ইউপি সদস্যকে পেটানোর অভিযোগ চেয়ারম্যান ও তার ছেলের বিরুদ্ধে

Send
বেনাপোল প্রতিনিধি
প্রকাশিত : ১৬:৪৬, অক্টোবর ২৮, ২০২০ | সর্বশেষ আপডেট : ১৭:০৩, অক্টোবর ২৮, ২০২০

সম্রাট ও রশিদ চেয়ারম্যান

 

যশোরের শার্শা উপজেলার ৬ নম্বর গোগা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তার দুই ছেলেকে নিয়ে ইউপি সদস্য বাবুল হোসেনকে জনসম্মুখে পিটিয়ে মারাত্মক আহত করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয়রা জানান, আহত বাবুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠাতে চাইলেও তারা পাঠাতে দেয়নি। পরে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের হস্তক্ষেপে তাকে যশোর কুইন্স হসপিটালে ভর্তি করা হয়।

বুধবার (২৮ অক্টোবর) বাবুল মেম্বারের স্ত্রী রাজিয়া খাতুন বলেন, 'আমার স্বামীর মাথায় প্রচণ্ড আঘাতের কারণে যশোর কুইন্স হাসপাতাল থেকে সিটি স্ক্যান করার পর যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।'

গোগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন, ইউপি সদস্য তবিবার রহমান ও স্থানীয় গ্রামবাসী লুৎফর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান- রশিদ চেয়ারম্যানের ছেলে সম্রাট একজন চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী। তার নামে মাদক ব্যবসার মামলাও আছে শার্শা থানায়।

এসব বিষয়ে আব্দুর রশিদ চেয়ারম্যানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'একটি ঘটনা ঘটেছে, তবে আমরা সেটা পরিষদে বসে মিটমাট করার চেষ্টা করছি।'

এলাকার লোকজন জানান, গোগা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ নিজেই চাঁদাবাজি, লুটপাট, দস্যুতা, মাদক ব্যবসার হোতা। তার ছেলে সম্রাট হোসেন আরও বেপরোয়াভাবে মাদক ব্যবসাসহ নানান অপকর্মে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত। আর এসব কর্মকাণ্ডের ভাগাভাগি নিয়েই মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরে গোগা বাজারে মারপিটের ঘটনা ঘটেছে।

এ ব্যাপারে শার্শা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বদরুল আলম এর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, 'আমাদের কাছে এখনও কোনেও অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।'



/এএইচ/

লাইভ

টপ