X
সোমবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

পৌর মেয়রসহ ৩১ জনের বিরুদ্ধে ডাকাতির মামলা

আপডেট : ২৫ অক্টোবর ২০২১, ২১:৩১

কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার কুতুবজোম ইউনিয়নে চিংড়ির ঘেরে ডাকাতির অভিযোগে কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও মহেশখালী পৌর মেয়র মকসুদ মিয়াসহ ৩১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করা হয়েছে।

রবিবার (২৪ অক্টোবর) মহেশখালী জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন। আদালত মামলাটি গ্রহণ করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন। মহেশখালী থানা সোমবার (২৫ অক্টোবর) মামলাটি নথিভুক্ত করে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা গেছে, গত ১৯ অক্টোবর মহেশখালী পৌর মেয়র মকছুদ মিয়ার নির্দেশে তার ৩০ সহযোগী দলবদ্ধ হয়ে কুতুবজোম ইউনিয়নের ১৪ লাখ টাকার ঘোনা নামক চিংড়ি ঘেরে বিপুল পরিমাণ চিংড়ি লবণ ও মূল্যবান মালামাল লুট করে এবং পরিচালক ও কর্মচারীদের মারধর করে।

এ ঘটনায় ঘেরের অংশীদার ও পরিচালক মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন বাদী হয়ে মহেশখালী সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি করেন।

বাদী পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট হামিদুল হক জানান, আদালতের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্বাস উদ্দিন বাদীর আবেদন শুনে মহেশখালী থানার ওসিকে মামলা গ্রহণ করে আইনি ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দেন।

মহেশখালী থানার ওসি আব্দুল হাই জানান, আদালতের নির্দেশে মহেশখালী পৌর মেয়র মকসুদ মিয়াসহ তার ৩০ সহযোগীর বিরুদ্ধে আজ রাতে ডাকাতির অভিযোগে মামলা নথিভুক্ত করা হয়েছে।

মামলার আর্জিতে মুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন উল্লেখ করেন, ঘটনার দিন ১৯ অক্টোবর রাত ৯টায়  মহেশখালী পৌরসভার মেয়র মকছুদ মিয়ার নির্দেশে মিরাজ উদ্দিন নিশান (২২), মঈন উদ্দিন (৩০), শামসু উদ্দিন (২৮) আতা উল্লাহ বুখারী (৪৫), মোহাম্মদ মামুন (৪২), জাহাঙ্গীর (৪৫), হাসান মোরশেদ (২৫), বদি আলম (৩৫) মোহাম্মদ খোকন (২৫), মোহাম্মদ শান্ত (২৬), জসিম উদ্দিন (২৪) জাহাঙ্গীর আলম (২৮), অহিদুল্লাহ (২৪) নাছির উদ্দিন (৪৫), জিয়াউর রহমান (২৮), ফরিদ আলম প্রকাশ কালা ফরিদ (২৭), একরাম মিয়া (২৯), আলা উদ্দিন (৩৫), আজিজুল হক (৩০), আজিজুল হক (৩৫), সাইফুল হক (২৮), মজিবুর হক (২৬), রিফাত উদ্দিন ফুতাইয়া (২৯), তোফাইল উদ্দিন (২৪), আনোয়ার হোসেন (৩০), মোক্তার আহমদ (৩৫), আবছার (৩৫), লেদু (৩৫), মাহবুবুর রহমান (৩৫), গিট্যা মাহবুবসহ (২৮) আরও ১০/১৫ জন সন্ত্রাসী বেপরোয়া গুলি বর্ষণ করতে করতে ত্রাস সৃষ্টির মাধ্যমে চিংড়ি ঘেরে ব্যাপক তাণ্ডব চালায়। ঘেরের দখল উচ্ছেদ করতে পূর্ব থেকে আহরণ করা মাছ, জাল, মালামাল লুটপাট ও ডাকাতি করে নিয়ে যায়। সন্ত্রাসীরা ঘেরের কর্মচারীদের কুপিয়ে ও গুলিতে আহত করে। পরে তাদের উদ্ধার করে কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারা ১৫ মণ চিংড়িসহ অন্যান্য মাছ ও জাল লুট করে।

আমজাদ হোসেন জানান, ঘটনার পর থেকে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে মহেশখালী থানায় মামলার এজাহার করা হয়। তবে থানার কোনও সহযোগিতা না পাওয়ায় পরবর্তী সময়ে তিনি আদালতের শরণাপন্ন হন।

/এফআর/

সম্পর্কিত

আ.লীগ কর্মী হত্যা মামলার আসামি পেলেন নৌকা, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা

আ.লীগ কর্মী হত্যা মামলার আসামি পেলেন নৌকা, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা

৬ বছর পর রহস্য উদঘাটন, মায়ের প্রেমের বলি হলো সন্তান

৬ বছর পর রহস্য উদঘাটন, মায়ের প্রেমের বলি হলো সন্তান

পার্কের পাশে বোমা তৈরিকালে বিস্ফোরণ, পুলিশের মামলা

পার্কের পাশে বোমা তৈরিকালে বিস্ফোরণ, পুলিশের মামলা

নীলফামারীতে গ্রেফতার ৫ ‘জঙ্গি’ রিমান্ডে

নীলফামারীতে গ্রেফতার ৫ ‘জঙ্গি’ রিমান্ডে

সর্বশেষসর্বাধিক

লাইভ

আ.লীগ কর্মী হত্যা মামলার আসামি পেলেন নৌকা, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা

আ.লীগ কর্মী হত্যা মামলার আসামি পেলেন নৌকা, ক্ষুব্ধ নেতাকর্মীরা

৬ বছর পর রহস্য উদঘাটন, মায়ের প্রেমের বলি হলো সন্তান

৬ বছর পর রহস্য উদঘাটন, মায়ের প্রেমের বলি হলো সন্তান

পার্কের পাশে বোমা তৈরিকালে বিস্ফোরণ, পুলিশের মামলা

পার্কের পাশে বোমা তৈরিকালে বিস্ফোরণ, পুলিশের মামলা

নীলফামারীতে গ্রেফতার ৫ ‘জঙ্গি’ রিমান্ডে

নীলফামারীতে গ্রেফতার ৫ ‘জঙ্গি’ রিমান্ডে

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বর-কনে পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বর-কনে পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১

অস্ত্রসহ ৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটক

অস্ত্রসহ ৪ রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী আটক

সর্বশেষ

কিশোরগঞ্জের ২৪ ইউপিতে থাকছে না নৌকা প্রতীক

কিশোরগঞ্জের ২৪ ইউপিতে থাকছে না নৌকা প্রতীক

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর অপসারণ দাবি ৪০ নারী অধিকারকর্মীর

তথ্য প্রতিমন্ত্রীর অপসারণ দাবি ৪০ নারী অধিকারকর্মীর

আন্তর্জাতিক বডিবিল্ডিংয়ে অভিষেকেই বাংলাদেশের মাকসুদার সাফল্য

আন্তর্জাতিক বডিবিল্ডিংয়ে অভিষেকেই বাংলাদেশের মাকসুদার সাফল্য

নোনা জলের কাব্য: কুসংস্কারই এই ছবির কেন্দ্রবিন্দু

চলচ্চিত্র রিভিউনোনা জলের কাব্য: কুসংস্কারই এই ছবির কেন্দ্রবিন্দু

সয়াবিন তেলের বাজার স্থিতিশীল হচ্ছে না যে কারণে

সয়াবিন তেলের বাজার স্থিতিশীল হচ্ছে না যে কারণে

© 2021 Bangla Tribune