X
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ২ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

চালের বাজার দেখবে কে?

আপডেট : ২১ জুন ২০২১, ০১:৪২

সরকারের কোনও উদ্যোগই চালের বাজার সাধারণ মানুষের ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে আনতে পারছে না। কারণে অকারণে বাড়ছে চালের দাম। উৎপাদন বাড়িয়ে, বিদেশ থেকে আমদানি করিয়েও বাজারে চালের দাম কমানো যায়নি। ক্রমেই সাধারণ মানুষের চাল কিনতে নাভিশ্বাস বাড়ছে।

সরকারের পক্ষ থেকে গতবছরের ৩০ সেপ্টেম্বর চালের দর নির্ধারণ করে দিলেও সরকারের ওই সিদ্ধান্তকে পাত্তা দেননি ব্যবসায়ীরা।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলছে, চালের বাজার দেখার দায়িত্ব বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের নয়। অন্যদিকে খাদ্য মন্ত্রণালয় বলছে বাজার মনিটরিংয়ের দায়িত্ব খাদ্য মন্ত্রণালয়ের নয়। কৃষি মন্ত্রণালয়ের ভাষ্য- বাম্পার ফলনের পরেও চালের বাজারের ঊর্ধ্বগতি কাম্য নয়। এমন পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের প্রশ্ন- তাহলে চালের বাজার দেখার দায়িত্ব কার?

খাদ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, সরকারি গুদামে ১৬ জুন তারিখে মজুতকৃত চালের পরিমাণ ৯ লাখ ৩৯ হাজার মেট্রিক টন। অপরদিকে সর্বশেষ ১৩ জুন পর্যন্ত বোরো ধান সংগ্রহ হয়েছে ১ লাখ ৯৭ হাজার ৭৭১ মেট্রিক টন। সেদ্ধ বোরো চাল সংগ্রহ হয়েছে ৪ লাখ ২১ হাজার ৮৩০ মেট্রিক টন ও ৩০ হাজার ৭৭১ মেট্রিক টন বোরো আতপ চাল সংগৃহীত হয়েছে।

এদিকে বাজার ঘুরে জানা গেছে, ব্যবসায়ীদের কারসাজিতে বাজারে বেড়েছে সব ধরনের চালের দাম। এর জন্য কেউ কেউ চালের উৎপাদন কম হওয়া, সরবরাহ কমে যাওয়াকে দায়ী করেছেন। আবার কেউ করোনার কারণে পরিবহন খরচকে দায়ী করেছেন। কেউ কেউ বলছেন, সরকারি গুদামে খাদ্যশস্যের মজুত একেবারেই কমে গেছে, যা অশুভ লক্ষণ। সরকারি গুদামে খাদ্যশস্যের মজুত না বাড়লে চালের বাজারে স্থিতিশীলতা আসবে না।

চালের মূল্যবৃদ্ধির জন্য মিলার ও আড়ৎদাররাও একে অপরকে দুষছেন। আবার উভয় পক্ষই বলছেন, নতুন ধান উঠতে শুরু করেছে। আগামী সাত থেকে ১৫ দিনের মধ্যে সব ধরনের চালের দাম কমতে শুরু করবে। কিন্তু কমছে না চালের দাম।

সূত্র জানায়, অতিবৃষ্টি, করোনায় শ্রমিকের অভাব ও সর্বশেষ খড়ায় গতবছর আমনের উৎপাদন কম হয়েছে। এতে বাজারে চালের সংকট সৃষ্টি হয়েছে। বোরোর বাম্পার ফলন ও আমদানি করেও সেই সংকট মেটানো সম্ভব হয়নি। আমদানি করা চাল বাজারে উঠেছে। তার পরেও বাড়ছে চালের দাম। খুচরা ব্যবসায়ীরা একে কারসাজি বলছেন। মোকামের ব্যবসায়ী যারা মিলার তারা এই কারসাজির সঙ্গে জড়িত। অপরদিকে মিলাররা বলছেন, মোকামে কোনও কারসাজি নাই। যতো কারসাজি তা আড়তে। রাজধানীর বাবুবাজার, মোহম্মদপুর, গুলশান মার্কেটের চাল ব্যবসায়ীরা কারসাজির সঙ্গে জড়িত বলে তাদের অভিযোগ।

ক্রমাগতভাবে চালের দাম বাড়তে থাকায় নড়েচড়ে বসার উদ্যোগ নিয়েছে খাদ্য মন্ত্রণালয়। এমন পরিস্থিতিতে ধান-চালের বাজার বিশেষ করে ধান ও চালের আড়তদার বা পাইকারি ব্যবসায়ীদের ব্যবসায়িক কার্যক্রম মনিটরিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। বিষয়টি জানিয়ে আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রককে চিঠি পাঠিয়েছে খাদ্য অধিদফতর। অতিরিক্ত দাম ঠেকাতে ধান ও চালের অবৈধ মজুত রোধ করতেই সরকার এ উদ্যোগ নিয়েছে বলে জানা গেছে।

খাদ্য অধিদফতর থেকে আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রকদের লেখা চিঠিতে বলা হয়েছে, বর্তমানে ধানের পরিপূর্ণ মৌসুম চলছে। বর্তমান সময়ে খোলা বাজারে ধানের প্রচুর সরবরাহ থাকে। মাঠ পর্যায়ে আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রকসহ বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করে জানা যায়, দেশের বিভিন্ন স্থানে বর্তমান ভরা মৌসুমে ধানের বাজার দর কিছুটা বৃদ্ধির প্রবণতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে।

‘বাজারে সক্রিয় বিভিন্ন ধরনের মিলার ও ব্যবসায়ী কর্তৃক সরকারি বিধি-বিধান অমান্য করে অধিক পরিমাণ ধান-চাল ক্রয়ের প্রবণতা রয়েছে। বিশেষ করে পাইকারি ও আড়তদাররা কোনও কোনও ক্ষেত্রে খাদ্যশস্য লাইসেন্স ছাড়া ব্যবসা পরিচালনা করছেন বলে প্রতীয়মান হয়। লাইসেন্সবিহীন ব্যবসা পরিচালনা করার কারণে অনিয়মতান্ত্রিকভাবে বিপুল পরিমাণ ধান-চাল ক্রয় ও মজুত করার সুযোগ পাচ্ছেন। এতে খোলা বাজারে ধান-চালের কৃত্রিম চাহিদা সৃষ্টি হচ্ছে এবং বাজারমূল্য বৃদ্ধির প্রবণতা দেখা যাচ্ছে, যা চলমান বোরো সংগ্রহ কার্যক্রমে লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াতে পারে।

চিঠিতে আরও বলা হয়, খোলা বাজারে ধানের কৃত্রিম মূল্যবৃদ্ধি রোধে তিনটি ব্যবস্থা গ্রহণ করা যেতে পারে- লাইসেন্সবিহীন খাদ্যশস্য ব্যবসায়ীদের (বিশেষ করে আড়তদার ও পাইকারি) বাধ্যতামূলক খাদ্যশস্য লাইসেন্স প্রদান নিশ্চিত করবেন। খাদ্যশস্য ব্যবসায়ীদের প্রতি ৭ দিনের ক্রয়-বিক্রয় প্রতিবেদন (চালান, রশিদ ইত্যাদিসহ) আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রক দফতরে প্রেরণ নিশ্চিত করবেন এবং আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রকরা খাদ্য অধিদফতরের সরবরাহ, বণ্টন ও বিপণন বিভাগ ও সংগ্রহ বিভাগে সামারি প্রতিবেদন প্রেরণ করবেন।

কেউ যাতে অনুমোদিত পরিমাণের বেশি পরিমাণ খাদ্যশস্য অবৈধভাবে মজুত করতে না পারে তা নিশ্চিত করতে পর্যবেক্ষণ জোরদার করারও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চিঠিতে আঞ্চলিক খাদ্য নিয়ন্ত্রকদের উপরোক্ত বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক ও খাদ্য পরিদর্শকদের কার্যকরি নির্দেশ দিতে বলা হয়েছে বলে জানা গেছে।

এদিকে গত ১৫ এপ্রিল গণমাধ্যম প্রতিনিধিদের সঙ্গে ভার্চুয়ালি প্রাক-বাজেট আলোচনা শেষে অর্থমন্ত্রী আহম মুস্তফা কামাল জানিয়েছেন, করোনায় স্বাভাবিক কাজ যেমন ব্যাহত হয়েছে তেমনি কৃষিও ব্যাহত হয়েছে। এ কারণেই চালের সরবরাহ কমেছে, ফলে চালের দাম বেড়েছে।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে বাংলাদেশ অটো মেজর অ্যান্ড হাসকিং মিল মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জয়পুরহাটের মিলার লায়েক আলী জানিয়েছেন, অবিলম্বেই চালের দাম কমতে শুরু করবে। মাঠ থেকে নতুন বোরো ফসল কৃষকের ঘরে উঠতে শুরু করেছে। তখন আড়তদাররা কোনও প্রকার কারসাজি করে চালের বাজারকে অস্থির করতে পারবে না।

নওগাঁর মিলার তোফাজ্জল হোসেন বলেন, মোকামে কোনও সিন্ডিকেট নাই। এখানে হাজার হাজার কেজি চাল কেনাবেচা হয়। অল্প মুনাফায় আমরা চাল ছেড়ে দেই। কেজিতে ৩০ পয়সা ৫০ পয়সা ব্যবসাই যথেষ্ট। একদিন চাল ধরে রাখলেই আমাদের ব্যবসায় লস হয়। তাই মোকামে বা মিলারদের এখানে কোনও সিন্ডিকেট বা কারসাজির সুযোগ নাই।

এ বিষয়ে বাবুবাজার-বাদামতলী চাল আড়তদার সমিতির সাধারণ সম্পাদক লক্ষী ভান্ডারের মালিক নিজাম উদ্দিন জানিয়েছেন, কমিশনের ভিত্তিতে আড়তে চাল কেনা-বেচা হয়। মিলাররা যে দর ঠিক করে দেন সেই দরেই বিক্রি করে আসল টাকা তাদের পাঠিয়ে কমিশনটা আমরা রেখে দেই। এখানে কারসাজির কোনও অবকাশ নেই। সুযোগও নাই। মিলারদের নির্ধারিত দরেই আমরা রাজধানীসহ সারা দেশে চাল বিক্রি করি।

তিনি জানিয়েছেন, অবিলম্বে সরকারের নিজস্ব মজুত বাড়াতে হবে। সরকারি গুদামে খাদ্যশষ্যের মজুত সর্বকালের নিচে নেমে গেছে। এটি বাড়াতে হবে। এর একটি প্রভাব বাজারে আছে- তা নীতিনির্ধারকদের বুঝতে হবে।

এদিকে সরকার নিজস্ব মজুত বাড়াতে চলতি বোরো মৌসুমে অভ্যন্তরীণ বাজার থেকে মোট ১৭ লাখ টন ধান ও চাল কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর মধ্যে মিলারদের কাছ থেকে ৪০ টাকা কেজি দরে ১০ লাখ টন সিদ্ধ চাল, ৩৯ টাকা কেজি দরে দেড় লাখ টন আতপ চাল এবং কৃষকদের কাছ থেকে ২৭ টাকা কেজি দরে সাড়ে ৬ লাখ টন ধান কেনা হবে। গত ২২ এপ্রিল সরকারের খাদ্য পরিকল্পনা কমিটির ভার্চুয়াল সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী গত ২৮ এপ্রিল থেকে ধান এবং ৭ মে থেকে চাল সংগ্রহ শুরু হয়েছে। বোরো ধান ও চাল সংগ্রহ কার্যক্রম চলবে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত।

চালের মূল্য বৃদ্ধি সম্পর্কে জানতে চাইলে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি জানিয়েছেন, চালের বাজারের বিষয়টি মুলত খাদ্য মন্ত্রণালয়ের কার্যক্রমের ওপর নির্ভরশীল। তারাই বিষযটি সম্পর্ক ভালো বলতে পারবেন। তিনি জানিয়েছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে চালের দাম বাড়ার কোনও কারণ নাই। আমাদের বোরোর উৎপাদন খুবই ভালো হয়েছে। গত বছরের সংকট এড়াতে আমদানিও করা হয়েছে প্রচুর পরিমাণে চাল। তাই কোনওভাবেই চালের বাজারে অস্থিরতা গ্রহণযোগ্য নয়।

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, সরকারের নিজস্ব মজুদ বাড়াতে বোরো সংগ্রহ চলছে। লক্ষ্য অনুযায়ী ১৭ লাখ মেট্রিক টন বোরো ধান ও চাল সংগ্রহ কার্যক্রম চলছে। এগুলো সবই চলছে। কিন্তু বাজারে অভিযান পরিচালনার দায়িত্ব তো বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের নয়।

তিনি জানান, কিছুদিনের মধ্যেই সরকারি নিজস্ব চালের মজুদ ১০ লাখ টন ছাড়িয়ে যাবে। আশা করছি এবার লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী বোরো সংগ্রহ করতে পারবো।

কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক জানিয়েছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে কোনওভাবেই চালের মূল্য বৃদ্ধির বিষয়টি মেনে নেওয়া যায় না। কারণ এবার বোরোর বাম্পার ফলন হয়েছে।

/এফএএন/

সম্পর্কিত

‘চাল এখন সাধারণ ব্যবসায়ীদের হাতে নেই’

‘চাল এখন সাধারণ ব্যবসায়ীদের হাতে নেই’

চাল আমদানির এলসি খোলার হার বেড়েছে পৌনে ৬ হাজার শতাংশ

চাল আমদানির এলসি খোলার হার বেড়েছে পৌনে ৬ হাজার শতাংশ

 চাল আমদানি করবে ৭১ প্রতিষ্ঠান

 চাল আমদানি করবে ৭১ প্রতিষ্ঠান

নাগালের বাইরে চলে গেছে যেসব পণ্যের দাম

নাগালের বাইরে চলে গেছে যেসব পণ্যের দাম

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:২১

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়াতে চায় ভোজ্যতেল পরিশোধনকারী মিল মালিকরা। আন্তর্জাতিক বাজারের দোহাই দিয়ে তারা বোতলজাত ও খোলা সয়াবিন তেলের দাম প্রতি লিটারে ৭ টাকা বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের কাছে। তবে বাণিজ্যমন্ত্রী ও সচিব এই প্রস্তাব অনুমোদন দিলে ভোজ্যতেল পরিশোধনকারী মিল মালিকরা তা জানিয়ে দেবে।

 রবিবার (১৭ অক্টোবর) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত নিত্যপণ্যের মজুত পরিস্থিতি, আমদানি ও দাম নির্ধারণ নিয়ে বৈঠকে সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর এই প্রস্তাব করা হয়। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের আমদানি ও অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য (আইআইটি) অনুবিভাগের অতিরিক্ত সচিব এএইচএম সফিকুজ্জামান সভায় সভাপতিত্ব করেন।

তিনি বলেন, ‘সয়াবিন তেল পরিশোধনকারী মিল মালিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রস্তাব ছিল বোতলজাত প্রতি লিটার সয়াবিন তেল ১৬৮ টাকা করার। ট্যারিফ কমিশন একাধিকবার বসে অ্যানালাইসিস করে ১৬২ টাকা (বোতলজাত সায়াবিন তেল) করার সুপারিশ করেছে। এটা ছিল সেপ্টেম্বর মাসের অ্যাভারেজ রিপোর্ট। আজকে দীর্ঘক্ষণ আলোচনা করে প্রতি লিটার বোতলজাত তেলের দাম ঠিক করা হয়েছে ১৬০ টাকা, যেটার আগে দাম ছিল ১৫৩ টাকা।

সভায় খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১৩৬ টাকা, বোতলজাত ৫ লিটার তেলের দাম ৭৬০ টাকা, আর পাম অয়েল প্রতি লিটার ১১৯ টাকা করার প্রস্তাব করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

বাণিজ্যমন্ত্রী ও সচিব এই প্রস্তাব অনুমোদন দিলে তা বাংলাদেশ ভেজিটেবল অয়েল রিফাইনার্স অ্যান্ড বনস্পতি ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যাসোসিয়েশন আনুষ্ঠানিকভাবে সয়াবিনের দাম জানাবে।

বৈঠকে ভোজ্যতেল উৎপাদন ও বিতরণকারী কোম্পানিগুলোর শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বর্তমানে নির্ধারিত দাম হচ্ছে খোলা সয়াবিন তেল প্রতি লিটার ১২৯ টাকা, ৫ লিটারের বোতল ৭২৮ টাকা ও পাম তেল প্রতি লিটার ১১৬ টাকা।

অতিরিক্ত সচিব বলেন, ‘চিনির রেগুলেটরি ডিউটি কবে থেকে কার্যকর হচ্ছে, তা অ্যাসেসমেন্ট করে মানুষকে জানিয়ে খুব শিগগিরই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’

/এসআই/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে কারসাজি: এফবিসিসিআই

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে কারসাজি: এফবিসিসিআই

পণ্যের মান রক্ষায় বিসিএসআইআর’র ল্যাব ব্যবহার করবে বেঙ্গল হারবাল

পণ্যের মান রক্ষায় বিসিএসআইআর’র ল্যাব ব্যবহার করবে বেঙ্গল হারবাল

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

সোমবার রাতে যেসব এলাকায় গ্যাস থাকবে না

আপডেট : ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১০:০০

গ্যাসের পাইপলাইনের মেরামত কাজের জন্য সোমবার (১৮ অক্টোবর) রাত ১০টা থেকে রাজধানীর গুলশান, বনানীসহ আরও বেশ কিছু এলাকা ৮ ঘণ্টা গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে তিতাস গ্যাস। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পের আওতায় মহাখালী রেল ক্রসিং সংলগ্ন গ্যাস পাইপলাইন টাই-ইন কাজের জন্য সোমবার রাত ১০টা থেকে মঙ্গলবার সকাল ৬টা পর্যন্ত ৮ ঘণ্টা গুলশান, বনানী, মহাখালী ও তেজগাঁও শিল্প এলাকায় সকল শ্রেণির গ্রাহক গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকবে।

এছাড়া আশপাশের এলাকায় গ্যাসের চাপ কম থাকতে পারে বলে জানিয়েছে তিতাস।

/এসএনএস/এমআর/ইউএস/

সম্পর্কিত

রাজধানীর যেসব এলাকায় বৃহস্পতিবার গ্যাস থাকবে না

রাজধানীর যেসব এলাকায় বৃহস্পতিবার গ্যাস থাকবে না

গ্যাস ডিটেকটর নিয়ে নেই প্রচারণা, ভাবছে তিতাস

গ্যাস ডিটেকটর নিয়ে নেই প্রচারণা, ভাবছে তিতাস

আজ গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

আজ গ্যাস থাকবে না যেসব এলাকায়

ঢাকা শহরের উত্তরাংশসহ আশপাশের এলাকায় তীব্র গ্যাস সংকট

ঢাকা শহরের উত্তরাংশসহ আশপাশের এলাকায় তীব্র গ্যাস সংকট

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:০৯

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে আগামী ২০ অক্টোবর দেশের সব আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। এর আওতায় দেশের সব ব্যাংক এবং শেয়ারবাজারে কোনও কার্যক্রম হবে না। রবিবার (১৭ অক্টোবর) বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলার জারি করেছে।

আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠানো সার্কুলারে বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়েছে, পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে ১৯ অক্টোবর ছুটি ঘোষণা করা হয়েছিল। কিন্তু জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে ঘোষিত ছুটি ১৯ অক্টোবরের পরিবর্তে ২০ অক্টোবর নির্ধারণ করা হলো।

গত ১৪ অক্টোবর ব্যাংকগুলোর জন্য পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবীর (সা.) ছুটি সংক্রান্ত আরেকটি সার্কুলার জারি করেছিল বাংলাদেশ ব্যাংক।

/জিএম/জেএইচ/

সম্পর্কিত

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে কারসাজি: এফবিসিসিআই

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে কারসাজি: এফবিসিসিআই

পণ্যের মান রক্ষায় বিসিএসআইআর’র ল্যাব ব্যবহার করবে বেঙ্গল হারবাল

পণ্যের মান রক্ষায় বিসিএসআইআর’র ল্যাব ব্যবহার করবে বেঙ্গল হারবাল

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে কারসাজি: এফবিসিসিআই

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪০

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে একটি মহল কাজ করেছে এবং তাদের কারসাজিতে দাম বেড়েছিল বলে মন্তব্য করেছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন। রবিবার (১৭ অক্টোবর) নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর মজুত, আমদানি, সরবরাহ ও মূল্য পরিস্থিতির বিষয়ে ব্যবসায়ীদের সঙ্গে মতবিনিময় সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘আমদানিতে শুল্ক কমানোর ঘোষণা দেওয়ার পরপরই পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১৫ টাকা কমে এসেছে। মাত্র একদিনের ব্যবধানে ১৫ টাকা কমে কি? কমে না। এর মানে দাঁড়ায়, দাম বাড়ানোর পেছনে কারসাজি ছিল।’

তিনি বলেন, ‘পেঁয়াজের দাম নির্ধারণে বাজারে একটা সমস্যা ছিল। এটি না হলে একদিনে এত টাকা কমে না। আমরা সম্মানের সঙ্গে ব্যবসা পরিচালনা করতে চাই, কোনও কারসাজির প্রশ্রয় মানা হবে না। এখানে সংশ্লিষ্টদের যদি কোনও সমস্যা থাকে আমাদের জানান। আমরা আলোচনার মাধ্যমে আপনাদের সমস্যার সমাধান করবো।’

অনুষ্ঠানে পাইকার ও আড়তদার পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা বলেন, ‘আমদানির একটা বড় অংশ প্রতিবেশী দেশ ভারত থেকে আসে। সেখানে সম্প্রতি অতিবৃষ্টি আর বন্যায় পেঁয়াজ নষ্ট হয়েছে। আমাদের দেশেও এর প্রভাব পড়েছে।’

তবে শুল্ক কমানোর ঘোষণার একদিনের মাথায় দাম কমা নিয়ে এফবিসিসিআই সভাপতির প্রশ্নের যৌক্তিক উত্তর দিতে পারেননি পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা।

এ সময় ব্যবসায়ীদের উদ্দেশ করে এফবিসিসিআই সভাপতি বলেন, ‘ব্যবসায় লাভ-লোকসানের হিসাব থাকে। তাই বলে সুযোগ পেলেই দাম বাড়াবেন এটা হতে পারে না। এসব কারণে কতিপয় ব্যবসায়ী কিছু অর্থ পেলেও প্রকৃতপক্ষে আমাদের (ব্যবসায়ী) জন্য খুবই অসম্মানজনক।’

শ্যামবাজার ও কাওরান বাজার অপেক্ষা অন্যান্য কাঁচাবাজারে দাম ১০ থেকে ২০ টাকা পর্যন্ত বেশি রাখা হয়, এর কারণ কী? এই প্রশ্নে ব্যবসায়ীরা এফবিসিসিআই সভাপতিকে জানান, এলাকাভেদে দোকান ভাড়া বেশি। গুলশান আর কাওরান বাজারের ভাড়ার পার্থক্য অনেক। এছাড়া বিদ্যুতের ইউনিটপ্রতি মূল্য বেশি ও ট্রেড লাইসেন্সের খরচ বৃদ্ধিকে দায়ী করেন তারা।

 

/জিএম/আইএ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

পণ্যের মান রক্ষায় বিসিএসআইআর’র ল্যাব ব্যবহার করবে বেঙ্গল হারবাল

পণ্যের মান রক্ষায় বিসিএসআইআর’র ল্যাব ব্যবহার করবে বেঙ্গল হারবাল

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

পণ্যের মান রক্ষায় বিসিএসআইআর’র ল্যাব ব্যবহার করবে বেঙ্গল হারবাল

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩৩

বেঙ্গল হারবাল গার্ডেন লিমিটেড তাদের পণ্য উৎপাদনের গুণগত মান রক্ষায় বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের গবেষণাগার ব্যবহার করবে। এ লক্ষ্যে বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের সঙ্গে চু্ক্তি করেছে জেমকন গ্রুপের প্রতিষ্ঠান বেঙ্গল হারবাল গার্ডেন লিমিটেড। রবিবার (১৭ অক্টোবর) দুপুরে  বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের এ চুক্তি সাক্ষরিত হয়।

বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের সচিব শাহ আবদুল তারিক এবং বেঙ্গল হারবাল গার্ডেন লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার কৃষ্ণ কান্ত গোলদার নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই  করেন। এ সময় দুই প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের সচিব শাহ আবদুল তারিক এবং বেঙ্গল হারবাল  গার্ডেন লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার কৃষ্ণ কান্ত গোলদার নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে সই  করেন

এ চুক্তির আওতায় বেঙ্গল হারবাল গার্ডেন লিমিটেড তাদের পণ্য উৎপাদনের বিভিন্ন পর্যায়ে বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের গবেষণাগারে পণ্যের উপদান পরীক্ষা করে মান নিয়ন্ত্রণ করবে।

এ প্রসঙ্গে বেঙ্গল হারবাল গার্ডেন লিমিটেডের জেনারেল ম্যানেজার কৃষ্ণ কান্ত গোলদার বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, আমাদের পণ্য উৎপদানের জন্য কাঁচামাল নিজস্ব ল্যাবে পরীক্ষা করা হয়। গুণগত মান নিশ্চিত করেই পণ্য উৎপাদন করা হয়। এখন আমরা নিজস্ব ল্যাবের পাশাপাশি  বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদের ল্যাব ব্যবহার করবো। ফলে পণ্যের গুণগত আরও নিশ্চিত হবে।

প্রসঙ্গত, ২০১৭ সালে ফেব্রুয়ারিতে যাত্রা শুরু করে বেঙ্গল হারবাল  গার্ডেন লিমিটেড।

/সিএ/এমআর/

সম্পর্কিত

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব

আবারও সয়াবিন তেলের দাম বাড়ানোর প্রস্তাব

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

২০ অক্টোবর আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধ

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে কারসাজি: এফবিসিসিআই

পেঁয়াজের দাম বাড়ার পেছনে কারসাজি: এফবিসিসিআই

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

শেয়ার বিক্রির চাপে বড় দরপতন  

সম্পর্কিত

নিত্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণের দাবিতে মানববন্ধন

নিত্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণের দাবিতে মানববন্ধন

‘চাল এখন সাধারণ ব্যবসায়ীদের হাতে নেই’

‘চাল এখন সাধারণ ব্যবসায়ীদের হাতে নেই’

চাল আমদানির এলসি খোলার হার বেড়েছে পৌনে ৬ হাজার শতাংশ

চাল আমদানির এলসি খোলার হার বেড়েছে পৌনে ৬ হাজার শতাংশ

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে চাল আসা শুরু

হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত থেকে চাল আসা শুরু

 চাল আমদানি করবে ৭১ প্রতিষ্ঠান

 চাল আমদানি করবে ৭১ প্রতিষ্ঠান

যে খবরে কমছে চালের দাম

যে খবরে কমছে চালের দাম

ভারত থেকে চাল আমদানিতে আবেদনের হিড়িক

ভারত থেকে চাল আমদানিতে আবেদনের হিড়িক

চালের অবৈধ মজুতদারদের বিরুদ্ধে জরিমানা-মামলার নির্দেশ

চালের অবৈধ মজুতদারদের বিরুদ্ধে জরিমানা-মামলার নির্দেশ

সর্বশেষ

হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা ফোয়াদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি 

হত্যা মামলায় যুবলীগ নেতা ফোয়াদের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি 

পাবজি খেলা নিয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোর সংশোধনাগারে

পাবজি খেলা নিয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযুক্ত কিশোর সংশোধনাগারে

দক্ষিণ কোরিয়া গেলেন সেনাপ্রধান

দক্ষিণ কোরিয়া গেলেন সেনাপ্রধান

সম্পাদকের অনুসারীদের হাতে চবি ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি লাঞ্ছিত

সম্পাদকের অনুসারীদের হাতে চবি ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি লাঞ্ছিত

রাসেলকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি, জেলখানা ওর আব্বার বাড়ি

রাসেলকে নিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্মৃতি, জেলখানা ওর আব্বার বাড়ি

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

প্রেমিকার আপত্তিকর ছবি-ভিডিও ছড়িয়ে যুবক গ্রেফতার 

সেই বছরের আরব যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা পাঠাতে প্রস্তুত বঙ্গবন্ধু

সেই বছরের আরব যুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা পাঠাতে প্রস্তুত বঙ্গবন্ধু

প্রথমবারের মতো আর্থশট পুরস্কার ঘোষণা

প্রথমবারের মতো আর্থশট পুরস্কার ঘোষণা

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘চাল এখন সাধারণ ব্যবসায়ীদের হাতে নেই’

‘চাল এখন সাধারণ ব্যবসায়ীদের হাতে নেই’

চাল আমদানির এলসি খোলার হার বেড়েছে পৌনে ৬ হাজার শতাংশ

চাল আমদানির এলসি খোলার হার বেড়েছে পৌনে ৬ হাজার শতাংশ

 চাল আমদানি করবে ৭১ প্রতিষ্ঠান

 চাল আমদানি করবে ৭১ প্রতিষ্ঠান

নাগালের বাইরে চলে গেছে যেসব পণ্যের দাম

নাগালের বাইরে চলে গেছে যেসব পণ্যের দাম

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারের কোনও উদ্যোগই কাজে আসেনি

চালের বাজার নিয়ন্ত্রণে সরকারের কোনও উদ্যোগই কাজে আসেনি

© 2021 Bangla Tribune