X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

পদ্মা সেতুর রড চুরি, গ্রেফতার ৪

আপডেট : ১৫ জুন ২০২১, ১৮:৫৪
image

শরীয়তপুরের জাজিরায় পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজের রডসহ মালামাল চুরির ঘটনায় চার জনকে গ্রেফতার করছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের মাত্র তিন ঘণ্টার মধ্যে আদালতে চার্জশিট জমা দিয়েছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

এই স্বল্প সময়ের মধ্যে আসামি গ্রেফতার, মামলার আলামত উদ্ধারসহ সব কাজ সম্পন্ন করা হয়। জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুবুর রহমান জানান, শরীয়তপুর জেলা পুলিশ সুপারের (এসপি) নির্দেশে দ্রুত সময়ে চার্জশিট আদালতে পাঠানো হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, পুলিশের একটি টিম মঙ্গলবার (১৫ জুন) সকালে বিশেষ অভিযানকালে জাজিরা মাঝিরঘাট সড়কে অবস্থান করছিলো। এ সময় একটি ব্যাটারিচালিত ভ্যান গাড়িতে পদ্মা সেতুর কাজে ব্যবহৃত ৬০ কেজি বিভিন্ন সাইজের লোহার রড, ৪০ কেজি লোহার কাচি, একটি লোহার সেন্টারিং সিট ও পদ্মা সেতুর শ্রমিকদের ব্যবহৃত সবুজ রঙের একটি হেলমেটসহ জসিম মুন্সি, বিল্লাল গাজী ও রঞ্জু মিয়াকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এই রড ও লোহার পাতগুলো চুরি করে বিক্রি করার জন্য নিয়ে যাচ্ছিলেন তারা

গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে তারা জানান, জাজিরা পৌরসভার দক্ষিণ ভেবিয়া কাজিরহাটের ভাঙারি দোকানদার নুরুল ইসলামের কাছে এ মালামাল বিক্রির জন্য নিয়ে যাচ্ছেন। আরও স্বীকার করেন, এর আগেও কয়েকবার পদ্মা সেতুর লোহার রড চুরি করেছেন তারা। পরে নুরুল ইসলামকেও পুলিশ গ্রেফতার করে আদালতে প্রেরণ করে।

এ বিষয়ে জাজিরা থানার এসআই অপু বড়ুয়া সকাল সাড়ে ৯টায় লিখিত অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উপ-পরিদর্শক (এসআই) মফিজুর রহমান তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে দুপুর সাড়ে ১২টায় আদালতে প্রেরণ করে।

ওসি মো. মাহবুবুর রহমান বলেন, আমরা দ্রুত সময়ে গ্রেফতার করে তিন ঘণ্টার মধ্যেই সকল কাজ শেষ করে আদালতে মামলার চার্জশিট জমা দিয়েছি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২০:৫২

খাগড়াছড়ির রামগড়ে বিয়ের ছয় দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনের মাঠ থেকে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুর ২টার দিকে উপজেলার দুর্গম দক্ষিণ নতুন পাড়া এলাকা থেকে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। শনিবার (২৪ জুলাই) রাতের কোনও একসময় তাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা পুলিশের।

নিহত চাইথোয়াই অং মারমা একই উপজেলার খাগড়াবিল এলাকার বজেন্দ্র মারমার ছেলে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রামগড় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শামসুজ্জামান।

ওসি বলেন, লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে শনিবার রাতের কোনও একসময় তাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। গত মঙ্গলবার (২০ জুলাই) পাতাছড়া এলাকার পেঞ্চাচিও মারমার মেয়ে চপাইয়ে মারমার সঙ্গে চাইথোয়াই অং মারমার বিয়ে হয়। এটি চপাইয়ে মারমার দ্বিতীয় বিয়ে ছিল।

তিনি বলেন, দুই বছর আগে সাবেক স্বামী খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা উপজেলার বাসিন্দা পাইচা থ্যওয়াই মারমাকে ডিভোর্স দেন চপাইয়ে মারমা। ওই সংসারে তার এক কন্যাসন্তান আছে।

চপাইয়ে মারমা বলেন, ‘বিয়ের পর থেকে সাবেক স্বামী ফোন করে বর্তমান স্বামীকে ছাড়তে বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়। এ নিয়ে বর্তমান এবং সাবেক স্বামীর মধ্যে বিরোধ দেখা দেয়। বিরোধের জেরে আমার স্বামীকে সাবেক স্বামী হত্যা করতে পারে বলে ধারণা করছি।’

/এএম/

সম্পর্কিত

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

ফুটবল মাঠে গরু চরানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

ফুটবল মাঠে গরু চরানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২০:৪৫

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ার জোরবাড়ীয়া এলাকা থেকে উগ্রবাদী বইসহ আমির হামজা ওরফে আমিরুল (২৮) নামে জামায়াতুল মোজাহেদিন বাংলাদেশ-জেএমবির এক সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। শনিবার (২৪ জুলাই) রাত সাড়ে ১২টায় র‌্যাব-১৪-এর ক্যাম্পের কমান্ডার মেজর আখের মোহাম্মদ জয়ের নেতৃত্বে একটি দল তাকে গ্রেফতার করে।

রবিবার (২৫ জুলাই) বিকালে মেজর আখের মোহাম্মদ জয় প্রেস রিলিজের মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আমির ফুলবাড়িয়ার জোরবাড়িয়ার আব্দুল হাকিমের ছেলে। তার কাছ থেকে পাঁচটি উগ্রবাদী বই, ১৪টি বুকলেট, চারটি লিফলেট, নগদ চার হাজার ৮৩০ টাকা ও তিনটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতার আমির হামজা নিজেকে জেএমবির সক্রিয় সদস্য হিসেবে পরিচয় দেয়। সে নিষিদ্ধ ঘোষিত এই জঙ্গি সংগঠনের জন্য বিভিন্ন এলাকা থেকে কৌশলে সদস্য সংগ্রহ করে আসছিল। বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নিয়ে গোপন বৈঠক করে পরবর্তী নাশকতার পরিকল্পনার কথাও স্বীকার করেছে সে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২০:২৬

মৃত্যুর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই চাঞ্চল্যকর শিশু সায়মন হত্যারহস্য উদ্ঘাটন করেছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানা পুলিশ। বাবা বাদল মিয়াই নয় বছরের শিশুটিকে হত্যা করেছে বলে নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আনোয়ার সাদাতের আদালতে ১৬৪ ধারায় হত্যার কথা স্বীকার করে বাদল।

এর আগে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমরানুল ইসলামের কাছেও শিশুসন্তানকে হত্যার কথা স্বীকার করে ১৬১ ধারায় জবানবন্দি দেয় বাদল।

বাদল মিয়া সদর উপজেলার সুহিলপুর ইউনিয়নের নদ্দাপাড়ার বাসিন্দা। তিনি দীর্ঘদিন সৌদি আরবে ছিলেন। তার তিন ছেলের মধ্যে সায়মন বড়। সে স্থানীয় একটি মাদ্রাসার ছাত্র। আয়মন (৬) ও নাঈম (৪) নামে তার আরও দুই ছেলে রয়েছে।

আদালতের বরাত দিয়ে ওসি বলেন, ‘সন্দেহের বশে বাদল মিয়া ছেলেকে খুন করেছে। শনিবার সকালে সে সায়মনকে নিয়ে বাড়ি থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরে জমিতে ঘাস কাটতে যায়। সেখানে ছেলেকে সে গলা কেটে হত্যা করে লাশ ধানি জমিতে ফেলে দেয়। পরে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাদল বাড়িতে এসে শিশু সায়মনকে খোঁজাখুঁজির অভিনয় করে। এক পর্যায়ে পরিবারের লোকজনকে নিয়ে ওই জমি থেকে গলাকাটা অবস্থায় লাশ উদ্ধার করে। এ খবর পেয়ে পুলিশ সায়মনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এ সময় কথাবার্তা অসংলগ্ন হওয়ায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ বাদল মিয়াকে থানায় নিয়ে যায়।’

ওসি আরও বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদে বাদল জানায়, দীর্ঘদিন সৌদি আরবে থেকে ২০১২ সালে সে দেশে ফিরে আসে। ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর এলাকার ভাদুঘর গ্রামের দেওয়ান পাড়ায় বিয়ে করে। বিয়ের পর পাঁচ মাস পর সে পুনরায় সৌদি আরবে চলে যায়। সেখানে যাওয়ার দুই মাস পর সায়মনের জন্ম হয়। এতে তার মনে সন্দেহ হয় এই ছেলে তার কিনা? এছাড়া সাত মাসে কোনও শিশুর জন্ম হয় কিনা। এসব সন্দেহ তার মনে দানা বাঁধে। পরে এক বছর পর বাদল মিয়া আবারও দেশে ফিরে আসে। সে খোঁজ নিয়ে জানতে পারে বিয়ের আগে তার স্ত্রীর সঙ্গে একজনের সম্পর্ক ছিল। বাদল মিয়ার সন্দেহ হয়, বিয়ের সময় তার স্ত্রী অন্তঃসত্ত্বা ছিল।

‘বাদল মিয়া পুলিশকে আরও জানায়, সায়মনের পরে ও আয়মন ও নাঈম নামে তার আর দুই ছেলের জন্ম হয়। কিন্তু তাদের সঙ্গে সায়মনের চেহারার কোনও মিল নেই। এছাড়া সায়মন ছিল একটু বেপরোয়া ও ক্ষেপাটে প্রকৃতির। সে প্রায়ই তার অপর দুই ছেলেকে মারধর করতো। গত শুক্রবারও সে নাঈমকে মারধর করে। দুই ছেলের সঙ্গে সায়মনের চেহারার মিল না থাকায় বাদলের সন্দেহ আরও বাড়ে। এসব কারণে সে সায়মনকে হত্যার পরিকল্পনা করে। পরিকল্পনা অনুযায়ী শনিবার ভোরবেলা সে সায়মনকে ঘুম থেকে তুলে তার ঘাস কাটতে বাড়ি থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার দূরের জমিতে নিয়ে যায়।’

জবানবন্দি দেওয়ার পর আদালতের নির্দেশে বাদল মিয়াকে কারাগারে পাঠানো হয় বলে জানান ওসি।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ২০:১৬

চাঁদপুর জেলায় করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় আরও কঠোর হচ্ছে প্রশাসন। সোমবার (২৬ জুলাই) থেকে চলমান বিধিনিষেধের বাইরে থাকা রিকশা চলাচলও বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নির্দেশ অমান্য করলে জরিমানার পাশাপাশি প্রয়োজনে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হবে। রবিবার (২৫ জুলাই) জেলা উন্নয়ন সমন্বয় কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এ সিদ্ধান্তের কথা জানান জেলা প্রশাসক অঞ্জনা খান মজলিশ। 

তিনি বলেন, ‘জেলায় করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসছে না। দিন দিন শনাক্তের হার বেড়েই চলছে। গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচ জনের মৃত্যু হয়েছে। শনাক্ত ও মৃত্যুর হার বাড়লেও বেশির ভাগ মানুষ অসচেতন। অসচেতনতা এখন বেশির ভাগই মানুষের মধ্যে পরিলক্ষিত হচ্ছে। কোনও কারণ ছাড়াই ঘর থেকে বেরিয়ে রাস্তায় আসছে। রিকশা চলাচল করার সুযোগে এক রিকশায় ৩-৪ জন করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। এ অবস্থা কোনোভাবেই চলতে দেওয়া যায় না।’

জেলা প্রশাসক বলেন, ‘সোমবার থেকে জেলা শহর, পৌর এলাকা এবং অন্যান্য পৌর এলাকা, হাটবাজারে ও অতিরিক্ত লোকসমাগমস্থলে রিকশা চলাচল বন্ধ থাকবে। শুধুমাত্র রোগী আনা-নেওয়া ছাড়া কোনও রিকশা সড়কে চলবে না। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া রাস্তায় যাকে পাওয়া যাবে, হয় জরিমানা না হয় গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের এই নির্দেশনা বাস্তবায়নের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

জেলা কারাগারের জেলারের উদ্দেশ্যে ডিসি বলেন, ‘লকডাউনে যারা গ্রেফতার হবেন- তাদের আলাদা সেলে রাখবেন। যাতে তাদের মাধ্যমে অন্যরা সংক্রমিত না হয়। করোনার ঊর্ধ্বমুখী সংক্রমণ পরিস্থিতিতে এমন কঠোর সিদ্ধান্ত নেওয়া ছাড়া আমাদের উপায় ছিল না।’

সভায় আরও বক্তব্য রাখেন চাঁদপুর পৌরসভার মেয়র মো. জিল্লুর রহমান জুয়েল, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপারেশন ও অপরাধ) সুদীপ্ত রায়, চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. হাবিব উল করিম, সিভিল সার্জন ডা. মো. সাখাওয়াত উল্যাহ, ডিডি এনএসআই শেখ আরমান আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নাছির উদ্দিন আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক আবু নঈম পাটোয়ারী দুলাল, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কমান্ডার এম এ ওয়াদুদ, ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল খায়ের পাটোয়ারী, মতলব উত্তর উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল কুদ্দুস ও মতলব পৌরসভার মেয়র আওলাদ হোসেন লিটন প্রমুখ।

/এএম/

সম্পর্কিত

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

ফুটবল মাঠে গরু চরানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

ফুটবল মাঠে গরু চরানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

পুকুরে ভাসছিল দুই শিশুর মরদেহ

পুকুরে ভাসছিল দুই শিশুর মরদেহ

ফুটবল মাঠে গরু চরানো নিয়ে সংঘর্ষে আহত ২০

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৯:৪৪

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন আহত হয়েছেন। রবিবার দুপুরে উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়নের রতনপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল এবং নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। নাসিরনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিল্লাহ সরকার সংঘর্ষের বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

পুলিশ প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, শনিবার বিকালে রতনপুর খেলার মাঠে পার্শ্ববর্তী ভলাকুট ইউনিয়নের কয়েকজন যুবক ফুটবল খেলছিলেন। এ সময় রতনপুর গ্রামের হুমায়ুন সেখানে গরু চরাতে গেলে দড়ি ছিঁড়ে গরুটি খেলার মাঠে ঢুকে যায়। এ কারণে খেলায় বাধাগ্রস্ত হয়। পরে যুবকরা গরুটিকে মাঠ থেকে তাড়িয়ে দেন। পরে এ নিয়ে রতনপুর গ্রামের ছাড়ন গোষ্ঠীর হুমায়নের সঙ্গে পাশের গ্রাম ভলাকুট ইউনিয়নের হুনারু গোষ্ঠীর ছুট্টু মিয়া ও মঙ্গল মিয়ার কথা কাটাকাটি হয়।

এক পর্যায়ে হুমায়নকে একা পেয়ে হুনারু গোষ্ঠীর লোকজন মারধর করেন। পরে এ ঘটনার জের ধরে রবিবার দুপুরে হুনারু গোষ্ঠীর ও ছাড়ন গোষ্ঠীর লোকজন দেশীয় অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে উভয় পক্ষের কমপক্ষে ২০ জন আহত হন। ঘটনার খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। পরে আহতদের উদ্ধার করে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেওয়া আহতরা হলেন– কামাল (৪৫) হুমায়ন মিয়া (৩২), ফিরোজ মিয়া (৬৫), মোবারক (৩৫), আলমগীর হোসেন (৩৭), মো. এবাদত মিয়া (৩৩), আলামিন (২৭), মো. সালাউদ্দিন (৩৭), সুজন মিয়া (৩২) মোশারফ (৪০), আব্দুর রহমান (৪৫) ও জিন্নত আলী (৭০)। বাকিদের নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. ফায়েজুর রহমান ফয়েজ বলেন, ‘আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তবে তাদের কারও অবস্থা আশঙ্কাজনক নয়।’

নাসিরনগর থানার ওসি জানান, সংঘর্ষের ঘটনার পর চাতলপাড় এবং ভলাকুট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের বিষয়টি নিষ্পত্তি করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তবে এই ঘটনায় কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। এখন পর্যন্ত কোনও পক্ষই থানায় মামলা দায়ের করেনি।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

সর্বশেষ

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

বিয়ের ৬ দিনের মাথায় শ্বশুরবাড়ির সামনে জামাইয়ের গলাকাটা লাশ

নিশো-মেহজাবীনের ‘ঘটনা সত্য’ প্রত্যাহার, ক্ষমা প্রার্থনা

নিশো-মেহজাবীনের ‘ঘটনা সত্য’ প্রত্যাহার, ক্ষমা প্রার্থনা

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে তিন বাহিনী প্রধানের সাক্ষাৎ

বিমান হামলায় ২৬২ তালেবান যোদ্ধাকে হত্যার দাবি আফগানিস্তানের

বিমান হামলায় ২৬২ তালেবান যোদ্ধাকে হত্যার দাবি আফগানিস্তানের

চামড়া নিয়ে এবার কোনও অভিযোগ পাইনি: শিল্পমন্ত্রী

চামড়া নিয়ে এবার কোনও অভিযোগ পাইনি: শিল্পমন্ত্রী

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

স্ত্রীর প্রতি সন্দেহে শিশুসন্তানকে হত্যা

যেখানে ডেঙ্গু রোগী সেখানেই বিশেষ অভিযান: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

যেখানে ডেঙ্গু রোগী সেখানেই বিশেষ অভিযান: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘চাঁদপুরে রিকশাও চলবে না, প্রয়োজনে কারাগারে’

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

‘সংক্রমণ না কমিয়ে হাসপাতালের শয্যা বাড়িয়ে লাভ হবে না’ 

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

স্বস্তির জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

চারদিন পর মৃত্যু ২০০ পার, ফের শনাক্ত ১১ হাজারের বেশি

চারদিন পর মৃত্যু ২০০ পার, ফের শনাক্ত ১১ হাজারের বেশি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

উগ্রবাদী বইসহ জেএমবি সদস্য গ্রেফতার

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেফতার ৩

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

১৫ লাখেও ‘শাকিব খান’ ‘ডিপজল’কে বিক্রি করেননি জিসান

১৫ লাখেও ‘শাকিব খান’ ‘ডিপজল’কে বিক্রি করেননি জিসান

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক ফাঁকা

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

ঘাটে ঢাকামুখী যাত্রীর চাপ

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককেই বিয়ে করলেন সহকারী শিক্ষিকা

অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককেই বিয়ে করলেন সহকারী শিক্ষিকা

শ্রীপুরে আগুনে পুড়লো ৩৬ বসতঘর

শ্রীপুরে আগুনে পুড়লো ৩৬ বসতঘর

© 2021 Bangla Tribune