X
রবিবার, ১৭ অক্টোবর ২০২১, ১ কার্তিক ১৪২৮

সেকশনস

ঢাকা ও সিলেট বিভাগের ইউপি প্রার্থী চূড়ান্ত করলো আ.লীগ

আপডেট : ১১ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩৬

দ্বিতীয় ধাপে ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ঢাকা ও সিলেট বিভাগের ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে আওয়ামী লীগ। রবিবার (১০ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারি বাসভবন গণভবনে দলটির স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের মূলতবি সভায় এই তালিকা চূড়ান্ত হয়। 

আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সভায় সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের সভাপতি শেখ হাসিনা। 

রাজশাহী বিভাগের একটি ইউপি, ঢাকা বিভাগের ৮টি জেলা এবং সিলেট বিভাগের ইউপির প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়েছে। রাজশাহী বিভাগের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার গোমস্তাপুর উপজেলার চৌডালা ইউপিতে আওয়ামী লীগের  মনোনয়ন পেয়েছেন আনসারুল হক।

ঢাকা বিভাগ

ঢাকা জেলার ধামরাই উপজেলার কুশুরা ইউপিতে নূরুজ্জামান আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। 

টাঙ্গাইল জেলার ধনবাড়ী উপজেলার বীরতারাতে আহাম্মদ আল ফরিদ, বানিয়াজানে রফিকুল ইসলাম তালুকদার, যদুনাথপুরে মীর ফিরোজ আহমেদ, পাইস্কাতে মুহাম্মদ আব্দুল মান্নান, ধোপাখালীতে আকবর হোসেন, মুশুদ্দিতে আবুল কায়ছার, বলিভদ্রে রফিকুল ইসলাম তালুকদার। সখিপুর উপজেলার যাদবপুরে এ, কে, এম আতিকুর রহমান, বহরিয়াতে গোলাম কিবরিয়া, বহেরাতৈলতে ওয়াদুদ হোসেন, কাকড়াজানে তারিকুল ইসলাম। দেলদুয়ার উপজেলার আটিয়াতে মাসুদুল হাসান তালুকদার, দেউলীতে দেঃ তাহ্ মিনা, পাথরাইলে রামপ্রসাদ সরকার, লাউহাটিতে হাবিবুর রহমান, দেলদুয়ারে মাসুদ-উজ্জামান খান, ডুবাইলে ইলিয়াছ মিয়া, এলাসিনে বেলায়েত হোসেন, ফাজিলহাটিতে শওকত আলী আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। 

মুন্সিগঞ্জ জেলার শ্রীনগর উপজেলার বাঘড়াতে নূরুল ইসলাম, ভাগ্যকুলে কাজী মনোয়ার হোসেন, রাড়িখালে বারী (বারেক), বারৈই খালীতে ফারুক হোসেন, কুকুটিয়াতে আক্তার হোসেন মিন্টু, তন্তরে জাকির হোসেন, আটপাড়াতে রকিবুল ইসলাম মাসুদ, পাটাভোগে মুন খান, বীরতারাতে আজিম খান, শ্যামসিন্ধিতে শফিকুল ইসলাম মামুন, ষোলঘরে আজিজুল ইসলাম, হাঁসাড়াতে আহসান হাবীব, শ্রীনগরে মোখলেছুর রহমান। 

নরসিংদী সদর উপজেলার আলোকবালি ইউপিতে দেলোয়ার হোসেন সরকার, চরদিঘলীতে দেলোয়ার হোসাইন। রায়পুরা উপজেলার আমিরগঞ্জে শাহানা বেগম, বাঁশগাড়ীতে আশরাফুল হক, চরসুবুদ্ধিতে নাসির উদ্দিন, চরমধুয়াতে নূর আলম ফকির, হাইরমারাতে কবির হোসেন, মির্জানগরে হুমায়ুন কবির সরকার, মির্জারচরে ফিরুজ মিয়া, নিলক্ষাতে তাজুল ইসলাম, পাড়াতলীতে ফেরদৌস কামাল, শ্রীনগরে রিয়াজ মোর্শেদ খান। 

রাজবাড়ী জেলার গোয়ালন্দ উপজেলার ছোটভাকলা ইউপিতে আমজাদ হোসেন, উজানচরে গোলজার হোসেন মৃধা। 

ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলার রামকান্তপুর ইউপিতে আশরাফ আলী, যদুনন্দীতে আঃ রব মোল্যা, গট্টিতে হাবিবুর রহমান লাবলু, ভাওয়ালে ফারুকউজ্জামান, সোনাপুরে খায়রুজ্জামান, আঠঘরে শহীদুল হাসান খান, মাঝারদিয়াতে আফছারউদ্দীন মাতুব্বর, বল্লভদীতে নুরুল ইসলাম। নগরকান্দা উপজেলার চরযশোরদীতে কামরুজ্জামান,পুরাপাড়ায় বেলায়েত হোসেন মিয়া,কোদালিয়া শহীদনগরে খোন্দকার জাকির হোসেন (নিলু), ফুলসুতীতে আরিফ হোসেন, কাইচাইলে মোস্তফা খাঁন, তালমাতে রনজিৎ কুমার মন্ডল, রামনগরে মান্দার ফকির, ডাঙ্গীতে কাজী আবুল কালাম, লস্করদিয়াতে এসকেন্দার মাতুব্বর। 

গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার মহেশপুরে লুৎফর রহমান মিয়া, পারুলিয়াতে মকিমুল ইসলাম, মাহমুদপুরে মাসুদ রানা, সাজাইলে কাজী জাহাঙ্গীর আলম, কাশিয়ানীতে মশিউর রহমান খান, রাতইল বিতে এম হারুন অর রশিদ পিনু, রাজপটে মিল্টন মিয়া। 

মাদারীপুর জেলার কালকিনি উপজেলার বাঁশগাড়ীতে আবদুল্লাহ আল মামুন, লক্ষীপুরে মজিবর রহমান মোল্যা, চর দৌলতখানে চাঁন মিয়া সিকদার, শিকারমঙ্গলে সিরাজুল আলম মৃধা, কয়ারিয়াতে জাকির হোসেন, সাহেবরামপুরে কামরুল আহ্সান সেলিম, রমজানপুরে বি এম মিল্টন ইব্রাহীম, আলীনগরে সাহীদ পারভেজ, বালিগ্রামে ইসতিয়াক হোসেন খান, নবগ্রামে বিভূতি ভূষণ বাড়ৈ, কাজীবাকাইতে সাইদুল ইসলাম, ডাসারে রেজাউল করিম শিকদার, গোপালপুরে দেলোয়ার হোসেন। 

শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুরে আব্দুস সালাম খান, চিতলিয়াতে হারুন-অর-রশিদ, আংগারিয়াতে আসমা আক্তার, ডোমসারে মিজান মোহাম্মদ খান, পালং’এ আবুল হোসেন দেওয়ান, তুলাসারে জামাল হোসাইন, রুদ্রকরে সিরাজুল ইসলাম, বিনোদপুরে আব্দুল হামিদ সাকিদার, শৌলপাড়াতে আলমগীর হোসেন খান, মাহমুদপুরে শাহ আলম।

সিলেট বিভাগ

হবিগঞ্জ জেলার আজমিরীগঞ্জ উপজেলার আজমিরীগঞ্জ ইউপিতে মোবারুল হোসেন, বদলপুরে সুষেনজিৎ চৌধুরী, জলসুখাতে শাজাহান মিয়া, কাকাইলছেওতে মিসবাহ উদ্দিন ভূঁইয়া, শিবপাশাতে তফছির মিয়া। 

মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলার জায়ফরনগরে মোহাম্মদ জায়েদ আনোয়ার চৌধুরী, পশ্চিম জুড়ীতে শ্রীকান্ত দাশ, পূর্ব জুড়ীতে আব্দুল কাদির, গোয়ালবাড়ীতে শাহাব উদ্দিন আহমদ, সাগরনালে আব্দুল নূর। 

 সিলেট সদর উপজেলার জালালাবাদ ইউপিতে মোহাম্মদ ওবায়দুল্লাহ ইছাহাক, হাটখোলাতে মুশাহিদ আলী, মোগলগাঁওতে হিরন মিয়া, কান্দিগাঁওতে নিজাম উদ্দিন। কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর পূর্ব ইউপিতে মুল্লুক হোসেন, তেলিখালে নুর মিয়া (চেয়ারম্যান), ইছাকলসে এখলাসুর রহমান, উত্তর রণিখাইতে ফয়জুর রহমান, দক্ষিণ রণিখাইতে ইকবাল হুসেন ইমাদ। বালাগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পৈলনপুরে শিহাব উদ্দিন, বোয়ালজুড়ে আনহার মিয়া, দেওয়ানবাজারে ছহুল আব্দুল মুনিম, পশ্চিম গৌরিপুরে হাজী আমিরুল ইসলাম (মধু), বালাগঞ্জে জুনেদ মিয়া, পূর্ব গৌরিপুরে হিমাংশু রঞ্জন দাস। 

সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলার ইসলামপুরে আব্দুল হেকিম, ছাতকে রঞ্জন কুমার দাস, কালারুকতে অদুদ আলম, খুরমা উত্তরে বিল্লাল আহমদ, চরমহল্লাতে কদর মিয়া, খুরমা দক্ষিণে আব্দুল মছব্বির, জাউয়াবাজারে নুরুল ইসলাম, দোলারবাজারে সায়েস্তা মিয়া, গোবিন্দগঞ্জ সৈদেরগাওতে সুন্দর আলী, ছৈলা আফজালাবাদে গয়াছ আহমদ। দোয়ারাবাজার উপজেলার মান্নারগাওতে অসিত কুমার দাস, পান্ডার গাঁওতে আব্দুল ওয়াহিদ, দোহালিয়াতে আনোয়ার মিয়া আনু, লক্ষীপুরে আব্দুল কাদির, বোগলাবাজারে মোহাম্মদ মিলন খান, সুরমাতে এম, এ, হালিম বীর প্রতীক, বাংলাবাজারে মানিক মিয়া, নরসিংপুরে নুর উদ্দিন আহমদ, দোয়ারাবাজারে আব্দুল হামিদ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। 

দুই প্রার্থী পরিবর্তন

১০ অক্টোবর দলটির দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া স্বাক্ষরিত পৃথক আরেক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ৯ অক্টোবর স্থানীয় সরকার মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী একটি তালিকা প্রকাশ করা হয়। প্রকাশিত তালিকায় অসাবধানবশত দুইটি ইউপির চেয়ারম্যান পদে মনোনীত প্রার্থীর পরিবর্তে ভুল নাম লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। ইউপি দুটি হলো মেহেরপুরের মুজিবনগর উপজেলার মহাজনপুর ইউনিয়নে রেজাউর রহমান। এখানে আগে ছিল আমাম হোসেন। খুলনার ডুমুরিয়া উপজেলার আটলিয়া ইউনিয়নে প্রতাপ কুমার রায়। এখানে আগে ছিল এ বি এম শফিকুল ইসলাম।

/পিএইচসি/জেজে/

সম্পর্কিত

মন্দিরে যারা হামলা করেছে তারা মুক্তিযুদ্ধের শত্রু: ওবায়দুল কাদের

মন্দিরে যারা হামলা করেছে তারা মুক্তিযুদ্ধের শত্রু: ওবায়দুল কাদের

কোনও ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ওপর হামলা বরদাস্ত করা হবে না: ওবায়দুল কাদের

কোনও ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ওপর হামলা বরদাস্ত করা হবে না: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শনিবার শুরু

তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শনিবার শুরু

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৯:০০

উগ্র সম্প্রদায়ের কেউ দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা-হাঙ্গামা বাধানোর চক্রান্ত করছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলনের প্রেসিডিয়াম সদস্য মাওলানা সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী। তিনি বলেন,  কুমিল্লায় পূজামণ্ডপে মূর্তির পায়ের নিচে পবিত্র কোরআন রেখে যারা ঘোলাপানিতে মাছ শিকার করতে চায় তাদের খুঁজে বের করে কঠোর শাস্তির আওতায় আনা সরকারের দায়িত্ব।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিকালে কোরআন অবমাননাকারীদের বিচারের দাবিতে  বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

নিত্যপয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের  ঊর্ধ্বগতির প্রতিবাদ জানিয়ে সৈয়দ মোসাদ্দেক বিল্লাহ আল-মাদানী বলেন,  কোনও কারণ ছাড়াই বার বার নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধির কারণে জনজীবন চরম দুর্বিষহ হয়ে উঠছে। সরকার সিন্ডিকেটের কাছে মাথা নত করেছে। তিনি অবিলম্বে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণ করার দাবি জানান।

সমাবেশ শেষে একটি  মিছিল বায়তুল মোকাররম উত্তর গেইট, পল্টন মোড় ও বিজয়নগর মোড়ে পৌঁছলে পুলিশ মিছিলের গতি রোধ করে। সেখানে মিছিল শেষ হয়।

সংগঠনের ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন  মাওলানা আহমদ আবদুল কাইয়ূম, মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, মাওলানা নেছার উদ্দিন,  শরীফুল ইসলাম রিয়াদ, মাওলানা আরিফুল ইসলাম, ডা. শহিদুল ইসলাম প্রমুখ।

/সিএ/এমআর/

সম্পর্কিত

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫৭

বিএনপির নেতাদের মধ্যে বিভেদ ও বিভাজন এবং আওয়ামী লীগ রাজনীতিতে নেই বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। তার দাবি, রাজনীতিতে একমাত্র সোচ্চার জাতীয় পার্টি।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) দলের চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে গাজীপুর মহানগর ও অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এ কথা বলেন।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, নিবন্ধিত প্রায় ৪০টি দলের মধ্যে মাত্র আওয়ামী লীগ, বিএনপি এবং জাতীয় পার্টি সক্রিয় আছে। বাকি দলগুলো সাইনবোর্ড বা নেতা সর্বস্ব রাজনৈতিক দলে পরিণত হয়েছে। বিএনপি নেত্রী মুচলেকা দিয়ে জেল থেকে বের হয়ে রাজনীতির মাঠে নেই। আবার তাদের আরেক নেতা দণ্ডপ্রাপ্ত হয়ে বিদেশে। বাকী নেতাদের মধ্যে বিভেদ ও বিভাজনের অভাব নেই। আবার আওয়ামী লীগ সরকার পরিচালনা ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে ব্যস্ত। রাজনীতির মাঠেও আওয়ামী লীগ নেই বললেই চলে। কিন্তু গণমানুষের দাবি আদায়ে রাজনীতিতে সোচ্চার আছে শুধু জাতীয় পার্টি।’

কাদের দাবি করেন, ৩১ বছর রাষ্ট্র ক্ষমতার বাইরে থেকেও জাতীয় পার্টি রাজনীতিতে টিকে আছে। নানা অপবাদ ও ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে জাতীয় পার্টি এগিয়ে চলছে। দেশের মানুষ আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কর্মকাণ্ডে রাজনীতি নিয়ে হতাশাগ্রস্ত। দেশের মানুষ আগামী দিনে জাতীয় পার্টিকে রাষ্ট্র পরিচালনায় দেখতে চায়।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, বর্তমান সংবিধান অনুযায়ী গণতান্ত্রিক চর্চা সম্ভব নয়। বর্তমান সংবিধান গণতান্ত্রিক চর্চার সাথে সাংঘর্ষিক। গণতন্ত্র চর্চা করতে হলে সংবিধানের অনেক ধারা সংশোধন করতে হবে। সংবিধানের ৭০ ধারার কারণে সরকার দলীয় কোনও সংসদ সদস্য সরকারের কোনও সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করতে পারে না। এতে এক ব্যক্তির হাতে সকল ক্ষমতা কেন্দ্রীভূত হয়েছে। দেশের নির্বাহী বিভাগ, আইন সভা ও রাষ্ট্রপতির মাধ্যমে বিচার বিভাগের প্রায় ৯০ ভাগই সরকার প্রধানের নিয়ন্ত্রণে। তাই সরকার প্রধান যা চাইবেন, তার বাইরে কিছুই সম্ভব নয়।

জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান বলেন, অবাধ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন নিশ্চিত করতে সংবিধান অনুযায়ী আইন করতে হবে। আইন না করে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হচ্ছে, ফুটবল খেলায় একটি দলের পক্ষ থেকে রেফারি নিয়োগ দেওয়ার মতো। আইন করে, উপযুক্ত ব্যক্তিদের নিয়ে নির্বাচন কমিশন গঠন করে সংবিধান অনুযায়ী সকল ক্ষমতা নির্বাচন কমিশনকে দিতে হবে।

এসময় আরও বক্তব্য রাখেন- জাতীয় পার্টি মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, অ্যাডভোকেট শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, মীর আব্দুস সবুর আসুদ, অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভুঁইয়া, অনুষ্ঠানে সভপতিত্ব করেন চেয়ারম্যানের উপদেষ্টা এমএম নিয়াজ উদ্দিন।

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৫২

আগামী নভেম্বর থেকে দল পুনর্গঠনের কাজে সারাদেশের জেলা সফর শুরু করবেন জাতীয় পার্টি মহাসচিব মুজিবুল হক চুন্নু। শনিবার (১৬ অক্টোবর) দলের চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে গাজীপুর মহানগর ও অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় চুন্নু এ কথা জানান।

সভায় মুজিবুল হক বলেন, দেশের কোটি কোটি বেকারদের জন্য কারও মাথা ব্যথা নেই। বিএনপি হাওয়া ভবন আর খাওয়া ভবন করে রাজনীতি থেকে ছিটকে পড়েছে। আর আওয়ামী লীগের উন্নয়নের ধাক্কায় মানুষের জীবন ওষ্ঠাগত।

চুন্নু বলেন, দেশ ও দেশের মানুষের কথা মাথায় রেখেই জাতীয় পার্টির রাজনীতি। জাতীয় পার্টি আগামী দিনে গণমানুষের কল্যাণে কর্মসূচি ঘোষণা করে মাঠে থাকবে। দেশের মানুষের প্রত্যাশা পূরণে জাতীয় পার্টি কাজ করবে। গণমানুষের আস্থা নিয়েই জাতীয় পার্টি আগামী দিনে সরকার পরিচালনা করবে।

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৪৯

হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সম্পর্কে মন্তব্যের কারণে তথ্য প্রতিমন্ত্রী ড. মুরাদ হাসানকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান জিএম কাদের। তিনি বলেন, ‘সরকারের একজন প্রতিমন্ত্রী হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে কটূক্তি করে এবং রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম পরিবর্তন করার ঘোষণা দিয়ে গর্হিত কাজ করেছেন। এজন্য তাকে ক্ষমা চাইতে হবে।’

শনিবার (১৬ অক্টোবর) দলের চেয়ারম্যানের বনানী কার্যালয় মিলনায়তনে গাজীপুর মহানগর ও অঙ্গ এবং সহযোগী সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান গোলাম মোহাম্মদ কাদের এ কথা বলেন।

জিএম কাদের আরও বলেন, ‘২০১১ সালে পঞ্চদশ সংশোধনী করেছে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকার। তাতেও রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম সমুন্নত আছে। তাই কটূক্তি করে  প্রতিমন্ত্রী আওয়ামী লীগের দলীয় শৃঙ্খলাও ভঙ্গ করেছেন। তাকে অবশ্যই ক্ষমা চাইতে হবে, তা না হলে দেশের মানুষ একদিন এর বিচার করবে।’

তিনি বলেন, ‘রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম ঘোষণার সঙ্গে সকল ধর্মের অধিকার সাংবিধানিকভাবেই নিশ্চিত করেছিলেন হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ। রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম পরিবর্তন করার সাহস আর ক্ষমতা কারও নেই।’

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

সরকার মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে: আ স ম রব

আপডেট : ১৬ অক্টোবর ২০২১, ১৭:৩০

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জেএসডি সভাপতি আ স ম রব বলেছেন, ‘সরকার মুক্তিযুদ্ধের চেতনার নামে রাষ্ট্রের মৌলিক কাঠামো বিনষ্ট করে, গণতন্ত্র হত্যা করে,  ভোটাধিকারকে প্রহসনে পরিণত করে  মুক্তিযুদ্ধের গৌরবকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে। সরকারের অপশাসনের কারণে বাঙালি জাতীয়তাবাদ চরম ঝুঁকিতে পড়ছে। সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট হচ্ছে, সমাজে হিংসা প্রতিহিংসা নিষ্ঠুরতা বিস্তার লাভ করছে।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) বিকালে  জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জেএসডি ঢাকা মহানগর সমন্বয় কমিটি আয়োজিত মানববন্ধন -সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিলে রব এসব কথা বলেন।

রব বলেন, ‘ক্ষমতা দীর্ঘস্থায়ী করার জন্য বর্তমান সরকার বাঙালি জাতীয়তাবাদ এবং মুক্তিযুদ্ধের চেতনা দুটোকেই পরিত্যাগ করেছে। এখন রাষ্ট্রের একমাত্র পথ হচ্ছে গণজাগরণের মাধ্যমে জাতীয় নৈতিক শক্তির পুনরুজ্জীবন করা। এই পুনরুজ্জীবিত শক্তিই জাতীয় সরকার গঠন করবে। বিদ্যমান সংকট নিরসনের একমাত্র বিকল্প  জাতীয় সরকার গঠন করা।’

ঢাকা মহানগর কমিটির সমন্বয়ক কামাল উদ্দিন পাটোয়ারীর সভাপতিত্বে বিক্ষোভে আরও বক্তব্য রাখেন- সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. ছানোয়ার হোসন তালুকদার, সা কা ম আনিসুর রহমান খান কামাল, তানিয়া রব, অ্যাড. কে এম জাবির, অ্যাড. সৈয়দ বেলায়েত হোসেন বেলা প্রমুখ।

/এসটিএস/এমআর/

সম্পর্কিত

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

‘দেশে ধর্মীয় দাঙ্গা বাধানোর চক্রান্ত হচ্ছে’

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

‘বিএনপি নেতাদের মধ্যে বিরোধ, আ.লীগ রাজনীতিতে নেই’ 

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

নভেম্বর থেকে জেলা সফর শুরু করবেন জাপা মহাসচিব

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

তথ্য প্রতিমন্ত্রীকে ক্ষমা চাইতে হবে: জিএম কাদের

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

মন্দিরে যারা হামলা করেছে তারা মুক্তিযুদ্ধের শত্রু: ওবায়দুল কাদের

মন্দিরে যারা হামলা করেছে তারা মুক্তিযুদ্ধের শত্রু: ওবায়দুল কাদের

কোনও ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ওপর হামলা বরদাস্ত করা হবে না: ওবায়দুল কাদের

কোনও ধর্মীয় সম্প্রদায়ের ওপর হামলা বরদাস্ত করা হবে না: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি সাম্প্রদায়িকতা উসকে দিচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শনিবার শুরু

তৃতীয় ধাপের ইউপি নির্বাচনে আ.লীগের মনোনয়ন ফরম বিতরণ শনিবার শুরু

নাসিরনগরে নৌকার দুই প্রার্থী বদলে দিয়েছে আ. লীগ

নাসিরনগরে নৌকার দুই প্রার্থী বদলে দিয়েছে আ. লীগ

'নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী সম্প্রীতি বিনষ্টের পাঁয়তারা করছে'

'নির্বাচনকে সামনে রেখে সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠী সম্প্রীতি বিনষ্টের পাঁয়তারা করছে'

নৌকা পেলো ‘বিতর্কিত’ অনেকে, তৃণমূলের ক্ষোভ

নৌকা পেলো ‘বিতর্কিত’ অনেকে, তৃণমূলের ক্ষোভ

নির্বাচন বর্জন বিএনপির জন্য আত্মঘাতী হবে: ওবায়দুল কাদের

নির্বাচন বর্জন বিএনপির জন্য আত্মঘাতী হবে: ওবায়দুল কাদের

চট্টগ্রাম বিভাগের ইউপির আ. লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

চট্টগ্রাম বিভাগের ইউপির আ. লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

সর্বশেষ

ছবি তোলার কথা বলে প্রেমিকাকে ডেকে নিয়ে কাশবনে ধর্ষণ 

ছবি তোলার কথা বলে প্রেমিকাকে ডেকে নিয়ে কাশবনে ধর্ষণ 

টিকায় ভালো পরিকল্পনার ঘাটতি আছে: অধ্যাপক ডা. বে-নজির

টিকায় ভালো পরিকল্পনার ঘাটতি আছে: অধ্যাপক ডা. বে-নজির

বাঙালিদের শুভেচ্ছা নিয়ে জাপানে রওয়ানা দেন বঙ্গবন্ধু

বাঙালিদের শুভেচ্ছা নিয়ে জাপানে রওয়ানা দেন বঙ্গবন্ধু

বদনজর থেকে শিশুকে বাঁচাতে টিপ দেওয়া যাবে?

বদনজর থেকে শিশুকে বাঁচাতে টিপ দেওয়া যাবে?

ফেনীতে ত্রিমুখী সংঘর্ষ, আহত ৩০

ফেনীতে ত্রিমুখী সংঘর্ষ, আহত ৩০

© 2021 Bangla Tribune