নীলফামারীতে ৩৩৩৭টি মসজিদে ঈদ জামাত

Send
নীলফামারী প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০৬:২৯, মে ২৫, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০৬:৪৫, মে ২৫, ২০২০




স্বাস্থ্যবিধি মেনে জামাতে নামাজ আদায় (ফাইল ছবি)করোনা পরিস্থিতির মধ্যে নীলফামারীর বিভিন্ন মসজিদে তিন দফায় অনুষ্ঠিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতরের জামাত। সোমবার (২৫ মে) সকাল সাড়ে ৭টায় প্রথম জামাত, সাড়ে ৮টা দ্বিতীয় এবং সকাল সাড়ে ৯টায় তৃতীয় জামাত অনুষ্ঠিত হবে।

করোনা সংক্রমণ রোধে এই প্রথম সারা দেশের ন্যায় জেলার ছয় উপজেলায় মোট তিন হাজার ৩৩৭টি মসজিদে অনুষ্ঠিত হবে ঈদুল ফিতরের জামাত। এর মধ্যে নীলফামারী সদরে ৭১৩টি, জলঢাকায় ৬২২টি, কিশোরীগঞ্জে ৫৯৭টি, ডিমলায় ৫১৩টি, ডোমারে ৪৯১টি এবং সৈয়দপুরে ৪০১টি মসজিদ প্রস্তুত করা হয়েছে।

নীলফামারী ইসলামী ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক মো. মারুফ রায়হান বলেন, নীলফামারী জেলায় ঈদের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল সাড়ে সাতটায় নীলফামারী কেন্দ্রীয় বড় মসজিদে। এতে ইমামতি করবেন মওলানা খন্দকার আশরাফুল হক নূরী।

ঈদ জামাতে অংশ নিতে ধর্মপ্রাণ মুসল্লি, মসজিদের ইমাম ও মসজিদ সংশ্লিষ্টদের মানতে হবে সরকারি ১৫ নির্দেশনা। ইতোমধ্যে প্রত্যেক মসজিদে সেই নির্দেশনা পাঠিয়ে সর্ব সাধারণকে নির্দেশ মানতে জেলা জুড়ে মাইকিং করেছে জেলা প্রশাসন।

নীলফামারী জেলা প্রশাসক মো. হাফিজুর রহমান চৌধুরী বলেন, সরকারি নির্দেশনা মতে করোনা সংক্রমণ এড়াতে এবারই প্রথম ঈদগাহ বা খোলা জায়গার পরিবর্তে মসজিদে ঈদের জামাত আয়োজন করা হয়েছে। এজন্য প্রত্যেক মসজিদ জীবাণুনাশক দ্বারা জীবাণুমুক্ত করা হচ্ছে। জামাতে অংশ গ্রহণের ক্ষেত্রে প্রত্যেক মুসল্লিকে নিজ নিজ বাড়ি থেকে ওযু সেরে, মুখে মাস্ক পড়ে এবং জায়নামাজ নিয়ে আসার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

প্রতিটি মসজিদের এক কাতার অন্তর অন্তর কাতার তৈরি এবং নামাজ আদায়ের সময় কাতারে দাঁড়ানোর ক্ষেত্রে মুসল্লিদের শারীরিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতের জন্য সংশ্লিষ্ট মসজিদ কমিটি ও ইমামদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া শিশু, বৃদ্ধ, অসুস্থ ব্যক্তি এবং তাদের সেবায় নিয়োজিত ব্যক্তিদের ঈদ জামাতে অংশ না নেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এমনকি করোনা সংক্রমণ রোধে মসজিদের জামাত শেষে একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি ও হাত মেলাতেও নিষেধ করা হয়েছে।

এসব নির্দেশনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে জেলা তথ্যদফতর গত ২২ মে থেকে মাইকিং করে সাধারণ মানুষকে সচেতন করেছে। এমনকি ঈদের দিন মাঠে প্রশাসনের লোকজন কাজ করবেন বলেও জানান জেলা প্রশাসক।

 

/টিটি/

লাইভ

টপ