X
বুধবার, ০৪ আগস্ট ২০২১, ২০ শ্রাবণ ১৪২৮

সেকশনস

কর্মহীন মানুষের ব্যবস্থা সরকারকেই করতে হবে: শিরিন আখতার

আপডেট : ১৬ জুলাই ২০২১, ১৬:২৪

জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি বলেছেন, করোনা সংক্রমণ রোধ, রোগীদের চিকিৎসা-অক্সিজেন, করোনায় কর্মহীন ও আয়হীন মানুষের খাদ্যের ব্যবস্থার দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে। তিনি বলেন, ‘একজন মানুষও যেন বিনা চিকিৎসায় মারা না যান, একজন মানুষও যেন না খেয়ে থাকেন, তা সরকারকেই নিশ্চিত করতে হবে।’

শুক্রবার (১৬ জুলাই) রাজধানীর  শহীদ কর্নেল তাহের মিলনায়তনে আয়োজিত এক সভায় শিরিন আখতার এসব কথা বলেন।

জাসদের প্রতিষ্ঠাকালীন নেতা ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ জাফর সাজ্জাদের ১১তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে এই অনুষ্ঠান আয়োজন করে জাসদ ও সহযোগী সংগঠনগুলো। 

সৈয়দ জাফর সাজ্জাদ খিচ্চুর সংগ্রামী, আত্মত্যাগী জীবনের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে শিরিন আখতার বলেন, ‘সমাজতন্ত্রের লক্ষ্যে সংগ্রাম এগিয়ে নেওয়ার পথেই দুর্নীতি, লুটপাট, বৈষম্য, মৌলবাদ, জঙ্গিবাদ, সম্প্রদায়িকতা মোকাবিলা করতে হবে।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন— জাসদের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সফি উদ্দিন মোল্লা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাদের চৌধুরী, আব্দুল্লাহিল কাইয়ূম, জাতীয় শ্রমিক জোট-বাংলাদেশের সভাপতি সাইফুজ্জামান বাদশা, জাতীয় যুব জোটের সভাপতি রোকনুজ্জামান রোকন ও সাধারণ সম্পাদক শরিফুল কবির স্বপন, জাতীয় কৃষক জোটের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান ফঁসি ও আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন প্রমুখ।

 

 /এসটিএস/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৯:৩৫

ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি দেশে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে বলে প্রত্যাশা করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) তার উত্তরার বাসায় মহানগর উত্তর-দক্ষিণের নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের সঙ্গে বৈঠকের পর বিএনপির মহাসচিব এই প্রত্যাশা ব্যক্ত করেন।

সোমবার (২ আগস্ট) আমানউল্লাহ আমানের নেতৃত্বে উত্তরের ৪৭ সদস্য এবং আবদুস সালামের নেতৃত্বে দক্ষিণের ৪৯ সদস্যের নতুন আহ্বায়ক কমিটির অনুমোদন দেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। উত্তরের সদস্য সচিব হয়েছেন আমিনুল হক এবং দক্ষিণের রফিকুল আলম মজনু।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘এই দুইটি কমিটি আআমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশে গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির  প্রতি সারাদেশে মানুষের প্রত্যাশা অনেক বেশি। এরা সকলে পরীক্ষিত নেতা। আমাদের বর্তমান রাজনৈতিক যে প্রেক্ষাপট, সেই প্রেক্ষাপটে এটা (নতুন কমিটি গঠন) নিঃসন্দেহে একটা  অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত। আমাদের প্রত্যাশা হচ্ছে যে, এই কমিটির মাধ্যমে বাংলাদেশের রাজনীতির একটা গুনগত পরিবর্তন আসবে। বর্তমানে যে অগণতান্ত্রিক একটি সরকার  আমাদের সমস্ত আশা-আকাঙ্ক্ষা বিনষ্ট করে দিচ্ছে, সেখানে তারা তাদের দায়িত্ব পালন করবেন। ভূমিকা রাখবেন গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার জন্য, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য।’

বর্তমান কমিটি নিয়ে অনেকের ক্ষোভ আছে যে, তাদের মূল্যায়ন করা হয়নি, এমন প্রশ্নের জবাবে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘বিএনপি একটা বিশাল রাজনৈতিক দল। সেই দলে যখন একটি কমিটি তৈরি করা হয়, তখন ছোট-খাটো সমস্যা থাকতেই পারে। আমরা এটা দেখছি যে, একেবারে পরীক্ষিত নেতাদের দিয়েই এই কমিটি করা হয়েছে। প্রবীণ এবং নবীনের সমন্বয়ে করা হয়েছে। এটা নিঃসন্দেহে একটা কার্য্করী কমিটি হবে বলে আমাদের বিশ্বাস। সকলের যে প্রত্যাশা সেই প্রত্যাশা হচ্ছে, অত্যন্ত সক্রিয়, সচল এবং কার্য্করী এই আহ্বায়ক কমিটি  অতি দ্রুত দলকে সুসংগঠিত করবে এবং একটি কাউন্সিলের মাধ্যমে নতুন কার্য্করী কমিটি গঠন করবে।’

মহানগর উত্তরের নতুন আহ্বায়ক দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমান উল্লাহ আমান বলেন, ‘আজকে গণতন্ত্র অনুপস্থিত, একদলীয় শাসন ব্যবস্থা চলছে। নির্যাতন-নিপীড়ন ও অগণতান্ত্রিক কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে দেশ পরিচালিত হচ্ছে। সেজন্য সংগঠনকে ঢেলে সাজিয়ে জনগণের যে প্রত্যাশা, জনগণ যাতে ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট তিতে পারে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে পারে, একটি নিরপেক্ষ নির্দলীয় সরকারের অধীনে যাতে নির্বাচন হতে পারে, সেই নির্বাচনের মধ্য দিয়ে যাতে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা হয়— সেই লক্ষ্যকে সফল করার জন্যে আমরা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ একসঙ্গে একযোগে রাজপথে আন্দোলন-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে কাজ করবো। যদি প্রয়োজন হয় ১৯৯০ সালের মতো আরেক গণঅভ্যুত্থানের মধ্য দিয়ে এই নব্য স্বৈরাচারী অগণতান্ত্রিক, অবৈধ, মিডনাইটের সরকারকে রাষ্ট্র ক্ষমতাকে সরাতে আমাদের আন্দোলন-সংগ্রাম করবো।’

মহানগর দক্ষিণের নতুন আহ্বায়ক চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আব্দুস সালাম বলেন, ‘আমরা চেষ্টা করবো যাতে এই দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করতে পারি, সবাইকে সাথে নিয়ে। সে ব্যাপারে মহাসচিব থেকে শুরু করে মহানগরসহ দলের সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীর সহযোগিতা চাই। আমরা উত্তর-দক্ষিণ মহানগর একসঙ্গে  মিলেই সমবেতভাবে মহানগরীতে কাজ করার চেষ্টা করবো— যাতে কোথাও কোনও গ্যাপ সৃষ্টি না হয়, কোনও ভুল-বুঝাবুঝির সৃষ্টি না হয়। সবাইকে নিয়ে আমরা কাজ করতে চাই।’

 

 

/সিএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

ইতিহাসের ভিলেনকে জোর করে নায়ক বানানো যায় না: ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ১৪:৪৭

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, আমরা জিয়ার ভাবমূর্তি নষ্ট করতে যাবো কেন?  সময়ের ধারাবাহিকতায় চুল-চেরা বিশ্লেষণের মাধ্যমে ইতিহাসই যার যার স্থান নির্ধারণ করে দেয়। ইতিহাসের ভিলেনকে জোর করে ইতিহাসের নায়ক বানানো যায় না।

মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) জাতীয় সংসদ ভবন এলাকাস্থ  বাসভবনে ব্রিফিংকালে বঙ্গবন্ধুর হত্যাকাণ্ড নিয়ে বিএনপি মহাসচিবের প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আগস্ট মাস এলেই বিএনপি রক্তাক্ত অতীতের অন্তরজ্বালা নিয়ে অস্থির হয়ে পড়ে।

বিএনপি আজ আষাঢ়ে গল্প ফেঁদেছে। বঙ্গবন্ধু হত্যায় নাকি আওয়ামী লীগ জড়িত এবং সরকার নাকি জিয়াউর রহমানের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে চাইছে - বিএনপি মহাসচিবের এমন বক্তব্য অনেকটা ‘ঠাকুর ঘরে কে রে, আমি কলা খাইনা'র মতো।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার কুশীলব কারা তা এখন জাতির কাছে স্পষ্ট। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে প্রশ্ন রেখে বলছি, কারা হত্যাকাণ্ডের বেনিফিশিয়ারি, বঙ্গবন্ধু হত্যার পর খুনি মোশতাক কাকে সেনাপ্রধান করেছিলো, জিয়ার ভূমিকা কি ছিলো, খুনিরা হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে কার কাছে রিপোর্ট করেছিলো, তখন জিয়ার মন্তব্য কি ছিলো? এসব ঐতিহাসিক সত্য বিএনপি নেতারা নতুন করে বাকপটুতায় ধামাচাপা দেওয়ার নির্লজ্জ ব্যর্থ চেষ্টা করছে, যা করেও কোন লাভ নেই।

তিনি বলেন, বিএনপির "শিবের গীত" জনগণের কাছে এখন পরিষ্কার। বঙ্গবন্ধুর খুনিদের কারা নিরাপদে  বিদেশে চলে যেতে সহযোগিতা করেছিলো?  কারা পুনর্বাসন ও পুরস্কৃত করেছিলো, দূতাবাসে কে চাকরি দিয়েছিলো? জিয়াউর রহমানকে "ধোয়া তুলসী পাতা" বানানোর অপচেষ্টা জনগণ কখনো মেনে নেবে না।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান যদি এতই নিষ্পাপ হন তাহলে বিচার বন্ধ করলেন কেন? এতসব প্রশ্নের জবাব নিশ্চয়ই বিএনপি দিতে পারবে না।

কাদের বলেন, বিএনপি কথায় কথায় মানবাধিকারের কথা বলে, গণতন্ত্রের কথা বলে, অথচ সপরিবারে জাতির পিতাকে হত্যার একুশ বছর পর্যন্ত আমরা কোন বিচারই চাইতে পারিনি। বিচার চাওয়ার অধিকার পর্যন্ত জিয়াউর রহমান কেড়ে নিয়ে ছিলেন। আর এখন মিষ্টি মিষ্টি কথায় নতুন ইতিহাসের প্রলাপ বকছেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করে হাওয়া ভবন থেকে গ্রেনেড হামলার নির্দেশনা  ও  মনিটরিং করে। বেগম জিয়া সংসদে দাঁড়িয়ে বলেছিলেন, শেখ হাসিনা নাকি ভ্যানিটি ব্যাগে করে বোমা নিয়ে গিয়েছিলেন! তাহলে জজ মিয়া নাটক কেন সাজিয়েছিলেন? কেন হত্যাকাণ্ডের আলামত নষ্ট করেছিলেন?

বিএনপি নেতাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগকে নসিহত না করে আগে নিজেরা পরিশুদ্ধ হোন। আওয়ামী লীগ জন্মলগ্ন থেকে জনমানুষের রাজনীতি করে, মানুষের চোখের ভাষা ও মনের ভাষা বুঝেই শেখ হাসিনা রাজনীতি করছেন এবং সরকার পরিচালনা করছেন। তারা নিজেদের দুর্গন্ধময় ইতিহাস থেকে বেরিয়ে আসুক, যদি তারা সত্যিকার অর্থে এদেশে সুস্থ্যধারার রাজনীতি করতে চায়।

/পিএইচসি/এমএস/

সম্পর্কিত

নির্লজ্জ মিথ্যাচার করে জনগণকে বিভ্রান্ত করবেন না: হানিফ

নির্লজ্জ মিথ্যাচার করে জনগণকে বিভ্রান্ত করবেন না: হানিফ

বিএনপি বিদ্বেষপ্রসূত মিথ্যাচার করছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি বিদ্বেষপ্রসূত মিথ্যাচার করছে: ওবায়দুল কাদের

আগস্টের প্রথম প্রহরে শত আলো জ্বললো

আগস্টের প্রথম প্রহরে শত আলো জ্বললো

মির্জা ফখরুলের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বিএনপির ঢাকা মহানগরের নেতারা

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ০০:৫৮

সাক্ষাৎ করতে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বাসায় যাবেন ঢাকা মহানগর বিএনপির নব মনোনীত নেতারা। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) সকাল ১১টায় রাজধানীর উত্তরার বাসভবনে যাবেন তারা।

সোমবার (২ আগস্ট) রাত পৌনে ১২টার দিকে বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানান বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং সদস্য শায়রুল কবির খান।

এর আগে, রবিবার বিকালে বিএনপি’র মেয়াদোত্তীর্ণ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ এবং ঢাকা মহানগর উত্তর শাখার নির্বাহী কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়। ঢাকা দক্ষিণে আহ্বায়ক আবদুস সালাম ও উত্তরে আহ্বায়ক হয়েছেন আমান উল্লাহ আমান। দক্ষিণে সদস্য সচিব করা হয়েছে রফিকুল আলম মজনু ও আমিনুল হককে উত্তরের। ৪৯ জন বিশিষ্ট দক্ষিণ ও ৪৭ জন বিশিষ্ট উত্তরের কমিটিতে মাত্র তিন-চারজন নারী সদস্য মনোনীত হয়েছেন।

শায়রুল কবির খান বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের আহ্বায়ক কমিটির দুই আহ্বায়ক ও দুই সদস্য সচিবসহ কমিটির সিনিয়র কয়েকজন নেতা বিএনপির মহাসচিবের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে মঙ্গলবার সকাল ১১টায় উত্তরায় তার বাসায় যাবেন।

আরও পড়ুন: ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

/এসটিএস/এনএইচ/

সম্পর্কিত

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

ইতিহাসের ভিলেনকে জোর করে নায়ক বানানো যায় না: ওবায়দুল কাদের

ইতিহাসের ভিলেনকে জোর করে নায়ক বানানো যায় না: ওবায়দুল কাদের

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

সবাইকে দ্রুত টিকা দেওয়ার আহ্বান চরমোনাই পীরের

সবাইকে দ্রুত টিকা দেওয়ার আহ্বান চরমোনাই পীরের

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

আপডেট : ০৩ আগস্ট ২০২১, ০০:৩২

বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণে মনোনীত নতুন আহ্বায়ক কমিটিকে কেন্দ্র করে দলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে। সোমবার (২ আগস্ট) বিকালে কমিটি ঘোষণা আসার পর দুই আহ্বায়ক ও দুই সদস্য সচিবের বাসায় নেতাকর্মীরা ভিড় করলেও দলের মধ্যে নানা আক্ষেপ শুরু হয়েছে। বিশেষ করে দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু ও উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল ইসলামকে কেন্দ্র করে এই ক্ষোভ তৈরি হয়েছে অনেক বেশি। তবে কমিটি ঘোষণার পর সোমবার সন্ধ্যা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ছিল উষ্ণ পরিবেশ। নেতাকর্মীদের অবস্থান ও কার্যালয়ের সামনে পুলিশ ও গোয়েন্দাদের অবস্থানকে ঘিরে এ পরিস্থিতি দেখা যায় সরেজমিনে।

সালামের বাসায় ভিড়, মজনু গেলেন নয়া পল্টনে

সরেজমিনে সোমবার সন্ধ্যা সাতটার দিকে রাজধানীর নয়া পল্টনে দেখা যায়, কমিটির ঘোষণা আসার পরই বিএনপির কেন্দ্রীয় কাযালয়ের সামনে অবস্থান নেয় পুলিশ ও গোয়েন্দাবাহিনীর সদস্যরা। পথচারী ও ফুটপাত দিয়ে হেঁটে যাওয়া অনেককেই পড়তে হয়েছে তাদের জিজ্ঞাসাবাদের মুখে।

রাত ৮টা ২০ মিনিটের দিকে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আসেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু। গাড়ি থেকে নেমেই নেতাকমীদের উদ্দেশে তার মন্তব্য, ‘কেউ বাইরে থাকবেন না। সবাই অফিসে চলে আসেন।’ এর আগে রাত পৌনে ৮টার দিকে রফিকুল আলম মজনু শান্তিনগরে কমিটির আহ্বায়ক আব্দুস সালামের বাসায় যান। সেখানে তারা সালামের বাসভবনের পঞ্চম তলায় একান্তে কিছু সময় কথা বলেন।

বিএনপি মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক আব্দুস সালাম ও সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু
ওই সময় আবদুস সালামের বাসায় অন্তত শতাধিক নেতাকর্মী ও মহানগর দক্ষিণের বিভিন্ন এলাকার বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীরা ভিড় করেন। কেউ কেউ ফুলের তোড়া, কেউ হাতে মিষ্টি নিয়ে নেতার সঙ্গে দেখা করতে আসেন। কোনও কোনও ব্যক্তিকে নতুন কমিটির বিষয়ে জানতে চাইলেও তারা নিজেদের পরিচয় ও এ প্রসঙ্গে মুখ খুলতেই নারাজ দেখান।

নতুন কমিটির বিষয়ে জানতে চাইলে মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রথমত দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান ও মহাসচিবকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই, আমার ওপরে আস্থা রাখার জন্য। আমরা যত দ্রুত সম্ভব কমিটি পূর্ণাঙ্গ করবো।’

আব্দুস সালাম বলেন, ‘আমরা ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সবগুলো কমিটি করে সম্মেলনের মধ্য দিয়ে মহানগর কমিটি করার চেষ্টা করবো। যেন সাংগঠনিকভাবে বিএনপিকে শক্তিশালী করা সম্ভব হয়৷’

আব্দুস সালাম জানান, তার মূল টাগেট হচ্ছে— গণতন্ত্রকে ছিনিয়ে আনা। তিনি বলেন, ‘গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে তরান্বিত করাই হচ্ছে আমাদের মূল টার্গেট। এরমধ্য দিয়ে খালেদা জিয়াকে আবারও প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ও তারেক রহমানকে দেশে ফিরিয়ে আনবো। সবচেয়ে বড় কথা, করোনা মোকাবিলায় যারা ব্যর্থ হয়েছে, তারা দেশের মানুষের প্রতি কোনও কমিটমেন্ট দেখাতে পারেনি।’

দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখছেন দক্ষিণের সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু
রফিকুল আলম মজনু তার অনুসারীদের নিয়ে কার্যালয়ের হল কক্ষে অবস্থান গ্রহণ করেন। সেখানে শতাধিক নেতাকর্মী স্লোগান দেন। এসময় তিনি তার নতুন পদায়নের জন্য বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ধন্যবাদ জানান। বক্তব্যে তিনি সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনের প্রতিশ্রুতি দেন কর্মীদের। সেখানে তিনি যুবদলের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দেওয়ার কথা জানান।

মহানগর দক্ষিণের একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, কমিটি ঘোষণার পর তারেক রহমানের সঙ্গে কমিটির আহ্বায়ক আবদুস সালাম ও সদস্য সচিব রফিকুল আলমের কথা হয়েছে। সেখান থেকে মজনুকে কার্যালয়ে আসার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশের সতর্ক পাহারা ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

আবদুস সালামকে আহ্বায়ক ও রফিকুল আলম মজনুকে সদস্য সচিব করে ঢাকা মহানগর দক্ষিণে ৪৯ জনের কমিটি করা হয়। সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু বর্তমানে যুবদলের ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতির দায়িত্বে রয়েছেন। মির্জা আব্বাসের অনুসারী হিসেবেই তাকে কমিটিতে সামনে রাখা হয়েছে বলে দলীয় সূত্র জানায়।

তবে এই কমিটিতে সদ্য বিলুপ্ত কমিটির ‘সভাপতি হাবিবুন নবী খান সোহেল ও সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার’ কমিটির গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজন সদস্যকে বাদ দেওয়ার কারণে ‘নেপথ্যে রহস্য’ খুঁজে পাচ্ছেন না নেতারা। 

প্রায় সমর্ধমী রহস্য সৃষ্টি হয়েছে ঢাকা মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল ইসলামের মনোনয়নকে কেন্দ্র করে। জাতীয় ফুটবল দলের সাবেক এই অধিনায়ক দীর্ঘদিন ধরে বিএনপির কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করলেও তাকে মহানগর কমিটির সদস্য সচিব হিসেবে মনোনীত করার নেপথ্য কারণ নিয়ে দলের মধ্যে নানা প্রশ্নের উদয় হয়েছে।

বিএনপির ঘনিষ্ঠ একটি সূত্রের দাবি, বিএনপির উচ্চপর্যায়ের সঙ্গে সম্পৃক্ত কারাগারে থাকা একজনের তত্ত্বাবধানে আমিনুল ইসলামকে মনোনীত করা হয়েছে। আর এ কারণেই দলের নেতাকর্মীরা বিষয়টি টের পেলেও মুখে এঁটেছেন কুলুপ।

এ বিষয়ে জানতে চেয়ে ঢাকা মহানগর উত্তর কমিটির আহ্বায়ক আমান উল্লাহ আমানকে কয়েকবার চেষ্টা করেও ফোনে পাওয়া যায়নি।

সোমবার রাত সোয়া ১০টার দিকে বিএনপির একজন দায়িত্বশীল বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, উত্তর কমিটির সদস্য সচিব আমিনুল ইসলাম রাত ১০টার দিকে আমান উল্লাহ’র বাসায় যাচ্ছেন। সেখানে তারা আলোচনা করে ঠিক করবেন পরবর্তী করণীয়।

আহ্বায়ক কমিটি গঠিত হলেও মহানগর অফিস ছিল তালাবদ্ধ মহানগর অফিস বন্ধ

বিএনপির ঢাকা মহানগরের উত্তর ও দক্ষিণে আহ্বায়ক কমিটি গঠিত হলেও মহানগরের মূল কার্যালয় ছিল অনেকটাই পরিত্যক্ত। সোমবার সন্ধ্যায় গিয়ে দেখা গেছে, নয়া পল্টনের ভাসানী ভবনটি তালাবদ্ধ। ভবনের নিচে একটি ক্ষুদ্র চা দোকান থাকলেও জনসমাগম প্রায় ছিলোই না।

/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

করোনা নিয়ে সরকার মিথ্যা তথ্য দিচ্ছে: মির্জা ফখরুল

করোনা নিয়ে সরকার মিথ্যা তথ্য দিচ্ছে: মির্জা ফখরুল

সবাইকে দ্রুত টিকা দেওয়ার আহ্বান চরমোনাই পীরের

আপডেট : ০২ আগস্ট ২০২১, ২২:১৭

ইসলামী আন্দোলনের আমির ও  চরমোনাই পীর সৈয়দ মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেছেন, অতি দ্রুত সময়ের মধ্যে দেশের সকল জনশক্তিকে ভ্যাকসিনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। তিনি বলেন, ‘যে দামেই ভ্যাকসিন পাওয়া যাক, সে দামেই আমাদের ভ্যাকসিন কেনা  উচিত। কেননা, লকডাউনের আর্থিক ক্ষতি ভ্যাকসিনের আপাত উচ্চ দামের চেয়ে অনেক বহুগুণ বেশি। সোমাবার (২ আগস্ট) এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

মুহাম্মদ রেজাউল করীম বলেন, ‘ভ্যাকসিন সংগ্রহ এই মুহূর্তে সরকারের প্রধান কাজ। ভ্যাকসিন কেনার স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে। করোনা ভাইরাসের প্রতিরোধক টিকা প্রদানে সরকারের খরচে যে দুর্নীতি হচ্ছে, অবিলম্বে তা বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী সামগ্রিকভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। ক্ষমতায় থাকার তিনি নৈতিক অধিকার হারিয়েছেন।’

চরমোনাই পীর আরও বলেন, ‘সরকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার ব্যাপারে লাগাতার টালবাহানা করে যাচ্ছে। সরকারের বিবেচনাহীন এই সিদ্ধান্ত কোটি কোটি শিক্ষার্থীর জীবনই কেবল ক্ষতিগ্রস্ত করেনি, গোটা শিক্ষা ব্যবস্থা এখন প্রায় ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে উপনীত। অবিলম্বে সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিয়ে শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকারভিত্তিতে ভ্যাকসিন দিতে হবে। প্রয়োজনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ক্লাসের সময়সীমা এবং কর্মদিন কমিয়ে এনে হলেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দিতে হবে, এর কোনও বিকল্প নেই। শিক্ষার্থীরা ক্রমেই ঝরে যাচ্ছে। যার সুদূর প্রসারী প্রভাব পরতে শুরু করেছে।’

ইসলামী আন্দোলনের আমির বলেন, ‘এটা স্পষ্ট যে, সরকারের কাজের সমন্বয়হীনতা রয়েছে এবং এ সমন্বয়হীনতা হয়েছে গত বছরের শুরু থেকে। লকডাউন দেওয়া, গার্মেন্টস খোলা, শ্রমিকদের ঢাকায় আনা-নেওয়া নিয়ে অন্তত পাঁচবার এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এ ধরণের কর্মকাণ্ডে সরকারের ব্যর্থতা ক্রমেই ফুটে উঠছে।’

 

/সিএ/এপিএইচ/

সম্পর্কিত

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

সাত দিনের মধ্যে শ্রমিকদের ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবি মান্নার

সাত দিনের মধ্যে শ্রমিকদের ভ্যাকসিন দেওয়ার দাবি মান্নার

সর্বশেষ

আফগান প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বাড়িতে বন্দুকধারীদের হামলা

আফগান প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বাড়িতে বন্দুকধারীদের হামলা

আমিরাতি জাহাজ ছিনতাই, অভিযোগ ইরানের বিরুদ্ধে  

আমিরাতি জাহাজ ছিনতাই, অভিযোগ ইরানের বিরুদ্ধে  

পেন্টাগনের কাছে হামলায় পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

পেন্টাগনের কাছে হামলায় পুলিশ কর্মকর্তা নিহত

নাসুমের সাফল্যে গর্বিত সুনামগঞ্জবাসী

নাসুমের সাফল্যে গর্বিত সুনামগঞ্জবাসী

নিউ ইয়র্ক গভর্নরের বিরুদ্ধে একাধিক নারীকে যৌন হয়রানির প্রমাণ

নিউ ইয়র্ক গভর্নরের বিরুদ্ধে একাধিক নারীকে যৌন হয়রানির প্রমাণ

ঢাকায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিক্যালে ভর্তি

ঢাকায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে রাজশাহী মেডিক্যালে ভর্তি

মিতু হত্যা মামলা: গায়ত্রী সম্পর্কে পিবিআইকে তথ্য দিয়েছে ইউএনএইচসিআর

মিতু হত্যা মামলা: গায়ত্রী সম্পর্কে পিবিআইকে তথ্য দিয়েছে ইউএনএইচসিআর

স্বামীর ৪ ঘণ্টা পর শ্বাসকষ্টে স্ত্রীরও মৃত্যু

স্বামীর ৪ ঘণ্টা পর শ্বাসকষ্টে স্ত্রীরও মৃত্যু

দশ টাকার ভাড়া নিয়ে রিকশাচালককে রডের আঘাতে হত্যা

দশ টাকার ভাড়া নিয়ে রিকশাচালককে রডের আঘাতে হত্যা

কাবুলে শক্তিশালী বিস্ফোরণ, গোলাগুলি, নিহত ৩

কাবুলে শক্তিশালী বিস্ফোরণ, গোলাগুলি, নিহত ৩

বৃদ্ধ বাবা-মাকে আশ্রয়হীন করায় ৩ ছেলেকে পুলিশে দিলেন ইউএনও

বৃদ্ধ বাবা-মাকে আশ্রয়হীন করায় ৩ ছেলেকে পুলিশে দিলেন ইউএনও

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের বাইরে গোলাগুলি

মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরের বাইরে গোলাগুলি

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

‘ঢাকা মহানগরের নতুন কমিটি গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের আন্দোলনে ভূমিকা রাখবে’

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

ঢাকায় বিএনপির নতুন কমিটি: ওপরে উষ্ণতা, ভেতরে আক্ষেপ

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

জিয়াউর রহমানকে সম্পৃক্ত করতেই ‘নতুন গীত’ গাইছে সরকার: ফখরুল

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

‘গায়েবি মামলার মতো গায়েবি বেড, রোগী উড়ে যাচ্ছে’

করোনা নিয়ে সরকার মিথ্যা তথ্য দিচ্ছে: মির্জা ফখরুল

করোনা নিয়ে সরকার মিথ্যা তথ্য দিচ্ছে: মির্জা ফখরুল

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

দড়ি লাফে রাসেলের বিশ্ব রেকর্ড, মির্জা ফখরুলের অভিনন্দন

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

কারখানা খোলার প্রতিবাদে বামজোটের বিক্ষোভ

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

লকডাউন চলাকালে বেতনসহ ছুটি নিশ্চিতের দাবি

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

‘লকডাউনের মাঝে পোশাক কারখানা খুলে দেওয়া প্রতারণার শামিল’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

আবারও নয়া পল্টনে যাবে ‘আসল বিএনপি’

© 2021 Bangla Tribune