X
বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
৮ ফাল্গুন ১৪৩০

কলার বাগান থেকে উদ্ধার ২ লাশের পরিচয় মিলেছে, যা বলছে পরিবার

রায়হানুল ইসলাম আকন্দ, গাজীপুর
০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯:৫০আপডেট : ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:০৪

নরসিংদীর রায়পুরায় কলার বাগান থেকে উদ্ধার করা অজ্ঞাত রক্তাক্ত দুই যুবকের লাশের পরিচয় পেয়েছে পুলিশ। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) দিবাগত মধ্যরাতে এবং মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে থানায় উপস্থিত হয়ে ওই দুই যুবকের লাশ শনাক্ত করে পরিবার।

নিহত দুই যুবক হলেন- নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার উত্তর বাখরনগর ইউনিয়নের লোচনপুর গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত আলাউদ্দীনের ছেলে আলী হোসেন (৪২) ও শিবপুর উপজেলার যোশর ইউনিয়নের পাহাড়ফুলদী গ্রামের আবদুল মান্নানের ছেলে দ্বীন ইসলাম (৩৪)। দুর্বৃত্তরা তাদেরকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি কুপিয়ে হত্যার পর লাশ রাতের আঁধারে কোনও একসময় কলাবাগানে ফেলে রেখেছে।

এর আগে, সোমবার দুপুরে উপজেলার আদিয়াবাদ ইউনিয়নের শেরপুর গ্রামের একটি কলার বাগানের ভেতরে আলাদা স্থান থেকে এই দুই যুবকের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। কলার বাগানের এক পাশে ছোট পুকুর ও অন্য পাশ খোলা এবং দুই পাশে শিম ক্ষেত রয়েছে। ওই বাগানের প্রায় এক কিলোমিটার এলাকায় কোনও বাড়িঘর নেই। জমির মালিক ও কৃষিকাজে জড়িতরা ছাড়া ওই বাগানের আশপাশে সাধারণত কেউ চলাচল করেন না বলে জানান স্থানীয়রা।

নিহত দ্বীন ইসলামের স্ত্রী শাহিদা বেগম জানান, তার স্বামী প্রায়ই জুয়া খেলতেন। রবিবার বিকালে তার স্বামীর মোবাইল ফোনে একটি কল এলে ‘বাজারে যাই’ বলে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যান। ওই রাতে বাড়িতে না ফেরায় অনেকবার স্বামীর মোবাইলে কল দিয়ে বন্ধ পান।

তিনি বলেন, ‘সোমবার সারাদিন তার মোবাইল বন্ধ পেয়েছি এবং তার সন্ধানে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেছি। পরে কলার বাগান থেকে অজ্ঞাত দুই যুবকের লাশ উদ্ধারের খবর পেয়ে আজ সকালে রায়পুরা থানায় গিয়ে পরনের কাপড় ও ছবি দেখে স্বামীর লাশ শনাক্ত করি। আমার স্বামী নিয়মিত জুয়া খেলতো। তাই আমি নিশ্চিত, জুয়া খেলার কথা বলে ডেকে নিয়ে তার সহপাঠীরাই টাকার ভাগাভাগি নিয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে থাকতে পারে। আমি আন্দাজে কাকে সন্দেহ করবো? কই গেছে, কার সঙ্গে গেছে, কে ডেকে নিয়েছে, কিছুই তো জানি না। এক ছেলে ও দুই মেয়ে রয়েছে। পুলিশকেই তাদের খুঁজে বের করতে হবে। আমার স্বামী হত্যার খুনিদের বিচার চাই।’

নিহত আলী হোসেনের স্ত্রী রেনু বেগম বলেন, ‘রবিবার বিকালে মোবাইল কল এলে কিছু না বলে দ্রুত বাড়ি থেকে বেরিয়ে পড়ে। রাতে বাড়ি না আসায় বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করি। সোমবার রাতে স্বজনরা আমাকে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়া একটি ছবি দেখালে রাতেই থানায় গিয়ে স্বামীর লাশ শনাক্ত করি।’

তিনি জানান, তার স্বামী দিনমজুরের কাজ করতেন। তবে সুযোগ পেলে প্রায়ই জুয়া খেলতেন। কারও সঙ্গে হয়তো জুয়া খেলা নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে তাকে ডেকে ওই কলার বাগানে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। যারা এভাবে তার স্বামীকে হত্যা করেছে তাদের কঠিন শাস্তি দাবি করেন এই নারী। তাদের সংসারে পাঁচ ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।

রায়পুরা থানার এসআই আবুল কালাম জানান, সোমবার দুপুর আনুমানিক সাড়ে ১২টায় ওই বাগানের সামনে দিয়ে যাচ্ছিলেন স্থানীয় এক কৃষক। এ সময় তিনি বাগানের ভেতর পৃথক স্থানে দুই যুবকের লাশ পড়ে থাকতে দেখে চিৎকারে দেন। ওই কৃষকের চিৎকার শুনে আশপাশের ক্ষেতে কর্মরত কৃষকরা ছুটে আসেন। নিহতদের মুখ মণ্ডলসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের উপর্যুপরি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। জাতীয় জরুরি সেবার (৯৯৯) নম্বরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পৌঁছে সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ নরসিংদী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। লাশের পাশ থেকে একটি দড়ি, এক হাজার টাকার রক্তমাখা একটি নোট এবং ১০ টাকার নোট পাওয়া গেছে।

রায়পুরা থানার ওসি আজিজুর রহমান বলেন, ‘নিহত দুজনের পরিচয় পাওয়া গেছে। সন্ধ্যা পর্যন্ত জোড়া খুনের ঘটনায় কোনও পরিবারের পক্ষ থেকে হত্যার ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পাইনি। ময়নাতদন্ত শেষে মঙ্গলবার দুপুরে লাশ পরিবারের সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। লাশ দাফন শেষে পরিবার মামলা করবে বলে জেনেছি।’

/এফআর/
সম্পর্কিত
সেগুনবাগিচায় বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার
রাজধানীতে শিক্ষার্থীর ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার
৪ মাস আগে বিয়ে, তালাকের পরদিন শৌচাগারে তরুণীর লাশ
সর্বশেষ খবর
‘সুষম উন্নয়ন নিশ্চিতে ঐতিহ্যকে ধারণ করে এগোতে হবে’
‘সুষম উন্নয়ন নিশ্চিতে ঐতিহ্যকে ধারণ করে এগোতে হবে’
ফুল দেওয়াকে কেন্দ্র করে নোয়াখালী প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে হট্টগোল-বিশৃঙ্খলা
ফুল দেওয়াকে কেন্দ্র করে নোয়াখালী প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে হট্টগোল-বিশৃঙ্খলা
ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে বৈঠক করলেন লুলা
ব্লিঙ্কেনের সঙ্গে বৈঠক করলেন লুলা
বিভিন্ন দূতাবাসে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
বিভিন্ন দূতাবাসে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত
সর্বাধিক পঠিত
গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়বে, জানালেন প্রতিমন্ত্রী
গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়বে, জানালেন প্রতিমন্ত্রী
কেন বারবার অকেজো হয় মেট্রো স্টেশনের টিকিট মেশিন?
কেন বারবার অকেজো হয় মেট্রো স্টেশনের টিকিট মেশিন?
চার মাস কারও সঙ্গে দেখা করবেন না খন্দকার মোশাররফ
চার মাস কারও সঙ্গে দেখা করবেন না খন্দকার মোশাররফ
বঙ্গবন্ধুর ছবি মুছে ব্যঙ্গচিত্র, জাবি ছাত্র ইউনিয়নের দুই নেতাকে বহিষ্কার
বঙ্গবন্ধুর ছবি মুছে ব্যঙ্গচিত্র, জাবি ছাত্র ইউনিয়নের দুই নেতাকে বহিষ্কার
‘বড় শাস্তির ভয়ে’ কারাগারে প্রাণ দিলেন হত্যা মামলার আসামি
‘বড় শাস্তির ভয়ে’ কারাগারে প্রাণ দিলেন হত্যা মামলার আসামি