X
বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৮

সেকশনস

আর কত সুযোগ পাবেন লিটন?

আপডেট : ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:২২

বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনআপে ওপেনিংয়ে ‘অটোমেটিক চয়েজ’ হয়ে আছেন লিটন দাস। দিনের পর দিন ব্যর্থতা সঙ্গী হলেও টিম ম্যানেজমেন্টের কোনও ভ্রুক্ষেপ নেই। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগেও কেটেছে ফর্মহীনতায়। মিরপুরের বাজে উইকেটের দোহাই দিয়ে তার অফফর্ম সেভাবে কেউ পাত্তা দেননি। আশা ছিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ব্যাটিং সহায়ক উইকেট পেলেই জ্বলে উঠবেন ডানহাতি ওপেনার। কিন্তু সেই আশায় গুড়েবালি। লিটন তার আগের ধারাবাহিকতা বজায় রেখেছেন! এরপরও কি ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সুযোগ মিলছে তার?

চলতি বছর লিটনের পারফরম্যান্স দেখলে যে কেউই হতাশায় মুখ লুকাবে। ১৩ টি-টোয়েন্টিতে ১০০.৭৬ স্ট্রাইকরেটে রান মাত্র ১৩১! সর্বোচ্চ ৩৩। গড় ১০.৯১! এমন পারফরম্যান্সের পরও কী করে একজন ওপেনার বারবার সুযোগ পাচ্ছেন, সেটি নিয়ে বিস্ময়ের শেষ নেই। তারপরও ‘প্রতিভাবান’ খেতাব দিয়ে ম্যাচের পর ম্যাচে সুযোগ পেয়ে যাচ্ছেন।

গত মার্চে নিউজিল্যান্ড সফর থেকে খারাপ সময় শুরু লিটনের। বিশেষ করে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে তাকে খুঁজেই পাওয়া যাচ্ছে না। ঘরের মাঠে কিউদের বিপক্ষে ব্যাট হাতে বিবর্ণ থেকে বিশ্বকাপে গিয়েও নিজের ছায়ায় আটকে আছেন। পাশাপাশি শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জেতার পথে থাকা ম্যাচে ছেড়েছেন সহজ দুটি ক্যাচ। এই অবস্থায় লিটনের বিশ্রাম খুব প্রয়োজন। টিম ম্যানেজমেন্ট তা বুঝলে হয়!

স্কটল্যান্ডের বিপক্ষে উদ্বোধনী ম্যাচ বাদে বাকি ম্যাচগুলোতে লিটনের সঙ্গে ওপেন করেছেন নাঈম শেখ। তরুণ এই ব্যাটার তিন ম্যাচে করেছেন যথাক্রমে ৬৪, ০, ৬২ রান। অন্যদিকে চার ম্যাচে লিটনের রান মাত্র ৫৬। এই অবস্থায় তার একাদশে থাকা নিয়ে প্রশ্ন ওঠাটাই স্বাভাবিক।

ডানহাতি ব্যাটারের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন পাকিস্তানের গ্রেট ওয়াসিম আকরামও। লিটন এখনও কেন বাংলাদেশ দলে, তা মাথায় ঢুকছে না এই কিংবদন্তি পেসারের। এক স্পোর্টস টিভির অনুষ্ঠানে আকরাম, ওয়াকার ইউনুস, মিসবাহ-উল-হক ও ওয়াহাব রিয়াজ যোগ দিয়েছিলেন। সেখানে তারা বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার ম্যাচের বিশ্লেষণ করেন। এক পর্যায়ে লিটনের দলে থাকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন আকরাম, ‘প্রথম রাউন্ডের শুরু থেকেই মনে হচ্ছে লিটন দাস ঘুমিয়ে আছে। সে ওই পর্বে রান পায়নি, ভালো ফিল্ডিং করছে না। আমি নিশ্চিত নই, সে কেন এখনও দলে আছে।’

অথচ টিম ম্যানেজমেন্ট বরাবরই এই ব্যাটারের ওপর আস্থা রেখে চলেছে। ওমান ম্যাচের আগে বাংলাদেশের প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো বলেছিলেন, ‘ওপেনিংয়ে আমাদের দুর্ভাবনা থাকলেও যারা আছে তারা সামর্থ্যবান। তাদের ওপর আস্থা রাখতেই হচ্ছে।’

ছয় বছরের ক্যারিয়ারে বহুবার অফফর্মের সঙ্গে সাক্ষাৎ হয়েছে লিটনের। তবু তার ওপর আস্থা হারায়নি টিম ম্যানেজমেন্ট। কারণ তিনি প্রতিশ্রুতিশীল, সামর্থ্যবান। আর এই কারণেই অটোমেটিক চয়েজ হয়ে আছেন। নির্বাচক থেকে শুরু করে টিম ম্যানেজমেন্ট আস্থা রাখলেও প্রতিদান দিতে পেরেছেন সামান্যই। উল্টো নানা সময়ে নানাভাবে দলকে ভুগতে হয়েছে তার ব্যর্থতায়। ক্রিকেটপ্রেমী থেকে শুরু করে ক্রিকেট বিশ্লেষকরা বিষয়টি বুঝলেও বুঝছে না টিম ম্যানেজমেন্ট। তাই এত ব্যর্থতার পরও ইংল্যান্ডের বিপক্ষে একাদশে দেখা মিলতে পারে লিটনের!

/আরআই/কেআর/

সম্পর্কিত

ভারতের ওয়ানডে অধিনায়কও রোহিত

ভারতের ওয়ানডে অধিনায়কও রোহিত

এভাবেও ইনিংস ব্যবধানে হারা যায়!

এভাবেও ইনিংস ব্যবধানে হারা যায়!

সাকিবের জায়গায় ফজলে রাব্বি

সাকিবের জায়গায় ফজলে রাব্বি

যে রেকর্ডে সোবার্স-বোথামদের চেয়েও দ্রুততম সাকিব

যে রেকর্ডে সোবার্স-বোথামদের চেয়েও দ্রুততম সাকিব

quiz
সর্বশেষসর্বাধিক
© 2021 Bangla Tribune