X
রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪
১৯ ফাল্গুন ১৪৩০

রফতানির বিপরীতে নগদ সহায়তার নতুন সার্কুলার

বাংলা ট্রিবিউন রিপোর্ট
১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২২:২৫আপডেট : ১২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ২২:২৫

নগদ সহায়তা প্রত্যাহারের পূর্ব ঘোষিত সার্কুলার বাতিল করে নতুন সার্কুলার জারি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এতে অস্ট্রেলিয়া, জাপান ও ভারতকে  নতুন বাজার হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। ফলে এসব বাজারে রফতানিতে ৩ শতাংশ হারে নগদ সহায়তা দেওয়া হবে।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) নতুন সার্কুলারে এই সংশোধনীর কথা জানানো হয়েছে।

এর আগে গত ৩০ জানুয়ারি প্রজ্ঞাপন জারি করে পণ্য রফতানিতে নগদ সহায়তা কমানোর ঘোষণা দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। যেখানে আলোচিত এই তিনটি রফতানি গন্তব্যকে প্রচলিত বাজারের আওতাভুক্ত করা হয়েছিল, যেখানে রফতানিতে দেওয়া হয় মাত্র শূন্য দশমিক ৫০ শতাংশ নগদ সহায়তা।  

নতুন সার্কুলারে বলা হয়েছে, আমেরিকা, কানাডা ও ইউকে ব্যতীত নতুন বাজার সম্প্রসারণে উদ্যোক্তারা ৩ শতাংশ  প্রণোদনা সহায়তা পাবে।

এর দুই সপ্তাহ পার না হতেই নতুন প্রজ্ঞাপনটি জারি করা হয়েছে। আগের প্রজ্ঞাপনটি চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৩০ জুন পর্যন্ত কার্যকর হবে বলে জানানো হয়েছিল। সোমবারের প্রজ্ঞাপনে সেটি পেছানো হয়েছে। এতে জানানো হয়, এটি ১ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর করা হবে।  

এছাড়া, ৩০ জানুয়ারির প্রজ্ঞাপনে যেসব পোশাক পণ্যকে নগদ সহায়তা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছিল, নতুন সার্কুলারে আবারও তা ফিরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

পাঁচটি এইচএস কোডের পোশাক রফতানিতে আর নগদ সহায়তা দেওয়া হবে না বলে আগে জানানো হয়েছে।

এসব পণ্যের মধ্যে আছে, পুরুষ ও বাচ্চা ছেলেদের জন্য নিট বা ক্রশেট শার্ট, টি শার্ট, ভেস্ট, জার্সি, পুলওভার, কার্ডিগান, জ্যাকেট, ব্লেজার, ট্রাউজার, স্যুট ও সমজাতীয় পণ্য। পণ্যগুলোর এইচএস কোডগুলো হলো– ৬১০৫, ৬১০৭, ৬১০৯, ৬১১০ এবং ৬২০৩।

বিজিএমইএ'র তথ্যমতে, এই পাঁচটি হারমোনাইজড সিস্টেম (এইচএস) কোডভুক্ত আইটেম ২৫.৯৫ বিলিয়ন ডলার রফতানি আয় অর্জনে ভূমিকা রেখেছে, যা গত অর্থবছরে হওয়া মোট রফতানির ৪৬.৭১ শতাংশ। মোট তৈরি পোশাক রফতানির মধ্যে যা ছিল ৫৫.২২ শতাংশ।

২০২৬ সালে স্বল্পোন্নত দেশের (এলডিসি) কাতার থেকে উত্তরণ হওয়ার কথা রয়েছে বাংলাদেশের। এই লক্ষ্যে, পর্যায়ক্রমে সব ধরনের রফতানি পণ্যে প্রণোদনা হ্রাস করার একটি কৌশলগত পরিকল্পনা ৩০ জানুয়ারিতে প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে ঘোষণা করা হয়। তবে এই উদ্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেন রফতানিকারকরা।   এত দিন বাংলাদেশ মোট ৪৩ খাতে নগদ সহায়তা দিয়ে আসছিল। 

অর্থ মন্ত্রণালয়ের তথ্যানুযায়ী, নগদ প্রণোদনার ৬৫ শতাংশ বা প্রায় পাঁচ হাজার কোটি টাকার মূল সুবিধাভোগী হলো তৈরি পোশাক ও বস্ত্র শিল্প।

/জিএম/এপিএইচ/
সম্পর্কিত
অফশোর ব্যাংকিং আইন করতে সংসদে বিল
ঋণের সুদহার ১৩ শতাংশ ছাড়ালো
‘নারীর সমঅধিকার, সমসুযোগ এগিয়ে নিতে হোক বিনিয়োগ’ স্লোগান ধারণ করতে হবে ব্যাংকগুলোকে
সর্বশেষ খবর
গাজায় মৃত্যুর প্রহর গুনছে ক্ষুধার্ত শিশুরা
গাজায় মৃত্যুর প্রহর গুনছে ক্ষুধার্ত শিশুরা
আজকের আবহাওয়া: দুই বিভাগে বৃষ্টির আভাস
আজকের আবহাওয়া: দুই বিভাগে বৃষ্টির আভাস
বেইলি রোডে আগুন: বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট
বেইলি রোডে আগুন: বিচার বিভাগীয় তদন্ত চেয়ে রিট
দেশের মানুষ ভালো আছে: অর্থমন্ত্রী
দেশের মানুষ ভালো আছে: অর্থমন্ত্রী
সর্বাধিক পঠিত
ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের বিএসসি পাস মর্যাদা দেওয়ার উদ্যোগ
ডিপ্লোমা প্রকৌশলীদের বিএসসি পাস মর্যাদা দেওয়ার উদ্যোগ
স্কুলে গণিত ও বিজ্ঞানের শিক্ষক হতে পারেন ডিপ্লোমা প্রকৌশলীরা: শিক্ষামন্ত্রী
স্কুলে গণিত ও বিজ্ঞানের শিক্ষক হতে পারেন ডিপ্লোমা প্রকৌশলীরা: শিক্ষামন্ত্রী
ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিল ‘এএমপিএম’, পলাতক কর্মকর্তারা
বেইলি রোড ট্র্যাজেডিব্যবস্থাপনার দায়িত্বে ছিল ‘এএমপিএম’, পলাতক কর্মকর্তারা
বিদেশের সম্পদ দেশের টাকায় করিনি: সাবেক ভূমিমন্ত্রী
বিদেশের সম্পদ দেশের টাকায় করিনি: সাবেক ভূমিমন্ত্রী
বেইলি রোডের ট্র্যাজেডি নিয়ে আমিন মোহাম্মদ গ্রুপের বিবৃতি
বেইলি রোডের ট্র্যাজেডি নিয়ে আমিন মোহাম্মদ গ্রুপের বিবৃতি