X
সোমবার, ১৫ আগস্ট ২০২২
৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

খেলাপি হলেও ঋণ পাবেন চামড়া ব্যবসায়ীরা

গোলাম মওলা
০৫ জুলাই ২০২২, ১০:০০আপডেট : ০৫ জুলাই ২০২২, ১০:০০

প্রতি বছর কোরবানি এলে ব্যাংকগুলো কাঁচা চামড়া কিনতে চামড়া ব্যবসায়ীদের ঋণ দিয়ে থাকে। কিন্তু ব্যাংকগুলো সেই ঋণের টাকা ফেরত পাচ্ছে না। বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাবে, এ পর্যন্ত চামড়া খাতে খেলাপি ঋণ দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৫৪১ কোটি টাকা। যদিও কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলছে, আগের দেওয়া ঋণ খেলাপি হলেও ঋণ পাবেন চামড়া ব্যবসায়ীরা। মাত্র দুই শতাংশ ডাউন পেমেন্ট দিয়ে পুনঃতফসিল করা যাবে। অর্থাৎ, ঋণ খেলাপিরাও ঋণ পাবেন।

আগামী ১০ জুলাই ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতি বছর  দেশে উৎপাদিত কাঁচা চামড়ার প্রায় অর্ধেকের বেশি আসে ঈদুল আজহায় কোরবানি করা পশু থেকে।

এদিকে গত কয়েক বছর ধরে কোরবানির চামড়ার কদরও কমে গেছে। তবে এবার কোরবানির পশুর চামড়ার দাম গত বছরের চেয়ে একটু বাড়তে পারে। এদিকে আসন্ন ঈদুল আজহায় কাঁচা চামড়া সংরক্ষণে ট্যানাররা ৪০০ কোটি টাকা ব্যাংক ঋণ পাবে বলে জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।  এই ঋণ সরকারি-বেসরকারি ব্যাংকের মাধ্যমে বিতরণ করা হবে। তবে এবারের কোরবানি ঈদে পশুর কাঁচা চামড়া কিনতে প্রায় ৩০০ কোটি টাকা ঋণ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাষ্ট্রায়ত্ব চারটি ব্যাংক।

ব্যাংকাররা বলছেন, অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে ক্ষতিগ্রস্ত উদ্যোক্তাদের চাহিদা মতো তহবিল জোগান দিতে নির্দেশ দেওয়া হলেও তারা বুঝে-শুনেই ঋণ দেবেন।

ট্যানারি শিল্প উদ্যোক্তাদের আগের ঋণের বড় একটি অংশই খেলাপি থাকায় ব্যাংকগুলো সহজে ঋণ দিতে চায় না, যার কারণে ঋণ পেতে সরকারের সহায়তা চান তারা।

ব্যাংক ঋণের প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করে বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিটিএ) সাধারণ সম্পাদক এবং সালমা ট্যানারির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. সাখাওয়াত উল্লাহ বলেন, কোরবানির পশুর চামড়া একটি পচনশীল পণ্য, যা দ্রুত সংগ্রহ করে সংরক্ষণ করতে হয়। এই চামড়া সংরক্ষণ করতে না পারলে বৈদেশিক মুদ্রা আসবে না।  সংগৃহীত চামড়া নগদ টাকা দিয়ে কিনতে হয়,  মৌসুমি ব্যবসায়ীরা আড়তে চামড়া দিয়ে যান নগদ টাকার বিনিময়ে। তিনি বলেন, ট্যানারি মালিকরা নিজস্ব ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল দিয়ে ব্যবসা করলেও কোরবানির সময় বেশি নগদ অর্থের প্রয়োজন হয়, যা নিজস্ব ফান্ড থেকে ম্যানেজ করা সম্ভব হয় না।

এর আগে, কোরবানির ঈদে চামড়া সংগ্রহের জন্য ট্যানারি শিল্পের অনুকূলে ৫০০-৬০০ কোটি টাকা ঋণ সংস্থানের ব্যবস্থা করতে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়কে চিঠি দেয় ট্যানারি মালিকরা।

অবশ্য গত বছর ঈদুল আজহাতে কাঁচা চামড়া কিনতে ৫৮৩ কোটি টাকার তহবিল জোগান দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল ৯টি বাণিজ্যিক ব্যাংক। যেখানে রাষ্ট্রীয় খাতের চার ব্যাংক ঋণ দিয়েছিল ৩৯০ কোটি টাকা। আর এবার এই চার ব্যাংক ঋণ দিচ্ছে ৩০০ কোটি টাকার মতো।

ট্যানারি মালিকরা বলছেন, করোনা পরবর্তী ব্যবসায় টিকে থাকতে চাহিদার তুলনায় এবার যে পরিমাণ টাকা ঋণের জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে তা আগের বছরের চেয়েই কম। আবার পেতেও ভোগান্তি।

আসন্ন ঈদুল আজহায় কোরবানির কাঁচা চামড়ার সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনাসহ প্রাসঙ্গিক বিষয় ও ঋণের ব্যবস্থা করতে গত ২১ জুন বাণিজ্য সচিবকে চিঠি দেয় বাংলাদেশ ট্যানার্স অ্যাসোসিয়েশন। 

পাশাপাশি কাঁচা চামড়া সংরক্ষণে চাহিদামাফিক লবণ সরবরাহের ব্যবস্থা, কাঁচা চামড়া পাচার ঠেকাতে ঈদের পর অন্তত ৩০ দিন পর্যন্ত বর্ডার এলাকায় টহল বাড়ানো ও কাঁচা চামড়া ক্রয়ে ঋণ সরবরাহে ব্যাংক ও সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতাও চেয়েছে সংগঠনটি।

রাজধানীর পোস্তা, নাটোরের রেলওয়ে বাজার, যশোরের রাজারহাট, গাইবান্ধার পলাশবাড়ী, রংপুরের তারাগঞ্জ, নওগাঁ, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম, আমিনবাজার ও টঙ্গী-গাজীপুরের আড়ৎগুলোতে কাঁচা চামড়া সংগ্রহ, সংরক্ষণ ও মজুদ করা হয়ে থাকে।

জানা গেছে, ট্যানারি মালিক ও বাণিজ্যিক রফতানিকারক মিলিয়ে সংগঠনটির বর্তমান সদস্য প্রায় ৮০০ জন। সারাদেশে ১ হাজার ৮৬৬টি বৃহৎ ও মাঝারি আড়ৎ রয়েছে। এর বাইরেও ছোট আকারে অনেক আড়ৎ রয়েছে, যারা মৌসুমি উদ্যোক্তাদের কাছ থেকে ঈদুল আজহার সময় চামড়া সংগ্রহ করে।আড়তদাররা মৌসুমি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চামড়া সংগ্রহের পর নিজেরাই লবণ দিয়ে সংরক্ষণ করে, পরবর্তীতে বড় ট্যানারির কাছে বিক্রি করে।

এদিকে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রায় তিনবছর পর আবার চামড়া রফতানি বাড়ছে, যাতে আগামীতে সম্ভাবনা দেখছেন উদ্যোক্তারা। গত ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম ৯ মাসে চামড়া ও চামড়াজাত পণ্য রফতানির মাধ্যমে এক বিলিয়ন ডলারের বেশি রফতানি আয় হয়েছে। এই রফতানির পরিমাণ সরকারের নির্ধারিত টার্গেট ও আগের বছরের চেয়ে অনেক বেশি। ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম ১১ মাসে চামড়া রফতানি হয়েছে ১১১.৫৬ কোটি ডলার, যা আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৩২ শতাংশ বেশি। আর রফতানির লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৮% বেশি। যদিও ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১০১.৯৮ কোটি ডলারের চামড়া রফতানি হয়। এই সময়ের পর দুই অর্থবছরে এক বিলিয়ন ডলারের কম পণ্য রফতানি হয়েছে। শিল্পের উদ্যোক্তারা জানান, দীর্ঘদিন পর চামড়া রফতানি বৃদ্ধি পেয়েছে, বিদেশি ক্রেতাদের চাহিদাও এখন বেশ ভালো। রফতানি ত্বরান্বিত ও বর্তমান ট্রেন্ড ধরে রাখতে সরকারের সহায়তা প্রয়োজন।

এদিকে ঈদুল আজহা উপলক্ষে কোরবানির পশুর চামড়া কিনতে প্রয়োজনীয় তহবিল নিশ্চিতে ব্যবসায়ীদের বিশেষ ঋণ সুবিধা দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর ফলে আগের দেওয়া ঋণ খেলাপি হলে মাত্র ২ শতাংশ ডাউন পেমেন্টে দিয়ে পুনঃতফসিল করা যাবে। গত বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি সার্কুলারে এ তথ্য জানিয়েছে।

সার্কুলারে বলা হয়েছে, নতুনভাবে কোভিডের সংক্রমণ বৃদ্ধি, বৈশ্বিক যুদ্ধাবস্থা এবং সাম্প্রতিক সময়ে দেশের কয়েকটি এলাকায় সংঘটিত আকস্মিক বন্যা পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে চামড়া ব্যবসায়ীদের (কাঁচা চামড়া ক্রয়-বিক্রয়/প্রক্রিয়াজাতকরণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ট্যানারি শিল্পসহ চামড়া খাতের সকল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান/শিল্প) আগামী কোরবানির মৌসুমে প্রয়োজনীয় অর্থের সরবরাহ নিশ্চিত করতে নিচের নীতিমালা অনুসরণ করতে ব্যাংকগুলোকে বলা হয়েছে।

সেগুলো হলো, কোরবানির পশুর চামড়া ক্রয়ের উদ্দেশে ইতোপূর্বে বিতরণ করা ঋণ বা ঋণের অংশবিশেষ খেলাপি হয়ে থাকলে সংশ্লিষ্ট ঋণগ্রহীতার গোডাউনে স্টক অথবা সহায়ক জামানত থাকা সাপেক্ষে উক্ত খেলাপি ঋণের বিপরীতে ন্যূনতম ২ শতাংশ ডাউন পেমেন্ট গ্রহণ সাপেক্ষে ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে পুনঃতফসিল করা যাবে।

পুনঃতফসিলিকরণ পরবর্তীতে ব্যাংকিং নিয়মাচার অনুসরণ করে তফসিলি ব্যাংকগুলো ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে ঋণগ্রহীতার সক্ষমতা যাচাই সাপেক্ষে ২০২২ সালে কোরবানি দেওয়া পশুর কাঁচা চামড়া কেনার উদ্দেশ্যে ঋণ বিতরণ করতে পারবে। এই সুবিধা ২০২২ সালের ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বলবত থাকবে।

/এমএস/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
ক্ষেতে কাজ করার সময় বজ্রাঘাতে কৃষকের মৃত্যু
ক্ষেতে কাজ করার সময় বজ্রাঘাতে কৃষকের মৃত্যু
বঙ্গবন্ধু সারা জীবন বঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করেছেন: শিল্পমন্ত্রী
বঙ্গবন্ধু সারা জীবন বঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করেছেন: শিল্পমন্ত্রী
ব্রিজ থেকে বাস ছিটকে পড়লো নিচে, ১৪ যাত্রী আহত 
ব্রিজ থেকে বাস ছিটকে পড়লো নিচে, ১৪ যাত্রী আহত 
‌‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ’
‌‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে জাতি আজ ঐক্যবদ্ধ’
এ বিভাগের সর্বশেষ
চামড়া নিয়ে এই সংকট আর কতকাল?
চামড়া নিয়ে এই সংকট আর কতকাল?
দাম নেই ছাগলের চামড়ার
দাম নেই ছাগলের চামড়ার
চামড়ার চাপ নেই পোস্তায়
চামড়ার চাপ নেই পোস্তায়
রাস্তায় বাড়ছে চামড়ার স্তূপ
রাস্তায় বাড়ছে চামড়ার স্তূপ
চামড়া সংগ্রহে এগিয়ে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা
চামড়া সংগ্রহে এগিয়ে মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা