X
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৭ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেট কার খালে, কলেজশিক্ষার্থী নিহত

আপডেট : ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:০০

হবিগঞ্জের বা‌নিয়াচংয়ে প্রাইভেট কার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খালে পড়ে কাঁকন দাস নামে এক কলেজশিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন কাঁকন দাসের বাবা-মা ও বোন।

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে হবিগঞ্জ-বা‌নিয়াচং সড়কের সুবিদপুর ইউনিয়নের সুনারু গ্রামের সেতুর কাছে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত কাঁকন দাস (২১) বা‌নিয়াচং উপ‌জেলার সুনারু গ্রামের মতি লাল দাসের মেয়ে এবং শ্রীমঙ্গল মহিলা কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছি‌লেন। 

আহতরা হলেন মতি লাল দাস (৬৫), তার স্ত্রী কামিনী দাস (৫৫) ও মেয়ে বৃন্দা দাস (২৫)। তাদের হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সুনারু গ্রামের মতি লাল দাস সপরিবারের প্রাইভেট কারযোগে মৌলভীবাজার থেকে বাড়িতে যাচ্ছিলেন। সুনারু গ্রামের সেতু থেকে নামতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেট কার সড়কের পাশে খালে পড়ে যায়। 

খবর পেয়ে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাদের উদ্ধার করেন। পরে তাদের হবিগঞ্জ আধুনিক সদর হাসপাতালে পাঠালে কাঁকন দাসকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক। দুর্ঘটনার পরই প্রাইভেট কার চালক পালিয়ে যান।

বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি-তদন্ত) প্রজিত কুমার দাস বলেন, আহতদের উদ্ধার করে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখানে একজনের মৃত্যু হয়।

/এএম/

সম্পর্কিত

নেতাদের শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে যুবলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

নেতাদের শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে যুবলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

করোনার টিকা বাসায় নিতে না দেওয়ায় টেকনোলজিস্টকে পিটিয়ে আহত

করোনার টিকা বাসায় নিতে না দেওয়ায় টেকনোলজিস্টকে পিটিয়ে আহত

গরু পাচারকালে বিএসএফের গু‌লি‌তে ভারতীয় নিহত

গরু পাচারকালে বিএসএফের গু‌লি‌তে ভারতীয় নিহত

ছাদের পিলারে ঝুলছিল দুই বোনের লাশ

ছাদের পিলারে ঝুলছিল দুই বোনের লাশ

সিনহা হত্যা মামলা: তৃতীয় দফায় শেষ দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১৮

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান হত্যা মামলার ১২ নম্বর সাক্ষী সেনা কর্মকর্তা সার্জেন্ট আয়ুব আলীর সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। সোমবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ ইসমাইলের আদালতে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ও কক্সবাজার জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ফরিদুল আলম জানান, বুধবার সকাল সাড়ে ১০ টারদিকে তৃতীয় দফার শেষ দিনে ১২ নম্বর সাক্ষী সেনা কর্মকর্তা সার্জেন্ট আয়ুব আলীর মধ্য দিয়ে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়েছে। এ ছাড়া মামলার আরও সাক্ষী কক্সবাজার সদর হাসপাতালের আবাসিক মেডিক্যাল কর্মকর্তা (আরএমও) ডা. শাহীন আবদুর রহমান আদালতে উপস্থিত রয়েছেন।

‘মেজর সিনহাকে মুইন্যা পাহাড়ে নিয়ে হত্যার পরিকল্পনা ছিল’

এর আগে গত ২৩ থেকে ২৫ আগস্ট টানা তিন দিন মামলার প্রথম দফায় ১নং সাক্ষী ও বাদী শারমিন সাহরিয়া ফেরদৌস এবং ২নং সাক্ষী সাহেদুল ইসলাম সিফাতের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। একইভাবে গত ৫ থেকে ৮ সেপ্টেম্বর টানা চার দিনে দ্বিতীয় দফায় সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ করেন আদালত। এ নিয়ে প্রথম ও দ্বিতীয় দফায় ৭৬ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণ শেষ হয়েছে। গত সোমবার সাত সাক্ষী নিয়ে তৃতীয় দফায় সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

গত বছর ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের টেকনাফ উপজেলার বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে পুলিশের গুলিতে নিহত হন সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খান। এ ঘটনায় সে সময় সিনহার বোন শারমিন শাহরিয়ার ফেরদৌস বাদী হয়ে টেকনাফ থানার সাবেক ওসি প্রদীপ কুমার দাশ ও বাহারছড়া তদন্ত কেন্দ্রের সাবেক ইনচার্জ পরিদর্শক লিয়াকত আলীসহ নয় পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা করেন। 

মামলায় প্রধান আসামি করা হয় লিয়াকত আলীকে। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে র‌্যাবকে তদন্তের দায়িত্ব দেয়। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে টেকনাফ থানায় একটি এবং রামু থানায় আরেকটি মামলা করে। এরপর মেজর সিনহা নিহতের ছয় দিন পর লিয়াকত আলী ও ওসি প্রদীপসহ সাত পুলিশ সদস্য আদালতে আত্মসমর্পণ করেন। পরে ঘটনায় সংশ্লিষ্টতা পাওয়ার অভিযোগে টেকনাফ থানায় পুলিশের করা মামলার তিন সাক্ষী এবং শামলাপুর চেকপোস্টে ঘটনার সময় দায়িত্ব পালনকারী আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) তিন সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। এরপর টেকনাফ থানার সাবেক কনস্টেবল রুবেল শর্মাকে গ্রেফতার করে র‌্যাব। গত ২৪ জুন মামলার অন্য পলাতক আসামি টেকনাফ থানার সাবেক এএসআই সাগর দেব আদালতে আত্মসমর্পণ করেন।

আসামিদের মধ্যে ওসি প্রদীপ ও কনস্টেবল রুবেল শর্মা ছাড়া অন্য ১২ জন আসামি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তদন্ত শেষে গত বছর ১৩ ডিসেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা তৎকালীন র‌্যাব ১৫-এর সহকারী পুলিশ সুপার মো. খাইরুল ইসলাম ১৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। গত ২৭ জুন ১৫ জন আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। এতে ৮৩ জনকে সাক্ষী করা হয়।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

স্ত্রীকে হত্যার ৩ দিন পর ‌‌‘অনুতপ্ত’ স্বামীর আহাজারি

স্ত্রীকে হত্যার ৩ দিন পর ‌‌‘অনুতপ্ত’ স্বামীর আহাজারি

‘মেজর সিনহাকে মুইন্যা পাহাড়ে নিয়ে হত্যার পরিকল্পনা ছিল’

‘মেজর সিনহাকে মুইন্যা পাহাড়ে নিয়ে হত্যার পরিকল্পনা ছিল’

কক্সবাজারের রিসোর্টে নারী পর্যটকের মরদেহ

কক্সবাজারের রিসোর্টে নারী পর্যটকের মরদেহ

রামেকের করোনা ইউনিটে ২২ দিনে ১৩৮ জনের মৃত্যু

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:০৪

রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘণ্টায় আটজনের মৃত্যু হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনায় এক ও উপসর্গে সাতজন মারা গেছেন। এ নিয়ে চলতি মাসের ২২ দিনে মোট ১৩৮ জনের ‍মৃত্যু হয়েছে।

বুধবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে রামেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শামীম ইয়াজদানী জানান,  গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতালের আরটি-পিসিআর ল্যাবে ১৮৪ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। তাদের মধ্যে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৮ জনের। মেডিক্যাল কলেজ ল্যাবে ২৮১টি নমুনা পরীক্ষা করে ২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

তিনি আরও জানান, ২৪০ শয্যার করোনা ইউনিটে বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত রোগী ভর্তি ছিলেন ১২৩ জন।বর্তমানে রাজশাহীর ৫৫, চাঁপাইনবাবগঞ্জের ২৫, নাটোরের ১৫, নওগাঁর ১০, পাবনার ১৩, কুষ্টিয়ার এক, চুয়াডাঙ্গার এক, সিরাজগঞ্জের এক ও মেহেরপুরের দুই জন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। করোনা নিয়ে ভর্তি ২৩ জন। উপসর্গ নিয়ে ভর্তি ৬৫ জন। করোনা ধরা পড়েনি ভর্তি ৩৫ জনের। এ ছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় ভর্তি হয়েছেন ২৫ জন। এই এক দিনে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১৫ জন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

প্যান্ট-শার্ট-হেলমেট পরে নারীর গরু চুরি

প্যান্ট-শার্ট-হেলমেট পরে নারীর গরু চুরি

সাবেক প্রধান শিক্ষককে হত্যার অভিযোগ

সাবেক প্রধান শিক্ষককে হত্যার অভিযোগ

করোনাকালে একজনও না খেয়ে মারা যায়নি: খাদ্যমন্ত্রী

করোনাকালে একজনও না খেয়ে মারা যায়নি: খাদ্যমন্ত্রী

ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজের ৬ মাস পরেও থাকছে অ্যান্টিবডি

ভ্যাকসিনের দ্বিতীয় ডোজের ৬ মাস পরেও থাকছে অ্যান্টিবডি

শেকলে বাঁধা অবস্থায় পুড়ে মৃত্যু 

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪১

বুড়িচংয়ে শেকল বাঁধা অবস্থায় এক মানসিক ভারসাম্যহীন তরুণের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে উপজেলার বাকশীমুল ইউনিয়নের খাড়েরা পশ্চিমপাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ওই তরুণের নাম আলাউদ্দিন (১৯)। সে ওই এলাকার চটপটি বিক্রেতা আবদুল মমিনের ছেলে এবং কালিকাপুর আবদুল মতিন খসরু কলেজের দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র ছিল।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বুড়িচং থানার ওসি মো. আলমগীর হোসেন। পরিবারের সদস্যদের বরাত দিয়ে তিনি জানান, আলাউদ্দিন গত প্রায় তিনমাস আগে মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলেন। এ জন্য তাকে ঘরের ভেতর শেকল দিয়ে বেঁধে রাখা হতো। মঙ্গলবার রাতে ওই ঘরের বৈদ্যুতিক মিটার থেকে অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়ে পুরো ঘর পুড়ে যায়। এ সময় আগুনে পুড়ে প্রাণ হারায় আলাউদ্দিন। ‘পরিবারের সদস্য ও স্থানীয়দের অনুরোধে এবং মানবিক কারণে’ তার লাশ স্বজনদের কাছে দিয়ে আসা হয় বলেও জানান ওসি আলমগীর।

স্থানীয় ইউপি সদস্য ফয়েজ আহমেদ বলেন, খাড়েরা গ্রামের আবদুল মতিন তার অন্যান্য সন্তানদের সঙ্গে নিয়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় চটপটি বিক্রি করতেন। করোনাকালে কলেজ বন্ধ থাকায় তাকে সহায়তা করতো আলাউদ্দিন। কিন্তু গত প্রায় তিন মাস আগে তার মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। এরপর থেকে তাকে ঘরের ভেতর শেকলে বেঁধে রাখা হতো। মঙ্গলবার রাতে তাদের ঘরে আগুন লাগে। এ সময় বাড়িতে কেবল তার মা, বড় ভাই এবং ভাইয়ের বউ ছিল। তাদের শোর-চিকৎকারে আশপাশের লোকজন এসে আলাউদ্দিনকে বাঁচানোর চেষ্টা করে, খবর দেওয়া হয় ফায়ার সার্ভিসে। প্রায় ঘণ্টাখানেকের প্রচেষ্টায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। কিন্তু ততক্ষণে সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে যায়। আগুনে পুড়ে মারা যায় আলাউদ্দিন।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

‘একাদশ নির্বাচনের মতো খেলা শুরু করলে কঠিন খেসারত দিতে হবে’

‘একাদশ নির্বাচনের মতো খেলা শুরু করলে কঠিন খেসারত দিতে হবে’

মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের দায়ে গ্রেফতার ৪

মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের দায়ে গ্রেফতার ৪

‘মেজর সিনহাকে মুইন্যা পাহাড়ে নিয়ে হত্যার পরিকল্পনা ছিল’

‘মেজর সিনহাকে মুইন্যা পাহাড়ে নিয়ে হত্যার পরিকল্পনা ছিল’

কক্সবাজারের রিসোর্টে নারী পর্যটকের মরদেহ

কক্সবাজারের রিসোর্টে নারী পর্যটকের মরদেহ

স্ত্রীকে হত্যার ৩ দিন পর ‌‌‘অনুতপ্ত’ স্বামীর আহাজারি

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৬

ময়মনসিংহের নান্দাইলে স্ত্রীকে হত্যার তিন দিন পর স্বামী সাদ্দাম হোসেনকে (৪০) গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলার গাঙাইল ইউনিয়নের শ্রীরামপুর এলাকার হাওর থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

সাদ্দাম হোসেন শ্রীরামপুর গ্রামের হাদিস মিয়ার ছেলে। গত ১৮ সেপ্টেম্বর রাত ১২টার দিকে সুরাশ্রম এলাকার একটি হাওর থেকে তার স্ত্রী ইয়াসমিন আক্তারের রক্তাক্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নান্দাইল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মিজানুর রহমান আকন্দ জানান, হত্যার পর থেকে সাদ্দাম হোসেন মানসিকভাবে কিছু বিপর্যস্ত হয়ে হাওরে লুকিয়ে ছিল। তিন দিন পর অনুতপ্ত হয়ে দা হাতে সেই হাওরে আহাজারি ও চিৎকার করতে থাকে। পরে স্থানীয়রা খবর দিলে পুলিশ এসে তাকে গ্রেফতার করে। সাদ্দামকে আরও জিজ্ঞাসাবাদ শেষে আদালতে পাঠানো হবে।

স্থানীয়রা জানায়, ১০ বছর আগে সাদ্দাম হোসেনের সঙ্গে নেত্রকোনার কেন্দুয়ার পাইকুড়া ইউনিয়নের সোহাগপুর গ্রামের মো. সিরাজের মেয়ে ইয়াসমিনের বিয়ে হয়। তাদের দুটি সন্তান রয়েছে। প্রায়ই বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে ঝগড়া হতো। কিছুদিন আগে পারিবারিক ঝামেলা মামলা পর্যন্ত গড়ায়। কয়েকদিন আগে দুই পরিবারের মধ্যে সমাঝোতা হয়। লাশ উদ্ধারের দুই দিন আগে স্বামীর বাড়িতে ফিরে আসেন ইয়াসিমন।

ঘটনার দিন সন্ধ্যার পর বাড়ি থেকে কিছুটা দূরে নির্জন জায়গা থেকে এক শিশুর কান্নার শব্দ ভেসে আসে। কান্নার শব্দ কোথা থেকে আসছে, তা খুঁজতে গিয়ে ইয়াসমিনের রক্তাক্ত লাশ দেখতে পায় স্থানীয়রা। এ সময় লাশের পাশে বসে তার শিশুকন্যা কাঁদছিল। স্থানীয়রা থানায় খবর দিলে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাতে নিহতের ভাই বকুল মিয়া বাদী হয়ে সাদ্দাম হোসেনসহ পাঁচজনকে আসামি করে থানায় মামলা করেন।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

জালিয়াতি করে ৭ লাখ টাকা উত্তোলনের ঘটনায় ব্যাংক ব্যবস্থাপক প্রত্যাহার

জালিয়াতি করে ৭ লাখ টাকা উত্তোলনের ঘটনায় ব্যাংক ব্যবস্থাপক প্রত্যাহার

বিপুল পরিমাণ চোরাই ডিজেলসহ গ্রেফতার ১

বিপুল পরিমাণ চোরাই ডিজেলসহ গ্রেফতার ১

মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের দায়ে গ্রেফতার ৪

মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরণের দায়ে গ্রেফতার ৪

কণ্ঠশিল্পী সালমার পার্কের উদ্বোধন

কণ্ঠশিল্পী সালমার পার্কের উদ্বোধন

আজান দেওয়ার সময় ঢলে পড়লেন মুয়াজ্জিন

আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৪

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জে মসজিদে আজান দেওয়ার সময় মাইক সেটে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে বরকত উল্লাহ গাজী (৭৫) নামে এক মুয়াজ্জিনের মৃত্যু হয়েছে। তিনি উপজেলার তারালী ইউনিয়নের রহিমপুর (পাচুলিয়া) গ্রামের মৃত মাদার গাইনের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, বরকত উল্লাহ উপজেলার তারালী ইউনিয়নের রহিমপুর পাঞ্জেগানা মসজিদের মুয়াজ্জিনের দায়িত্ব পালন করতেন। মঙ্গলবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১ টার দিকে তিনি মসজিদে আজান দিতে যান। এ সময় মাইকের তার থেকে বিদ্যুতায়িত হয়ে ঘটনাস্থলেই তিনি প্রাণ হারান। 

খবর পেয়ে কালিগঞ্জ থানার উপপরিদর্শক আশিষ কুমার ঘোষ ঘটনাস্থলে গিয়ে মৃতদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করেন।

সাতক্ষীরার কালিগঞ্জ থানার ওসি মোহাম্মদ গোলাম মোস্তফা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে। কারও কোনও অভিযোগ না থাকায় মৃতদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

 

/টিটি/

সম্পর্কিত

বিদ্যালয় বন্ধের সুযোগে ৯২ ছাত্রীর বাল্যবিয়ে, হতাশ শিক্ষকরা

বিদ্যালয় বন্ধের সুযোগে ৯২ ছাত্রীর বাল্যবিয়ে, হতাশ শিক্ষকরা

ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে যশোরে মামলা

ইভ্যালির রাসেলের বিরুদ্ধে যশোরে মামলা

বিল গেটসের ফাউন্ডেশন থেকে পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশি তরুণী

বিল গেটসের ফাউন্ডেশন থেকে পুরস্কার পেলেন বাংলাদেশি তরুণী

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

নেতাদের শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে যুবলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

নেতাদের শুভেচ্ছা জানানো নিয়ে যুবলীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ

করোনার টিকা বাসায় নিতে না দেওয়ায় টেকনোলজিস্টকে পিটিয়ে আহত

করোনার টিকা বাসায় নিতে না দেওয়ায় টেকনোলজিস্টকে পিটিয়ে আহত

গরু পাচারকালে বিএসএফের গু‌লি‌তে ভারতীয় নিহত

গরু পাচারকালে বিএসএফের গু‌লি‌তে ভারতীয় নিহত

ছাদের পিলারে ঝুলছিল দুই বোনের লাশ

ছাদের পিলারে ঝুলছিল দুই বোনের লাশ

বাঁক ঘুরতে গিয়ে খাদে বাস

বাঁক ঘুরতে গিয়ে খাদে বাস

দুর্ঘটনার এক মাস পর সেই চিকিৎসকের মৃত্যু

দুর্ঘটনার এক মাস পর সেই চিকিৎসকের মৃত্যু

সংঘর্ষ ঠেকাতে গিয়ে ৪ পুলিশ আহত

সংঘর্ষ ঠেকাতে গিয়ে ৪ পুলিশ আহত

রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্রের চুল্লি থেকে পড়ে ২ শ্রমিক নিহত

রূপপুর বিদ্যুৎকেন্দ্রের চুল্লি থেকে পড়ে ২ শ্রমিক নিহত

মোংলায় নির্বাচনি সহিংসতায় আহত ২৫ 

মোংলায় নির্বাচনি সহিংসতায় আহত ২৫ 

সর্বশেষ

সিনহা হত্যা মামলা: তৃতীয় দফায় শেষ দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

সিনহা হত্যা মামলা: তৃতীয় দফায় শেষ দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

রামেকের করোনা ইউনিটে ২২ দিনে ১৩৮ জনের মৃত্যু

রামেকের করোনা ইউনিটে ২২ দিনে ১৩৮ জনের মৃত্যু

ইভ্যালিকাণ্ডে ই-কমার্সে আস্থার সংকট চরমে

ইভ্যালিকাণ্ডে ই-কমার্সে আস্থার সংকট চরমে

এক গোলের শোধ ৬ গোলে নিলো ম্যানসিটি

এক গোলের শোধ ৬ গোলে নিলো ম্যানসিটি

টিকা সনদ দেখিয়ে হলে উঠতে হবে শেকৃবির শিক্ষার্থীদের 

টিকা সনদ দেখিয়ে হলে উঠতে হবে শেকৃবির শিক্ষার্থীদের 

© 2021 Bangla Tribune