X
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

বিরোধ দূর করতে মাঠে আওয়ামী লীগ

আপডেট : ১৫ জুন ২০২১, ১৭:২৬

সারা দেশে আওয়ামী লীগের মাঠ পর্যায়ে সর্বস্তরের নেতায়-নেতায় দ্বন্দ্ব ও কোন্দল লেগেই আছে। এ কারণে তৃণমূলে সংগঠনে বিরাজ করছে লেজে-গোবরে অবস্থা। দলকে শক্তিশালী করতে অন্যতম অন্তরায় এই বিরোধ। তবে তৃণমূলের বিরোধের অবসান ঘটাতে  মিশন নিয়ে মাঠে নেমেছেন ক্ষমতাসীন দলের কেন্দ্রীয় নেতারা।

দায়িত্বশীল নেতারা বলছেন, ইতোমধ্যে চট্টগ্রাম দক্ষিণ ও কক্সবাজার জেলার সঙ্গে চকোরিয়া উপজেলার নেতাদের মধ্যকার কোন্দল দূর করা হয়েছে। ওই দুই সাংগঠনিক জেলার নেতারা বিরোধ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার অঙ্গীকার করেছেন কেন্দ্রীয় নেতাদের কাছে।  

সোমবার (১৪ জুন) কুমিল্লা উত্তর-দক্ষিণ জেলার নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেছেন দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা। বিকালে হবিগঞ্জ জেলার কমিটি নিয়ে আলোচনায় বসেন ওই জেলার স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় নেতারা।

মঙ্গলবার (১৫ জুন) নোয়াখালী ও ফেনী জেলার সব সংসদ সদস্যদের সঙ্গে বৈঠকে বসবেন কেন্দ্রের দায়িত্বশীলরা। এরপর বুধবার (১৬ জুন) চাঁদপুর ও লক্ষ্মীপুর জেলার  নেতাদের নিয়ে বৈঠক হওয়ার কথা। ২৪ জুন কুমিল্লা উত্তর জেলার বর্ধিত সভা, ২৬ জুন কুমিল্লা দক্ষিণ জেলার কর্মিসভা করবেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা।

আগামী ১৯ ও ২০ জুন চট্টগ্রামের ফটিকছড়ি ও চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগে বিদ্যমান বিরোধ মেটাতে স্থানীয় নেতাদের নিয়ে বৈঠকে বসবেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব উল আলম হানিফ ও সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব উল আলম হানিফ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘সংগঠনকে একেবারে তৃণমূল থেকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়ে দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা কাজ শুরু করেছেন।’ তিনি বলেন, ‘শুধু দূরত্ব বা বিরোধ দূর করাই এই কার্যক্রমের একমাত্র উদ্দেশ্য নয়। সংগঠনের সর্বস্তরে চাঙ্গাভাব ফিরিয়ে আনা ও শক্তিশালী করাও এর উদ্দেশ্য।’

দলীয় সূত্রে জানা গেছে,  মঙ্গলবার (১৫ জুন) পাবনা জেলা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ওই জেলার ৫ উপজেলার নেতাদের নিয়ে সকাল সাড়ে ১১টায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হেসেনসহ কেন্দ্রীয় নেতারা বৈঠকে বসবেন। সেখানেও বিরোধ দূর করে সংগঠনকে শক্তিশালী করার উপায় বের করা হবে। পাবনা জেলা-উপজেলার নেতারা  ইতোমধ্যে ঢাকায় এসেছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে এস এম কামাল হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘দল দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকার কারণে সংগঠনের অভ্যন্তরে পরস্পর বিরোধী গ্রুপ তৈরি হয়েছে। এরা দলের ক্ষতি করছে।  অধিকাংশ এলাকাই দেখা যায়, ব্যক্তি স্বার্থে দলাদলি।  প্রভাব বিস্তার করে রাখার বিরোধ। এগুলো দূর করে দলকে ঐক্যবদ্ধ করার পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে নেমেছি।’

ক্ষমতাসীন দলের সূত্র জানায়,  মূলত স্থানীয় সরকার নির্বাচনকে সামনে রেখে উদ্বিগ্ন আওয়ামী লীগ। তাই দ্রুত বিরোধ দূর করার কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। আওয়ামী লীগের নীতি-নির্ধারণী নেতারা বলেন, দলাদলি ও বিরোধ জিইয়ে রেখে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে কাঙ্ক্ষিত সুফল ঘরে তোলা কঠিন হবে। তাই যত দ্রুত  অভ্যন্তরীণ বিরোধ সামাল দেওয়া যাবে, দলের জন্য তা মঙ্গল হবে। এর ব্যত্যয় ঘটলে দলে বড় বিপর্যয় নেমে আসবে।  এসব দিক আমলে নিয়ে দলের সভাপতি শেখ হাসিনারও বিশেষ নির্দেশনা রয়েছে নেতাদের প্রতি। গত শনিবার (১২ জুন) আওয়ামী লীগের সংসদীয় বোর্ডের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতাদের বলেন, ‘দলের বিরোধ নিষ্পত্তি করা সম্ভব না হলে আগামী সংসদ নির্বাচনে এর মাশুল গুণতে হবে। দলকে ঐক্যবদ্ধ করলেই কেবল যেকোনও ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করা সম্ভব। ’

মাহাবুব উল আলম হানিফ বলেন, ‘দলের সর্বস্তরে ঐক্য ফেরাতে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা কাজ করছেন। তৃণমূলে সর্বস্তরের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের মূল লক্ষ্যই হলো— সংগঠনকে ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী করা।’

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ফারুক খান বলেন, ‘দীর্ঘদিন দল ক্ষমতায় থাকায় সাংগঠনিকভাবে জিমিয়ে পড়েছে। নেতায়- নেতায় বিরোধও রয়েছে বেশকিছু জেলায়। ৮ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা বিরোধপূর্ণ জেলা-উপজেলার নেতাদের সঙ্গে কথা বলে বিরোধ দূর করবেন।’

দলের সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগ) আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন বলেন, ‘এবার নতুন কৌশলে সাংগঠনিক কার্যক্রম শুরু করেছি। করোনা বিধি মেনে স্বল্প পরিসরে সংসদ সদস্যদের সঙ্গে বসছি। আবার জেলা-উপজলা ও পৌরসভার নেতাদের সঙ্গেও বসছি। তাতে করে সুফল আসছে।’

তিনি বলেন, ‘স্বল্প পরিসরে বৈঠকগুলোতে সবাই মন খুলে কথা বলতে পারেন। সমস্যার সমাধানও হয়ে যাচ্ছে।’ স্বপন বলেন, ‘নেতায়-নেতায় থাকা দূরত্ব দূর করাসহ সংগঠনকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যেই মূলত কার্যক্রম শুরু করেছি আমরা। নেতাদের ঢাকায় ডেকে পাঠানোর ক্ষেত্রে আমার ভেতরে একটা কনফিউশন কাজ করতো। পরে দেখা যায়, ওইসব নেতা ঢাকায় ডাকলে সম্মানিতবোধ করেন।’

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ১৪:৪২

এমপি-মন্ত্রীদের সম্পদের হিসাব নেওয়ার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিলে আমাদের কারও আপত্তি থাকার কথা নয়। আমি নিজেও সম্পদের হিসাব দিতে প্রস্তুত।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে দলটির ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটির উদ্যোগে বিভিন্ন প্রতিনিধিদের মাঝে করোনা সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শতভাগ সততা ও স্বচ্ছতার সাথে সরকার পরিচালনা করছেন। অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে তার সরকারের অবস্থান অত্যন্ত কঠোর এবং স্পষ্ট।

তিনি বলেন, এমপি-মন্ত্রীসহ কেউই জবাবদিহিতার ঊর্ধ্বে নয়, স্বাধীন সংস্থা হিসেবে দুদক যে কোনও অপরাধের বিরুদ্ধে তদন্ত করে ব্যবস্থা নিতে পারে। ইতোমধ্যে অনেক নেতাকর্মী এবং এমপির বিরুদ্ধে দুদক ব্যবস্থা নিয়েছে, সরকার কাউকে রক্ষা করতে যায়নি।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, দুর্নীতি, অনিয়মের বিরুদ্ধে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নিতে দুদকের উপর সরকারের পক্ষ থেকে কোন হস্তক্ষেপ বা বাধা নেই। সম্পদের হিসাব বিবরণী দাখিলে আমাদের কারও আপত্তি থাকার কথা নয়। আমি নিজেও সম্পদের হিসাব দিতে প্রস্তুত।

তিনি বলেন, প্রতি বছর আয়কর-রিটার্নের মাধ্যমেও সম্পদের হিসাব দেওয়া হয়। সে হিসাব বা ট্যাক্স প্রদানে গড়মিল থাকলে তাও দুদক তদন্ত করে দেখতে পারবে। 

সবাইকে শতভাগ মাস্ক পরিধান নিশ্চিত করার আহবান জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ভ্যাকসিনের চেয়েও কার্যকরী হচ্ছে মাস্ক। বাংলাদেশের যে পরিমাণ ভ্যাকসিন প্রয়োজন বিভিন্ন দেশ থেকে সে পরিমাণ ভ্যাকসিন পর্যায়ক্রমে আসবে। ভ্যাকসিন নিয়ে কোনও সংকট হবে না।

তিনি বলেন, সংকটে দায়িত্বশীল রাজনৈতিক দলের ভূমিকা পালনের চরম ব্যর্থতা আড়াল করতে মিথ্যাচারই বিএনপির এখন একমাত্র অবলম্বন। বিএনপি নেতারা জনগণের পাশে দাঁড়ানোর অক্ষমতা ঢাকতেই সরকারের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করছে।

ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটিকে একাধিক টিম করে বিভিন্ন পাড়া-মহল্লায় জনগণকে সঠিকভাবে মাস্ক পরিধানে উৎসাহিত করার উপরও গুরুত্বারোপ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে এতোগুলা রাজনৈতিক দল অথচ কেবল মাত্র আওয়ামী লীগই এখন সরেজমিনে অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছে। একটি দল ঘরে বসে লিপসার্ভিস দিয়ে যাচ্ছে কিন্তু জনগণ এখন লিপসার্ভিস চায় না।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ বিএনপির মতো কথা- সর্বস্ব কোন রাজনৈতিক দল নয়। নিজের সবকিছু নিয়ে অকাতরে মানুষের পাশে দাঁড়ায় বলেই জনগণ আওয়ামী লীগকেই বিপদে বন্ধু মনে করেন।

তিনি বলেন, সারা দুনিয়ায় আজ প্রশংসিত হচ্ছে শেখ হাসিনার নেতৃত্ব। তার অসীম সাহসের কারণেই করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলা করে যাচ্ছে সরকার। শেখ হাসিনার নেতৃত্বের জন্য সারা বিশ্বের উন্নত দেশগুলো বাংলাদেশকে গুরুত্ব দিচ্ছে। বাংলাদেশকে আজ বিশ্ব দরবার মূল্যায়িত করছে কেবলমাত্র প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিচক্ষণ ও দক্ষ নেতৃত্বের কারণে।

এ সময় ঘরে ঘরে সচেতনতার দুর্গ গড়ে তোলার উপরও গুরুত্বারোপ করেন ওবায়দুল কাদের।

দলটির সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরীর সভাপতিত্বে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আরও উপস্থিত ছিলেন‑ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আবদুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন, কেন্দ্রীয় কার্যকরী সদস্য রিয়াজুল কবির কাউছার ও সৈয়দ আবদুল আউয়াল শামীম, সংসদ সদস্য উম্মে কুলসুম স্মৃতি, ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার ইনস্টিটিউটের সভাপতি এম এ হামিদ, সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান প্রমুখ।

/পিএইচসি/এমএস/

সম্পর্কিত

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ২২:০৭

বর্তমান সংকট উত্তরণে আন্দোলনের বিকল্প নেই বলে উল্লেখ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, ‘আমরা এই অবস্থার পরিবর্তন চাই। সেজন্য আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, আমাদের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, যিনি বন্দি হয়ে আছেন, তাদের নেতৃত্বে আজকে দল সংগঠিত হচ্ছে। আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে এবং এই ভয়াবহ যে দানব আমাদের বুকের ওপর চেপে বসে আছে, সেই দানবকে সরিয়ে দিতে হবে।’

বুধবার (২৮ জুলাই) ভার্চুয়াল এক আলোচনা সভায় বিএনপি মহাসচিব এই অভিযোগ করেন।

স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রয়াত সভাপতি শফিউল বারী বাবুর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বিএনপির উদ্যোগে এই ভার্চুয়াল আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

ফখরুল বলেন, ‘আমাদের মনে রাখতে হবে, এই দানব ছোটখাটো দানব নয়, এটা একটা ভয়াবহ দানব। এরমধ্যে আন্তর্জাতিক চক্রান্ত রয়েছে, সাম্রাজ্যবাদ এবং আধিপত্যবাদের চক্রান্ত রয়েছে। সব মিলিয়ে আমাদের অত্যন্ত শক্তি নিয়ে, আমাদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে, জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে এদের সরাতে হবে। এর কোনও বিকল্প নেই।’

তিনি বলেন, ‘আমরা দেখলাম এই কোভিডে তারা কীভাবে পুরো বিষয়টাকে উদাসীনতা, অযোগ্যতা, ব্যর্থতা দিয়ে জনগণের জীবন-জীবিকাকে বিপন্ন করে ফেলেছে। এখন মানুষকে এত বেশি তারা প্রতারণা করে, এত মিথ্যা কথা বলে, এত ভাঁওতাবাজি করে, দেখেন টিকাই এখন পর্যন্ত পুরো সংগ্রহ হলো না। এ পর্যন্ত তিন কোটি টিকাই আনতে পারলো না ভারত থেকে।’

‘তারা এখন বলছে ই্উনিয়ন পর্যায়ে টিকা দেবে। এগুলো জাতিকে বিভ্রান্ত করা ছাড়া আর কিছু নয়। এই সরকার এই একটা জিনিস খুব ভালো পারে, অবলীলায় গোয়েবলসীয় পদ্ধতিতে মিথ্যা প্রচার করতে থাকে এবং সেই মিথ্যাকে সত্য প্রমাণিত করতে থাকে, যোগ করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, তারা ‘শিক্ষা ব্যবস্থা একেবারে ধ্বংস করে দিয়েছে। আপনারা দেখেছেন ভিখারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের মতো একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একজন সন্ত্রাসী দলবাজ মহিলাকে অধ্যক্ষ করা হয়েছে। আমরা দেখলাম যে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে যাদের উপাচার্য নিয়োগ দেওয়া হলো, তারা দুর্নীতি করছে, নিয়োগে দুর্নীতি করছে। এভাবে তারা শিক্ষা ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে ফেলেছে এবং এই করোনার অজুহাতে তারা শিক্ষা বন্ধ করে দিয়েছে।’

‘স্বাস্থ্য ব্যবস্থা তো পুরোপুরি ভেঙে চুরমার হয়ে গেছে। ব্যাংকিং সেক্টরকে গিলে ফেলেছে। তারা আমাদের সব অর্জন ধ্বংস করছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘মানুষকে জাগাতে হবে, তাদের নতুন স্বপ্ন দেখাতে হবে। মানুষকে সেই সুদিনের গান শোনাতে হবে, যেন তারা জেগে ওঠেন—তাদের সেই পথ দেখাতে হবে।’

/এসটিএস/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না: আ স ম রব

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৮:৪৫

পদক জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি’র সভাপতি আ স ম আবদুর রব। তিনি কোভিড পরিস্থিতিতে সরকারিভাবে ওসমানী মিলনায়তনে গতকাল মঙ্গলবার পদক প্রদান অনুষ্ঠান আয়োজনের সমালোচনা করেন।

বুধবার (২৮ জুলাই) বিকালে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে রব এ কথা জানান।

বিবৃতিতে বলা হয়, পুলিশ-ম্যাজিস্ট্রেট  দিয়ে যখন স্বাস্থ্যবিধি পালন নিশ্চিত করতে নাগরিকদের গ্রেপ্তার ও জেল-জরিমানা করা হচ্ছে তখন পদক প্রদানের জন্য শারিরীক উপস্থিতি ও সমাবেশ অনুষ্ঠানের আয়োজন সরকারের করোনা নিয়ন্ত্রণের সকল কার্যক্রমকে প্রশ্নবিদ্ধ করছে।

রব বলেন, ‘করোনার ভয়াবহ বিস্তার এবং কঠোর লকডাউনের মধ্যে এই ধরনের অনুষ্ঠান শুধু মৃত্যুঝুঁকি নয় সরকারের ঘোষিত লকডাউন পরিস্থিতির সাথেও সাংঘর্ষিক।এর মাধ্যমে জনগণের কাছে ভুল বার্তা যাচ্ছে।’

রবের মন্তব্য, করোনা মহামারিতে দীর্ঘ হচ্ছে লাশের মিছিল। এই অবস্থায় ওসমানী মিলনায়তনে পদক প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা কোনক্রমেই সরকারের সুবিবেচনার বহিঃপ্রকাশ নয়। পদক কখনো জীবনের চেয়ে মূল্যবান হতে পারে না।

তিনি বলেন, ‘জীবন সুরক্ষার প্রশ্নে যখন রাষ্ট্রীয় সকল অনুষ্ঠান বাতিল করা হচ্ছে, সারাদেশে কঠোর লকডাউন পালিত হচ্ছে তখন 'জাতীয় পাবলিক সার্ভিস দিবস' বা পদক প্রদান অনুষ্ঠানের আয়োজন করা কোনোক্রমেই রাষ্ট্রের জন্য  অতীব জরুরি কাজ হতে পারে না।’

/এসটিএস/এমএস/

সম্পর্কিত

‘আইসোলেশন ও কন্টাক্ট ট্রেসিং ছাড়া লকডাউন অকার্যকর’

‘আইসোলেশন ও কন্টাক্ট ট্রেসিং ছাড়া লকডাউন অকার্যকর’

ভোটার তালিকা নির্বাহী বিভাগে স্থানান্তর হবে অসাংবিধানিক: আবদুর রব

ভোটার তালিকা নির্বাহী বিভাগে স্থানান্তর হবে অসাংবিধানিক: আবদুর রব

রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা রাষ্ট্রের ভয়ংকর চিত্র: রব

রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা রাষ্ট্রের ভয়ংকর চিত্র: রব

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৬:৪৬

সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ভঙ্গের দায়ে ছাত্রলীগের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হলের উপ-দফতর সম্পাদক আকতারুল করিম রুবেলকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বুধবার (২৮ জুলাই) ছাত্রলীগ সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের এক জরুরি সিদ্ধান্ত মোতাবেক জানানো যাচ্ছে যে, সংগঠনের নীতি-আদর্শ ও শৃঙ্খলা পরিপন্থী কার্যকলাপে জড়িত থাকায় আকতারুল করিম রুবেলকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হলো।

বহিষ্কারের বিষয়ে জানতে চাইলে লেখক ভট্টাচার্য বলেন, ‘রুবেলের বিরুদ্ধে মাদক সেবন, চাঁদা দাবি এবং শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের ওয়ার্ড বয়কে মারার যে অভিযোগ সেটা প্রমাণিত হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রশাসন তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছে। অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় তাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

গত ২৬ জুলাই শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের এক ওয়ার্ড বয়ের কাছে চাঁদা দাবি করে না পেলে তাকে মারধর করে রুবেল। ভুক্তভোগী ওয়ার্ড বয়ের মামলা দায়েরের ভিত্তিতে ২৭ জুলাই তার এক দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রুবেল নিজেকে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের রাজা দাবি করতেন বলে একাধিক সূত্রে জানা যায়।

 

/আইএ/

সম্পর্কিত

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

আমি একজন মধ্যবয়সী প্রযুক্তি উদ্যোক্তা: জয়

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

আপডেট : ২৮ জুলাই ২০২১, ১৫:৪৬

আগামীর বাংলাদেশ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় রয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান। মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) রাতে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

বুধবার (২৮ জুলাই) তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সজীব ওয়াজেদ জয়ের ৫১তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্নযাত্রায় সজীব ওয়াজেদ জয়: আমাদের প্রত্যাশা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, তথ্য প্রযুক্তিকে পাথেয় করে একটি সমৃদ্ধ স্বদেশ বিনির্মাণে নিরন্তর কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি কোটি কোটি তরুণের স্বপ্ন সারথী, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার নেপথ্যের কারিগর। আগামীর বাংলাদেশ তার নেতৃত্বের জন্য অধীর আগ্রহে প্রতীক্ষা করছে।

ডা. মুরাদ হাসান আরও বলেন, তরুণদের তথ্য-প্রযুক্তির বিপ্লবের মাধ্যমে কর্মসংস্থান, বিনিয়োগ ও বাণিজ্য সম্প্রসারণের মাধ্যমে দেশের অগ্রগতির ভিত রচনায়ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর এই দৌহিত্র। জাতির পিতার বঙ্গবন্ধুর আজন্ম লালিত স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ প্রতিষ্ঠায় প্রধানমন্ত্রীকে তিনি সর্বোতভাবে সহযোগিতা করে যাচ্ছেন। জয়ের চিন্তা ও কর্মধারা দেশে-বিদেশে প্রশংসিত হচ্ছে; যা বাংলাদেশকে মর্যাদার আসনে নিয়ে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।

সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট বাকী বিল্লাহর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান দুলাল, সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোজাফফর হোসেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ চৌধুরী প্রমুখ।

/এসএমএ/ইউএস/

সম্পর্কিত

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

সর্বশেষ

লোকবল নিচ্ছে ডাচ বাংলা ব্যাংক

লোকবল নিচ্ছে ডাচ বাংলা ব্যাংক

অনুমোদন পেল বুয়েট উদ্ভাবিত অক্সিজেট

অনুমোদন পেল বুয়েট উদ্ভাবিত অক্সিজেট

টিকার নিবন্ধনে জনপ্রতি নেওয়া হয় দেড় হাজার টাকা!

টিকার নিবন্ধনে জনপ্রতি নেওয়া হয় দেড় হাজার টাকা!

ফাঁকা শহরে বৃষ্টির আগমন (ফটোস্টোরি)

ফাঁকা শহরে বৃষ্টির আগমন (ফটোস্টোরি)

আমিরাত থেকে আসা জাহাজের ৮ নাবিক করোনায় আক্রান্ত

আমিরাত থেকে আসা জাহাজের ৮ নাবিক করোনায় আক্রান্ত

সাতক্ষীরায় করোনা উপসর্গে ৫ নারীর মৃত্যু

সাতক্ষীরায় করোনা উপসর্গে ৫ নারীর মৃত্যু

গতবারের চেয়ে এবার কৃষিঋণ ২০০০ কোটি টাকা বেশি বিতরণ করতে চায় ব্যাংক

গতবারের চেয়ে এবার কৃষিঋণ ২০০০ কোটি টাকা বেশি বিতরণ করতে চায় ব্যাংক

‘দুই ম্যাচের একটি জিতিয়েছি, তবে আলোচনায় আসার মতো ইনিংস খেলিনি’

‘দুই ম্যাচের একটি জিতিয়েছি, তবে আলোচনায় আসার মতো ইনিংস খেলিনি’

আবারও শিল্প-কারখানা খুলে দেওয়ার দাবি গার্মেন্টস মালিকদের

আবারও শিল্প-কারখানা খুলে দেওয়ার দাবি গার্মেন্টস মালিকদের

লকডাউনেও এক চাঁদের গাড়িতে ৭০ যাত্রী! 

লকডাউনেও এক চাঁদের গাড়িতে ৭০ যাত্রী! 

চার দিন পর শিশুকে উদ্ধার, অপহরণকারী গ্রেফতার

চার দিন পর শিশুকে উদ্ধার, অপহরণকারী গ্রেফতার

গার্মেন্টস কর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, দুজন গ্রেফতার

গার্মেন্টস কর্মীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, দুজন গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

সম্পদের হিসাব দিতে কারও আপত্তি থাকার কথা নয়, আমিও প্রস্তুত: ওবায়দুল কাদের

আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

আমাদের আন্দোলনে যেতে হবে: মির্জা ফখরুল

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

শেখ হাসিনা বার্নের ওয়ার্ড বয়কে মারধর করা সেই ছাত্রলীগনেতা বহিষ্কার

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

জয়ের নেতৃত্বের অপেক্ষায় আগামীর বাংলাদেশ: তথ্য প্রতিমন্ত্রী

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

দেশে করোনায় মৃত্যুর হার ভারতের চেয়ে বেশি: ওবায়দুল কাদের

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

ভিকারুননিসায় নতুন অধ্যক্ষ নিয়োগের দাবি মির্জা ফখরুলের

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

মণি সিংহের ১২০তম জন্মবার্ষিকী কাল

জাসদকে চীনের ক্ষমতাসীন দলের উপহার  

জাসদকে চীনের ক্ষমতাসীন দলের উপহার  

টিকা আমদানি জোরদার করার দাবি

টিকা আমদানি জোরদার করার দাবি

© 2021 Bangla Tribune