X
সোমবার, ১৮ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

কর্মীদের চাকরি খুঁজতে বললেন ইভ্যালির এমডি

আপডেট : ২৯ আগস্ট ২০২১, ১১:৩৬

অবশেষে কর্মীদের চাকরি খুঁজতে বলার কথা স্বীকার করলেন ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম ইভ্যালির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোহাম্মদ রাসেল। তিনি তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন পরিচালন ব্যয় কমানোর লক্ষ্যে কিছু কর্মীদের অন্যত্র চাকরি খোঁজার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

তবে গণমাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত সংবাদের সমালোচনাও করেছেন তিনি। তিনি লিখেছেন ‘অথচ, সত্য নিউজ এমন হতে পারতো, পরিচালন ব্যয় কমানোর লক্ষ্যে কিছু কর্মীদের অন্যত্র চাকরি খোঁজার পরামর্শ।’

তিনি আরও লিখেন, ‘আমরা গ্রাহক সাপ্লায়ারসহ সবার কাছে সময় চেয়েছি যেন বিনিয়োগ সংগ্রহ করে ইভ্যালির পূর্ণ শক্তি ফেরত আনতে পারি। এই সময় বেতন পেতে বিলম্ব হতে পারে সেই শুরুতেই কর্মীদের বলা ছিল। আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি সকল প্রতিকূলতা কাটিয়ে উঠতে।’

এদিকে কোম্পানিটির কলসেন্টারে কাজ করা কয়েকজন কর্মী বলেছেন, তাদের বলা হয়েছে চলতি আগস্ট ও আগামী সেপ্টেম্বর মাসে তাদের বেতন হবে না। যার টাকার দরকার তাকে চাকরি খুঁজে নিতে বলা হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিষ্ঠানটির অধিকাংশ কর্মীর মনোবল ভেঙে পড়েছে। এদিকে গ্রাহকরাও ইভ্যালিকে টাকা দিয়ে হা-হুতাশ করা শুরু করেছেন। কারণ, ইভ্যালি গ্রাহকদের পণ্য দিতে পারছে না, আবার টাকাও ফেরত দিতে পারছে না।

ইভ্যালির এমডির ফেসবুক স্ট্যাটাস প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালে প্রতিষ্ঠার পর দুই থেকে তিন মাসের আগাম সময় নিয়ে প্রায় অর্ধেক মূল্যে পণ্য সরবরাহের লোভনীয় বিভিন্ন ‘অফার’ দেওয়া শুরু করে ইভ্যালি। তাতে অল্প সময়ের মধ্যে সারাদেশে মোটরসাইকেল, ফ্রিজ, এসি, প্রাইভেটকারসহ নানা পণ্যের ক্রেতাদের সমারোহ ঘটেছিল ইভ্যালিতে।

স্বল্প মূল্যের এসব পণ্যের জন্য টাকা নেওয়া হতো অগ্রিম। কিন্তু কিছু ক্রেতাকে পণ্য দিয়ে বাকিদেরকে অপেক্ষায় রাখার কৌশল নিয়ে তারা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিল। বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের অনুরোধে বাংলাদেশ ব্যাংক তদন্ত করলে বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে। এরপর মন্ত্রণালয় ইভ্যালির বিষয়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিতে শুরু করে।

এদিকে  বৃহস্পতিবার(২৬ আগস্ট) বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ে ইভ্যালির পক্ষ থেকে জমা দেওয়া দায়-দেনার হিসাবে দেখা যায়, দুই লাখ ১৪ হাজার গ্রাহক ইভ্যালির কাছে পণ্য কেনার জন্য বুকিং দিয়েছেন। গত ১৫ জুলাই পর্যন্ত বুকিং বাবদ গ্রাহকরা ইভ্যালির কাছে ৩১০ কোটি টাকা পাবেন।

সূত্র বলছে, দুই লাখ ১৪ হাজার গ্রাহকের মধ্যে অধিকাংশই তাদের মূল টাকা ফেরত নেওয়ার চেষ্টা করছেন।

তবে  ইভ্যালির কল সেন্টার থেকে গ্রাহকদের বলা হচ্ছিল, অচিরেই সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে। কিন্তু দিন যত যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটির সংকট আরও বাড়ছে। সর্বশেষ ইভ্যালির এমডি ও চেয়ারম্যানের ব্যাংক হিসাব তলবের পর যমুনা গ্রুপও প্রতিশ্রুত বিনিয়োগ থেকে সরে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছে। যমুনা গ্রুপ আনুষ্ঠানিকভাবে ইভ্যালির সঙ্গে  সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা না দিলেও আপাতত প্রতিষ্ঠানটিতে বিনিয়োগ করবে না। এমন পরিস্থিতিতে ইভ্যালির অধিকাংশ কর্মী চাকরি খুঁজতে শুরু করেছেন। অবশ্য অধিকাংশ কর্মী ঈদের আগে বেতন বোনাস কিছুই পাননি। ঈদের পরেও তাদের বেতন হয়নি।

ইভ্যালির কল সেন্টারে চাকরি করা একাধিক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, একদিকে বেতন নেই, অন্যদিকে মানুষের সঙ্গে অনবরত মিথ্যা কথা বলতে হয়। প্রতিদিন একশ কল ধরলে তার ৯৯টি কলেই গ্রাহকদের টাকা ফেরত পাওয়ার অনিশ্চয়তা ও কান্নাকাটি শুনতে হয়েছে।

কল সেন্টারের সবার প্রায় একই বক্তব্য- আমরা গ্রাহকদের অনবরত একই কথা বলে গেছি- আপনার পণ্যটি নিয়ে কাজ হচ্ছে, অচিরেই পেয়ে যাবেন। অনেকে অনবরত এই ধরনের মিথ্যা কথা থেকে বিরত থাকতে চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন।

এদিকে যেসব কর্মীর বাসায় ল্যাপটপ বা ডেস্কটপ ছিল গত সপ্তাহে তাদের কাছ থেকে সেগুলো বুঝে নিয়েছে ইভ্যালি। ১৮০ জনের মতো কর্মী ছিল ইভ্যালির কাস্টমার সার্ভিস বিভাগে। তাদের সবাইকে চাকরিতে আর না যেতে বলা হয়েছে।

/এফএএন/

সম্পর্কিত

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার, গ্রেফতার ৩

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২৩:১২

সম্প্রতি পূজামণ্ডপের ঘটনাকে কেন্দ্র করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচারের অভিযোগ ফেনী থেকে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব।

রবিবার (১৭ অক্টোবর) সন্ধ্যায় ফেনী থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার খন্দকার আল মঈন।

তিনি বলেন, গ্রেফতারকৃতরা হলো- আহনাফ তৌসিফ মাহবুব লাবিব (২৩), আব্দুস সালাম জুনায়েদ (১৮), ফয়সাল আহমেদ আল আমিন (১৮)। সাম্প্রতিক সময়ে ধর্মীয় সম্প্রীতি বিনষ্ট করার উদ্দেশে নাশকতা এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন উস্কানিমূলক এবং অপব্যাখ্যা মূলক কনটেন্ট ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগে ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে ‌‌।

/আরটি/এমআর/

সম্পর্কিত

সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির আহ্বান

সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির আহ্বান

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:২৬

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ প্রকাশ করেছে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ)। রবিবার (১৭ অক্টোবর) ফল প্রকাশ করা হয়। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় মোট উত্তীর্ণ হন ১৮ হাজার ৫৫০ জন প্রার্থী।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এনটিআরসিএ’র ২০১৯ সালের ১৫ ও ১৬ নভেম্বরের ষোড়শ শিক্ষক নিবন্ধন লিখিত পরীক্ষায় ২২ হাজার ৩৯৮ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হন। উত্তীর্ণ প্রার্থীদের মধ্যে স্কুল-২ পর্যায়ের ১ হাজার ৮০ জন, স্কুল পর্যায়ের ১৫ হাজার ২৪০ জন এবং কলেজ পর্যায়ের ৩ হাজার ৮১১ জনসহ মোট ২০ হাজার ১৩১ জন প্রার্থী মৌখিক পরীক্ষায় অংশ নেন। লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে উত্তীর্ণ প্রার্থীদের চূড়ান্ত ফলাফল রবিবার (১৭ অক্টোবর)  প্রকাশ করা হয়।

স্কুল-২ পর্যায়ে ৯৯৬ জন, স্কুল পর্যায়ে ১৪ হাজার ৪৬ জন এবং কলেজ পর্যায়ে ৩ হাজার ৫০৮ জন প্রার্থী উত্তীর্ণ হয়েছেন। চূড়ান্তভাবে সর্বমোট ১৮ হাজার ৫৫০ জন প্রার্থী ষোড়শ শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন। সার্বিক পাসের হার ৯২ দশমিক ১৫ শতাংশ।

প্রার্থীরা পরীক্ষার ফলাফল http://ntrca.gov.bd এবং http://ntrca.teletalk.com.bd ওয়েবসাইট থেকে রাত ১০টার পর জানতে পারবেন। তাছাড়াও টেলিটক বিডি লিমিটেড কৃতকার্য প্রার্থীদের ফলাফল এসএমএস (SMS) এর মাধ্যমে জানিয়ে দেবে।

/এসএমএ/এমআর/

সম্পর্কিত

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির আহ্বান

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২২:১১

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যেকোনও সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র রুখে দিতে সারাদেশের আইনজীবীদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি। রবিবার (১৭ অক্টোবর) সংগঠনটির সহ-সভাপতি মুহাম্মদ শফিক উল্ল্যা স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ বিষয়ে অনুরোধ করা হয়। একইসঙ্গে পূজামণ্ডপে হামলা-ভাঙচুরের ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন তিনি। 

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছে, কতিপয় স্বার্থান্বেষী মহল তাদের অপ-রাজনীতির উদ্দেশ্য চরিতার্থ করার হীনমানসে এবং শান্তি-শৃঙ্খলা বিনষ্টের লক্ষ্যে সাম্প্রদায়িক কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশে আবহমানকাল ধরে থাকা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র করার চেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের এসব ঘৃণ্য কার্যকলাপের কারণে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছে।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নেতাদের বক্তব্য, ‘সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও পারস্পরিক উৎসবে অংশগ্রহণ বাঙালির চিরায়ত ঐতিহ্য। তাই স্বাধীনতার চেতনায় গড়ে ওঠা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশের বিরুদ্ধে যেকোনও সাম্প্রদায়িক ষড়যন্ত্র প্রতিরোধে সারাদেশের আইনজীবীরা রুখে দাঁড়াবেন বলে আমরা বিশ্বাস করি।’

সাম্প্রদায়িক কার্যকলাপে জড়িত অপরাধীদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি।

/বিআই/জেএইচ/

সম্পর্কিত

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার, গ্রেফতার ৩

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপপ্রচার, গ্রেফতার ৩

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

আইস ও অস্ত্রসহ আটক দু’জন ৯ দিনের রিমান্ডে

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৫৪

কেন্দ্রীয়ভাবে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) এবং ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না। মূল্যায়নের মাধ্যমে ফলাফল দেওয়া হবে।  প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পাঠানো এমন প্রস্তাবে অনুমোদন দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে অনুমোদিত সারাংশ রবিবার (১৭ অক্টোবর) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ে পৌঁছেছে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মহাপরিচালক বলেন, ‘মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাবের সারাংশ পাঠানো হয়েছিল, প্রধানমন্ত্রী ওই সারাংশে অনুমোদন দিয়েছেন।’ তিনি বলেন, প্রস্তাবে বলা হয়েছিল—মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রাথমিকের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ফলাফল দেওয়া হবে। একইভাবে প্রাথমিকের অন্যান্য শ্রেণির ক্ষেত্রেও মূল্যায়নের মাধ্যমে ফলাফল দেওয়া হবে।’

বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা নেওয়া হবে কিনা জানতে চাইলে আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম বলেন, ‘আমরা প্রস্তাবে মূল্যায়ন শব্দটি রেখেছি। করোনার সংক্রমণ বেড়ে গেলে বিকল্প মূল্যায়নের মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফলাফল দেবে। আর করোনা পরিস্থিতি অনুকূলে থাকলে ও ঝুঁকি তৈরির কোনও সম্ভাবনা না থাকলে, বার্ষিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। নিজ নিজ বিদ্যালয়ে বার্ষিক পরীক্ষা নিয়ে ফলাফল দেওয়া হবে এবং শিক্ষার্থীদের পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হবে।’ তিনি বলেন, ‘এবার ইবতেদায়ি সমাপনীও হবে না। তারা আমাদের প্রস্তাবের সঙ্গে সংযুক্ত রয়েছে।’ 

এর আগে গত ২৮ সেপ্টেম্বর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি জানিয়েছিলেন, প্রাথমিকের সমাপনী (পিইসি), জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা কেন্দ্রীয়ভাবে হবে না। বার্ষিক মূল্যায়নের মতো শ্রেণি মূল্যায়ন করা হবে। আর শ্রেণি মূল্যায়নের ফল অনুযায়ী, বোর্ডের সনদ পাবেন জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীরা। আর বিদ্যালয় থেকে সনদ পাবে পিইসি পরীক্ষার্থীরা।

শিক্ষামন্ত্রী ওইদিন আরও বলেছিলেন, আমরা যেটি করতে চাইছি—সব শ্রেণির শ্রেণি সমাপনী মূল্যায়ন, যেটি চলছে। চলমান অ্যাসাইনমেন্ট মূল্যায়ন চলছে। অষ্টম শ্রেণিরও সমাপনী মূল্যায়ন হবে। সেখানে সামষ্টিক পরীক্ষা হবে—কিছুটা অ্যাসাইনমেন্ট যেটা হচ্ছে, সেটা দিয়ে হবে। আমরা আশা করছি, সনদ এটি দিয়ে দিতে পারবো। তাদের সনদ তো একটা দিতে হবে। অষ্টম শ্রেণির পর অনেকের হয়তো পড়াশোনার সুযোগ হয় না। সেটা আমরা বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করে ঠিক করবো। শিক্ষার্থীরা আগের মতো বোর্ডের সনদ পাবে।’

প্রাথমিক শিক্ষা অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, নিজ নিজ বিদ্যালয়ে প্রাথমিকের পঞ্চম শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করে পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ করা হবে। করোনার এই পরিস্থিতিতে সংক্রমণের বিস্তার রোধে কেন্দ্রীয়ভাবে পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব হবে না। তবে শিক্ষার্থীরা আগের মতোই সনদ পাবে।’

পিইসি, জেএসসি ও জেডিসি সেরকমভাবে হবে না। তবে ক্লাস সমাপনী মূল্যায়ন—অন্যান্য শ্রেণির মতো হচ্ছে এবং হবে।

প্রসঙ্গত, প্রতি বছর কেন্দ্রীয়ভাবে পিইসি, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতো। কেন্দ্রীয়ভাবে অনুষ্ঠিত এই পরীক্ষা পাবলিক পরীক্ষা হিসেবে পরিচিত। কারণ, এই পরীক্ষার সনদ দেওয়া হতো বোর্ড থেকে।

করোনার কারণে ২০২০ সালের পিইসি, জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়নি। পরবর্তী শ্রেণিতে উত্তীর্ণ (ক্লাস প্রশোমন) করা হয়েছে। এবার কেন্দ্রীয়ভাবে পরীক্ষা না নেওয়া হলেও বার্ষিক মূল্যায়ন করা হবে নিজ নিজ বিদ্যালয়ে। বিদ্যালয়ের মূল্যায়নের ভিত্তিতে জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষার্থীরা বোর্ড সনদ পাবে। তবে পিইসি পরীক্ষার্থীরা বিদ্যালয় থেকে পঞ্চম শ্রেণিতে উত্তীর্ণের সনদ পাবে।’

 

/এসএমএ/এপিএইচ/এমওএফ/

সম্পর্কিত

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

ডিনেটের সঙ্গে ইউল্যাবের সমঝোতা স্মারক সই

আপডেট : ১৭ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩৩

শিক্ষার্থীদের কাজের সুযোগ বাড়াতে ডিনেটের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) স্বাক্ষর করেছে ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস অব বাংলাদেশ (ইউল্যাব)। রবিবার (১৭ অক্টোবর) মোহাম্মদপুরে ইউল্যাবের স্থায়ী ক্যাম্পাসে উভয় পক্ষের মধ্যে এই স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. সামসাদ মর্তূজা এবং ডিনেটের নির্বাহী পরিচালক এম. শাহাদাত হোসেন এতে স্বাক্ষর করেন। 

ডিনেট একটি সামাজিক উদ্যোগ যা সামাজিক প্রভাব তৈরি করতে এবং প্রতিষ্ঠানগুলোর সক্ষমতা ও উৎপাদনশীলতা বৃদ্ধির জন্য গ্রামীণ ও শহুরে পরিবেশে নারী, শিশু ও যুবকদের জন্য উদ্ভাবনী পণ্য ও পরিষেবার ডিজাইন করে। 

ডিনেটের নিয়মিত ইন্টার্নশিপ প্রোগ্রামের অংশ হিসেবে ইউল্যাব ও ডিনেটের মধ্যে অনবোর্ড ইন্টার্নস-এর বিষয়টি সমঝোতা স্মারকে উল্লেখ করা হয়েছে। 

উভয়পক্ষই শিক্ষার্থীদের একাডেমিক প্রোগ্রামের ফাইনাল টার্মে ইউল্যাবের স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীদের ডিনেটে ইন্টার্ন হিসেবে নিয়োগ করতে চায়। ইন্টার্নশিপ করার জন্য শিক্ষার্থীরা একাডেমিক ক্রেডিটও পাবে।

ইউল্যাব বোর্ড অব ট্রাস্টিজের বিশেষ উপদেষ্টা অধ্যাপক ইমরান রহমান, ইউল্যাবের রেজিস্ট্রার লেফটেন্যান্ট কর্নেল ফয়জুল ইসলাম (অব.), ইউল্যাবের ইন্টারন্যাশনাল অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড ক্যারিয়ার সার্ভিস অফিসের পরিচালক আবু হেনা এম রাসেলের উপস্থিতিতে এই সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইউল্যাব কমিউনিকেশনস অফিসের সহকারী অধ্যাপক ও উপদেষ্টা মুহাম্মদ ফয়সল চৌধুরী, ডিনেটের পিপল অ্যান্ড কালচার অ্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন প্রধান সৈয়দ মাজেদুর রহমান, ডিনেটের পিপল অ্যান্ড কালচার ম্যানেজার ফারজানা আহমেদ এবং অন্যান্য কর্মকর্তারা।

/এমপি/

সম্পর্কিত

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

১৬তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার ফল প্রকাশ

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

উপজেলা শিক্ষা অফিসার সমিতির সভাপতি মঈনুল, মহাসচিব নাছিমা

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

মাদ্রাসা শিক্ষার্থীদের তথ্য চেয়েছে সরকার

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

তিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পূজামণ্ডপে হামলা-ভাঙচুরতিন শতাধিক উসকানিদাতা শনাক্ত, হোতাদের খুঁজছে পুলিশ

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

পুলিশের কর্মক্ষেত্রে যৌন নির্যাতন বন্ধে ব্যাপক প্রচারণার নির্দেশ সদর দফতরের

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

‘অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠনে মহানবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই’

ওষুধ শিল্পের কাঁচামাল উৎপাদনে আয়কর অব্যাহতি ২০৩২ সাল পর্যন্ত

ওষুধ শিল্পের কাঁচামাল উৎপাদনে আয়কর অব্যাহতি ২০৩২ সাল পর্যন্ত

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

ডেঙ্গু: হাসপাতালে ভর্তি ২৬ শতাংশই ১১-২০ বছরের

আল নাহিয়ান ট্রাস্ট্রে দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগের সুপারিশ

আল নাহিয়ান ট্রাস্ট্রে দ্রুত নির্বাহী পরিচালক নিয়োগের সুপারিশ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ইউএনওদের জন্য কেনা হচ্ছে ৫০টি পাজেরো জিপ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

ই-কমার্সে আটকে পড়া টাকা ফেরত চেয়ে আইনি নোটিশ

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

খিলক্ষেতের বাসা থেকে চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার

সর্বশেষ

ভারতের প্রথম অ্যালকোহল জাদুঘরের যাত্রা শুরু

ভারতের প্রথম অ্যালকোহল জাদুঘরের যাত্রা শুরু

এবার মরুর বুকে ক্ষত-বিক্ষত মাহমুদউল্লাহরা

এবার মরুর বুকে ক্ষত-বিক্ষত মাহমুদউল্লাহরা

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত: এনডিটিভি

কাশ্মিরে বন্দুকযুদ্ধে পাকিস্তানি কমান্ডোদের হাত দেখছে ভারত: এনডিটিভি

গিটার সঙ্গী স্বপনের স্মৃতিতে আইয়ুব বাচ্চু

গিটার সঙ্গী স্বপনের স্মৃতিতে আইয়ুব বাচ্চু

‘রাসেল নামটি শুনলেই যে ছবি সামনে ভেসে আসে...’

‘রাসেল নামটি শুনলেই যে ছবি সামনে ভেসে আসে...’

© 2021 Bangla Tribune