X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

‘৩ ডোজ টিকা নেওয়া’ সেই সৌদি প্রবাসী কোথায়?

আপডেট : ২৯ জুলাই ২০২১, ০৯:৪২

দেশে অনুমোদিত করোনাভাইরাসের সব টিকার সর্বোচ্চ দুই ডোজ নেওয়ার নিয়ম থাকলেও ওমর ফারুক নামের এক সৌদি প্রবাসী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) টিকাদান কেন্দ্রে একদিনেই তিন ডোজ নিয়েছেন বলে দাবি করেছেন। এই নিয়ে দেশব্যাপী চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। ইতোমধ্যেই সে প্রবাসীর বাড়ির ঠিকানা পাওয়া গেছে। তিনি নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ভুইঘর এলাকার বাসিন্দা।

বর্তমানে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পর্যবেক্ষণে রয়েছেন বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। ওমর ফারুকের ছোট বোন ফারজানা আক্তার জানান, সন্ধ্যায় তার ভাই মোবাইলে কল করে জানিয়েছেন, তিনি বিএসএমএমইউ হাসপাতালে চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

এর আগে, মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) ওমর ফারুক একটি বেসরকারি টেলিভিশনে দেওয়া সাক্ষাৎকারে জানান, বিএসএমএমইউয়ের টিকাদান কেন্দ্রের তিনটি বুথ থেকে তাকে তিনবার টিকা দেওয়া হয়েছে।

এরপর ওই ব্যক্তিকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে বলেও গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়। এ ঘটনা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোচনার জন্ম দিয়েছে। তবে একইদিনে তিন ডোজ টিকা দেওয়ার যে খবর রটেছে, তা ঠিক নয় বলে দাবি করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ে বুধবার (২৮ জুলাই) রাত ১২টার দিকে  ফতুল্লার ভুইগড় এলাকায় ওমর ফারুকের বাড়িতে গেলে পরিবারের সদস্যরা জানান, একসঙ্গে তিন ডোজ টিকা নেওয়ার পর ওমর ফারুকের তেমন কোনও সমস্যা হয়নি। সামান্য জ্বর অনুভব করা ছাড়া তার শরীরে আর কোনও সমস্যা দেখা দেয়নি।

ওমর ফারুকের এক প্রতিবেশী দাবি করেন, ‘বুধবার বেলা সাড়ে ১২টার দিকে দুটি গাড়িতে করে ওমর ফারুককে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এ সময় তাদের পরিচয় জানতে চাইলে, তারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এসেছেন বলে জানান। তিন ডোজ টিকা নেওয়ার কারণে ওমর ফারুককে চিকিৎসা ও পর্যবেক্ষণে রাখা হবে বলেও জানান তারা।’

এ প্রতিবেশী আরও বলেন, ‘ওমর ফারুকের বাবা জামাল উদ্দিনের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। তিনি এখন বিএসএমএমইউতে রয়েছেন। ওমর ফারুকের সঙ্গে তার বোনের স্বামী গোলাম সারোয়ার নাহিদও ওই গাড়িতে করে গেছেন। কিন্তু হাসপাতালে পৌঁছানোর পর টিকিট কাটতে কাউন্টারে যাওয়ার কয়েক মিনিট পরই সেই গাড়ি দুটি আর খুঁজে পাননি তিনি। এরপর সন্ধ্যায় ওমরের বাবা ছুটে যান হাসপাতালে।’

স্বজনদের বরাত দিয়ে ওমর ফারুকের প্রতিবেশীরা জানান, ওমর ফারুক তার বাবার সঙ্গে রাত ৮টার দিকে কথা বলেছেন। জানিয়েছেন, তাকে  হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

তবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের টিম পরিচয়ে ওমর ফারুককে বাড়ি থেকে নিয়ে যাওয়ার যে দাবি পরিবার ও প্রতিবেশীদের পক্ষ থেকে করা হচ্ছে, সে বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

/এফআর/

সম্পর্কিত

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো বাজারটি

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো বাজারটি

শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন নির্দেশনা

শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন নির্দেশনা

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ  

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৪২

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে এক কিশোরীকে সংঘগবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনায় তিন জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে চট্টগ্রাম নগরী ও সীতাকুণ্ডে অভিযান চালিয়ে ডবলমুরিং থানা পুলিশ তাদের করে। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বিকালে আদালতে তোলা হলে ১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দিতে ধর্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেন তারা।

ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কাশেম ভূইয়াঁ বৃহস্পতিবার রাতে এসব তথ্য জানান। 

বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, গ্রেফতার তিন জন হলেন লরির হেলপার মো. মেহেদী হাসান মুন্না (১৯), নৈশপ্রহরী মো. সাকিব (২১) ও মো. হাসান তারেক রনি (৪০)। 

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ভিকটিম কিশোরী গত ৫ সেপ্টেম্বর তার ফুফাতো ভাইয়ের স্ত্রীর সঙ্গে ডাক্তার দেখানোর জন্য আগ্রাবাদ যায়। আগ্রাবাদ যাওয়ার পর মানুষের জটলায় ওই কিশোরী ভাবিকে হারিয়ে ফেলে। এরপর আগ্রাবাদ সিঅ্যান্ডএফ টাওয়ারের সামনে কান্না করতে থাকলে আসামি মুন্না তাকে বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে সিএনজিতে উঠিয়ে নেয়। পরে বাসায় পৌঁছে না দিয়ে নগরীর সাগরিকা, অলঙ্কারসহ বিভিন্ন জায়গায় সন্ধ্যা পর্যন্ত তাকে ঘোরাতে থাকে। এরপর রাত ১০টার দিকে বাসে করে কিশোরীকে সীতাকুণ্ড থানাধীন কালুশাহ মাজার এলাকায় নিয়ে যায় মুন্না। সেখানে আসামি শাকিবের ভাড়া বাসায় নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে ওই কিশোরীকে তিন জন মিলে রাতভর ধর্ষণ করে।

ওসি আরও বলেন, ঘটনার পর মেয়েটি ভয়ে পরিবারের সদস্যদের কিছু জানায়নি। বুধবার সন্ধ্যায় মুন্না কিশোরীর বাসার আশপাশে এসে ঘোরাঘুরি করতে থাকে। এসময় মেয়েটি তাকে দেখে ভয়ে চিৎকার দিয়ে ওঠে। ঘটনা সবাইকে খুলে বললে স্থানীয়রা মুন্নাকে ধাওয়া দিয়ে আটক করে। পরে ৯৯৯-এ ফোন দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মুন্নাকে গ্রেফতার করে। এরপর তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাতে অভিযান চালিয়ে সীতাকুণ্ড বেড়িবাঁধ এলাকা থেকে সাকিব ও হাসানকে গ্রেফতার করা হয়। ধর্ষণের শিকার কিশোরীর বড় বোন থানায় মামলা দায়ের করেন বলে জানান তিনি। 

/টিটি/

সম্পর্কিত

কাপড়ের ঘোষণায় এলো ৭ কোটি টাকার সিগারেট 

কাপড়ের ঘোষণায় এলো ৭ কোটি টাকার সিগারেট 

প্যারাসেইলিং থেকে পড়ে পর্যটক আহত

প্যারাসেইলিং থেকে পড়ে পর্যটক আহত

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো বাজারটি

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:৪৫

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের শীতলক্ষ্যা নদীর তীর দখল করে গড়ে ওঠা বেলদী বাজারের দুইটি তিনতলা, সাতটি দোতলা ও ছয়টি একতলা ভবনসহ অর্ধশতাধিক অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ)। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটি ভেকু দিয়ে এই উচ্ছেদ অভিযান পরিচালিত হয়।

বিআইডব্লিউটিএ’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শোভন রাংসার নেতৃত্বে উচ্ছেদ অভিযানটি পরিচালিত হয়। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন বিআইডব্লিউটিএ ঘোড়াশাল নদী বন্দরের ভারপ্রাপ্ত উপ-পরিচালক নূর হোসেন স্বপন।

নূর হোসেন স্বপন জানান, উচ্ছেদ অভিযানের দ্বিতীয় দিনে আজ দুইটি তিনতলা, সাতটি পাকা দোতলা, ছয়টি একতলা ভবন, ইটভাটার স্থাপনা, একটি ব্যাটারি কারখানার দেয়ালসহ অর্ধশতাধিক অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে। ইতোপূর্বে অবৈধ দখলদারদের নোটিশ দিলেও তারা কর্ণপাত করেনি। যে কারণে গত দুই দিনে প্রায় ১০০ অবৈধ স্থাপনা গুঁড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন নির্দেশনা

শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন নির্দেশনা

জাতীয় উদ্যানে তরুণীর হাতের রগ কাটা লাশ

জাতীয় উদ্যানে তরুণীর হাতের রগ কাটা লাশ

সুদিনের মৌমাছিদের কমিটিতে স্থান নেই: কৃষিমন্ত্রী

সুদিনের মৌমাছিদের কমিটিতে স্থান নেই: কৃষিমন্ত্রী

গাজীপুরে একদিনে ৩ জনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

গাজীপুরে একদিনে ৩ জনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

নওগাঁ পৌর মেয়র সনিসহ বিএনপির ৩ নেতা কারাগারে

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২৯

নওগাঁয় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়ানোর একটি মামলায় পৌর মেয়র ও জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি নজমুল হক সনিসহ তিন নেতাকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নওগাঁর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত আসামিদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, মামলায় হাইকোর্ট থেকে তিন মাস মেয়াদের জামিন নিয়েছিলেন আসামিরা। সেই মেয়াদ শেষ হওয়ার পর নিম্ন আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন তারা। আদালতের বিচারক আশরাফুল ইসলাম সেই আবেদন নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। 

অপর দুই আসামি হলেন জেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু ও নওগাঁ পৌর বিএনপির সদস্য সচিব মিজানুর রহমান। 

মামলার সূত্রে জানা গেছে, আসামিদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা, পুলিশের ওপর হামলা ও সরকারি সম্পত্তিসহ ও জনসাধারণের জানমালের নিরাপত্তা বিঘ্নিত করায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে গত ৩০ মার্চ নওগাঁ সদর থানায় মামলা হয়। পৃথক দুই মামলায় ৫৭ জনের নাম উল্লেখ ও আরও অজ্ঞাত আসামি করা হয়। আসামিপক্ষের আইনজীবীরা জানান, মামলার অন্যসব আসামি জামিনে আছেন। নজমুল হক সনি, জাহিদুল ইসলাম ধলু ও মিজানুর রহমানের জামিনের জন্য উচ্চ আদালতে আবেদন করার প্রস্তুতি চলছে।

প্রসঙ্গত, চলতি বছরের ৩০ মার্চ দুপুরে নওগাঁ শহরের কেডির মোড়ে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ হয়। হেফাজত কর্মী নিহতের ঘটনায় কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে ওইদিন তাদের দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করছিল বিএনপি নেতাকর্মীরা। এ সময় পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে সংঘর্ষ বাধে। ওই ঘটনায় থানায় পৃথক দুটি মামলা হয়।

/টিটি/

সম্পর্কিত

মায়ের ওষুধ নিয়ে ফেরা হলো না

মায়ের ওষুধ নিয়ে ফেরা হলো না

ঘুষ চাওয়ায় স্যানিটারি পরিদর্শককে পিটুনি, তদন্তে কমিটি

ঘুষ চাওয়ায় স্যানিটারি পরিদর্শককে পিটুনি, তদন্তে কমিটি

রামেকের করোনা ইউনিটে ১৬ দিনে ১০৩ জনের মৃত্যু

রামেকের করোনা ইউনিটে ১৬ দিনে ১০৩ জনের মৃত্যু

রূপপুর প্রকল্পে কর্মরত রুশ নাগরিকের লাশ উদ্ধার

রূপপুর প্রকল্পে কর্মরত রুশ নাগরিকের লাশ উদ্ধার

ভুয়া বিলে টাকা উত্তোলন, টিটিসির সেই অধ্যক্ষ বরখাস্ত

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:২৫

আর্থিক দুর্নীতিসহ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে দিনাজপুর কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের (টিটিসি) অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মো. আইনুল হককে সাময়িক বরখাস্ত করেছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়।

মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. আহমেদ মুনিরুছ সালেহীন স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে বিষয়টি জানানো হয়। ইতোমধ্যেই ওই প্রজ্ঞাপনটি মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়াধীন জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর অধীনের দিনাজপুরের কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী মো. আইনুল হকের বিরুদ্ধে গুরুতর আর্থিক অনিয়মের অভিযোগ প্রাথমিকভাবে তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে। সরকারি কর্মচারী বিধি অনুযায়ী তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো। এ সময়ে তিনি প্রচলিত বিধি অনুযায়ী খোরাকি ভাতা পাবেন। এ আদেশ জনস্বার্থে জারি করা হলো এবং অবিলম্বে তা কার্যকর হবে।

জানা গেছে, দিনাজপুর টিটিসির একাডেমিক ভবনের সামনে বঙ্গবন্ধুর মুর‌্যাল স্থাপন, একাডেমিক ভবনে বঙ্গবন্ধু কর্নারের আধুনিকায়নসহ বিভিন্ন কাজের প্রস্তাবনার বরাদ্দ অর্থ দিয়ে বাথরুম নির্মাণ ও ইলেকট্রিক্যাল সাব-স্টেশন সংস্কারসহ বিভিন্ন কাজ করেন অধ্যক্ষ। ভুয়া বিল তৈরি করে, সেমিনার না করেই, সভায় অনুপস্থিতদেরকেও উপস্থিত দেখিয়ে এবং ব্যক্তিগত প্রয়োজনে প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাব থেকে টাকা উত্তোলনসহ বিভিন্ন অর্থনৈতিক দুর্নীতিমূলক কর্মকাণ্ডের অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

এবার আগেভাগেই দেখা দিয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা

এবার আগেভাগেই দেখা দিয়েছে কাঞ্চনজঙ্ঘা

কয়লা খনির পাঁচ কর্মকর্তা বরখাস্ত, ১০ জনের নামে মামলা

কয়লা খনির পাঁচ কর্মকর্তা বরখাস্ত, ১০ জনের নামে মামলা

কাপড়ের ঘোষণায় এলো ৭ কোটি টাকার সিগারেট 

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২৩:১০

মিথ্যা ঘোষণা দিয়ে চীন থেকে আমদানি করা এক কোটি ১৩ লাখ শলাকার বিদেশি সিগারেটের চালান জব্দ করেছে চট্টগ্রাম কাস্টমস হাউস। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) পরীক্ষায় কাপড় ও কাপড়ের সরঞ্জাম ঘোষণা দিয়ে আনা দুটি কন্টেইনার খুলে বিদেশি সিগারেট পাওয়া যায়। যার আনুমানিক আমদানি মূল্য সাড়ে ৭ কোটি টাকা।  

কাস্টমস হাউসের অডিট, ইনভেস্টিগেশন অ্যান্ড রিসার্চ (এআইআর) শাখার সহকারী কমিশনার রেজাউল করিম চৌধুরী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। 

বাংলা ট্রিবিউনকে তিনি বলেন, চালানটিতে ঘোষণা বহির্ভূত পণ্য আনা হয়েছে এমন গোপন সংবাদ থাকায় চালানটি লক করা হয়। পরে চট্টগ্রাম বন্দরের ভেতরে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের প্রতিনিধি, বন্দর নিরাপত্তা কর্মকর্তা ও অন্যান্য সংস্থার সদস্য ও প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে পণ্য চালানটির শতভাগ পরীক্ষায় দেখা যায় প্রতিষ্ঠানটি সিগারেটের পরিবর্তে বিদেশি সিগারেট নিয়ে এসেছে। কন্টেইনার দুটি খুলে তাতে এক কোটি ১৩ লাখ শলাকা বিদেশি সিগারেট পাওয়া যায়। যার আনুমানিক আমদানি মূল্য সাড়ে ৭ কোটি টাকা।  

তিনি আরও বলেন, চালানটির মাধ্যমে আমদানিকারক ২৭ কোটি টাকা রাজস্ব ফাঁকির অপচেষ্টা চালিয়েছে। আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। কমিশনার স্যার এই ঘটনায় দোষী ব্যক্তিদের দ্রুত চিহ্নিত করে কঠোর ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দিয়েছেন।

কাস্টমস হাউজের এআইআর সূত্রে জানা যায়, কুমিল্লা রফতানি প্রক্রিয়াজাতকরণ অঞ্চলের বাংলাদেশ টেক্সটাইল অ্যান্ড কেমিক্যাল ফাইবার লিমিটেড নামের একটি প্রতিষ্ঠান চীন থেকে কাপড় ও কাপড়ের সরঞ্জাম ঘোষণায় বন্ড সুবিধার আওতায় দুই কন্টেইনার পণ্য আমদানি করে। গত ১১ সেপ্টেম্বর চীনের সাংহাই বন্দর থেকে পণ্যবাহী কন্টেইনার দুটি চট্টগ্রাম বন্দরে এসে পৌঁছে। এরপর গত ১৩ সেপ্টেম্বর আমদানিকারকের মনোনীত সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট-আলমগীর অ্যান্ড সন্স বিল অব এন্ট্রি দাখিল করেন। আজ পরীক্ষায় কন্টেইনার দুটি থেকে সব পণ্য বের করে আনার পর দেখা যায়, ৫৬৫টি কার্টনের প্রতিটিতে সিগারেটের দুটি ইনার কার্টন রয়েছে। 

/টিটি/

সম্পর্কিত

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ  

বাসায় পৌঁছে দেওয়ার কথা বলে কিশোরীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ  

প্যারাসেইলিং থেকে পড়ে পর্যটক আহত

প্যারাসেইলিং থেকে পড়ে পর্যটক আহত

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

১০ টাকা বেশি চাওয়ায় রিকশাচালককে কুপিয়ে হত্যা

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

সাগরে ডুবলো মিয়ানমার থেকে আসা কফি-আচারবাহী জাহাজ

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো বাজারটি

গুঁড়িয়ে দেওয়া হলো বাজারটি

শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন নির্দেশনা

শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়ে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন নির্দেশনা

জাতীয় উদ্যানে তরুণীর হাতের রগ কাটা লাশ

জাতীয় উদ্যানে তরুণীর হাতের রগ কাটা লাশ

সুদিনের মৌমাছিদের কমিটিতে স্থান নেই: কৃষিমন্ত্রী

সুদিনের মৌমাছিদের কমিটিতে স্থান নেই: কৃষিমন্ত্রী

গাজীপুরে একদিনে ৩ জনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

গাজীপুরে একদিনে ৩ জনের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

মেয়রের বাড়ির দেয়ালসহ ৪০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

মেয়রের বাড়ির দেয়ালসহ ৪০টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ

শাপলা বেচে জীবন চলে ৩০০ পরিবারের

শাপলা বেচে জীবন চলে ৩০০ পরিবারের

সর্বশেষ

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

মোদির ঘুম কেড়ে নেওয়ার হুঁশিয়ারি এসএফজে-র

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

তালেবানকে হঠাতে মার্কিন অস্ত্র চান মাসুদ

কাবুলে রকেট হামলা

কাবুলে রকেট হামলা

ছিনতাইকারীকে ধরতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে আহত দিনমজুরের মৃত্যু

ছিনতাইকারীকে ধরতে গিয়ে ছুরিকাঘাতে আহত দিনমজুরের মৃত্যু

ইভ্যালিতে প্রতারিতরা কি টাকা ফেরত পাবেন?

ইভ্যালিতে প্রতারিতরা কি টাকা ফেরত পাবেন?

© 2021 Bangla Tribune