X
বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২
২২ আষাঢ় ১৪২৯

জাফলংয়ে প্রবেশ ফি বৈধ নাকি অবৈধ, স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ দিলো কারা?

আপডেট : ০৬ মে ২০২২, ০১:৩৬

সিলেটের প্রাকৃতিক পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে হাজারো পর্যটক বেড়াতে আসতেন। কিন্তু করোনার ধাক্কায় সিলেটের পর্যটন এখন প্রায় ধ্বংসের মুখে। এবার যখন পর্যটন কেন্দ্রগুলো ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে ঠিক তখন টিকিট কাটাকে কেন্দ্র করে পর্যটকদের লাঠিপেটার ঘটনা ঘটেছে। সিলেটকে পর্যটকবঞ্চিত করতে একটি চক্র ষড়যন্ত্র করে এ ঘটনা ঘটিয়েছে বলে দাবি সুশীল সমাজের। 

তারা স্বেচ্ছাসেবক নাকি চাঁদাবাজ, কীভাবে তারা পর্যটন কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনের অনুমতি পেলো, কোনও সন্ত্রাসী বাহিনী তাদের মদদ দিচ্ছে কিনা এসব বিষয় খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছে সিলেটের সচেতন মহল।

পর্যটকদের লাঠিপেটার ঘটনায় ক্ষোভ জানিয়ে সচেতন মহলের লোকজন বলছেন, সিলেটের প্রাকৃতিক পর্যটন কেন্দ্রগুলোতে আগত পর্যটকদের কাছ থেকে উপজেলা প্রশাসন যেভাবে চাঁদা আদায় করছে তা বন্ধ করতে হবে। এসব টাকা উপজেলা প্রশাসন কোথায় ব্যয় করে? জেলার পর্যটন শিল্পের কোথায় উন্নয়ন করেছে তারা? কোথায় নিরাপত্তা নিশ্চিত করেছে? এসব বিষয় কমিটি গঠন করে তদন্ত করে দেখতে হবে।

আরও পড়ুন: জাফলংয়ে পর্যটকদের লাঠিপেটা করেছেন স্বেচ্ছাসেবকরা 

বৃহস্পতিবার দুপুর আড়াইটার দিকে টিকিট কাটাকে কেন্দ্র করে জাফলংয়ে পর্যটকদের লাঠিপেটা করেন উপজেলা প্রশাসনের টোল কাউন্টারে নিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবকরা। এ সময় নারী পর্যটকদের লাঞ্ছিত করেন তারা।

সিসিকের ১৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর শওকত আমীন তৌহিদ বলেন, ‘সরকারি অনুমতি ছাড়া কীভাবে টোলের নামে চাঁদা আদায় করছে উপজেলা প্রশাসন? তারা কি টোল নির্ধারণ করতে পারে? এসব টাকা কোন কাজে ব্যয় করছে? এভাবে তারা চাঁদা আদায় করতে পারে না। কারণ পর্যটন শিল্পকে রক্ষায় সরকার বদ্ধপরিকর। সরকারই টোল নির্ধারণ করবে। তার জন্য টেন্ডার প্রক্রিয়া রয়েছে। অথচ টোলের নামে চাঁদা আদায় করতে গিয়ে পর্যটকদের লাঠিপেটা করেছেন টোল কাউন্টারের স্বেচ্ছাসেবকরা। আমার প্রশ্ন হলো, তারা স্বেচ্ছাসেবক নাকি কোনও সন্ত্রাসী বাহিনী? কারা তাদের এই কাজে নিয়োগ দিয়েছে? কীভাবে দিয়েছে, এসব খতিয়ে দেখা দরকার।’

জাফলংয়ে ঢুকতে ১০ টাকা ‘প্রবেশ ফি’ চালু করা হয়েছিল

সিলেট চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির পরিচালক আব্দুর রহমান জামিল বলেন, ‘ঘটনাটি ন্যক্কারজনক। কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। হামলাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাই। সেই সঙ্গে এভাবে টোল আদায় কতটুকু যৌক্তিক সেটি খতিয়ে দেখার জন্য তদন্ত কমিটি গঠন করা প্রয়োজন। কারণ কেউ চাইলে এভাবে টোল নির্ধারণ করতে পারে না।’

সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সিলেটের সভাপতি ফারুক মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘পর্যটন কেন্দ্রে পর্যটকদের যেভাবে লাঠিপেটা করা হয়েছে, তা কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ওই ভিডিও আমি দেখেছি। হামলার ধরন দেখে বোঝা যায়, উপজেলা প্রশাসন স্বেচ্ছাসেবক নামে সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়োগ দিয়েছে। বিভিন্ন জেলায় পর্যটন কেন্দ্রে টোল না থাকলেও কেন এই উপজেলায় টোল নির্ধারণ করা হয়েছে, তা তদন্ত করে দেখা দরকার।’

আরও পড়ুন: পর্যটকদের লাঠিপেটার ঘটনায় ২ স্বেচ্ছাসেবক আটক

সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন বলেন, ‘সিলেট থেকে পর্যটক বিমুখ করতে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। হামলায় জড়িতরা কারা? তাদের পেছনে কারা? সবাইকে আইনের আওতায় আনতে হবে। একই সঙ্গে টোল আদায়ের নামে চাঁদাবাজি বন্ধ করতে হবে।’ 

সিলেটের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন বলেন, ‘এ ঘটনায় জড়িত দুই স্বেচ্ছাসেবকসহ পাঁচ জনকে ইতোমধ্যে আটক করেছে পুলিশ। তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পর্যটকদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়েও কাজ করছে পুলিশ। যদি ঘটনায় আরও কেউ জড়িত থাকে তাদেরও আটক করা হবে।’

গোয়াইনঘাট থানার ওসি নজরুল ইসলাম বলেন, ‘অভিযান চালিয়ে পর্যটকদের ওপর হামলার ঘটনায় পাঁচ জনকে আটক করেছে পুলিশ।’

পর্যটকদের লাঠিপেটা করেছেন উপজেলা প্রশাসনের টোল কাউন্টারে নিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবকরা

এসব বিষয়ে জানতে চাইলে গোয়াইনঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) তাহমিলুর রহমান বলেন, ‘স্থায়ীভাবে কোনও স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ দেওয়া হয়নি। মাস্টাররোলের মতো স্বেচ্ছাসেবকরা কাজ করছে। তাদের নির্ধারিত বেতন নেই। যখন পর্যটক বেশি আসে তখন পর্যটকদের সুবিধার্থে স্বেচ্ছাসেবক বাড়ানো হয়। আজ যে ছেলেটি ঘটনা ঘটিয়েছে সে অতিরিক্ত আসা স্বেচ্ছাসেবকদের একজন। তার সঙ্গে আরও এক স্বেচ্ছাসেবক ছিল। তাদের বরখাস্ত করা হয়েছে। দুজনকে আটক করে থানায় নিয়ে গেছে পুলিশ।’

পর্যটকদের সুবিধার্থে নিয়োজিত করার আগে এসব স্বেচ্ছাসেবককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় কিনা জানতে চাইলে ইউএনও বলেন, ‘পর্যটন বিষয়ে তাদের কোনও প্রশিক্ষণ দেওয়া হয় না।’ তাহলে কীভাবে পর্যটকদের সেবায় তাদের নিয়োজিত করছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘প্রশিক্ষণ ছাড়াই নিয়োজিত করা হয়। জাফলংয়ে পর্যটক বাড়ায় ২৭ স্বেচ্ছাসেবক রাখা হয়েছে।’ 

আরও পড়ুন: পর্যটকদের লাঠিপেটার পর এক সপ্তাহ জাফলংয়ে প্রবেশ ফ্রি 

পর্যটন স্পটে উপজেলা প্রশাসন টোল নির্ধারণ করতে পারে কিনা জানতে চাইলে ইউএনও বলেন, ‘এটি জেলা পর্যটন উন্নয়ন কমিটি জানে। পর্যটন এলাকা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য ১০ টাকা মূল্যের টিকিটের ব্যবস্থা রেখেছে তারা। তারাই টোল নির্ধারণ করেছে। এই টাকা পর্যটন শিল্পের উন্নয়নের ব্যয় হয়। এটি বৈধ নাকি অবৈধ তা জানে জেলা প্রশাসন।’

আটককৃত দুই স্বেচ্ছাসেবক

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, জাফলংয়ে বেড়াতে যাওয়া পর্যটকদের নিরাপত্তায় ২০২১ সালে তিনটি বিশেষ পয়েন্ট নির্ধারণ করা হয়। একই বছরের ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে এসব পয়েন্ট দিয়ে জাফলংয়ে ঢুকতে ১০ টাকা ‘প্রবেশ ফি’ চালু করা হয়েছিল। তখন থেকে জেলা পর্যটন উন্নয়ন কমিটির মাধ্যমে এটি তদারক করছে গোয়াইনঘাট উপজেলা প্রশাসন।

জেলা প্রশাসক মজিবর রহমান বলেন, ‘আগামী সাত দিন জাফলংয়ে প্রবেশ ফ্রি করা হয়েছে। এই সংক্রান্ত নির্দেশনা দিয়েছি।’ তবে কীভাবে পর্যটন স্পটে জেলা প্রশাসন টোল নির্ধারণ করেছে তা জানাননি জেলা প্রশাসক।

স্থানীয় সূত্র ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, সিলেট থেকে একটি পরিবার জাফলংয়ে বেড়াতে আসে। জাফলং ট্যুরিস্ট স্পটে প্রবেশ করতে চায় তারা। এ সময় উপজেলা প্রশাসনের টোল কাউন্টারে টিকিট কাটা নিয়ে তাদের সঙ্গে বাগবিতণ্ডা হয় সেখানে নিযুক্ত স্বেচ্ছাসেবকদের। এর জের ধরে নারী-পুরুষসহ ছয় পর্যটকের হামলা চালান স্বেচ্ছাসেবকরা। এ সময় তাদের লাঠিপেটা করেন তারা। এতে তিন পর্যটক আহত হয়েছেন।

ঢাকা থেকে সিলেটে ঘুরতে আসা মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘জাফলং সবার জন্য উন্মুক্ত করা হোক। প্রবেশ ফি বাতিল করা হোক। কই কক্সবাজার কিংবা রাঙামাটির কোনও পর্যটন কেন্দ্রে তো প্রবেশ ফি নেই।’

/এএম/
বাংলা ট্রিবিউনের সর্বশেষ
নববধূ সেজে ইয়াবা কিনতে ঢাকা থেকে টেকনাফে
নববধূ সেজে ইয়াবা কিনতে ঢাকা থেকে টেকনাফে
ফেল নয়, বাছাই করে শিক্ষার্থী নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো: শিক্ষামন্ত্রী
ফেল নয়, বাছাই করে শিক্ষার্থী নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো: শিক্ষামন্ত্রী
পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার পাশে দুর্ঘটনায় এমপির এপিএসসহ আহত ৩
পদ্মা সেতুর টোল প্লাজার পাশে দুর্ঘটনায় এমপির এপিএসসহ আহত ৩
বাড়ির গ্যারেজে লুকানো ছিল ২৭ কোটি টাকা মূল্যের রোলস রয়েস
বাড়ির গ্যারেজে লুকানো ছিল ২৭ কোটি টাকা মূল্যের রোলস রয়েস
এ বিভাগের সর্বশেষ
‘বিএনপি আন্দোলনে আছে, ত্রাণ বিতরণও একটা আন্দোলন’
‘বিএনপি আন্দোলনে আছে, ত্রাণ বিতরণও একটা আন্দোলন’
রশিদ ছাড়া হাসিল আদায়
রশিদ ছাড়া হাসিল আদায়
ধোপাদীঘির ল্যাম্পপোস্ট খুলেছে কারা কর্তৃপক্ষ, বিকালে বসে সমাধান
ধোপাদীঘির ল্যাম্পপোস্ট খুলেছে কারা কর্তৃপক্ষ, বিকালে বসে সমাধান
ট্যুরিস্ট পু‌লি‌শের ছু‌টি বা‌তিল
ট্যুরিস্ট পু‌লি‌শের ছু‌টি বা‌তিল
‘বন্যায় যাদের ঘর ভেঙেছে তাদের পাকা ঘর দেওয়া হবে’
‘বন্যায় যাদের ঘর ভেঙেছে তাদের পাকা ঘর দেওয়া হবে’