X
রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২
১৯ আষাঢ় ১৪২৯

ইলিশ নিয়ে যত আয়োজন

আপডেট : ১৪ নভেম্বর ২০২১, ০৯:৫৪

ইলিশ সম্পদের উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনায় চার বছর মেয়াদি প্রকল্প চলতি ২০২১ সালের ৩১ জানুয়ারি শুরু হয়েছে। ২৪৬ কোটি ২৭ লাখ টাকায় দেশের ২৯ জেলার ১৩৪টি উপজেলায় প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হচ্ছে।

প্রকল্পের প্রধান কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে—

  • ইলিশ ব্যবস্থাপনা সংশ্লিষ্ট অংশীজনের মধ্যে সচেতনতা সভা।
  • ৬টি অভয়াশ্রম সংলগ্ন ইউনিয়নে নিষিদ্ধ সময়ে ইলিশ আহরণ থেকে বিরত রাখতে ব্যাপক প্রচারণা কার্যক্রম।
  • মৎস্য সংরক্ষণ আইন বাস্তবায়ন।
  • বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে দরিদ্র জেলেদের উপকরণ সহায়তা প্রদান।
  • দরিদ্র জেলেদের প্রশিক্ষণ, উপকূলবর্তী ৭টি জেলায় বৈধ জাল বিতরণ।
  • ১৪টি জেলার ৭১টি উপজেলায় আইনশৃংঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা। এ ছাড়া ১৯টি জেলায় এফআরপি বোট ক্রয়ের মাধ্যমে পেট্রোলিং কার্যক্রম জোরদারকরণ করা।

মৎস্য প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে এসব তথ্য।

 

ইলিশ ধরা বন্ধ থাকে কতদিন?

প্রতিবছর ২২ দিন ইলিশ ধরা বন্ধ থাকে। অন্যদিকে মাছের সুষ্ঠু প্রজনন, উৎপাদন ও সামুদ্রিক মৎস্য সম্পদ সংরক্ষণে প্রতিবছর ২০ মে থেকে ২৩ জুলাই পর্যন্ত ৬৫ দিন বাংলাদেশের সাগরে সব ধরনের মাছ ধরা নিষিদ্ধ। তবে এ ৬৫ দিন নদীতে ইলিশসহ অন্য মাছ ধরা যাবে।

সাগরে যখন নিষেধাজ্ঞা থাকে, তখন অন্য মাছের প্রজনন মৌসুম হলেও ইলিশের প্রজনন মৌসুম নয়। তথাপি, প্রয়োজনের অতিরিক্ত মাছ ধরা, অন্য মাছের সংখ্যাবৃদ্ধি ও ‘ওভারফিশিং’ ঠেকাতে এমন নিষেধাজ্ঞা দেয় সরকার।

গবেষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেলো, চাঁদের ওপর নির্ভর করে ইলিশ ধরার নিষেধাজ্ঞার তারিখ ঠিক করা হয়। এ বছর ৪ অক্টোবর থেকে ২৫ অক্টোবর মধ্যরাত পর্যন্ত ২২ দিন ছিল ওই নিষেধাজ্ঞা। মৎস্য মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেলো, ইলিশ রক্ষায় মৎস্য সংরক্ষণ আইনটি আশ্বিন মাসের পূর্ণিমার দিনক্ষণের ওপর ভিত্তি করে সংশোধন করা হয়েছে।

২০১৪ সালের মৎস্য আইন অনুসারে ১ নভেম্বর থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত জাটকা (১০ ইঞ্চির চেয়ে ছোট ইলিশ) ধরা পুরোপুরি নিষিদ্ধ। এ সময় জাটকার আধিক্য থাকে। মূলত এ সময় জাটকা নিধন ঠেকাতে অভিযানও চালানো হয়। তবে বছরের বাকি সময়ও জাটকা ধরা অবৈধ।

উপকূলীয় এলাকার ৪টি পয়েন্টের সাত হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকা ইলিশের প্রধান প্রজনন ক্ষেত্র। প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ সংরক্ষণে ২০১১ সালে দেশের ৯ জেলার ৩৩ উপজেলায়, ২০১৭ সালে দেশের ২৯টি জেলার ১৪৯ উপজেলায়, ২০১৮ সালে ৩৭টি জেলার ১৭৩ উপজেলায়, ২০১৯ সালে ৩৫টি জেলার ১৫৭ উপজেলায় এবং ২০২০ সালে ৩৬টি জেলার ১৭২ উপজেলায় অভিযান পরিচালনা করা হয়।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইন্সটিউটের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. আনিসুর রহমান জানিয়েছেন, ‘সাগরে অন্য মাছের প্রজনন নিরাপদ রেখে ইলিশ ধরা কীভাবে অব্যাহত রাখা যায়, সে বিষয়ে আলোচনা চলছে। জেলেদের পরামর্শও নেওয়া হবে।’

জানা গেছে, সাগরে ইলিশ ধরে এমন সমিতিভুক্ত জেলে আছে ৬৮ হাজার। এ বিষয়ে মৎস্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, যে সময় জাটকা ধরা বন্ধ থাকে, সে সময় জেলেরা চাইলে বড় ইলিশ ধরতে পারবে। পুরোপুরি বন্ধ থাকে মাত্র ২২ দিন।

মাছ ধরা বন্ধের সময় সরকারি তালিকাভুক্ত জেলে পরিবারকে প্রতি মাসে ৪০ কেজি করে চাল দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। তিনি জানান, ২০১০ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত ভিজিএফ দেওয়া হয়েছে ২ লাখ ৬৮ হাজার ৮১৪ দশমিক ৭২ মেট্রিক টন চাল। ২০১৯ ও ২০২০ সালে ভিজিএফ দেওয়া হয়েছে ৮৬ হাজার ৫৬৫ দশমিক ৯২ মেট্রিক টন চাল।

জেলেদের আর্থসামাজিক অবস্থারও উন্নয়ন হয়েছে। বিকল্প কর্মসংস্থানের উপকরণ হিসেবে রিকসা/ভ্যান ও ২টি করে ছাগল দেওয়া হয় প্রত্যেক জেলে পরিবারকে। সেলাই মেশিন, গরু মোটাতাজাকরণ, ক্ষুদ্র ব্যবসা, মাছ ধরার জালও সরবরাহ করা হয়। এ ছাড়া হাঁস-মুরগি পালন, গাছের চারা তৈরি, সবজি বাগান ও খাঁচায় মাছ চাষের উপকরণ দেওয়া হয়।

২০১৭ সালের ১৭ আগস্ট বাংলাদেশের ভৌগলিক নির্দেশক পণ্য হিসেবে স্বীকৃতি পায় ইলিশ। দেশের মোট মৎস্য উৎপাদনে ইলিশের অবদান ১২ দশমিক ১৫ শতাংশ। জিডিপিতে অবদান ১ শতাংশেরও বেশি।

ইলিশ ধরায় সরাসরি নিয়োজিত আছে ৬ লাখ জেলে। ২০১৯-২০ অর্থবছর ইলিশ উৎপাদনের পরিমাণ ছিল ৫ লাখ ৫০ হাজার মেট্রিক টন। যা ২০০৮-০৯ অর্থবছরের তুলনায় দ্বিগুণ। অর্থাৎ এ সময়ে ইলিশ উৎপাদনের গড় প্রবৃদ্ধি প্রায় ৭ দশমিক ১১ শতাংশ। গবেষকদের তথ্যমতে, এ সময়ে ইলিশের গড় ওজন বেড়ে ৯৫০ গ্রাম হয়েছে।

/এফএ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
আগস্টে এসএসসি অক্টোবরে এইচএসসি
আগস্টে এসএসসি অক্টোবরে এইচএসসি
৭৫ হাজারে কেনা ‘কালো মানিকের’ দাম ৪০ লাখ
৭৫ হাজারে কেনা ‘কালো মানিকের’ দাম ৪০ লাখ
বিশ্ববিদ্যালয়ে জ্ঞান সৃষ্টিতে প্রয়োজন গবেষণা: শিক্ষামন্ত্রী
বিশ্ববিদ্যালয়ে জ্ঞান সৃষ্টিতে প্রয়োজন গবেষণা: শিক্ষামন্ত্রী
‘ছোট বাচ্চাটাকেও বাঁচতে দিলো না’
‘ছোট বাচ্চাটাকেও বাঁচতে দিলো না’
এ বিভাগের সর্বশেষ
ধরা পড়ছে না ইলিশ
ধরা পড়ছে না ইলিশ
৫ নভেম্বর পর্যন্ত ভারতে ইলিশ রফতানি
৫ নভেম্বর পর্যন্ত ভারতে ইলিশ রফতানি