X
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ৩ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

মেসে ফ্রিতে থাকতে পারবেন রাবি ভর্তি পরীক্ষার্থীরা

আপডেট : ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ২২:৫২

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে অ্যাডমিট কার্ড থাকলে ফ্রিতে মেসে থাকতে পারবেন। তবে ভর্তিচ্ছুদের অভিভাবকরা থাকলে টাকা দিতে হবে।

শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাজশাহী সিটি করপোরেশন আয়োজিত ভর্তি পরীক্ষার সার্বিক প্রস্তুতিমূলক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন রাজশাহী সিটি মেয়র এ এইচ এম খায়রুজ্জামান লিটন। সভায় উপস্থিত ছিলেন- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড গোলাম সাব্বির সাত্তার, রাজশাহী মেট্রোপলিটনের কমিশনার  আবু কালাম সিদ্দিক, রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক শামীম ইয়াজদানী। এছাড়া মেস মালিক সমিতি ও মহানগর আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সভা শেষে রাসিক মেয়র খায়রুজ্জামান লিটন সাংবাদিকদের বলেন, ‘এই প্রথমবারের মতো রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের হলসমূহ বন্ধ থাকা অবস্থায় ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলো বন্ধ থাকার কারণে আবাসন সংকট দেখা দিতে পারে। ভর্তিচ্ছু ও তাদের অভিভাবকদের রাখার জন্য নগরীর বিভিন্ন ছাত্রাবাস, আবাসিক হোটেল, বিভিন্ন সরকারি রেস্ট হাউজ, গেস্ট হাউজ এবং এরপরও যদি প্রয়োজন হয়, তবে বিকল্প কিছু ব্যবস্থা আমরা রেখেছি। এসবে অন্তত ৭০ শতাংশ ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীর আবাসনের ব্যবস্থা হবে। বাকিরা তাদের আত্মীয়-স্বজনদের বাসাবাড়িতে থাকবেন। রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশ যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। যাতায়াতের জন্য বাস মালিক সমিতির নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসগুলো শহরে চলাচল করবে। শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সুবিধায় রাজশাহী অভিমুখী ট্রেনসমূহ রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশনে থামানোর জন্য রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানানো হবে। শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকদের খাবারের জন্য হোটেল-রেস্তোরাঁ ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে ক্যাম্পাসে খাবারের ব্যবস্থা করা হবে। যাতে খাবারের কোনও সংকট না হয় এবং চাহিদামতো সবাই খাবার কিনে খেতে পারেন।’

সভায় ভর্তি পরীক্ষা নিয়ে আরও বেশ কিছু সিদ্ধান্ত হয়। উল্লেখযোগ্য সিদ্ধান্তগুলো হলো-  ভর্তি পরীক্ষা কেন্দ্র করে মেস ও গাড়ি ভাড়া বাড়ানো যাবে না, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০টি গাড়ি লোকাল সার্ভিস দেবে, পরীক্ষা চলাকালীন সময় কোনও ছাত্র-ছাত্রী অসুস্থ হলে তাৎক্ষণিক সেবা প্রদান করা হবে, প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে, যানজট নিরসনে রাজশাহীর বাইর থেকে যেসব বাস আসবে সেগুলো রাজশাহী সিটি করপোরেশনের বাইরে অবস্থান করবে। এছাড়া বিভিন্ন এলাকা থেকে রাজশাহীতে প্রবেশ করা প্রতিটি ট্রেন রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় স্টেশনে যাত্রা বিরতি করবে।

রাজশাহী মহানগর মেস মালিক সমিতির সভাপতি এনায়েতুর রহমান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘প্রতি বছরই ভর্তিচ্ছুদের অনেক মেস মালিক ফ্রিতে থাকার সুযোগ দিতেন। আবার অনেক মেস মালিক টাকা নেন। তবে আমরা রাসিক মেয়রের উপস্থিতিতে অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নিয়েছি ভর্তি পরীক্ষার্থীদের কাছ থেকে টাকা নেবো না।’

তিনি আরও বলেন, ‘ভর্তি পরীক্ষার্থীর সঙ্গে যদি কোনও অভিভাবক আসেন, জন প্রতি এক রাতের জন্য ২০০-৫০০ টাকা মেস দিতে হবে। আর যদি কোনও পরীক্ষার্থীর কাছ থেকে মেস মালিক টাকা দাবি করেন, আমাদের অভিযোগ নম্বরে যোগাযোগ করবেন।’

অভিযোগ জানানোর নম্বর- ০১৭২৯২৮৯৬২৮, ০১৭২৬৭৭৭৭৮৭ (অফিস নম্বর+ বুথ), (০১৭৪৫১৬৬৬৬৯ সভাপতি এনায়েতুর রহমান), (০১৭১০৯৪৬৭৭১ সাধারণ সম্পাদক রাজিব), (০১৭১১৫৭৮৭৭৭ কায়সার), (০১৭১৫১৩৮৪৮৫ বেলায়েত), (০১৭১৬৩৮৮৬৫০ সদস্য জাকির)।

প্রসঙ্গত, আগামী ৪, ৫ ও ৬ অক্টোবর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২০-২১ সেশনের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। 

/এফআর/

সম্পর্কিত

বাড়ি ফেরা হলো না মোটরসাইকেলের ২ আরোহীর 

বাড়ি ফেরা হলো না মোটরসাইকেলের ২ আরোহীর 

নিখোঁজের ৪১ বছর পর ফিরলেন মিনতি

নিখোঁজের ৪১ বছর পর ফিরলেন মিনতি

ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে ভ্রূণ হত্যার অভিযোগ

ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে ভ্রূণ হত্যার অভিযোগ

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েও দুশ্চিন্তায় মোস্তাকিম

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েও দুশ্চিন্তায় মোস্তাকিম

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদরাসাশিক্ষক গ্রেফতার

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:২০

বাগেরহাটের কচুয়ায় প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃত করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেওয়ার অভিযোগে ইসমাইল হোসেন (২১) নামে এক মাদরাসাশিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) সকালে কচুয়া উপজেলার লড়ারকুল গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। দুপুরে ওই শিক্ষককে আদালতে পাঠানো হয়েছে। ইসমাইল হোসেন লড়ারকুল গ্রামের মোস্তফা মৃধার ছেলে। তিনি লড়ারহাট খাদেমুল ইসলাম হাফিজিয়া মাদরাসার শিক্ষক।

কচুয়া থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) মো. সেলিম মহলদার বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছবি বিকৃত করে একটি ফেসবুক পেজে পোস্ট দেন ইসমাইল হোসেন। বিষয়টি দেখতে পেয়ে স্থানীয় জাকির হাজরা নামে এক ব্যক্তি পুলিশে খবর দেন। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়। 

ইসমাইলের বিরুদ্ধে ফেসবুকে ছবি বিকৃত করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানা ও আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানোর চেষ্টার অপরাধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে কচুয়া থানায় মামলা করেছেন জাকির হাজরা। আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ শেষে ইসমাইলকে আদালতে পাঠানো হয়েছে বলে জানান এসআই সেলিম মহলদার।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

ফেসবুক পোস্ট শেয়ার করে কারাগারে সাংবাদিক

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

নিখোঁজের ৮ দিন পর ধানক্ষেতে মিললো ইজিবাইক চালকের লাশ

যশোর বোর্ডের আড়াই কোটি টাকার সর্বশেষ গন্তব্য খুঁজছে দুদক

যশোর বোর্ডের আড়াই কোটি টাকার সর্বশেষ গন্তব্য খুঁজছে দুদক

টান দিলেই উঠে যাচ্ছে নতুন সড়কের কার্পেটিং

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৮:০৮

টাঙ্গাইলের সখীপুরে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে একটি সড়ক পাকা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। কাজ শেষ হওয়ার ১০ দিনের মাথায় উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং। এমন দায়সারা কাজ করায় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বানিয়ারসিট বাজার-দেবরাজ সড়কে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে আইআরআইডিপি প্রকল্পের আওতায় প্রায় ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে উপজেলার বানিয়ারসিট বাজার থেকে দেবরাজ সড়কের এক কিলোমিটার কাঁচা সড়ক পাকা করার কাজ পায় প্রাইম ডিজাইন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট নামের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান। পাকাকরণের সময় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করেছে। 

বিটুমিন ছাড়া সড়ক পাকা করায় হাত দিয়ে টান দিলেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং। এখনও প্রায় ৫০ মিটার সড়ক পাকাকরণের বাকি রয়েছে। নির্মাণের সময় স্থানীয়রা বাধা দিলে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের লোকজন বিভিন্নভাবে হুমকি দেয়। পরে স্থানীয়দের কার্পেটিং উঠানোর ছবি ও ভিডিও ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে শুরু হয় সমালোচনা। এরপর বিষয়টি নিয়ে বিভিন্ন মহলে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এরই মধ্যে কাজ সমাপ্ত ঘোষণা করেন ঠিকাদার।

নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে সড়ক পাকা করা হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের

কালিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম মন্ডল বলেন, ‘১০ দিন আগে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কাজ শেষ করেছে। পাকাকরণের কাজটি অত্যন্ত নিম্নমানের। এজন্য হাত দিয়ে টান দিলেই কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে। নিম্নমানের কাজ করে ঠিকাদার উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করেছেন। এই ঠিকাদারকে দিয়ে আর কোথাও যেন কাজ করা না হয়।’  

স্থানীয় বাসিন্দা আবু হানিফ বলেন, ‘এক কিলোমিটার সড়কের ৫০ মিটার রেখেই কাজটি শেষ করা হয়েছে। এখন কার্পেটিং উঠে যাচ্ছে। নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজটি করা হয়েছে। কাজের সময় অনেকে বাধা দিলেও ঠিকাদার শোনেননি। আমরা সড়কটি পুনরায় সংস্কারের দাবি জানাই।’

ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের স্বত্বাধিকারী মিজানুর রহমান বলেন, ‘নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে কাজটি করা হয়নি। কার্পেটিংয়ের কাজ করার পর শক্ত হতে কিছু সময় লাগে। কয়েকজন লোক বিভিন্ন জায়গায় কাঠ দিয়ে নতুন সড়কের কার্পেটিং উঠিয়ে ফেলেছেন। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে কাজটি নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি সড়ক দুর্ঘটনায় আহত হওয়ায় কাজটি শুরু করতে সময় লেগেছে। সম্প্রতি কাজটি শেষ করেছি। যেসব জায়গায় সমস্যা হয়েছে, সেসব জায়গায় ঠিক করে দেওয়া হবে।’

স্থানীয়দের দাবি, বিটুমিন ছাড়া সড়ক পাকা করায় হাত দিয়ে টান দিলেই উঠে যাচ্ছে কার্পেটিং

উপজেলা এলজিইডি কার্যালয়ের প্রকৌশলী এসএম হাসান ইবনে মিজান বলেন, ‘নিম্নমাণের কাজের বিষয়টি স্থানীয়রা আমাদের জানাতে পারতেন। কিন্তু তারা ধারালো কিছু দিয়ে কার্পেটিং উঠিয়ে ফেলেছেন। এটি তারা ঠিক করেননি। সড়কের কাজ নিম্নমানের হয়নি। নিম্নমানের অভিযোগ শোনার পরপরই কর্তৃপক্ষ পাথর ও বিটুমিনসহ অন্যান্য জিনিস পাঠিয়েছেন। যেসব জায়গায় সমস্যা আছে, সেসব জায়গায় নতুন করে কার্পেটিংয়ের কাজ করা হচ্ছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রায় ৫৫ লাখ টাকা ব্যয়ে আইআরআইডিপি প্রকল্পে কাজটি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

/এএম/

সম্পর্কিত

খাদ্যশস্য সংরক্ষণ সক্ষমতা ৩৫ লাখ টনে উন্নীত হবে: খাদ্যমন্ত্রী

খাদ্যশস্য সংরক্ষণ সক্ষমতা ৩৫ লাখ টনে উন্নীত হবে: খাদ্যমন্ত্রী

তরুণীর ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

তরুণীর ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

আশুলিয়ায় ছেলের হাতে বাবা খুন

আশুলিয়ায় ছেলের হাতে বাবা খুন

পেঁয়াজের ক্রেতা সংকট, আরেক দফা কমেছে দাম

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪৩

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি অব্যাহত রয়েছে। পাইকারিতে (ট্রাকসেল) কেজিপ্রতি ১ থেকে ২ টাকা কমেছে দাম। একদিন আগেও বন্দরে প্রতি কেজি পেঁয়াজ প্রকারভেদে ৩৬ থেকে ৩৮ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়। বর্তমানে তা কমে ৩৫ থেকে ৩৬ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। 

এদিকে পেঁয়াজের ক্রেতা সংকটের কারণে বিক্রি না হওয়ায় বিপাকে পড়েছেন আমদানিকারকরা। আবার দাম কমায় খুশি বন্দরে আসা পাইকাররা।

হিলি বন্দরে পেঁয়াজ কিনতে আসা আইয়ুব আলী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, দুর্গাপূজার বন্ধের পর পেঁয়াজের দাম কেজিপ্রতি ১২ টাকার বেশি কমেছে। এতে আমাদের মতো পাইকারদের সুবিধা হয়েছে। কিন্তু পূজার বন্ধের আগে আমরা যেসব স্থানে সরবরাহ করেছি, সেখানে এখনও পর্যাপ্ত পেঁয়াজ রয়েছে। এ কারণে পার্টিরা পেঁয়াজ এখন কম দামে বিক্রি করায় লোকসানের মুখে পড়েছেন।

পেঁয়াজের দাম কমায় খুশি বন্দরে আসা পাইকাররা

ব্যবসায়ী মিরাজুল ইসলাম ও রবিউল ইসলাম বলেন, হঠাৎ করে বাজারে দেশি পেঁয়াজের সরবরাহ কমে যাওয়ায় দাম ঊর্ধ্বমুখী হয়ে যায়। একইভাবে ভারতে অতিবৃষ্টি ও বন্যার কারণে উৎপাদন ব্যাহত হওয়ায় সরবরাহ কমে দাম বাড়ে। এতে দেশের চাহিদা মেটাতে বাড়তি দামে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি করা হয়। ফলে দেশের বাজারে পেয়াজের দাম বাড়তে থাকে।

হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, পূজার ছয় দিন বন্ধ শেষে ১৭ অক্টোবর থেকে হিলি স্থলবন্দর দিয়ে পুনরায় পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। গতকাল সোমবার বন্দর দিয়ে ১৩টি ট্রাকে ৩৫৫ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়। পেঁয়াজ যেহেতু কাঁচামাল, তাই দ্রুত খালাস করে আমদানিকারকদের কাছে সরবরাহ করতে বন্দর কর্তৃপক্ষ সব ধরনের ব্যবস্থা নিয়েছে।

/এসএইচ/

সম্পর্কিত

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

হামলা-তাণ্ডব ঠেকাতে পারলাম না কেন, প্রশ্ন ইনুর

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

মন্দির পরিদর্শনে কু‌ড়িগ্রা‌মে ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার 

‘ম্যানেজ’ করে চলছে ইলিশ শিকার, বেচাকেনা জমজমাট

‘ম্যানেজ’ করে চলছে ইলিশ শিকার, বেচাকেনা জমজমাট

র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতেন এনামুল 

র‌্যাব সদস্য পরিচয়ে চাঁদাবাজি করতেন এনামুল 

খাদ্যশস্য সংরক্ষণ সক্ষমতা ৩৫ লাখ টনে উন্নীত হবে: খাদ্যমন্ত্রী

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪১

কৃষকের উৎপাদিত ফসল সংরক্ষণের জন্য আরও সাইলো নির্মাণ করা হবে বলে জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি একনেকে ৩০টি সাইলো নির্মাণের অনুমতি পাওয়া গেছে। ২০৩০ সালের মধ্যে খাদ্যশস্য সংরক্ষণ সক্ষমতা ৩৫ লাখ মেট্রিক টনে উন্নীত হবে।’

মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) দুপু‌রে মানিকগঞ্জের শিবালয় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে ‘দেশের বিভিন্ন স্থানে বসবাসরত দরিদ্র, অনগ্রসর ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী এবং দুর্যোগপ্রবণ এলাকার জনগোষ্ঠীর নিরাপদ খাদ্য সংরক্ষণের জন্য হাউজহোল্ড সাইলো সরবরাহ’ শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় উপকারভোগীদের মধ্যে হাউজহোল্ড সাইলো বিতরণ করা হয়।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সরকার খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে দুই শ’ সাইলো নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে। আধুনিক এ সাইলোগুলো হবে পাঁচ হাজার মেট্রিক টন ধারণ ক্ষমতার। কৃষকের ভেজা ধান সংগ্রহ করে এখানে প্রক্রিয়াজাত করা হবে। এতে নায্য মূল্য নিশ্চিত হবে।’

তিনি জানান, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে আগামী ছয় মাসের মধ্যে স্মার্ট কার্ড প্রবর্তন করা হবে। এটি বাস্তবায়ন হলে খাদ্য সহায়তা বিতরণে আরও স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিত হবে।

জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ আব্দুল লতিফের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন– সংসদ সদস্য এ এম নাঈমুর রহমান, মমতাজ বেগম। এছাড়াও খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক শেখ মুজিবর রহমান, অতিরিক্ত সচিব খুরশিদ ইকবাল রেজভী, পুলিশ সুপার গোলাম আজাদ খান, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানিয়া সুলতানা, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান রেজাউর রহমান খান জানু, উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসমিন সুলতানা প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

উল্লেখ, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে এ প্রকল্পের আওতায় দেশের আট বিভাগের ২৩ জেলার ৫৫টি উপজেলায় সর্বমোট তিন লাখ পারিবারিক সাইলো বিতরণ করা হবে। মানিকগঞ্জ জেলার তিনটি উপজেলায় মোট ১৩ হাজার পারিবারিক সাইলো পর্যায়ক্রমে বিতরণ করা হবে। এর মধ্যে শিবালয় উপজেলায় পাঁচ হাজার, দৌলতপুর উপজেলায় চার হাজার এবং হরিরামপুরে চার হাজার পারিবারিক সাইলো বিতরণ করা হবে। দুর্যোগকালে প্রতিটি পারিবারিক সাইলাতে ৪০ কেজি ধান অথবা ৫৬ কেজি চাল অথবা ৭০ লিটার পানি সংরক্ষণ করা যাবে।

/এমএএ/

সম্পর্কিত

টান দিলেই উঠে যাচ্ছে নতুন সড়কের কার্পেটিং

টান দিলেই উঠে যাচ্ছে নতুন সড়কের কার্পেটিং

তরুণীর ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

তরুণীর ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেফতার

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

বেড়েছে অন্তঃসত্ত্বা রোগীর চাপ, চিকিৎসক সংকটে ভোগান্তি 

প্রণোদনা পেতে শের-ই-বাংলা মেডিক্যালের নার্সদের বিক্ষোভ

আপডেট : ১৯ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩৮

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও মারা যাওয়া স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য প্রণোদনা ঘোষণা করেছিল সরকার। তবে এ প্রণোদনা পাননি বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের করোনা আক্রান্ত ৪২৬ ও মৃত দুই নার্স। সরকার ঘোষিত এ প্রণোদনা পেতে মঙ্গলবার (১৯ অক্টোবর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে হাসপাতালের পরিচালকের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ করেন তারা।

এ সময় তারা নানা স্লোগান দেন। পরে হাসপাতালের পরিচালকের কাছে দাবি-দাওয়া পেশ করেন এবং অবিলম্বে তা পূরণের আহ্বান জানান।

হাসপাতালের সেবা তত্ত্বাবধায়ক সেলিনা আক্তার জানান, বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রায় ৭০০ নার্স করোনা ওয়ার্ডে দায়িত্ব পালন করেন। দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে ৪২৬ জন নার্স করোনায় আক্রান্ত হন। এর মধ্যে দুই জনের মৃত্যু হয়। হাসপাতাল পরিচালক এ বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন। কিন্তু আজ পর্যন্ত তা বাস্তবায়ন হয়নি। অথচ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে এ প্রণোদনা দেওয়া হয়েছে বলে তারা জানতে পেরেছেন।

হাসপাতালের পরিচালক ডা. এ কে এম সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘ইতোপূর্বে চিকিৎসক থেকে শুরু করে নার্সদের করোনাকালীন প্রণোদনা দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট দফতরে চিঠি দেওয়া হয়েছে। আশা করছি, দ্রুত সময়ের মধ্যে পাওয়া যাবে।’

/এফআর/

সম্পর্কিত

টানা বৃষ্টিতে ডুবেছে বরিশাল নগরী

টানা বৃষ্টিতে ডুবেছে বরিশাল নগরী

জেলেদের হামলায় মেঘনায় নিখোঁজ কোস্টগার্ড সদস্য

জেলেদের হামলায় মেঘনায় নিখোঁজ কোস্টগার্ড সদস্য

ড্রেনে কাগজের বক্সে মিললো নবজাতকের লাশ

ড্রেনে কাগজের বক্সে মিললো নবজাতকের লাশ

চায়ের দোকান থেকে মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়লো আগুন

চায়ের দোকান থেকে মুহূর্তে ছড়িয়ে পড়লো আগুন

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

বাড়ি ফেরা হলো না মোটরসাইকেলের ২ আরোহীর 

বাড়ি ফেরা হলো না মোটরসাইকেলের ২ আরোহীর 

নিখোঁজের ৪১ বছর পর ফিরলেন মিনতি

নিখোঁজের ৪১ বছর পর ফিরলেন মিনতি

ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে ভ্রূণ হত্যার অভিযোগ

ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে ভ্রূণ হত্যার অভিযোগ

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েও দুশ্চিন্তায় মোস্তাকিম

রাবির ভর্তি পরীক্ষায় প্রথম হয়েও দুশ্চিন্তায় মোস্তাকিম

প্রেমিকার আত্মহত্যার খবরে ছাদ থেকে প্রেমিকের লাফ

প্রেমিকার আত্মহত্যার খবরে ছাদ থেকে প্রেমিকের লাফ

সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে মা-ছেলেসহ ৩ জন নিহত

সিরাজগঞ্জের মহাসড়কে মা-ছেলেসহ ৩ জন নিহত

মনোনয়ন ফরম তোলার আগে জানলেন তারা ‌মারা গেছেন

মনোনয়ন ফরম তোলার আগে জানলেন তারা ‌মারা গেছেন

পাত্র দেখানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ, ঘটক গ্রেফতার

পাত্র দেখানোর কথা বলে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ, ঘটক গ্রেফতার

নির্বাচনি প্রচারণার সময় ইউপির সদস্য প্রার্থীর মৃত্যু

নির্বাচনি প্রচারণার সময় ইউপির সদস্য প্রার্থীর মৃত্যু

সর্বশেষ

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদরাসাশিক্ষক গ্রেফতার

প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মাদরাসাশিক্ষক গ্রেফতার

গুচ্ছ আলোচনা অনুষ্ঠান ‘ভিশনারিসে’র যাত্রা শুরু

গুচ্ছ আলোচনা অনুষ্ঠান ‘ভিশনারিসে’র যাত্রা শুরু

ধর্মীয় সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সমবেদনা যুক্তরাষ্ট্রের

ধর্মীয় সহিংসতায় ক্ষতিগ্রস্তদের প্রতি সমবেদনা যুক্তরাষ্ট্রের

পিএনজির চমক, শেষ ৫ বলে ৪ উইকেট হারালো স্কটল্যান্ড

পিএনজির চমক, শেষ ৫ বলে ৪ উইকেট হারালো স্কটল্যান্ড

২৪ জেলায় শনাক্ত নেই

২৪ জেলায় শনাক্ত নেই

© 2021 Bangla Tribune