X
শুক্রবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

বাংলাদেশের বিখ্যাত খাবার

শতবছর পরও জনপ্রিয় স্বরূপকাঠির পেয়ারা

আপডেট : ৩১ জুলাই ২০২১, ১৩:১১

স্বাদ ‍ও পুষ্টিগুণের কারণে পেয়ারাকে বলা হয় বাংলার আপেল। আর এর মধ্যে পিরোজপুরের স্বরূপকাঠি জাতটিই বেশি জনপ্রিয়।

বাংলাদেশে পেয়ারা এসেছে ৩শ বছর হলো। স্বরূপকাঠি জাতের বয়স এক শ’ বছরের কাছাকাছি। স্বরূপকাঠির কুড়িআনা এলাকার বয়োজ্যেষ্ঠরা জানান, আটঘর-কুড়িয়ানা গ্রামের পূর্ণচন্দ্র মন্ডল নামের এক ব্যক্তি ১২৫০ বঙ্গাব্দে তীর্থে যান। ভারতের গয়াধাম দর্শনের পর বাড়ি ফেরেন তিনি। সঙ্গে নিয়ে আসেন পরিপুষ্ট পেয়ারা। পরে ওটার বীজ থেকে কিছু গাছ জন্মায়। এ ফলের স্বাদ, গন্ধ ও আকার স্থানীয়দের মুগ্ধ করে। পরে বাগান আকারে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে কুড়িআনাসহ আশপাশের সব এলাকায় এটি ছড়িয়ে পড়ে।

. আগে এটাকে পূর্ণচন্দ্রের নামে পূর্ণমন্ডলীয় জাত বলেই ডাকা হতো। বলা হয়, ভারতের পূণ্যভূমি খ্যাত গয়া থেকে ফলটি নিয়ে আসায় এ পেয়ারার আরেক নাম হয় ‘গয়া বা গইয়া’।

স্বরূপকাঠি উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা চপল কৃষ্ণ নাথ বলেন, উপজেলার ২২টি গ্রামের প্রায় ৬৫৭ হেক্টর জমিতে পেয়ারার বাগান রয়েছে। প্রতি হেক্টর জমিতে প্রায় ১০টন পেয়ারা হয়। এ বছর প্রায় সাত হাজার টন ফলনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। পাইকারি বাজারে প্রতি মণ ২০০ থেকে ৪০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

চপল কৃষ্ণ বলেন, এক ফসলি নিচু জমি কেটে উচু কান্দি তৈরি করে বেড আকারের জমিতে দুই সারিতে এ পেয়ারার বীজ চারা বা কলম রোপণ করা হয়। এ এলাকার মাটির নিম্নস্তরের  মাটি জৈব উপাদানে ভরপুর হওয়ায় পেয়ারা গাছে বাড়তি সার প্রয়োগ করতে হয় না। পেয়ারাও রসালো হয়।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা বলেন, এ পেয়ারা গাছের শিকড় খুব একটা ভেতরে যায় না। একটি ছোট গাছ ২-৩ মিটার হয়। গাছের শাখাগুলো মাটির কাছাকাছি থাকে এবং প্রায়ই শিকড় থেকে গজ তৈরি করে। পাতাগুলো অনেকটা আয়তক্ষেত্রের মতো। এর ফুলগুলো উভয়লিঙ্গ। শাখা-প্রশাখায় গুচ্ছ আকারে ফল ধরে।

এ জাতটি অন্যান্য গ্রীষ্ণমণ্ডলীয় গাছের চেয়ে বেশি খরা এবং লবণাক্ততা সহ্য করতে পারে।

এলাকার পেয়ারা চাষী কালীপদ হালদার জানান, বর্ষার পর স্বরূপকাঠি জাতের পেয়ারার ফলন কমে যায়। এরপর শাখা-প্রশাখা ছাঁটাই করার পর আমাদের উদ্ভাবিত বিশেষ পদ্ধতিতে বাগানের কান্দিতেই সবুজ সার তৈরি করি। বাগানের বেডে কান্দির নিচের বেড় (নালা) থেকে জোয়ারের পলি মাটি তুলে সেটার প্রলেপ দেই।

শুধু স্বাদই নয়, স্বরূপকাঠীর পেয়ারার বাজারটিও দেখার মতো। রীতিমতো পর্যটন কেন্দ্র হতে পারে এখানকার ভাসমান পেয়ারা বাজার। গাছপালা ঘেরা শাখানদী ও খালের ওপর সবুজ পেয়ারাভর্তি নৌকাগুলো দেখলেই প্রকৃতিপ্রেমীর মন মিশে যাবে ঘনসবুজের ছায়ায়।

কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, গত কয়েক বছর ধরে এখানকার পেয়ারা বাগানে এনথ্রাকনোজ বা ছিটপড়া রোগের আক্রমণে ফলন ও মূল্য দুটোই কমে যায়। পরে কৃষি গবেষকদের পরামর্শে বাগানে সাথী ফসল হিসাবে শিমসহ কিছু সবজি চাষ বন্ধ করে এ রোগের প্রকোপ কমানো হয়।

এ বছর স্বরূপকাঠীর পেয়ারার ফলন ভালো। কৃষি কর্মকর্তা ও চাষীরা বললেন, আদাবাড়ী এলাকার পেয়ারা চাষী সুজন হালদার বলেন, ফলন ভালো হওয়ায় মণপ্রতি চার শ’ থেকে সাড়ে চার শ’টাকা পেয়েছি।

উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা রিপন হালদার বলেন, স্বরূপকাঠীর প্রায় ১৮ শ’ পরিবার পেয়ারা চাষে জড়িত। এ ছাড়া বরিশালের বানারীপাড়া ও ঝালকাঠীর বেশ কিছু এলাকার লোকও এ পেয়ারা চাষ করছে।

ঢাকার ব্যবসায়ী নূরে আলম বলেন, স্বরূপকাঠী থেকে ২০ বছর ধরে ফল নিচ্ছেন। প্রতি মণ কিনছেন সাড়ে চার শ টাকায়। ঢাকায় বিক্রি হচ্ছে ৪৮০ টাকায়। দাম পড়ে যাওয়ায় এবার খানিকটা লোকসানে আছেন তিনি। লকডাউনের কারনে ঢাকার ফেরিওয়ালারা পেয়ারা বিক্রি করতে পারছে না বলেই ক্ষতি হচ্ছে ব্যবসায়ীদের।

এদিকে স্বরূপকাঠীর কুরিয়ানা ইউপি চেয়ারম্যান মিঠুন হালদার বলেন, ‘পদ্মা সেতু চালু হলে ঢাকার মানুষ তাজা পেয়ারা খেতে পারবেন। সকালে বাগান থেকে পেয়ারা তুলে সড়কপথে ঢাকায় পাঠালে তা সকাল ১১টাতেই পৌঁছাবে।

 

 

 

/এফএ/

সম্পর্কিত

হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে ২ কর্মচারী আহত

হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে ২ কর্মচারী আহত

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২

মাত্রাতিরিক্ত ভারী যান উঠলেই সিগন্যাল দেবে লেবুখালী সেতু

মাত্রাতিরিক্ত ভারী যান উঠলেই সিগন্যাল দেবে লেবুখালী সেতু

৬ মাসেই ভেঙে পড়ছে সাড়ে তিন কোটি টাকার সড়ক

৬ মাসেই ভেঙে পড়ছে সাড়ে তিন কোটি টাকার সড়ক

বাস-ট্রাক-কাভার্ডভ্যান সংঘর্ষে প্রাণ গেলো ৩ জনের

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:৩০

টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায় যাত্রীবাহী বাস, ট্রাক ও কাভার্ডভ্যানের সংঘর্ষে তিনজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে আরও একজন। 

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) বেলা পৌনে ১১টার দিকে ঢাকা-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়কের ধলাটেঙ্গর এলাকায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি।

এলেঙ্গা ফায়ার সার্ভিস স্টেশন কর্মকর্তা মো. রাসেল জানান, মহাসড়কের ধলাটেঙ্গর এলাকায় উত্তরবঙ্গ থেকে আসা একটি কাভার্ডভ্যানের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এ সময় পেছন দিন থেকে আসা যাত্রীবাহী বাস কাভার্ডভ্যানটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে একজন মারা যান। আহত হন আরও তিনজন। তাদেরকে উদ্ধার করে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালের পুলিশ বক্সের ইনচার্জ মো. নবিন বলেন, আহত অবস্থায় তিনজনকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল। তাদের মধ্যে দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। অপর একজন চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, গণপিটুনিতে নিহত

পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, গণপিটুনিতে নিহত

বাসচাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

বাসচাপায় ২ মোটরসাইকেল আরোহী নিহত

ফেসবুক লাইভে এসে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

ফেসবুক লাইভে এসে ব্যবসায়ীর আত্মহত্যা

ছুটি নিয়ে বাড়ি যাওয়ার পথে পুলিশ সদস্য নিহত

ছুটি নিয়ে বাড়ি যাওয়ার পথে পুলিশ সদস্য নিহত

প্রাইভেট পড়তে গিয়ে নিখোঁজ, পরদিন মিললো স্কুলছাত্রীর লাশ

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০৯

সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলায় দশম শ্রেণির এক ছাত্রীর লাশ ‍উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) সকাল ১০টার দিকে উপজেলার টিকেট এলাকার একটি বাগান থেকে লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

সাতক্ষীরা গাভা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণিতে পড়তো ওই ছাত্রী। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাশের সুরতহাল প্রতিবেদন করেছে পুলিশ। এরপর ময়নাতদন্তের জন্য সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

ওই ছাত্রীর পরিবারের বরাত দিয়ে গাভা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দীপঙ্কর বিশ্বাস জানান, বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় প্রাইভেট পড়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি সে। ধারণা করা হচ্ছে, কেউ তাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে পার্শ্ববর্তী একটি বাগানে নিয়ে ধর্ষণের পর হত্যা করেছে।

দেবহাটা থানার উপ-পদির্শক (এসআই) ফরিদ আহমেদ জানান, ওই ছাত্রীর শরীরের বিভিন্ন স্থানে ক্ষতচিহ্ন রয়েছে। লাশ উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

সাঁতরে মসজিদে যাওয়া সেই ইমাম পেলেন নৌকা ও নগদ টাকা   

সাঁতরে মসজিদে যাওয়া সেই ইমাম পেলেন নৌকা ও নগদ টাকা   

ভোটে হারায় রাস্তা বন্ধ করে দিলেন মেম্বার প্রার্থী

ভোটে হারায় রাস্তা বন্ধ করে দিলেন মেম্বার প্রার্থী

পানিবন্দি সাতক্ষীরার অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

পানিবন্দি সাতক্ষীরার অধিকাংশ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

আজান দেওয়ার সময় ঢলে পড়লেন মুয়াজ্জিন

আজান দেওয়ার সময় ঢলে পড়লেন মুয়াজ্জিন

নিজ ঘরে রাবি শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৬

যশোরের ঝিকরগাছায় নিজ ঘর থেকে ইমরুল কায়েস পরাগ (২৩) নামে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ২টার দিকে তাকে ঝুলন্ত অবস্থায় দেখে পুলিশে খবর দেয় পরিবারের লোকজন।

ইমরুল কায়েস ঝিকরগাছা উপজেলার গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের বিশেহরি গ্রামের শহীদুল ইসলামের ছেলে। তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী।

স্থানীয়রা জানায়, মায়ের কাছে ডিএসএলআর ক্যামেরা চান ইমরুল কায়েস। ক্যামেরা কিনে দিতে দেরি হওয়ায় তিনি অভিমান করেন। গতরাতে খাবারও খাননি। রাত ২টার দিকে তার মা ঘরে ঢুকে দেখেন, ফ্যানের সঙ্গে রশি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে আছেন।

ফেসবুকে হতাশা আর আত্মহত্যা নিয়ে পোস্ট করেন ইমরুল কায়েস

গঙ্গানন্দপুর ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য শহিদুল ইসলাম বলেন, ছেলেটা কেন যে আত্মহত্যা করেছে, তা জানতে পারিনি। তার মা একটি বেসরকারি সংস্থায় (এনজিও) চাকরি করেন। শুনেছি ছেলেটি একটি ক্যামেরা কিনে দিতে বলেছিল। ক্যামেরা দিতে দেরি হওয়ায় অভিমানে সে আত্মহত্যা করতে পারে।

কিছু দিন আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে কয়েকদিন ধরে হতাশা আর আত্মহত্যা নিয়ে পোস্ট করেন ইমরুল কায়েস।

ঝিকরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক জানান, ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। কী কারণে তিনি আত্মহত্যা করেছেন তা এখনই বলা যাচ্ছে না।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, গণপিটুনিতে নিহত

পুলিশ পরিচয়ে চাঁদাবাজির অভিযোগ, গণপিটুনিতে নিহত

ভারতে গেলো আরও ২০৯ টন ইলিশ

ভারতে গেলো আরও ২০৯ টন ইলিশ

ভারতে গেলো ৭৮ টন ইলিশ

ভারতে গেলো ৭৮ টন ইলিশ

বিয়ের ৮ বছর পর একসঙ্গে চার সন্তানের মা হলেন লাক্সমিয়া

বিয়ের ৮ বছর পর একসঙ্গে চার সন্তানের মা হলেন লাক্সমিয়া

কোটি টাকা আত্মসাৎ

হাসপাতালের সাবেক তত্ত্বাবধায়কসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে মামলা

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩২

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের সাবেক তত্ত্বাবধায়ক, ঠিকাদার ও এক সহকারী ইঞ্জিনিয়ারের বিরুদ্ধে এক কোটি ১০ লাখ ৩৫ হাজার ৯৭০ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে দুদকের কুষ্টিয়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়ে দুদকের প্রধান কার্যালয় ঢাকার উপ-সহকারী পরিচালক মো. সহিদুর রহমান এই মামলা করেন। কুষ্টিয়া জেলা দায়রা জজ বিশেষ আদালতের বিচারক দুদক প্রধান কার্যালয়ের উপ-সহকারী পরিচালক মো. শহিদুর রহমানের দেওয়া এজাহারটি আমলে নিয়ে আগামী সপ্তাহে শুনানিসহ আদেশের দিন ধার্য করেছেন।

আসামিরা হলেন—কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের (অবসরপ্রাপ্ত) সাবেক তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আবু হাসানুজ্জামান (৬১), ঢাকার মহাখালীর স্বাস্থ্য দফতরের সাবেক সহকারী ইঞ্জিনিয়ার (অবসরপ্রাপ্ত) এ এইচ এম আব্দুল কুদ্দুস (৬১) এবং ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান মেসার্স প্যারাগন এন্টারপ্রাইজের মালিক মো. জাহেদুল ইসলাম (৩২)।

এজাহার সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসা সরঞ্জামাদি ক্রয়ের জন্য বিজ্ঞাপ্তি দেওয়া হয়। অভিযুক্তরা সরকারি ক্রয়নীতি লংঘন ও পারস্পরিক যোগসাজশে নয়টি খাতের অনুকূলে বাজারমূল্যের কয়েকগুণ বেশি মূল্য ধার্য করেন। সরকারের অতিরিক্ত টাকা আত্মসাতের অভিযোগ প্রাথমিক তদন্তে সত্যতা পাওয়া যায়।

দুর্নীতি দমন কমিশন কুষ্টিয়ার সমন্বিত কার্যালয়ের আইনজীবী আল মুজাহিদ হোসেন মিঠু জানান, দুদকের সব মামলা চূড়ান্তভাবে আদালতে দাখিলের আগে খুব বিচক্ষণতার সঙ্গে তদন্ত কর্মকর্তারা তদন্ত করেন। শুধু যেসব ক্ষেত্রে সত্যতা আছে বলে প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হয়, সেগুলো মামলা হিসেবে রুজু করা হয়। এই মামলার ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে। আদালত আগামী সপ্তাহে যে আদেশ দেন সেই অনুযায়ী পরবর্তী পদক্ষেপ নেবেন সংশ্লিষ্ট দুদক কর্মকতারা।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

মধ্যরাতে ঘুম থেকে তুলে যুবককে গুলি করে হত্যা

মধ্যরাতে ঘুম থেকে তুলে যুবককে গুলি করে হত্যা

মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, আরএমপির ৬ সদস্য বরখাস্ত

মাদক মামলার ভয় দেখিয়ে টাকা আদায়, আরএমপির ৬ সদস্য বরখাস্ত

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

‘জিনের বাদশার’ কথায় ২৮ লাখ টাকা হারালেন প্রবাসী

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির ৩ শীর্ষ নেতার আত্মসমর্পণ

রাষ্ট্রদ্রোহ মামলায় বিএনপির ৩ শীর্ষ নেতার আত্মসমর্পণ

চার জাতের তরমুজে ভাগ্য বদলের স্বপ্ন শিক্ষার্থী ছামিউল্লাহর

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৩

করোনাকালে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। এ সময় বসে না থেকে বাড়ির পাশের পতিত জমিতে বাহারি তরমুজ চাষ করেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার প্যারামেডিক্যালের শিক্ষার্থী মো. ছামিউল্লাহ। চাষে ৪৫ হাজার টাকা খরচ হলেও তরমুজ বিক্রি করে লাখ টাকার বেশি আয় হবে বলে আশা তার। ছামিউল্লাহর অল্প জায়গায় বাহারি তরমুজের অধিক ফলন দেখে স্থানীয় বেকার যুবকরাও চাষে উৎসাহ পাচ্ছেন।

কসবা উপজেলার কুটি ইউনিয়নের জাজিয়ারা গ্রামের বাসিন্দা ছামিউল্লাহ। তিনি কোটবাড়ী শহীদ স্মৃতি প্যারামেডিক্যাল কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। 

ছামিউল্লাহ বলেন, করোনাকালে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় অনেকটা অলস সময় কাটছিল। এ সময় একদিন ইউটিউবে কুমিল্লার এক তরমুজ চাষির গল্প দেখি। পরে তার সঙ্গে যোগাযোগ করে বীজ সংগ্রহ করি। আমি চার জাতের বীজ এনেছিলাম। এর মধ্যে ছিল ব্ল্যাক বেবি, গোল্ডেন ক্রাউন ও বাংলাদেশি জাত মধুমালা এবং সুপার কিং। চাষের পর আমার গাছগুলো সম্পূর্ণভাবে ফলন দিয়েছে। এখনও আমি বিক্রি শুরু করেনি, তবে আশা করছি আগামী কয়েকদিনের মধ্যে ভালো দামেই তরমুজ বিক্রি করতে পারবো। 

তরমুজ বিক্রি করে লাখ টাকার বেশি আয় হবে বলে আশা ছামিউল্লাহর

তিনি আরও বলেন, প্রথমে যখন চাষ করি তখন আমাকে অনেকেই এ বিষয়ে অনুৎসাহিত করে। তবে এখন সবাই এসে আমার ফলন দেখছে ও চাষের বিষয়ে পরার্মশ চাইছেন। মাত্র ২৫ শতাংশ জমিতে তরমুজ আবাদ করেছি। এতে আমার খবরচ হয়েছে ৪৫ হাজার টাকার মতো। আশা করছি লাখ টাকার উপরে তরমুজ বিক্রি করতে পারবো।

এদিকে প্রথমবারের মতো কসবা কুটি এলাকায় বাহারি তরমুজের ভালো ফলন দেখে স্থানীয় যুবকরাও পতিত জমিতে তরমুজ চাষে আগ্রহী হয়েছেন।

ছামিউল্লাহকে দেখে অনেকেই তরমুজ চাষে উৎসাহ পাচ্ছেন

সাইদুল ইসলাম নামে এক যুবক বলেন, ছামিউল্লাহ তরমুজের চাষ করেছে, অনেক ফল এসেছে। আশা রাখছি আগামীতে আমরাও এই তরমুজ চাষ করবো।

সাদমান হোসেন ভূইয়া নামে আরেক যুবক বলেন, আমার বন্ধু প্রথমবার তরমুজ চাষ করেছে। আমরা এলাকার যুবকেরা এগুলো দেখে শিখছি। আমরাও বাড়ির পাশের খালি জমিতে তরমুজ চাষ করার চিন্তা করছি।

ছামিউল্লাহর অল্প জায়গায় বাহারি তরমুজের অধিক ফলন

কসবা উপজেলার উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ছামিউল্লাহ এলাকায় প্রথমবার তরমুজ চাষ করেছেন। আমরা তাকে চাষ অব্যাহত রাখার পরামর্শ দিয়েছি। এতে করে কুটি এলাকায় অন্যান্য কৃষকরাও উৎসাহিত হবেন। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে আমরা বলেছি যখন যে পরার্মশ প্রয়োজন আমরা তাদেরকে দিয়ে যাবো। 

/টিটি/ /এসএইচ/

সম্পর্কিত

সৌদি থেকে ফিরে খেজুর বাগান, বছরে বিক্রি কোটি টাকা 

সৌদি থেকে ফিরে খেজুর বাগান, বছরে বিক্রি কোটি টাকা 

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

সব শিক্ষার্থীর ২ বছরের বেতন মওকুফ করলো বিদ্যালয়টি

খালেদা জিয়ার কি বিদেশ যাওয়ার প্রয়োজন আছে, প্রশ্ন আইনমন্ত্রীর

খালেদা জিয়ার কি বিদেশ যাওয়ার প্রয়োজন আছে, প্রশ্ন আইনমন্ত্রীর

মাদক মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩ ভাই গ্রেফতার

মাদক মামলায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৩ ভাই গ্রেফতার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে ২ কর্মচারী আহত

হাসপাতালের ছাদের পলেস্তারা খসে পড়ে ২ কর্মচারী আহত

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২

ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা, অস্ত্রসহ গ্রেফতার ২

মাত্রাতিরিক্ত ভারী যান উঠলেই সিগন্যাল দেবে লেবুখালী সেতু

মাত্রাতিরিক্ত ভারী যান উঠলেই সিগন্যাল দেবে লেবুখালী সেতু

৬ মাসেই ভেঙে পড়ছে সাড়ে তিন কোটি টাকার সড়ক

৬ মাসেই ভেঙে পড়ছে সাড়ে তিন কোটি টাকার সড়ক

ইলিশের দাম কেজিতে বেড়েছে ১০০ টাকা

ইলিশের দাম কেজিতে বেড়েছে ১০০ টাকা

এহসানের এমডি রাগীব ও তার ৩ ভাই শ্যোন অ্যারেস্ট

এহসানের এমডি রাগীব ও তার ৩ ভাই শ্যোন অ্যারেস্ট

পিটুনিতে জেলের মৃত্যু, ৪ নৌপুলিশকে প্রত্যাহার

পিটুনিতে জেলের মৃত্যু, ৪ নৌপুলিশকে প্রত্যাহার

৯ বছর পর উদ্ধার সেই রাসেল কারাগারে

৯ বছর পর উদ্ধার সেই রাসেল কারাগারে

সুদমুক্ত জীবনের আশায় এহসানে ২০ লাখ টাকা রেখেছিলেন ব্যাংক কর্মকর্তা

সুদমুক্ত জীবনের আশায় এহসানে ২০ লাখ টাকা রেখেছিলেন ব্যাংক কর্মকর্তা

সর্বশেষ

জাতিসংঘের অধিবেশনে আজ বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের অধিবেশনে আজ বাংলায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী

বাস-ট্রাক-কাভার্ডভ্যান সংঘর্ষে প্রাণ গেলো ৩ জনের

বাস-ট্রাক-কাভার্ডভ্যান সংঘর্ষে প্রাণ গেলো ৩ জনের

যুক্তরাষ্ট্রে পদক হারালেন রোমান সানা

যুক্তরাষ্ট্রে পদক হারালেন রোমান সানা

শিল্পকলা একাডেমিতে ‘শরৎ উৎসব’ উদ্বোধন

শিল্পকলা একাডেমিতে ‘শরৎ উৎসব’ উদ্বোধন

সাহিত্যতত্ত্ব : একটি সংক্ষিপ্ত পরিক্রমা

পর্ব—চারসাহিত্যতত্ত্ব : একটি সংক্ষিপ্ত পরিক্রমা

© 2021 Bangla Tribune