পাবনায় আদালতের কর্মীদের মারধর, ইউপি চেয়ারম্যানসহ গ্রেফতার ৩

Send
পাবনা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ০১:৪৭, আগস্ট ১৩, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ০১:৫৬, আগস্ট ১৩, ২০২০

পাবনায় আদালতের কর্মীদের মারধরের অভিযোগে দুই সহযোগীসহ সাঁথিয়া উপজেলার নন্দনপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল ইসলাম লিটন মোল্লাকে গ্রেফতার করেছে কোর্ট পুলিশ। বুধবার (১২ আগস্ট) দুপুরে এ ঘটনা ঘটে। তারা ফৌজদারি মামলার জামিন চাইতে পাবনার জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে গিয়েছিলেন।

গ্রেফতার অপর দু’জন হলেন নন্দনপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য আবুল কালাম আজাদ ও চেয়ারম্যানের সহযোগী জয়নুল শেখ। পরে তাদের আদালত কক্ষ থেকে কারাগারে পাঠানো হয়।

চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের (পেশকার) কর্মকর্তা মো. রেজাউল করিম জানান, চেয়ারম্যান ও তার দুই সহযোগী ফৌজদারি মামলার জামিন চেয়ে আদালতে এসেছিলেন। তারা আদালতের কক্ষের সামনে আদালতের মেসেঞ্জার মজিবর রহমানকে মারধর করলে পুলিশ তাদের গ্রেফতার করে।

এ বিষয়ে সাঁথিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. আমিনুল ইসলাম জানান, এলাকায় প্রভাবশালী হওয়ার কারণে গত রবিবার (৯ আগস্ট) বিকালে নন্দনপুর বাজার এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান লিটন মোল্লা ও ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা হেলাল উদ্দিনের নেতৃত্বে স্থানীয় আওয়ামী লীগের দু’পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ইউপি চেয়ারম্যানের ভাই জহুরুল ইসলামকে আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলিসহ গ্রেফতার করে। পরে এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান ও তার ভাইকে আসামি করে সাঁথিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। চেয়ারম্যান ও তার লোকেরা সেই মামলার জামিন চাইতে আদালতে গিয়েছিলেন।

 

 

/টিটি/

লাইভ

টপ