরের টেন্ডার নিয়ন্ত্রণ করেন। জোর করে কাজ ভাগিয়ে নেওয়া, নিম্নমানের কাজ করাসহ এমন কোনও অনিয়ম নেই; যা তারা করেন না। তাদের কথামতো না চললেই মারধরের শিকার হন প্রকৌশলীরা। এর আগেও হাজী ফারুক প্রকৌশলীদের মারধর করেছেন। জেলা হিসাব রক্ষণ অফিসের সুপারিনটেনডেন্টকে লাঞ্ছিত করেছেন। সেসব ঘটনার বিচার না করে জোরপূর্বক মীমাংসা করা হয়েছে। এ কারণেই তাদের দুঃসাহস বেড়ে গেছে।

পাবনার পুলিশ সুপার (এসপি) মুহিবুল হক খান বলেন, বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। অস্ত্র আইনের শর্ত ভঙ্গ হয়েছে কি-না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এ বিষয়ে পাবনার জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ বলেন, আমি ঘটনাটি শুনেছি। পুলিশ বাহিনী বিষয়টি তদন্ত করছে। তাদের সুপারিশ অনুযায়ী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

/এএম/ /এফআর/

সম্পর্কিত

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

বগুড়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

বগুড়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ৪০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ৪০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন

খুলনার চার হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ১০:৩৬

খুলনার সরকারি-বেসরকারি চার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ও উপসর্গ নিয়ে ১৩ জন মারা গেছেন। এর মধ্যে ১১ জন করোনা পজিটিভ ও দুই জন উপসর্গের রোগী ছিলেন।

শহীদ শেখ আবু নাসের বিশেষায়িত হাসপাতাল করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. প্রকাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালে ৩৯ জন করোনা রোগী ভর্তি আছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন চার জন, সুস্থ হয়েছেন একজন। মারা গেছেন একজন। 

২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিট মুখপাত্র ডা. কাজী আবু রাশেদ জানান, সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৩৫ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন আট জন। ছাড়পত্র নিয়েছেন তিন জন। মারা গেছেন তিন জন।

খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের মুখপাত্র ডা. সুহাস রঞ্জন হালদার জানান, সকাল ৮টা পর্যন্ত হাসপাতালে ১২৪ জন করোনা ও উপসর্গের রোগী ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন আট জন। ছাড়পত্র নিয়েছেন সাত জন। মারা গেছেন পাঁচ রোগী। এর মধ্যে তিন জন করোনা পজিটিভ ও দুই জন করোনা উপসর্গের রোগী।

গাজী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের কোভিড ইউনিট মুখপাত্র ডা. গাজী মিজানুর রহমান জানান, সকাল ৯টা পর্যন্ত এখানে ৭৩ জন করোনা পজিটিভ ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি ১১ জন। সুস্থ হয়েছেন আট জন। মারা গেছেন দুই জন। 

খুলনা সিটি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিট মুখপাত্র জানান, সকাল ৮টা পর্যন্ত এখানে ৬৭ জন করোনা পজিটিভ ভর্তি রয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ১০ জন। আর ছাড়পত্র নিয়েছেন আট জন। হাসপাতালে কেউ মারা যাননি।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

আশুলিয়ায় স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ১০:৩৬

সাভারের আশুলিয়ায় পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রীকে হত্যার পর সাব্বির আলী (৪৫) নামের এক ব্যক্তি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন। সোমবার (২৬ জুলাই) নয়ারহাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে পুলিশ। 

নিহতের নাম রেবা বেগম (৪০)। তিনি ঝালকাঠি জেলার কাঠালিয়া থানার আমুয়া এলাকার বাসিন্দা আব্দুর রশিদ মোল্লার মেয়ে। নয়ারহাট এলাকায় স্বামীর সঙ্গে ভাড়া বাসায় থাকতেন। এ ঘটনায় সাব্বির আলীকে আটক করে পুলিশি প্রহরায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, নিরাপত্তা প্রহরী সাব্বির আলী তার পরিবারের সদস্যের নিয়ে নয়ারহাট এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থাকতেন। সংসারে অভাব-অনটনের কারণে ঝগড়া-বিবাদ লেগেই থাকতো। সোমবার সকালে তাদের মধ্যে বাগবিতণ্ডার এক পর্যায়ে সাব্বির কাঁচি দিয়ে তার রেবার গলা গলায় আঘাত করেন। এতে গুরুতর জখম হন তিনি। পরে সাব্বির নিজেও আত্মহত্যার চেষ্টা করলে স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে আশুলিয়ায় গণস্বাস্থ্য মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়। এরপর চিকিৎসক রেবাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে আশুলিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এছাড়া সাব্বির আলীকে পুলিশি প্রহরায় চিকিৎসা দেওয়া হয় ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে আশুলিয়া থানার উপপরিদর্শক (এসআই) হাছিব সিকদার বলেন, নিহতের লাশ রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি মামলা করা হবে বলেও জানান তিনি।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ফেরিঘাট সরানো পদ্মা সেতুর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ: প্রকৌশলী

ফেরিঘাট সরানো পদ্মা সেতুর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ: প্রকৌশলী

সিলিন্ডারের দাম নিয়ে বাগবিতণ্ডায় দোকানে আগুন, যুবকের মৃত্যু

সিলিন্ডারের দাম নিয়ে বাগবিতণ্ডায় দোকানে আগুন, যুবকের মৃত্যু

কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

‘জিন ছাড়াতে’ গলা টিপে ধরায় কৃষকের মৃত্যু!

‘জিন ছাড়াতে’ গলা টিপে ধরায় কৃষকের মৃত্যু!

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০৯:৫৪

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্ত আরও ১০ জন মারা গেছেন। একই সময় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন ১১ জন। 

সোমবার (২৬ জুলাাই) সকাল ৮টা থেকে মঙ্গলবার (২৭ জুলাাই) সকাল ৮টার মধ্যে করোনা ইউনিটে এই ২১ জন মারা গেছেন। এ নিয়ে চলতি মাসে (১ জুলাই থেকে ২৭ জুলাই সকাল পর্যন্ত) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৪৭৪ জন। এর আগে জুন মাসে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ৪০৫ জন মারা যান।

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী। তিনি আরও জানান, নতুন মারা যাওয়াদের মধ্যে রাজশাহীর সাত জন, নাটোরের তিন জন, নওগাঁর চার জন, পাবনার পাঁচ জন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও ঝিনাইদহের একজন করে রোগী রয়েছেন। এদের মধ্যে ১১ জন পুরুষ এবং ১০ জন নারী।

মৃতদের মধ্যে ১১ জনের বয়স ৬১ বছরের ওপরে। বাকিদের মধ্যে ৫১ থেকে ৬০ বছরের মধ্যে তিন জন, ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সের মধ্যে তিন জন, ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সের মধ্যে চার জন রোগী রয়েছেন।

হাসপাতালের পরিচালক শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা ইউনিটে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ৫৫ জন। একই সময় সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৪০ জন। 

মঙ্গলবার সকাল ৮টা পর্যন্ত করোনা ইউনিটের ৫১৩ বেডের বিপরীতে ভর্তি আছেন ৩৯৯ জন। এদের মধ্যে আইসিইউতে রয়েছেন ২০ জন।

করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ৩৯৯ জনের মধ্যে ১৭৮ জন করোনা পজিটিভ। উপসর্গ নিয়ে ভর্তি রয়েছেন ১৭৭ জন। এছাড়াও করোনামুক্ত হয়েও পরবর্তী স্বাস্থ্য জটিলতায় চিকিৎসাধীন আছেন ৪৪ জন।

রামেক হাসপাতাল পরিচালক জানান, সোমবার রাতে দুটি ল্যাবে রাজশাহী জেলার ৪১৩ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এতে ৯৩ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। শনাক্তের হার ২২ দশমিক ৫২ শতাংশ। এর আগের দিন রবিবার শনাক্তের হার ছিল ৩০ দশমিক ৭৮ শতাংশ এবং গত শনিবার ৪৫ দশমিক শূন্য ৭ শতাংশ।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

খুলনার চার হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু

খুলনার চার হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০৯:৪৩

ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ডেডিকেটেড করোনা ইউনিটে মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে। সোমবার (২৬ জুলাই) হাসপাতালে সর্বোচ্চ ২৩ জন মারা গেলেও গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কমেছে। আজ ১৯ জনের মৃত্যুর তথ্য জানানো হয়। এরমধ্যে পাঁচ জন করোনা পজিটিভ ও বাকি ১৪ জন উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। 

করোনায় মারা যাওয়াদের মধ্যে ময়মনসিংহের তিন জন এবং নেত্রকোনা ও জামালপুরের একজন করে রোগী মারা গেছেন। এছাড়া করোনা উপসর্গ নিয়ে ময়মনসিংহের ছয় জন, জামালপুরের তিন, নেত্রকোনার দুই, গাজীপুর, কিশোরগঞ্জ ও টাঙ্গাইলের একজন করে রোগী মারা গেছেন। 

১৯ জন মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকাল পারসন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন। তিনি আরও জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে ৭৬ জন রোগী ভর্তি হয়েছেন। বর্তমানে হাসপাতালের  করোনা ইউনিটে ৪৩৮ জন এবং আইসিইউতে ১৯ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছেন। এছাড়া ৭৯ জন রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। 

এদিকে জেলা সিভিল সার্জন ডা. নজরুল ইসলাম জানান, একদিনে আরও ১৩০০টি নমুনা পরীক্ষায় ৩৩২ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। বর্তমানে করোনা শনাক্ত ব্যক্তির সংখ্যা হচ্ছে ১৩ হাজার ১৮৭ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৯ হাজার ৮৯৯ জন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

ভালো নেই নেত্রকোনার মিলন বয়াতি

ভালো নেই নেত্রকোনার মিলন বয়াতি

ভালো নেই নেত্রকোনার মিলন বয়াতি

আপডেট : ২৭ জুলাই ২০২১, ০৯:৩৫

করোনাকালে অভাব-অনটনের কারণে মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েন নেত্রকোনার বিশিষ্ট পালাকার মিলন বয়াতি। করোনা পরিস্থিতির আগে মাঝে মধ্যে বিভিন্ন জায়গায় অনুষ্ঠান করতে পারতেন। সম্মানি হিসেবে যা পেতেন তাই দিয়েই চলতো সংসার। এখন সেই পথও বন্ধ। এ অবস্থায় সম্প্রতি তিনি শারীরিকভাবেও অসুস্থ হয়ে পড়েন। গত ১৫ জুলাই রাত থেকে তার ডান হাত ও ডান পা অনুভূতিহীন হয়ে যায়। আর্থিকভাবে চরম ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় তিনি চিকিৎসাটাও চালিয়ে যেতে পারছেন না। 

জানা যায়, নেত্রকোনার সদর উপজেলার কালিয়ারা গাবরাগাতি ইউনিয়নের ছেওপুর গ্রামে জন্ম মিলন বয়াতির। শৈশব থেকেই নেত্রকোনার বিভিন্ন গ্রামগঞ্জে গান বাজনা করে বেড়িয়েছেন তিনি। বর্তমানে অসুস্থতার কারণে তিনি কেন্দুয়ার নওপাড়ায় মেয়ের বাড়িতে অবস্থান করছেন।

মিলন বয়াতি বিশেষ সুনামের সঙ্গে নেত্রকোনাসহ সারা দেশে পালা গানের নান্দনিক উপস্থাপনার মাধ্যমে ভূয়সী প্রশংসা কুড়িয়েছেন। সারা জীবন লোকসংস্কৃতির চর্চার মাধ্যমে বেঁচে থাকতে চান তিনি। কোনোকালেই অর্থের প্রতি ঝোঁক ছিল না এই শিল্পীর। নতুন গান বাঁধা ও পালা তৈরির মাধ্যমে নতুন সৃষ্টি নিয়ে মানুষের সামনে হাজির হতে পারাই ছিল তার চরম আনন্দ। 

স্থানীয় সাংস্কৃতিক ব্যক্তিরা জানান, এই গুণী শিল্পীকে বাঁচিয়ে রাখতে পারলে আবারও দুর্দান্ত দাপট নিয়ে মঞ্চে ফিরবেন। মানুষকে বিমোহিত করে নির্মল আনন্দে দেবেন। তার বর্তমান অসুস্থতা থেকে উত্তরণের জন্য উন্নত চিকিৎসার প্রয়োজন। সমাজের সক্ষম ও বিত্তশালী মানুষেরা যদি যার যার সামর্থ্য নিয়ে এই শিল্পীর পাশে দাঁড়ান, তাহলে আরও ভালো কিছু সৃষ্টি মাধ্যমে দেশের লোকসংস্কৃতিকে আরও সমৃদ্ধ করবেন মিলন বয়াতি, এমনটাই তাদের ধারণা। 

 মিলন বয়াতির অসুস্থতার খবর পেয়ে তার প্রতি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন নেত্রকোনা জেলা প্রশাসক কাজী মো. আবদুর রহমান। তিনি তাৎক্ষণিকভাবে ১০ হাজার টাকা আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন। 

জেলা প্রশাসক বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে মিলন বয়াতিকে চিকিৎসাসহ অন্যান্য সহযোগিতা করা হয়েছে। সমাজের বিত্তবানরা এগিয়ে এলে এই শিল্পী আরও অনেদকিন শিল্প-সংস্কৃতির জন্য কাজ করে যেতে পারবেন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

করোনায় চট্টগ্রামে রেকর্ড মৃত্যু, শনাক্ত ১৩১০ জন

করোনায় চট্টগ্রামে রেকর্ড মৃত্যু, শনাক্ত ১৩১০ জন

সর্বশেষ

খুলনার চার হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু

খুলনার চার হাসপাতালে ১৩ মৃত্যু

আশুলিয়ায় স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

আশুলিয়ায় স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

টিভিতে আজ

টিভিতে আজ

ঈদের আগের লকডাউনে বেশি কঠোর ছিল পুলিশ

ঈদের আগের লকডাউনে বেশি কঠোর ছিল পুলিশ

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

ময়মনসিংহ মেডিক্যালে আরও ১৯ মৃত্যু

ভালো নেই নেত্রকোনার মিলন বয়াতি

ভালো নেই নেত্রকোনার মিলন বয়াতি

ফেরিঘাট সরানো পদ্মা সেতুর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ: প্রকৌশলী

ফেরিঘাট সরানো পদ্মা সেতুর জন্য ঝুঁকিপূর্ণ: প্রকৌশলী

করোনায় চট্টগ্রামে রেকর্ড মৃত্যু, শনাক্ত ১৩১০ জন

করোনায় চট্টগ্রামে রেকর্ড মৃত্যু, শনাক্ত ১৩১০ জন

সব মামলায় জামিনের মেয়াদ আরও এক দফা বাড়লো

সব মামলায় জামিনের মেয়াদ আরও এক দফা বাড়লো

সরকার স্টার্টআপ সংস্কৃতি গড়ে তুলতে নতুন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে: পলক

সরকার স্টার্টআপ সংস্কৃতি গড়ে তুলতে নতুন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে: পলক

বেলগ্রেডে বঙ্গবন্ধুর ব্যস্ত দিন

বেলগ্রেডে বঙ্গবন্ধুর ব্যস্ত দিন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

রাজশাহী মেডিক্যালে ২৭ দিনে ৪৭৪ মৃত্যু

বগুড়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

বগুড়ায় পানিতে ডুবে ২ শিশুর মৃত্যু

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ৪০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন

রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের ৪০ শতাংশ কাজ সম্পন্ন

কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

উপহারের ঘর ভেঙে পুনর্নির্মাণ

উপহারের ঘর ভেঙে পুনর্নির্মাণ

গৃহকর্মীকে মারধরের অভিযোগে ব্যাংক কর্মকর্তা গ্রেফতার

গৃহকর্মীকে মারধরের অভিযোগে ব্যাংক কর্মকর্তা গ্রেফতার

খালাসের শেষ দিকে ২০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন

খালাসের শেষ দিকে ২০০ মেট্রিক টন অক্সিজেন

বগুড়ায় একদিনে ১৬ জনের মৃত্যু

বগুড়ায় একদিনে ১৬ জনের মৃত্যু

আমবাগানে নিয়ে শিক্ষার্থীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

আমবাগানে নিয়ে শিক্ষার্থীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ১

© 2021 Bangla Tribune