বড়াইগ্রামে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে খ্রিস্টান নারীর আত্মহত্যা!

Send
নাটোর প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০১:১৬, জুলাই ১২, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:২০, জুলাই ১২, ২০২০

নাটোরে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে এই নারী আত্মহত্যা করেন বলে পুলিশের দাবি।

নাটোরের বড়াইগ্রাম উপজেলার  বনপাড়া বাহিমালী গ্রামে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে এক খ্রিস্টান নারী আত্মহত্যা করেছেন। নিহত ওই নারীর নাম জেনি বেবী কস্তা (৪৫)।  শনিবার দুপুর ২টার পর ভাইয়ের বাসায় তার শয়ন কক্ষের দরজা ভেঙে পুলিশ ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার করে।

স্বামীর সঙ্গে ডিভোর্সের পর প্রায় ১৬ বছর যাবত তিনি  ঢাকায় চাকরির পাশাপাশি বনপাড়ায় ভাই-ভাবির সঙ্গে বসবাস করতেন।

তিনি ওই গ্রামের মৃত আব্রাহাম কস্তার মেয়ে।

বড়াইগ্রাম থানার ওসি দিলীপ কুমার দাস বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, রবিবার নিহতের মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য নাটোর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে।

ওসি দিলীপ কুমার দাস আরও জানান,  ১৬ বছর আগে স্বামীর সঙ্গে ছাড়াছাড়ি হয়ে গেলে জেনি বেবী কস্তা আর বিয়ে করেননি। তিনি ঢাকায় একটি প্রাইভেট কোম্পানিতে চাকরি করতেন। করোনা পরিস্থিতির কারণে গত তিন মাস যাবত তিনি গ্রামের বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। শনিবার বিকেলে ওড়না দিয়ে ফাঁস দেওয়া অবস্থায় তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে ফেসবুকে আবেগময় স্ট্যাটাস দেন তিনি। পোস্টে তিনি লিখেছিলেন, ‘আমি মরে গেলে তোরা এগুলো দেখিস।’ এর নিচে তার নিজের বেশ কয়েকটি ছবি জুড়ে দেন তিনি।

ওসি আরও জানান, ওই নারীর ফেসবুক আইডি থেকে তার অতীতের বেশ কিছু পোস্ট করা ছবি ও স্ট্যাটাস বিশ্লেষণ করা হচ্ছে। স্ট্যাটাসগুলো পড়ে ওই নারীকে ভীষণ আবেগ প্রবণ মনে হচ্ছে। তবে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, দুশ্চিন্তা আর একাকীত্ব থেকেই তিনি এমন কাজ করতে পারেন। তদন্তের পর প্রকৃত বিষয় জানা যাবে।

/টিএন/

লাইভ

টপ