X
মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০২৪
৩ বৈশাখ ১৪৩১

৫ বছর মাকে কাঁধে নিয়ে ঘুরছে কিশোর ছেলে, এগিয়ে এলেন পুলিশ কর্মকর্তা

রংপুর প্রতিনিধি
১৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৪৫আপডেট : ১৩ ডিসেম্বর ২০২২, ১০:৪৫

প্যারালাইসিসে পঙ্গু হওয়া মা আজিদাকে দীর্ঘ পাঁচ বছর ধরে ঘাড়ে নিয়ে রংপুর নগরীতে আসছে কিশোর ছেলে মোস্তাকিন। মাকে ঘাড়ে নিয়েই নগরীর বিভিন্ন এলাকায় ভিক্ষা করতো এই কিশোর। সারাদিন ভিক্ষা করে যা পায় তা দিয়েই চলে তাদের সংসার। জীবনযুদ্ধে টিকে থাকতে ১৪ বছর বয়সী কিশোরের এই সংগ্রাম চলছে পাঁচ বছর ধরে। তবে মা-ছেলের এই করুণ দশা দেখে পাশে দাঁড়ালেন রংপুর সদর কোর্টের সহকারী টাউন সাব ইন্সপেক্টর (এটিসিএসআই) শেখ মোস্তাফিজার রহমান।

নিজের বেতনের টাকা দিয়ে সোমবার (১২ ডিসেম্বর) এই পুলিশ কর্মকর্তা মোস্তাকিনের মায়ের জন্য একটি হুইল চেয়ার কিনে দিয়েছেন। নিজেই ওই নারীকে চেয়ারটিতে বসিয়ে দিলেন। রংপুর প্রেসক্লাব বিপণী বিতানে এই উপহার দেওয়ার সময় রংপুরের প্রবীণ সাংবাদিক আব্দুস সাহেদসহ গণমাধ্যম কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। মায়ের জন্য চেয়ার পেয়ে হাসি ফোটে মোস্তাকিনের মুখে।

মোস্তাকিন জানায়, তার বয়স যখন ছয় মাস তখন তার বাবা মোস্তফা মারা যান। বাবার চেহারাটা তার মনে নেই, স্মরণও করতে পারে না। তারা দুই ভাই-বোন। বড় বোনের বিয়ে হয়ে গেছে। সে অন্যত্র থাকে। সহায় সম্বলহীন মা আদিজাসহ রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর গোপালপুর গুচ্ছ গ্রামে থাকে। ছোট্ট একটি টিনের ঘরে মা-ছেলে থাকে। ৬ বছর আগে তার মা আজিদা স্ট্রোক করলে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তির কিছু দিনের মধ্যে পুরোপুরি পঙ্গু হয়ে যায়। হাঁটাচলা একেবারেই করতে পারেন না। এরপর আট বছর বয়সী মোস্তাকিন অনাহারে অর্ধাহারে মানবেতর দিন কাটাতে থাকে। মায়ের চিকিৎসার জন্য ওষুধ কেনা নিজেদের খাওয়া এসব চিন্তা করে মাকে ঘাড়ে করে এই বয়সেই ভিক্ষা শুরু করে।

৫ বছর মাকে কাঁধে নিয়ে ঘুরছে কিশোর ছেলে, এগিয়ে এলেন পুলিশ কর্মকর্তা

সে আরও জানায়, প্রথমদিকে গ্রামে ভিক্ষা করতো। গত পাঁচ বছর ধরে রিকশাভ্যানে করে প্রতিদিন সকালে রংপুরে আসে। দিনভর মাকে ঘাড়ে করে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় দিনভর ভিক্ষা করে। দিনে ৩০০/৪০০ টাকা আবারও কখনও বেশি আয় হয়। তা দিয়ে মা-ছেলের দুবেলা আহার জোটে।

এটিসিএসআই শেখ মোস্তাফিজার রহমান জানান, তিনি প্রায় লক্ষ্য করেন তার ছেলে বয়সী এক কিশোর প্যারালাইসিসে আক্রান্ত হয়ে পুরোপুরি পঙ্গু বৃদ্ধ মাকে তার ঘাড়ে তুলে আদালত পাড়াসহ শহরের বিভিন্ন এলাকায় মানুষের কাছে ভিক্ষা চায়। দীর্ঘ সময় ধরে ঘাড়ে বেড়াতে তার প্রচণ্ড কষ্ট হলেও মায়ের ভারকে তুচ্ছ মনে করে দিনভর এভাবে ভিক্ষা করে ছেলেটি। এ দৃশ্য অনেক দিন ধরে লক্ষ্য করে আসছিলেন।

তিনি জানান, মোস্তাকিনের মতো তার নিজের একটি সন্তান আছে। ওই বয়সে বৃদ্ধা মাকে ঘাড়ে করে দিনভর ঘুরে ভিক্ষা করার বিরল দৃশ্য তাকে প্রচণ্ড ব্যথা দেয়। এতে নিজের বেতনের টাকা থেকে সাত হাজার টাকা দিয়ে হুইল চেয়ার কিনে দেন।

/এফআর/
সম্পর্কিত
গাজায় বন্দর স্থাপনে জাহাজ পাঠালো যুক্তরাজ্য
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ছেলের মাসব্যাপী সেহরি বিতরণ
কুড়িয়ে পাওয়া সাড়ে চার লাখ টাকা ফিরিয়ে দিলেন ইজিবাইকচালক
সর্বশেষ খবর
টিভিতে আজকের খেলা (১৬ এপ্রিল, ২০২৪)
টিভিতে আজকের খেলা (১৬ এপ্রিল, ২০২৪)
আদালতে হাজির হয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘এটি কেলেঙ্কারির বিচার’
আদালতে হাজির হয়ে ট্রাম্প বললেন, ‘এটি কেলেঙ্কারির বিচার’
পর্যটকদের মারধরের অভিযোগ এএসপির বিরুদ্ধে
পর্যটকদের মারধরের অভিযোগ এএসপির বিরুদ্ধে
২৭ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শাহীদা, পূরণ হয়নি যে আশা
২৭ বছর পর বাড়ি ফিরলেন শাহীদা, পূরণ হয়নি যে আশা
সর্বাধিক পঠিত
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
কিছু আরব দেশ কেন ইসরায়েলকে সাহায্য করছে?
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
সরকারি চাকরির বড় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি, আবেদন শেষ ১৮ এপ্রিল
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
বান্দরবা‌নে বম পাড়া জনশূ‌ন্য, অন্যদিকে উৎসব
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
শেখ হাসিনাকে নরেন্দ্র মোদির ‘ঈদের চিঠি’ ও ভারতে রেকর্ড পর্যটক
ঈদের সিনেমা: হলে কেমন চলছে, দর্শক কী বলছে
ঈদের সিনেমা: হলে কেমন চলছে, দর্শক কী বলছে