X
শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২ আশ্বিন ১৪২৮

সেকশনস

অক্টোবরের মাঝামাঝি খুলবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়

আপডেট : ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৫:২৮

আগামী মাসের (অক্টোবর) মাঝামাঝি সময়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) খুলে দেওয়া হবে। এ ব্যাপারে পরিকল্পনা করা হচ্ছে। মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) দুপুরে বাংলা ট্রিবিউনকে এ তথ্য জানিয়েছেন রাবি উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার তাপু। 

তিনি বলেন, আগামী মাসের মাঝামাঝি সময়ে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার পরিকল্পনা চলছে। তবে এই সময়ের মধ্যে সব শিক্ষার্থীকে কমপক্ষে প্রথম ডোজ করোনার টিকা নিতে হবে। যেসব শিক্ষার্থী এখনও সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে টিকার নিবন্ধন রেজিস্ট্রেশন করেনি, তাদেরকে আগামী ২৭-২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে অবশ্যই করতে হবে। কোনও শিক্ষার্থী যদি বাইরে থেকে টিকা নিতে না পারে, তাহলে তাদের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে টিকার ব্যবস্থা করা হবে। 

রাবি উপাচার্য আরও বলেন, যেসব শিক্ষার্থীর জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তারা যেন জন্ম নিবন্ধন সনদের মাধ্যমে নিবন্ধন করতে পারে সে বিষয়টি ভাবা হচ্ছে।

এদিকে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যদের এক ভার্চুয়াল বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী সবাইকে আগামী ২৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে টিকার জন্য সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধন সম্পন্ন করতে হবে। নিবন্ধন সম্পন্ন হলে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিক্যাল সেন্টারে গিয়েও টিকা নিতে পারবে। 

তিনি আরও বলেন, সিন্ডিকেট ও অ্যাকাডেমিক কাউন্সিল সিদ্ধান্ত নিয়ে ২৭ সেপ্টেম্বরের পরে যেকোনও দিন বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে পারবে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ভবন নির্মাণে রুয়েটে কাটা হচ্ছে গাছ, ক্ষোভ-প্রতিবাদ

ভবন নির্মাণে রুয়েটে কাটা হচ্ছে গাছ, ক্ষোভ-প্রতিবাদ

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি নেবে না হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়

বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি নেবে না হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

ভবন নির্মাণে রুয়েটে কাটা হচ্ছে গাছ, ক্ষোভ-প্রতিবাদ

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:২৬

উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (রুয়েট) নতুন ভবন নির্মাণের জায়গার জন্য ৩৫টি গাছ কাটা পড়বে। ইতোমধ্যে ১৫টি গাছ কেটে এক লাখ ২৭ হাজার টাকায় বিক্রি করা হয়েছে। এগুলোর মধ্যে ৬-৭টি গাছ অর্ধশতাব্দী পুরোনো। 

রুয়েট কর্তৃপক্ষ বলছে, প্রশাসনিক ও একাডেমিক ভবন নির্মাণের জায়গার জন্য গাছগুলো কাটা হচ্ছে। মাটি পরীক্ষা করা হয়েছে। এখন চাইলেও নতুন করে ভবনের জায়গা পরিবর্তন করা সম্ভব না।

এদিকে গাছ কাটার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে রুয়েটের মূল ফটকের সামনে মানববন্ধন করেছে পরিবেশ আন্দোলন নামে একটি সংগঠন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পরিবেশ ধ্বংস করে আমরা উন্নয়ন চাই না। বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক পরিত্যক্ত জায়গা রয়েছে। সেখানে অবকাঠামোগত উন্নয়ন করা হোক।

ভবন নির্মাণে কাটা পড়বে মোট ৩৫টি গাছ

পর্যটক তানভীর অপু বলেন, আজ দেশের একটি সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের সামনে দাঁড়িয়ে গাছ কাটার প্রতিবাদ করতে হচ্ছে; এটা লজ্জার বিষয়। রাজশাহী বিশ্বের কাছে ‘গ্রিন সিটি’ হিসেবে পরিচিত। এই গাছগুলো কাটায় পাখিরা তাদের বাসা হারালো। এখানে অনেক পরিত্যক্ত ভবন আছে, অনেক খালি জায়গা আছে সেখানে ভবনগুলো করতে পারতো। বাংলাদেশের সবচেয়ে উষ্ণ শহর রাজশাহী। গাছগুলো যদি কেটে দেয় তাহলে শহরের কী হবে?

পরিবেশ আন্দোলনের সদস্য সচিব নাজমুল হোসেন রাজু বলেন, আমরা উন্নয়নের পক্ষে। তবে যেখানে অপরিত্যক্ত ভবন আছে, শ্রেণিকক্ষ আছে সেগুলো সচল না করে শতবর্ষী গাছ কেটে শত শত পাখির আবাস নষ্ট করা গ্রিন সিটিতে মানায় না।

গাছ কাটার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার রুয়েটের মূল ফটকের সামনে মানববন্ধন করেছে পরিবেশ আন্দোলন

বৃহস্পতিবার দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের উত্তর পাশে বেশ কয়েকটি পুরোনো গাছ কেটে ফেলে রাখা হয়েছে। সেখানে কেউ গাছ কেটে ছোট করছে, কেউ গাছের ডালাপালা কেটে ভ্যানে তুলছে। সাংবাদিকের উপস্থিতি টের পেয়ে সবাই দ্রুত সেখান থেকে চলে যান।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৬৪ সালে গাছগুলো লাগানো হয়েছিল। এখন নতুন প্রশাসনিক, একাডেমিক ও আবাসিক ভবন নির্মাণের জায়গার জন্য এসব গাছ কাটা হচ্ছে। সম্প্রতি ৬০০ কোটি টাকার উন্নয়ন প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে সরকার। এর মধ্যে শিক্ষার্থীদের জন্য দুটি আবাসিক ভবন, তিনটি একাডেমিক ভবন ও একটি প্রশাসনিক ভবন নির্মাণ করা হবে। প্রতিটি ভবন হবে ১০ তলার। গাছগুলো ভবন নির্মাণের জায়গায় পড়ায় কেটে ফেলা হচ্ছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক মো. সেলিম হোসেন বলেন, আমাদের উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বেশ কিছু ভবন নির্মাণ করা হবে। ভবনের জায়গার জন্য গাছগুলো কাটা হয়েছে। ভবন নির্মাণের জন্য অনেক আগেই সয়েল টেস্ট (মাটি পরীক্ষা) করা হয়েছে। ফলে এখন চাইলেও নতুন করে জায়গা পরিবর্তন করা সম্ভব না। 

/এসএইচ/

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৬:৫৯

বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়ার দাবিতে এবার প্রতীকী ক্লাস নিয়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। বৃহস্পতিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান অনুষদ ভবনের নিচতলার গ্যালারিতে এই প্রতীকী ক্লাস অনুষ্ঠিত হয়। ক্লাসে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে, ২৬ আগস্ট একই দাবিতে দর্শন বিভাগের অধ্যাপক রায়হান রাইন, ২৯ আগস্ট পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক জামাল উদ্দিন রুনু এবং ১২ সেপ্টেম্বর নৃবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মানস চৌধুরী প্রতীকী ক্লাস নিয়েছিলেন।

প্রতীকী ক্লাস শেষে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ বলেন, ‘অনেক আগেই স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দেওয়া উচিত ছিল। পৃথিবীর বেশিরভাগ দেশেই খুলে দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশ কয়েকটা দেশের মধ্যে একটি, যেখানে এতদিন পর্যন্ত স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ ছিল। বিশ্ববিদ্যালয় এখন পর্যন্ত খুব ধীর গতিতে চলছে, খোলার বিষয়ে আগেই কর্তৃপক্ষের আগ্রহী হওয়া উচিত ছিল।’

‘জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের খোলার বিষয়ে অনাগ্রহটাই প্রধান, না খুলতে পারলেই তারা বাঁচে’ বলে মন্তব্য করেন এ শিক্ষক।

এর আগে, বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) রাতে তিনি ক্লাস নেওয়ার ঘোষণা দেন। ক্লাসের বিষয় ছিল ‘বাংলাদেশের উন্নয়নে শিক্ষা ও স্বাস্থ্য খাত’।

প্রতীকী ক্লাসে অংশ নেওয়া নাটক ও নাট্যতত্ত্ব বিভাগের শিক্ষার্থী অর্ণব সিদ্দিকী বলেন, ‘কর্তৃপক্ষ বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে সুনির্দিষ্ট কোনও পরিকল্পনা এখনও শিক্ষার্থীদের দেখাতে পারেনি। সেই তাগিদ থেকেই আমাদের প্রতিবাদী ক্লাসে অংশ নেওয়া। স্কুল-কলেজ এ মাসেই খুলে দিয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখার কোনও যৌক্তিকতা নেই।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে জাবিতে আবার প্রতীকী ক্লাস

আবাসন ফি মওকুফের দাবি জাবি ছাত্র ইউনিয়নের

আবাসন ফি মওকুফের দাবি জাবি ছাত্র ইউনিয়নের

বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে প্রস্তুত জাবি কর্তৃপক্ষ

বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে প্রস্তুত জাবি কর্তৃপক্ষ

বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি নেবে না হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়

আপডেট : ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:৪৬

উচ্চ-মাধ্যমিকে বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেডিট ফি মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (হাবিপ্রবি) প্রশাসন। গত রবিবার (১২ সেপ্টেম্বর) বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম. কামরুজ্জামান এর অনুমোদনক্রমে রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ডা. মো. ফজলুল হক স্বাক্ষরিত এক অফিস আদেশের মাধ্যমে বিষয়টি জানায় কর্তৃপক্ষ।

বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেডিট ফি কমানোর ব্যাপারে ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ড. ইমরান পারভেজ বলেন, 'যেহেতু বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের ক্রেডিট ফি মওকুফের ব্যাপারে সরকারি আদেশ রয়েছে, এজন্য আমরাও এই বিষয়ে দ্রুত সিদ্ধান্ত নিতে পেরেছি'।

তিনি আরও বলেন, 'বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য মহোদয় এ ব্যাপারে অনেক আগেই সম্মতি দিয়েছিলেন। অফিস আদেশের মাধ্যমে এখন তা বাস্তবায়িত হতে যাচ্ছে'।

এদিকে বৃত্তিপ্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি মওকুফ করায় উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীরা। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৭তম ব্যাচের সামাজবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী নাজিম আহমেদ বলেন, এটা আমাদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল। বৃত্তিপ্রাপ্তদের কোর্স ফি মওকুফ করার বিষয়ে বোর্ডেরও নির্দেশনা রয়েছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ এতদিন এ ব্যাপারে উদাসীন ছিল। আমরা অনেক চেষ্টা করে; এমনকি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনেকবার কথা বললেও তারা বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে দেখেননি। অবশেষে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এমন একটি সিদ্ধান্ত নেওয়ায় আমরা অনেক আনন্দিত।

বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ২০ ব্যাচের আরেক শিক্ষার্থী বর্ষা রানী পোদ্দার বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের এমন সিদ্ধান্ত বেশ ইতিবাচক। এত দ্রুত শিক্ষার্থীবান্ধব সিদ্ধান্ত আসবে তা কল্পনাও করিনি।

/ইউএস/

সম্পর্কিত

গবেষণায় শিক্ষার্থীদের অনুদান দেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

গবেষণায় শিক্ষার্থীদের অনুদান দেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

টেক্সিবিশন ইনোভেশন চ্যালেঞ্জে দ্বিতীয় রানার আপ হাবিপ্রবি’র টিম

টেক্সিবিশন ইনোভেশন চ্যালেঞ্জে দ্বিতীয় রানার আপ হাবিপ্রবি’র টিম

আজ থেকে ঢাবিতে ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ শুরু

আজ থেকে ঢাবিতে ভর্তি পরীক্ষার প্রবেশপত্র সংগ্রহ শুরু

১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ঢাবির হল সংস্কারের নির্দেশ

১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ঢাবির হল সংস্কারের নির্দেশ

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৩৬

আন্তর্জাতিক তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে অংশ নিয়ে দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করেছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের দল ফার্মিনেফ। একইসঙ্গে দলটি সারাবিশ্বে ১৫তম স্থান অর্জন করেছে।

এ বিভাগ থেকে মোট পাঁচটি দল এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। এর মধ্যে তিনটি দল সফলতা পেয়েছে। এদের মধ্যে স্কার্মিওন দেশে দ্বিতীয় ও বিশ্বে ১৬ এবং ফিনিক্স দেশে অষ্টম ও বিশ্বে ২৩তম স্থান অর্জন করে।

দেশের মধ্যে প্রথম হওয়া ফার্মিনেফের সদস্যরা হলেন- আসিফ ইকবাল, তাহসিন আহমেদ অতশী, মো. নাঈম রিফাত, মো. লাবিব হোসেন খান ও নওরিন নুরাইন।

জানা গেছে, এবার এ অলিম্পিয়াডে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের পাঁচটি দলসহ বাংলাদেশ থেকে মোট ২৯টি দল অংশগ্রহণ করে। এ অলিম্পিয়াডের ফলাফল সম্প্রতি প্রকাশিত হয়েছে। বিশ্বের খ্যাতনামা কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় যৌথভাবে এ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। এর মধ্যে ইউনিভার্সিটি অব সান্টিয়াগো দে কমপোসটেলা, স্টানফোর্ড, প্রিন্সটন, জন হপকিন্স, এমআইটি, ইউসিএলএ উল্লেখযোগ্য।

এদিকে আন্তর্জাতিক তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশের মধ্যে প্রথম স্থান অর্জন করায় ফার্মিনেফ দলকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন খুবির উপাচার্য প্রফেসর ড. মাহমুদ হোসেন। এক বার্তায় তিনি চ্যাম্পিয়ন ফার্মিনেফ দলসহ সাফল্য লাভকারী অন্য দুই দলকেও অভিনন্দন জানিয়ে আশাবাদ ব্যক্ত করেন, আগামীতে তাদের এই সাফল্যের ধারা অব্যাহত থাকবে এবং আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান আরও সুদৃঢ় হবে।

/এফআর/

সম্পর্কিত

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

টিকা নিশ্চিত হলেই খুলবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

টিকা নিশ্চিত হলেই খুলবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

গবেষণায় শিক্ষার্থীদের অনুদান দেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

গবেষণায় শিক্ষার্থীদের অনুদান দেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

আপডেট : ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১৭:২২

আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করা হয়েছে। বুধবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ভবনের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়।

মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের কয়েকটি সড়ক প্রদক্ষিণ করে নতুন প্রশাসনিক ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা।

সমাবেশে আগামী ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সুস্পষ্ট তারিখ ঘোষণা এবং ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের হল খুলে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করার দাবি জানানো হয়। পাশাপাশি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভ্যাকসিনেশন বুথ স্থাপন করে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের টিকার ব্যবস্থা করে এ সংক্রান্ত জটিলতা দূর করারও দাবি জানান শিক্ষার্থীরা।

এ সময় ছাত্র ইউনিয়নের বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল রনি বলেন, গত দুই মাস ধরেবিশ্ববিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতি নেওয়ার কথা বলছে সরকার। তারপরও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ব্যাপারে আমরা কোনও অগ্রগতি দেখছি না। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রস্তুতি গ্রহণের ধরন থেকে আমরা বুঝতে পারছি, যত বেশিদিন সম্ভব বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রাখার পাঁয়তারা চলছে। আগামী ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার তারিখ ঘোষণা করা না হলে শিক্ষার্থীরা অতীতের মতো তার সমুচিত জবাব দেবে।

সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্টের বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদের সঞ্চালনায় সমাবেশে আরও বক্তব্য দেন ছাত্র ফ্রন্টের আহ্বায়ক শোভন রহমান, ইতিহাস বিভাগের শিক্ষার্থী নুরুজ্জামান শুভ, নুসরাত ফারিন, দর্শন বিভাগের শিক্ষার্থী রিয়াজুল ইসলাম রিহান, ইংরেজি বিভাগের নূর-এ সুলতান রিফাত ও রসায়ন বিভাগের শিক্ষার্থী ইকবাল হোসাইন।

সমাবেশ শেষে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা ও টিকা জটিলতা নিরসনের দাবি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের রুটিন দায়িত্বে থাকা অধ্যাপক নূরুল আলম বরাবর স্মারকলিপি দেন শিক্ষার্থীরা। অধ্যাপক নূরুল আলমের পক্ষে উপাচার্যের একান্ত সচিব ডেপুটি রেজিস্ট্রার সানোয়ার হোসেন স্মারকলিপি গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ বলেন, আজ বিকালে প্রশাসনিক সভা রয়েছে। সেখানে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা করা হবে। শিগগিরই সিন্ডিকেট সভার মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। আমাদের কিছু প্রস্তুতির দরকার রয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

টিকা নিশ্চিত হলেই খুলবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

টিকা নিশ্চিত হলেই খুলবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

গবেষণায় শিক্ষার্থীদের অনুদান দেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

গবেষণায় শিক্ষার্থীদের অনুদান দেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

ভবন নির্মাণে রুয়েটে কাটা হচ্ছে গাছ, ক্ষোভ-প্রতিবাদ

ভবন নির্মাণে রুয়েটে কাটা হচ্ছে গাছ, ক্ষোভ-প্রতিবাদ

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে আনু মুহাম্মদের প্রতীকী ক্লাস

বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি নেবে না হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়

বোর্ড বৃত্তিপ্রাপ্তদের ক্রেডিট ফি নেবে না হাজী দানেশ বিশ্ববিদ্যালয়

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

তাত্ত্বিক পদার্থবিজ্ঞান অলিম্পিয়াডে দেশসেরা খুবির ফার্মিনেফ

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

ক্যাম্পাস খোলার দাবিতে জাবিতে বিক্ষোভ

কৃষ্ণচূড়া গাছ কাটায় ঢাবি শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

কৃষ্ণচূড়া গাছ কাটায় ঢাবি শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ

জবির প্রক্টরিয়াল টিমে নতুন তিন মুখ

জবির প্রক্টরিয়াল টিমে নতুন তিন মুখ

রাবিতে ১৩৮ নিয়োগ: শেষ পর্যায়ে তদন্ত

রাবিতে ১৩৮ নিয়োগ: শেষ পর্যায়ে তদন্ত

টিকা নিশ্চিত হলেই খুলবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

টিকা নিশ্চিত হলেই খুলবে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়

সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে হবে: শাবি উপাচার্য

সব শিক্ষার্থীকে টিকা নিতে হবে: শাবি উপাচার্য

সর্বশেষ

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

১৮ রোহিঙ্গাকে পুলিশে দিলো স্থানীয়রা

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মৃত্যু কমছে না ময়মনসিংহ মেডিক্যালে

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

মুগদায় রিকশাচালকের ঘরে মিললো জামালপুরের নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ত্যাগ

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রীর ঢাকা ত্যাগ

নবনীতার গান দিয়ে নতুন সিজন শুরু

নবনীতার গান দিয়ে নতুন সিজন শুরু

© 2021 Bangla Tribune