‘মানসম্পন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে’

Send
বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
প্রকাশিত : ২০:০৫, জুলাই ২৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ২০:২৬, জুলাই ২৩, ২০২০

তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী

প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী বলেছেন, নিরবচ্ছিন্ন ও মানসম্পন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখতে হবে। অবস্থার উন্নয়নে প্রযুক্তির ব্যবহার ও জ্ঞানভিত্তিক সমাধানের প্রয়োগ বাড়ানো আবশ্যক। গ্রাহকদের ও বেসরকারি উদ্যোক্তাদের সম্পৃক্ত করে পরবর্তী কার্যকরী পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন।

বৃহস্পতিবার (২৩ জুলাই) এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ‘ডেভেলপিং স্ট্র্যাটেজি ফি অ্যাপ্লিকেশন অব বিগ ডাটা অ্যানালাইসিস অ্যান্ড স্যাম্পল সার্ভে ফর ইমপ্রুভিং কোয়ালিটি অব পাওয়ার সাপ্লাই টু দ্য ইন্ডাস্ট্রিয়াল ক্লাস্টার অ্যারাউন্ড ঢাকা সিটি’ শীর্ষক এই আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিল (বিইপিআরসি) এর চেয়ারম্যান (সচিব) সুবীর কিশোর চৌধুরী।

পিডিবির চেয়ারম্যান মো. বেলায়েত হোসেন, আরইবির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল মঈন উদ্দিন (অব.) ও পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন অনুষ্ঠানে সংযুক্ত ছিলেন। এছাড়া বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অধীন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা সভায় অনলাইনে অংশগ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, বিগ ডাটা ও নমুনা জরিপ পদ্ধতি প্রয়োগ করে শিল্প প্রতিষ্ঠানে নিরবচ্ছিন্ন ও মানসম্মত বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ জ্বালানি ও বিদ্যুৎ গবেষণা কাউন্সিলের (বিইপিআরসি) আয়োজনে এই সভা করা হয়।

সভায় বিগ ডাটা কনসেপ্ট ও নমুনা জরিপ পদ্ধতি প্রয়োগ করে কী করে নিরবচ্ছিন্ন ও মানসম্মত বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করা যায়, তার একটি কর্মকৌশল বিইপিআরসি উপস্থাপন করে। এছাড়া, বিগ ডাটা কনসেপ্ট প্রয়োগ ও স্যাম্পল সার্ভে পরিচালনার জন্য ঢাকার চারপাশের শিল্প ক্লাস্টার নির্ধারণ এবং পাইলটিং শিল্পহাব নির্বাচন নিয়ে সভায় আলোচনা করা হয়। প্রাথমিকভাবে ঢাকার আশেপাশে পাঁচটি শিল্প ক্লাস্টার সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। এই পাঁচটি শিল্প ক্লাস্টার এর মধ্য থেকে গাজীপুর শিল্প ক্লাস্টারে অবস্থিত কোনও শিল্প হাবকে পাইলটিংয়ের  জন্য নির্বাচন করা যেতে পারে বলে সভায় আলোচনা হয়। এছাড়া সভায় সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, পাইলটিংয়ের  জন্য নির্বাচিত শিল্প হাবে বিগ ডাটা কনসেপ্ট ও নমুনা জরিপ পদ্ধতি প্রয়োগের কর্মকৌশল নির্ধারণের জন্য বিইপিআরসি পরবর্তীতে একটি ইন্সেপশন ওয়ার্কশপের আয়োজন করবে।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বিদ্যুৎ সচিব ড. সুলতান আহমেদ বলেন, ‘নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের নিয়ামকগুলো সুনির্দিষ্ট করে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে হবে। গ্রিডের অবস্থান, ডুয়েল সোর্স, ভোল্টেজ ফ্লাকচুয়েশন, শিল্প-কারখানার পরিমাণ ইত্যাদি বিবেচনা করে শিল্প ক্লাস্টার নির্বাচন করা যেতে পারে। অংশীজন ও বিশেষজ্ঞদের নিয়ে দ্রুত সময়ের মধ্যে একটি কর্মশালা আয়োজন করা যেতে পারে।’

প্রসঙ্গত, পাওয়ারসেলের তথ্যমতে, সারাদেশে ৬৫টি শিল্পহাব চিহ্নিত করা হয়েছে, যেখানে বিদ্যুতের চাহিদা প্রায় ২৮২০ মেগাওয়াট। এর মধ্যে ঢাকার চারপাশে ৩২টি শিল্পহাবে বিদ্যুতের চাহিদা প্রায় ১২৮৯ মেগাওয়াট। এই ৩২টি শিল্প হাবকে পাঁচটি শিল্প ক্লাস্টারে বিভক্ত করা যেতে পারে জানায় পাওয়ারসেল।

 

/এসএনএস/এপিএইচ/

লাইভ

টপ