X
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪
২০ ফাল্গুন ১৪৩০

টুঙ্গিপাড়ায় ২০ জেলার ইজতেমা, জাতির পিতার সমাধিতে মুসল্লিরা

বাংলা ট্রিবিউন ডেস্ক
২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:০৬আপডেট : ২৭ নভেম্বর ২০২২, ১১:০৬

গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২০ জেলার ৩ দিনের ইজতেমা চলছে। এখানে ওলামায়ে কেরাম ও তিন চিল্লার সাথীদের সমাগম ঘটেছে। গত শুক্রবার থেকে টুঙ্গিপাড়ার গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে এ ইজতেমা শুরু হয়েছে। সোমবার (২৮ নভেম্বর) ভোরে আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে ইজতেমা সমাপ্ত হবে।

ইজতেমায় দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২০ জেলার অন্তত ১ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। তাদের পদচারণায় টুঙ্গিপাড়া এখন মুখরিত। গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসা থেকে টুঙ্গিপাড়া জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিসৌধ মাত্র ২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। তাই জাতির পিতার জন্মভূমি, পৈতৃকবাড়ি ও সমাধিসৌধ কমপ্লেক্স দেখতে ভিড় করছেন ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা। 

রবিবার (২৭ নভেম্বর) এখানে মুসল্লিদের ঢল নামে। বিভিন্ন বয়সের মুসল্লিরা বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ ঘুরে ঘুরে দেখেছেন। গত শনিবার ও শুক্রবার বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে মুসল্লিদের সমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো।

সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, ইজতেমায় অংশ নেওয়া বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ পরিদর্শন করছেন। দলে দলে বিভিন্ন জেলার মুসল্লিরা বঙ্গবন্ধুর সমাধিসৌধ কমপ্লেক্সে ঢুকছেন। আর জাতির পিতার জন্মভূমি, পৈতৃকবাড়ি ও সমাধিসৌধ কমপ্লেক্স ঘুরে ঘুরে দেখে আবার ইজতেমা মাঠে ফিরে যাচ্ছেন। এদের মধ্যে অধিকাংশই বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রথম এসেছেন। তবে বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে আগত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা বঙ্গবন্ধুর জন্য দোয়া-মোনাজাত করেছেন। 

ইজতেমায় অংশ নেওয়া ফরিদপুর জেলার সালথা উপজেলার কাগদী মসজিদের ইমাম রফিকুল ইসলাম (৫৫) বলেন, টুঙ্গিপাড়া উপজেলার গওহরডাঙ্গা মাদ্রাসায় তিনদিনের ইজতেমা চলছে। এতে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ভোলা জেলা বাদে ২০ জেলার ওলামায়ে কেরাম ও তিন চিল্লার সাথীরাসহ প্রায় ১ লাখ ধর্মপ্রাণ মুসল্লি অংশ নিয়েছেন। আমরা ইজতেমা ময়দান থেকে একটি দল বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে এসেছি। আমাদের মতো অনেক দল এখানে এসেছে। আমরা বঙ্গবন্ধুর জন্মস্থান, আদি পৈতৃক বাড়ি, সমাধিসৌধ পরিদর্শন করেছি। এগুলো আমাদের কাছে ভালো লেগেছে। এছাড়া আমরা বঙ্গবন্ধুর রুহের মাগফিরাত কামনায় দোয়া-মোনাজত করেছি। 

এজতেমায় অংশ নেওয়া ররিশাল জেলার সায়েস্তাবাদ গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আলহাজ্ব মো. আমির হোসেন (৭০) বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের জাতির পিতা। তার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সমাধিসৌধে দলবল নিয়ে এসেছি। বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে এটিই আমার প্রথম আসা। এখানে এসে তার ঐতিহাসিক বাড়িসহ সমাধিসৌধ দেখে আমার মনভরে গেছে। তিনি স্বাধীন বাংলাদেশের মহান স্থপতি। তার প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে পেরে আমি গর্ববোধ করছি।

বঙ্গবন্ধু সমাধিসৌধের সহকারী কিউরেটর মো. নুরুল ইসলাম বলেন, টুঙ্গিপাড়ায় ২০ জেলার ইজতেমা হচ্ছে। ইজতেমায় আগত ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা বঙ্গবন্ধুর সমাধি পরিদর্শন করছেন। এ কারণে এখানে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল নেমেছে। খবর বাসস।

/ইউএস/
সম্পর্কিত
সর্বশেষ খবর
চিনিকলের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুরোপুরি নিভতে সময় লাগবে: ফায়ার সার্ভিস
চিনিকলের আগুন নিয়ন্ত্রণে, পুরোপুরি নিভতে সময় লাগবে: ফায়ার সার্ভিস
ভাই-বোনের স্বপ্ন পূরণের রাতে তিন রানের অতৃপ্তি
ভাই-বোনের স্বপ্ন পূরণের রাতে তিন রানের অতৃপ্তি
নতুন জ্ঞান অনুসন্ধানে গবেষকদের প্রতি আহ্বান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের
নতুন জ্ঞান অনুসন্ধানে গবেষকদের প্রতি আহ্বান জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের
ফের ‘লাকি পার্টনার’র সঙ্গে ফারিণ!
ফের ‘লাকি পার্টনার’র সঙ্গে ফারিণ!
সর্বাধিক পঠিত
৩ কারণে কাক কমছে ঢাকায়, পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা
৩ কারণে কাক কমছে ঢাকায়, পরিবেশ বিপর্যয়ের আশঙ্কা
সাত মসজিদ রোডের সব বুফে রেস্তোরাঁ বন্ধ
সাত মসজিদ রোডের সব বুফে রেস্তোরাঁ বন্ধ
গাউসিয়া টুইন পিকের সব রেস্টুরেন্ট সিলগালা
গাউসিয়া টুইন পিকের সব রেস্টুরেন্ট সিলগালা
ভাইভা চলাকালে মেডিক্যাল শিক্ষার্থীর পায়ে গুলি করলেন শিক্ষক
ভাইভা চলাকালে মেডিক্যাল শিক্ষার্থীর পায়ে গুলি করলেন শিক্ষক
শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি খেলাফত মজলিসের
শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি খেলাফত মজলিসের