X
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ১০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

কোম্পানীগঞ্জে ঘরে ঢুকে মা-ছেলেসহ সাংবাদিককে কুপিয়ে আহতের অভিযোগ

আপডেট : ২৪ জুন ২০২১, ১৭:২৬

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার সিরাজপুর ইউনিয়নের শাহাজাতপুর গ্রামের কবিরাজ বাড়িতে এক সাংবাদিককে তার মা ও ছেলেসহ সন্ত্রাসীরা কুপিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) দুপুর পৌনে ১টায় বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার অনুসারীরা এ হামলা চালিয়েছে বলে ওই সাংবাদিকের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ তোলা হয়েছে।

আহতরা হলেন- সাংবাদিক প্রশান্ত সুভাষ চন্দ্র (৪৭), তার মা বেবী রাণী (৬৫) ও ছেলে রন্টু চন্দ (২০)। প্রশান্ত সুভাষ চন্দ্র দৈনিক বাংলাদেশ সমাচারের বিশেষ প্রতিনিধি ও আঞ্চলিক অনলাইন পোর্টাল চলমান সময়ের প্রধান প্রতিবেদক এবং একই এলাকার কবিরাজ বাড়ির স্বপন কুমারের ছেলে।

সাংবাদিকের মা বেবী রাণী ও ছোট ভাই প্রজিত সুভাষ চন্দ্র অভিযোগ করে বলেন, গত পাঁচ মাস ধরে কোম্পানীগঞ্জে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে চলমান দ্বন্দ্বে অস্থিতিশীল অবস্থা বিরাজ করছে। এই সময় সুভাষের ফেসবুক স্ট্যাটাস এবং সংবাদ পরিবেশন নিয়ে সেতুমন্ত্রীর ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা তার ওপর ক্ষুব্ধ ছিলেন। কিছু দিন আগে একটি সমাবেশে বক্তৃতাকালে প্রকাশ্যে সুভাষকে হাঁটুর নিচে ভেঙে দেওয়ার জন্য তার অনুসারীদের নির্দেশ দেন মির্জা কাদের।

তারা জানান, আজ দুপুর পৌনে ১টায় সুভাষ তার বসত ঘরের সামনের কক্ষে একা শুয়ে ছিলেন। এ সময় মির্জা কাদেরের অনুসারী কেচ্ছা রাসেল, পিচ্ছি মাসুদ, টুটুল মজুমদার ও ইমনের নেতৃত্বে ৪০-৪৫ জন অস্ত্রধারী হঠাৎ এসে হামলা চালায়। এ সময় তারা সুভাষকে লোহার রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে বাম হাতের দুটি অংশে ভেঙে দেয় এবং মাথায় ছুরিকাঘাত করে গুরুতর আহত করে। মা এবং ছেলে তাকে বাঁচাতে এলে তাদেরকেও বেধড়ক পেটানো হয়। এক পর্যায়ে তাদের পরিবারের সদস্যদের চিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে এলে, সন্ত্রাসীরা স্থান ত্যাগ করে। পরে স্বজনরা সুভাষকে উদ্ধার করে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠান।

এ বিষয়ে জানতে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার ফোনে যোগাযোগ করা হলেও তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তার এক অনুসারী ফোন রিসিভ করে জানান, উনি বিশ্রামে আছেন।

ঘটনার পরপরই নোয়াখালী জেলা ও কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় কর্মরত গণমাধ্যমকর্মীরা সুভাষের ওপর হামলাকারীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন। একইসঙ্গে এ ধরনের হামলার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন বলেন, অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:২৮

বরিশালের আগৈলঝাড়ার বাগধা ইউনিয়নের খাজুরিয়া গ্রামে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় কনের মাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত দেখে বিয়ের আসর থেকে পালিয়ে যান বর, মেয়ের বাবা ও বরযাত্রী। 

করোনা সংক্রমণরোধে সরকারঘোষিত কঠোর লকডাউনে বিধিনিষেধ অমান্য করে রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে বাল্যবিয়ের আয়োজন করায় এ জরিমানা করা হয়।

স্থানীয় সূত্র জানায়, অষ্টম শ্রেণির ছাত্রীর (১৪) সঙ্গে কোটালীপাড়া উপজেলার কালারবাড়ি গ্রামের কবির খানের ছেলে জাহিদুল ইসলামের (২৫) বিয়ের আয়োজন চলছিল। ইউএনও হাজির হতেই সব পণ্ড হয়ে যায়।

ভ্রাম্যমাণ আদালতের বিচারক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আবুল হাশেম বলেন, দুপুরে বরযাত্রীরা কনের বাড়িতে যান। খবর পেয়ে কনের বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় বর, মেয়ের বাবা এবং বরযাত্রীরা দৌড়ে পালান। পরে সরকারি বিধিনিষেধ অমান্য করে বাল্যবিয়ের আয়োজন করার অপরাধে মেয়ের মাকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত মেয়েকে বিয়ে দেবে না মর্মে মুচলেকা দেন কনের মা।

/এএম/

সম্পর্কিত

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ময়মনসিংহে ৪৩৫টি মামলা

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে ময়মনসিংহে ৪৩৫টি মামলা

মাছটি বিক্রি হলো সাড়ে ৪ লাখ টাকায়

মাছটি বিক্রি হলো সাড়ে ৪ লাখ টাকায়

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:১৯

চট্টগ্রামে করোনায় বয়স্কদের মৃত্যুর হার বাড়ছে। মৃতদের অধিকাংশের বয়স ৬০ বছরের বেশি। এই পর্যন্ত চট্টগ্রামে গড়ে ৬০ বছরের ঊর্ধ্বে থাকা ৫৫ দশমিক ২৫ শতাংশ করোনা রোগী মারা গেছেন বলে জানিয়েছেন সিভিল সার্জন সেখ ফজলে রাব্বি।

এদিকে চট্টগ্রামে বয়স্করা বেশি মারা গেলেও করোনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত হচ্ছে যুবকরা। ২১ থেকে ৪০ বছর বয়সীরাই বেশি আক্রান্ত হয়েছেন। মোট আক্রান্তের ৪৩ দশমিক ৩৭ শতাংশ এই বয়সী।

সেখ ফজলে রাব্বি বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, চট্টগ্রামে করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে যুবকদের আক্রান্তের হার বেশি। মোট আক্রান্তের ২৩ দশমিক ১৪ শতাংশের বয়স ৩১ থেকে ৪০ বছর। এর পরই রয়েছে ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সীরা। মোট আক্রান্তের ২০ দশমিক ২৩ শতাংশ এই বয়সী। অন্যদিকে মৃতদের মধ্যে ৬১ বছর থেকে তার বেশি যাদের বয়স, তারা সবচেয়ে বেশি মারা গেছেন। মোট মৃতদের ৫৫ দশমিক ২৫ শতাংশ ৬০ বছরের বেশি বয়সী।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রামে আক্রান্তদের মধ্যে শূন্য থেকে ১০ বছর বসয়ী রয়েছেন দুই হাজার ৫৩ জন, যা মোট আক্রান্তের দুই দশমিক ৭২ শতাংশ। ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী পাঁচ হাজার ৭৭৫ জন, যা মোট আক্রান্তের সাত দশমিক ৬৬ শতাংশ। ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সীদের সংখ্যা ১৫ হাজার ২৫০ জন, যা মোট আক্রান্তের ২০ দশমিক ২৩ শতাংশ। ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ১৭ হাজার ৪৪৬ জন, যা মোট আক্রান্তের ২৩ দশমিক ১৪ শতাংশ। ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ১৩ হাজার ২৩১ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৭ দশমিক ৫৫ শতাংশ। ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ১১ হাজার ১৭৩ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৪ দশমিক ৮২ শতাংশ। ৬১ বছরের ঊর্ধ্বে আক্রান্ত ১০ হাজার ৪৩৫ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৩ দশমিক ৮৪ শতাংশ।

এদিকে মৃতদের মধ্যে শূন্য থেকে ১০ বছর বয়সী চার জন, যা মোট আক্রান্তের দশমিক ৪৫ শতাংশ। ১১ থেকে ২০ বছর বয়সী নয় জন, যা মোট আক্রান্তের এক দশমিক ০২ শতাংশ। ২১ থেকে ৩০ বছর বয়সী ১৭ জন, যা মোট আক্রান্তের এক দশমিক ৮০ শতাংশ। ৩১ থেকে ৪০ বছর বয়সী ৪২ জন, যা মোট আক্রান্তের চার দশমিক ৭৪ শতাংশ। ৪১ থেকে ৫০ বছর বয়সী ১১৬ জন, যা মোট আক্রান্তের ১৩ দশমিক ১০ শতাংশ। ৫১ থেকে ৬০ বছর বয়সী ২০৮ জন, যা মোট আক্রান্তের ২৩ দশমিক ৭৯ শতাংশ। ৬১ বছরের ঊর্ধ্বে মারা গেছেন ৪৮৯ জন, যা মোট আক্রান্তের ৫৫ দশমিক ২৫ শতাংশ।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম স্টেশনে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

বঙ্গবন্ধু সেতুর পশ্চিম স্টেশনে ভারত থেকে আসা অক্সিজেন

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:০৮

পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি উপজেলার সুটিয়াকাঠি ইউনিয়নের বাররা গ্রামে বুদ্ধি প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে দুই জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। স্বরূপকাঠী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবীর মোহাম্মদ হোসেন জানান, রবিবার (২৫ জুলাই) কিশোরীর বাবা হান্নান মিয়া ছয় জনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন। এর পরেই পুলিশের কয়েকটি টিম বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে দুই জনকে গ্রেফতার করে।

গ্রেফতার আসামিরা হলো– আসামি উজ্জ্বল হোসেন (১৯) ও মকবুল হোসেন (২০)।

ধর্ষণের শিকার কিশোরীর বাবার অভিযোগ, তার বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ১৫ বছরের মেয়েকে নানা প্রলোভন দেখিয়ে প্রতিবেশী আসামিরা বিভিন্ন সময় ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়লে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়। বর্তমানে মেয়েটি পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। জিজ্ঞাসাবাদে মেয়েটি জড়িত ছয় জনের নাম বলেছে।

স্বরূপকাঠী থানার ওসি বলেন, ‘ওসি তদন্তসহ থানার সব অফিসারদের নিয়ে গোটা এলাকায় চিরুনি অভিযান চালানো হয়েছে। এ সময় দুই জনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হই। আসামিদের আদালতে পাঠানো হয়েছে। ধর্ষণের শিকার কিশোরীর ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য পিরোজপুর সিভিল সার্জন অফিসে পাঠানো হয়েছে।’

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

শের-ই বাংলা মেডিক্যালে একদিনে ১৫ মৃত্যু

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৭:০০

পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে টানা ছয় দিন বন্ধের পর দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে দুই দেশের আমদানি-রফতানি কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

রবিবার (২৫ জুলাই) বেলা ১১টা থেকে আমদানি-রফতানি কার্যক্রম শুরু হয়। তবে পুরো কার্যক্রম স্বাভাবিক হতে আরও ২-৪ দিন সময় লাগবে বলে বন্দরের ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।
 
বন্দরের আমদানি-রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ঈদুল আজহা উপলক্ষে ১৮ জুলাই থেকে ২৪ জুলাই আমদানি-রফতানি কার্যক্রম বন্ধ ছিল। ঈদের ছুটি শেষে রবিবার দুপুর থেকে আমদানি-রফতানি শুরু হয়। একই সঙ্গে বন্দরের ভেতরে ভারতীয় ট্রাক থেকে পণ্য খালাস শুরু হয়।

/এএম/

সম্পর্কিত

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

পাথর শ্রমিকদের জালে ২৮ কেজির বাঘাইড়

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২১, ১৬:৫৮

পাথর শ্রমিকদের জালে ধরা পড়েছে ২৮ কেজি ওজনের বাঘাইড় মাছ। রবিবার (২৫ জুলাই) দুপুরে পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলা সদরের সীমান্ত নদী মহানন্দা থেকে মাছটি ধরা পড়ে। এটি বাড়িতে নিয়ে আসলে উৎসুক জনতা দেখতে ভিড় করেন। পরে স্থানীয় পাথর ব্যবসায়ী হাসিনুর ২০ হাজার টাকায় মাছটি কিনে নেন।

জানা গেছে, তেঁতুলিয়া উপজেলার সর্দারপাড়া এলাকার রকি, বিপ্লব, আবু হাসান, আজিজ, শাহাদাতসহ কয়েকজন পাথর শ্রমিক শখের বসে সীমান্তনদী মহানন্দায় মাছ ধরতে যান। এক পর্যায়ে জালে বড় মাছ পড়েছে বুঝতে পেরে সবাই মিলে ডুব দিয়ে মাছটি ধরেন। পরে নদীর পাড়ে তোলার পর অনেকেই দেখতে ছুটে আসেন। পরে বাসায় নিয়ে গেলে খবর পেয়ে পাথর ব্যবসায়ী হাসিনুর রহমান মাছটি কিনে নেন।

মহানন্দা নদীর পানি কমে গেলে বড় মাছ পাওয়া যায়। নদীটি ভারত থেকে প্রবাহিত হয়ে তেঁতুলিয়ার সীমান্ত দিয়ে আবার ভারতে প্রবেশ করেছে।

পাথর শ্রমিক রকি জানান, নদী থেকে বড় মাছ ধরতে পেরে তারা অনেক আনন্দিত। মাছ বিক্রির টাকা সবাই সমান ভাগে ভাগ করে নিয়েছেন বলেও জানান তিনি।

পঞ্চগড়ের জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. শাহনেওয়াজ সিরাজী জানান, দেশি আইড় মাছেরই একটি প্রজাতি বাঘাইড় মাছ। এটি নদীতে পাওয়া যায়। পার্শ্ববর্তী ভারত থেকে যেসব নদীর সংযোগ রয়েছে, বিশেষ করে পঞ্চগড়ের তেঁতুলিয়ার মহানন্দা, করতোয়া, নীলফামারীর তিস্তা ও গাইবান্ধার ব্রহ্মপুত্র নদীতে এই মাছ বেশি পাওয়া যায়। এটি অত্যন্ত সুস্বাদু এবং পুষ্টিমান সমৃদ্ধ মাছ। তবে দামও অনেক বেশি। এর আগেও এই নদীতে ৪৫ কেজি ওজনের মাছ পাওয়া গেছে।

 

/এমএএ/

সম্পর্কিত

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

পাইকার না আসায় চামড়া নিয়ে বিপাকে হিলির ব্যবসায়ীরা

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

রংপুরে প্রথম ত্বীন চাষ, সাত মাসে লাখ টাকা আয়

লকডাউনেও জমজমাট পশুর হাট

লকডাউনেও জমজমাট পশুর হাট

সর্বশেষ

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

নাসুমকে তিন ছক্কা মারা চাকাভাকে ফেরালেন সৌম্য 

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

বিয়ের আসর থেকে বরের পলায়ন, কনের মায়ের জরিমানা

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

চিকিৎসকসহ ৮৮৯০ স্বাস্থ্যকর্মী করোনায় আক্রান্ত

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

কওমি মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা টিকা পাবেন কবে?

শ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

অলিম্পিক টেনিসশ্রেষ্ঠত্ব আর থাকছে না মারের

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

সাইফউদ্দিন উইকেট নিলেও জিম্বাবুয়ের আগ্রাসী ব্যাটিং

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

ইরাকের মাটিতে মার্কিন সেনার প্রয়োজন নেই: প্রধানমন্ত্রী আল-খাদিমি

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

নতুন যেসব সুবিধা পাচ্ছেন ইউনিলিভারের কর্মীরা

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

প্রতিবন্ধী কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ২

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

৯৯৯ নম্বরে ফোন দিয়ে উদ্ধার পেলো তরুণী

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

৬ দিন পর হিলি দিয়ে আমদানি-রফতানি শুরু

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

চট্টগ্রামে করোনায় মৃত অধিকাংশের বয়স ষাটোর্ধ্ব

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

টেস্ট করাতে হাসপাতালে রোগীর চাপ 

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

লকডাউনেও নৌ পথে ডিজে পার্টি

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, অপমানে মাদ্রাসাছাত্রীর আত্মহত্যা!

চট্টগ্রামে আরও ১১ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৮০১

চট্টগ্রামে আরও ১১ মৃত্যু, নতুন শনাক্ত ৮০১

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

স্ত্রীর সঙ্গে পরকীয়া, পিটিয়ে হত্যার পর ভাসিয়ে দিলেন লাশ

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে রশিতে বেঁধে পেটানোর অভিযোগ

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

শরীরে ক্যামেরা নিয়ে চলবে চট্টগ্রামের ৪ থানার পুলিশ

© 2021 Bangla Tribune