X
সোমবার, ২৭ জুন ২০২২
১৩ আষাঢ় ১৪২৯

এক পায়ে লিখে এইচএসসি পাস করলেন ফজলু

আপডেট : ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২, ১৬:৪৯

জন্মগতভাবে দুই হাত ও একটি পা নেই ফজলুর রহমানের। তবে দমে যাননি। এক পায়ের আঙুল দিয়ে লিখে এবার এইচএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছেন তিনি।

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলার ধুকুরিয়াবেড়া ইউনিয়নের চরগোপালপুর গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে ফজলুর। বাড়ি থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার হেঁটে গিয়ে মিটুয়ানী উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেছেন। ওই স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ ৩.৫৬ পেয়ে পাস করেন। বেলকুচির দৌলতপুর ডিগ্রি কলেজ থেকে এবারের এইচএসসি পরীক্ষায় ২.৭৫ পেয়েছেন। তার বোন আসমাও এবার এইচএসসিতে জিপিএ ৩.৩৩ পেয়ে পাস করেছেন।

ফজলুর রহমান বলেন, ‘অনেক কষ্টে এক পা দিয়ে লাফিয়ে স্কুলে গিয়েছি। বই-খাতা-কলম আসমা নিয়ে যেত। সে না গেলে আমার স্কুলে যাওয়া হতো না। এই রেজাল্ট করতে পেরে আমি খুশি। তবে অভাব তাকে সবসময়ই তাড়িয়ে বেড়ায়। একটি চাকরি আমার জীবনের পরিবর্তন করে দিতে পারে। সবার সহযোগিতায় আমি আরও এগিয়ে যেতে চাই।’

ফজলুর বাবা সাহেব আলী বলেন, ‘দিনমজুরি করে কোনোরকম সংসার চালাই। এর মধ্যে সন্তানদের পড়াশোনার খরচ জোগাবো কীভাবে? টাকার অভাবে সন্তানদের কোনোদিন প্রাইভেট পড়াতে পারিনি, বইও কিনে দিতে পারিনি। ফজলুর নামে একটি প্রতিবন্ধী ভাতা কার্ড আছে। তা দিয়েই ওর লেখাপড়ার খরচ চলে। ৯ সদস্যের সংসার আমার একার উপার্জনের ওপর নির্ভরশীল।’

তিনি আরও বলেন, ‘২০১৭ সালে ফেসবুকের মাধ্যমে জানতে পেরে ৭৬ হাজার টাকা সংগ্রহ করে দিয়েছিলেন মামুন বিশ্বাস নামে একজন। সেই টাকা দিয়েই পড়াশোনা করছে আমার ছেলে। এই টাকাটা না হলে হয়তো সে পড়তেই পারতো না।’

ফজলুর মা সারা খাতুন বলেন, ‘২০০০ সালে ফজলুর জন্ম নেয়। তাকে লেখাপড়ায় সাহায্য করে ছোট মেয়ে আসমা। কিছু কিছু কাজ নিজেই করতে পারে। কিছু কাজে তাকে সাহায্য করতে হয়।’

দৌলতপুর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মাসুদ রানা বলেন, ফজলু লেখাপড়ায় ভালো, স্মরণশক্তি প্রখর। পড়াশোনা চালিয়ে যেতে তার সহযোগিতা দরকার। এজন্য সমাজের বিত্তশালীদের এগিয়ে আসা উচিত।

সমাজকর্মী মামুন বিশ্বাস বলেন, ফজলুর পড়াশোনার প্রবল আগ্রহ দেখে ৭৬ হাজার টাকা অনুদান তুলে দিয়েছিলাম। এই টাকা দিয়ে তার এতদিন লেখাপড়া চলেছে। ফজলুর পড়াশোনার ইচ্ছা রয়েছে। সহযোগিতা পেলে সে ভালো কিছু করতে পারবে।

/এসএইচ/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
পদ্মা সেতু পারাপারে দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান
পদ্মা সেতু পারাপারে দায়িত্বশীল হওয়ার আহ্বান
আখ মাড়াইয়ের যন্ত্রে আটকে গেলো রস বিক্রেতার হাত
আখ মাড়াইয়ের যন্ত্রে আটকে গেলো রস বিক্রেতার হাত
চলন্ত গাড়িতে মা ও মেয়েকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ
চলন্ত গাড়িতে মা ও মেয়েকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ
বদলেছে চিত্র, যানবাহনের অপেক্ষায় থাকছে ফেরি
বদলেছে চিত্র, যানবাহনের অপেক্ষায় থাকছে ফেরি
এ বিভাগের সর্বশেষ
চার দাবিতে বিড়ি শ্রমিকদের মানববন্ধন
চার দাবিতে বিড়ি শ্রমিকদের মানববন্ধন
উদ্বোধনের আগেই ১২৯ কোটি টাকার সড়কে ফাটল
উদ্বোধনের আগেই ১২৯ কোটি টাকার সড়কে ফাটল
পাবনায় ৩ শিশুর নাম রাখা হলো পদ্মা-সেতু ও উদ্বোধন
পাবনায় ৩ শিশুর নাম রাখা হলো পদ্মা-সেতু ও উদ্বোধন
পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ
পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক কারাগারে
ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় সাংবাদিক কারাগারে