X
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিচ্ছে তুরস্ক: এরদোয়ান

আপডেট : ১০ জুলাই ২০২১, ১৮:০৯

আফগানিস্তান থেকে বিদেশি বাহিনী প্রত্যাহারের কাবুল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিচ্ছে তুরস্ক। এ ব্যাপারে ওয়াশিংটনের সঙ্গে সমঝোতা হয়েছে হয়েছে আঙ্কারার। তুর্কি সেনারা কীভাবে এই বিমানবন্দরের নিরাপত্তা রক্ষা করবে তার সব দিক সম্পর্কে বিস্তারিত চুক্তি হয়েছে। শুক্রবার এমন মন্তব্য করেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান।

৩১ আগস্টের মধ্যে আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন। তার আগেই কাবুলের হামিদ কারজাই আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের দায়িত্ব নিতে সম্মত হয়েছে তুরস্ক। এর মাধ্যমে ওয়াশিংটন ও আঙ্কারার মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়নের বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে।

প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেছেন, বিষয়টি নিয়ে বৃহস্পতিবার তুরস্ক ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষামন্ত্রীদের মধ্যে কথা হয়েছে। সেখানে আমরা জানিয়ে দিয়েছি, আমরা কতটুকু দায়িত্ব গ্রহণ করবো এবং কতটুকু করতে পারবো না।

এর আগে গত মাসে ব্রাসেলসে ন্যাটো জোটের শীর্ষ সম্মেলনে বিষয়টি নিয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সঙ্গে কথা বলেন এরদোয়ান। সেখানে তুরস্ককে কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব নিতে সম্মত হয় তুরস্ক। এজন্য এরদোয়ানকে ধন্যবাদ জানান বাইডেন।

আফগানিস্তানে কর্মরত পশ্চিমা কূটনীতিক ও কর্মীদেরকে নিরাপদে দেশটি থেকে বের করে নেওয়ার প্রধান রুট হচ্ছে কাবুল বিমানবন্দর। ন্যাটো ও মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহার করে নেওয়া হলে তালেবানের হাতে বিমানবন্দরটির পতন হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। ফলে এটির নিরাপত্তা রক্ষার ওপর বাইডেন প্রশাসন ব্যাপক জোর দিচ্ছে।

২০০১ সালে মার্কিন হামলায় তৎকালীন তালেবান সরকারের পতন ঘটলে ন্যাটো জোটের অধীনে দেশটিতে কয়েকশ’ সেনা মোতায়েন করে তুরস্ক। তখন থেকে গত ২০ বছর দেশটিতে শত শত তুর্কি সেনা মোতায়েন ছিল। তবে কাবুল বিমানবন্দর পরিচালনার দায়িত্বে তুরস্ক বা কোনও বিদেশি শক্তিকে দেখতে চায় না তালেবান।

তালেবানের মুখপাত্র সুহেল শাহীন সম্প্রতি বলেছেন, ২০২০ সালের স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুসারে তুরস্কের উচিত নিজেদের সেনাদের আফগানিস্তান থেকে প্রত্যাহার করা। দলটির দোহাভিত্তিক একজন মুখপাত্র রয়টার্সকে বলেছেন, ২০ বছর ধরে তুরস্ক ন্যাটোর অংশ ছিল। ফলে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ২০২০ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারিতে স্বাক্ষরিত চুক্তি অনুযায়ী তুর্কি সেনাদের আফগানিস্তান ছাড়তে হবে।

তালেবান মুখপাত্র আরও বলেন, তুরস্ক একটি মুসলিম দেশ। আফগানিস্তানের সঙ্গে তাদের ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে। ভবিষ্যতে যখন আমরা নতুন ইসলামি সরকার গঠন করবো তখন তাদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ ও ভালো সম্পর্ক প্রত্যাশা করি।

তালেবান বলছে, মার্কিন ও ন্যাটো সেনা প্রত্যাহারের পর বিদেশিদের আফগানিস্তানে সামরিক উপস্থিতি বজায় রাখার ‘কোনও আশা’ রাখা উচিত নয়। দূতাবাস ও বিমানবন্দরগুলোর নিরাপত্তা নিশ্চিত করা আফগানদেরই দায়িত্ব। তালেবানের এমন বিরোধিতার মুখেই শুক্রবার কাবুল বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেওয়ার ঘোষণা দিলেন এরদোয়ান। সূত্র: মিডল ইস্ট আই, পার্স টুডে, রয়টার্স।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২৩:৫৬

তালেবান আফগানিস্তানের বৈধ সরকার। তবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যদি তাদের স্বীকৃতি না দেয়, তাহলে লাভবান হবে জঙ্গিগোষ্ঠী দায়েশ (আইএস)। তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সির সঙ্গে আলাপকালে এমন মন্তব্য করেছেন তালেবান সরকারের অন্তর্বর্তীকালীন পররাষ্ট্রমন্ত্রী আমির খান মুত্তাকি।

গত শুক্রবার কান্দাহারের শিয়া মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনায় আইএস দায় স্বীকারের পর তালেবানের পক্ষ থেকে এমন মন্তব্য এলো। ওই বিস্ফোরণে অন্তত ৪৭ জন নিহত এবং আরও ৭০ জন আহত হয়।

আমির খান মুত্তাকি বলেন, তালেবান সরকারের আনুষ্ঠানিক স্বীকৃতি এবং আন্তর্জাতিক সহায়তা আফগানিস্তানের অর্থনীতি পুনরুদ্ধারের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

কাবুলে ক্ষমতার পালাবদলের পর যুক্তরাষ্ট্রে জমা থাকা আফগানিস্তানের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের রিজার্ভ জব্দ করে বাইডেন প্রশাসন। ওয়াশিংটনের এমন পদক্ষেপের সমালোচনা করেন আফগান পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র যেভাবে আফগানিস্তানের রিজার্ভ আটকে দিয়েছে সেটি আন্তর্জাতিক আইন ও মানবাধিকারের লঙ্ঘন।

তিনি বলেন, এই অর্থ কেন আটকে দেওয়া হয়েছে? আফগানদের অপরাধ কী? তারা কী করেছে?

/এমপি/

সম্পর্কিত

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২৩:১৭

তাইওয়ান প্রণালীতে একটি মার্কিন ও একটি কানাডীয় যুদ্ধজাহাজ চলাচল করেছে। রবিবার যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনী জানায়, গত সপ্তাহে জাহাজ দুটি এই প্রণালী অতিক্রম করে। চীন ও তাইওয়ানের মধ্যকার চরম উত্তেজনার মধ্যে একথা জানানো হলো।

রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুসারে, মার্কিন সেনাবাহিনী আরলেই বার্ক-ক্লাস গাইডেড মিসাইল ডেস্ট্রয়ার ডেউয়ি পাঠায় তাইওয়ান প্রণালীতে। কানাডার ফ্রিগেট এইচএমসিএস উইনিপিগকে পাঠানো হয়েছিল ওই জলসীমায়। বৃহস্পতি ও শুক্রবার নৌযান দুটি তাইওয়ান প্রণালীতে চলাচল করে।

মার্কিন সেনাবাহিনী জানায়, আমাদের মিত্র ও অংশীদারদের প্রতি স্বাধীন ও উন্মুক্ত ইন্দো-প্রশান্ত অঞ্চলের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিশ্রুতির নিদর্শন হিসেবে যুদ্ধজাহাজ দুটি সেখানে চলাচল করেছে।

চীন এই পদক্ষেপের নিন্দা জানিয়েছে। তারা বলেছে জাহাজ দুটির চলাচল শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য হুমকি।

 

/এএ/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

শ্রমিকদের এমন ক্ষোভ কয়েক দশক দেখেনি যুক্তরাষ্ট্র

শ্রমিকদের এমন ক্ষোভ কয়েক দশক দেখেনি যুক্তরাষ্ট্র

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৫৬

জাপানের একদল গবেষক একটি ফটোক্যাটালিটিক বা আলোক-অনুঘটকের উপাদান ব্যবহার করে নিরাপদে পানি থেকে অতি বিশুদ্ধ হাইড্রোজেন উৎপাদনে সক্ষম হয়েছেন। একটি ফটোক্যাটালিস্ট, সূর্যরশ্মি শোষণের মাধ্যমে পানি থেকে হাইড্রোজেন ও অক্সিজেনের বিভক্ত হওয়ার গতিকে ত্বরান্বিত করে।

জীবাশ্ম জ্বালানির বিপরীতে পোড়ানোর সময় হাইড্রোজেন থেকে কার্বন-ডাই-অক্সাইড গ্যাস নিঃসরিত হয় না। হাইড্রোজেন গ্যাসকে কার্বন-মুক্ত বিশ্ব গড়ার চাবিকাঠি হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

টোকিও বিশ্ববিদ্যালয়, শিনশু বিশ্ববিদ্যালয় এবং অন্যান্য বিভিন্ন সংস্থার গবেষকরা বাইরে স্থাপিত ১০০ বর্গমিটার আয়তনের সৌর প্যানেল চুল্লিতে একটি ফটোক্যাটালিটিক উপাদান ব্যবহার করে পানি থেকে হাইড্রোজেন উৎপাদনের গবেষণা চালান।

গবেষক দলটি বলছে, তারা ৯৪ শতাংশ বিশুদ্ধতায় উৎপাদিত হাইড্রোজেনের ৭০ শতাংশের বেশি নিরাপদে পুনরুদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছেন।

দলটি বলছে, হাইড্রোজেনকে আরও কার্যকরভাবে বের করে আনতে সক্ষম এমন একটি নতুন উপাদানের উন্নয়নই হবে এই প্রযুক্তিকে ব্যবহার উপযোগী করার পরবর্তী ধাপ। সূত্র: এনএইচকে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:৩৭

লেবাননের পার্লামেন্টে হিজবুল্লাহ সমর্থিত সংসদীয় দলের প্রধান মুহাম্মাদ রায়াদ বলেছেন, বৃহস্পতিবারের বিক্ষোভে যারা গুলি চালিয়েছে তারা শাস্তি পাবে। তবে আমরা দেশে গৃহযুদ্ধ হতে দেবো না। ষড়যন্ত্রকারীরা সফল হবে না। পাশাপাশি সেদিন যারা শহীদ হয়েছেন তাদের রক্ত বৃথা যেতে দেবো না। বৈরুতে এক অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

রায়াদ বলেন, বিক্ষোভকারীদের হত্যার বিচারের বিষয়ে সরকার কী করছে তা আমরা পর্যবেক্ষণ করছি। ঘাতকদের চিহ্নিত করে তাদের শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। সরকারের পদক্ষেপের জন্য অপেক্ষা করবো। আমাদের শহীদদের রক্তকে ভুলে যাবো না।

বৈরুতে বিস্ফোরণের বিষয়ে তিনি বলেন, একদল ব্যক্তি বিস্ফোরণ সংক্রান্ত সত্য ফাঁস হতে দিতে চায় না। তারা কাদেরকে ভয় পাচ্ছে? তবে সত্য প্রকাশ হবেই।

গত বৃহস্পতিবার বৈরুতে আদালতের সামনে বিক্ষোভের ডাক দেয় হিজবুল্লাহ ও আমাল মুভমেন্ট। কিন্তু শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভে একদল অস্ত্রধারী গুলি চালায়। এতে সাত জন নিহত এবং ৬০ জন আহত হয়।

গত বছর বৈরুত বন্দরে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনার তদন্ত থেকে বিচারক তারেক বিতারকে অপসারণের দাবিতে হিজবুল্লাহ ও আমাল মুভমেন্ট ওই বিক্ষোভের ডাক দিয়েছিল। ওই বিচারকের তৎপরতাকে পক্ষপাতদুষ্ট বলে দাবি করেছে এই দুই সংগঠন। বিক্ষোভকারীরা তাকে আমেরিকার দাস হিসেবে আখ্যায়িত করেছে।

গত বছরের ৪ আগস্ট দুই দফায় ভয়াবহ বিস্ফোরণে কেঁপে ওঠে লেবাননের রাজধানী বৈরুত। এতে দুই শতাধিক মানুষ নিহত হন। ওই বিস্ফোরণের তদন্তে পক্ষপাতিত্ব করা হচ্ছে বলে বিচারক তারেক বিতারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছে দেশটির ইরান সমর্থিত শিয়াপন্থী সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। সূত্র: পার্স টুডে।

/এমপি/

সম্পর্কিত

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

সৌরজগতের রহস্য উদ্ধারে বৃহস্পতির পথে মহাকাশযান 'লুসি'

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩৪

জুপিটার বা বৃহস্পতি গ্রহের কাছে যেসব গ্রহাণু ঘুরে বেড়াচ্ছে, সেগুলো পরীক্ষা নিরীক্ষা করে দেখতে একটি মহাকাশযান পাঠিয়েছে নাসা। কীভাবে সৌরজগৎ তৈরি হয়েছে, এই অভিযান সেই রহস্য উম্মোচনে সহায়তা করবে বলে আশা করা হচ্ছে। একে বলা হচ্ছে, সৌরজগতের 'জীবাশ্ম' খোঁজার অভিযান।

শনিবার ফ্লোরিডার কেপ ক্যানাভেরাল থেকে 'লুসি' নামের এই মহাকাশযানটি উৎক্ষেপণ করা হয়েছে। বৃহস্পতি গ্রহের কক্ষপথে গ্যাসের যে বিশাল আস্তরণ আছে, সেখানে গ্রহাণু যে ঝাঁক বেঁধে ঘুরতে থাকে, সেই গ্রহাণুগুলো পর্যবেক্ষণ করবে মহাকাশ প্রোব লুসি।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা'র বিজ্ঞানীরা বলছেন, গ্রহগুলো গঠন হওয়ার সময় এসব বস্তু অবশিষ্টাংশ হিসেবে রয়ে গেছে।

ফলে ট্রোজান নামে পরিচিত এসব গ্রহাণুর ভেতরে সৌরজগতের গঠন সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ সূত্র থাকতে পারে বলে মনে করা হয়।

আগামী ১২ বছর ধরে এই মিশনের পেছনে ৯৮ কোটি ১০ লাখ ডলার খরচ করার পরিকল্পনা করেছে নাসা। এর আগেও গ্রহাণু পর্যবেক্ষণে মহাকাশযান পাঠিয়েছে সংস্থাটি। এই সময় ধরে লুসি সাতটি ট্রোজান (গ্রহাণু) পর্যবেক্ষণ করবে।

আফ্রিকা থেকে পাওয়া মানবদেহের একটি সুপরিচিত ফসিলের নাম লুসি। এর মাধ্যমে আমরা পূর্বপুরুষদের সম্পর্কে অনেক তথ্য জানতে পেরেছি।

ওই নাম থেকেই নাসার এই মিশন অনুপ্রেরণা নিয়েছে এবং নামটিও। পার্থক্য হলো এই মহাকাশযানটি ইতিহাস খুঁজবে পৃথিবী থেকে লাখ লাখ কিলোমিটার দূরের একটি গ্রহে এবং বৃহস্পতি গ্রহের সঙ্গে সঙ্গে সূর্যের চারদিকে ঘুরবে।

কলোরাডোর সাউথওয়েস্ট রিসার্চ ইন্সটিটিউটের পক্ষে লুসি'র প্রধান পরীক্ষক হ্যাল লেভিশন ব্যাখ্যা করে বলেন, ‘ট্রোজান গ্রহাণুগুলো বৃহস্পতি গ্রহের কক্ষপথে ৬০ ডিগ্রি অ্যাঙ্গেলে ঘুরতে থাকে। তারা বৃহস্পতি আর সূর্যের মহাকর্ষীয় প্রভাবে আটকে আছে। সৌরজগতের শুরুতে যদি সেখানে কোনও বস্তু রাখা হয়, তাহলে সেটা চিরদিন সেভাবেই থাকবে। সুতরাং এটা বলা যায়, এগুলো আসলে কোন গ্রহ থেকে গঠিত জীবাশ্ম।’

লুসি তার সরঞ্জাম ব্যবহার করে একেকটা শহর আকৃতির এসব বস্তু পরীক্ষা নিরীক্ষা করবে। এগুলোর আকার, গঠন, ভূপৃষ্ঠের উপাদান, তাপমাত্রা এবং কী দিয়ে তৈরি- এসব বিষয় পরীক্ষা করা হবে। এর পাশাপাশি বৃহস্পতি গ্রহের আশেপাশে অন্য যেসব গ্রহাণু আসবে, সেগুলোও পরীক্ষা করে দেখবে লুসি।

এই মহাকাশ অভিযানে লুসি ছয়শ’ কোটি কিলোমিটার পথ পাড়ি দেবে, যা এক সময় অসম্ভব বলে ভাবা হতো। সূত্র: বিবিসি বাংলা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

গোপনে চীনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র ঘুরলো পৃথিবীর কক্ষপথ

গোপনে চীনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র ঘুরলো পৃথিবীর কক্ষপথ

মহাকাশ ঘুরে পৃথিবীতে ফিরলেন চার পর্যটক

মহাকাশ ঘুরে পৃথিবীতে ফিরলেন চার পর্যটক

শেষ হলো চীনের সবচেয়ে দীর্ঘমেয়াদি মানুষবাহী মহাকাশ মিশন

পৃথিবীতে ফিরলেন তিন চীনা নভোচারী

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনের রুশ নির্মিত অংশে আগুন

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে আগুন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

তাইওয়ান প্রণালীতে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডার যুদ্ধজাহাজ

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

পানি থেকে ব্যাপক আকারে হাইড্রোজেন উৎপাদনে সাফল্য

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

লেবাননে গৃহযুদ্ধ হতে দেওয়া হবে না: হিজবুল্লাহ

রাশিয়ায় টানা চতুর্থ দিনের মতো রেকর্ড করোনা সংক্রমণ

রাশিয়ায় টানা চতুর্থ দিনের মতো রেকর্ড করোনা সংক্রমণ

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

ইরানের কর্মকাণ্ড নজরদারিতে গোপন ঘাঁটি তৈরি করছে ইসরায়েল!

শিয়া মসজিদগুলোতে হামলার হুমকি দিলো আইএস

শিয়া মসজিদগুলোতে হামলার হুমকি দিলো আইএস

সর্বশেষ

গিটার সঙ্গী স্বপনের স্মৃতিতে আইয়ুব বাচ্চু

গিটার সঙ্গী স্বপনের স্মৃতিতে আইয়ুব বাচ্চু

‘রাসেল নামটি শুনলেই যে ছবি সামনে ভেসে আসে...’

‘রাসেল নামটি শুনলেই যে ছবি সামনে ভেসে আসে...’

প্রথমবার জাতীয়ভাবে ‘শেখ রাসেল দিবস’ পালিত হচ্ছে আজ

প্রথমবার জাতীয়ভাবে ‘শেখ রাসেল দিবস’ পালিত হচ্ছে আজ

আজ রক পুরোধার প্রয়াণ দিবস

আজ রক পুরোধার প্রয়াণ দিবস

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

‘তালেবান সরকার স্বীকৃতি না পেলে লাভবান হবে আইএস’

© 2021 Bangla Tribune