X
মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২
১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
‘অপারেশন সুন্দরবন’ নিয়ে বিস্ফোরক সহকারী পরিচালক

তানিন বাসায় এলো, অভিমানের গল্প শেষ হলো: দীপংকর দীপন

সুধাময় সরকার
২১ সেপ্টেম্বর ২০২২, ২১:১৩আপডেট : ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:৫৪

প্রায় একুশ ঘণ্টার অপারেশন শেষে একটা সুন্দরবনের খোঁজ পেলেন নির্মাতা দীপংকর দীপন ও তার সহকারী তানিন খান। অনেক দিন পর এই (২১ সেপ্টেম্বর রাত ৮টা নাগাদ) সন্ধ্যায় ফের দেখা হলো গুরু-শিষ্যর। একে অপরের সঙ্গে নিজেদের দুঃখ আর অপারগতা প্রকাশ করলেন। হাসতে হাসতে ফ্রেমবন্দি হলেন। ধুয়ে গেলো সুন্দরবনের ভেতরে ২১ ঘণ্টা ধরে প্রবাহিত কাদা-জল।

২০ সেপ্টেম্বর রাতে একটি দীর্ঘ পোস্ট করেন ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির অন্যতম সহকারী পরিচালক তানিন খান। অভিযোগ তোলেন নির্মাতা দীপংকর দীপন আর র‌্যাবের প্রতি। মূল অভিযোগ, পরিশ্রম করেও পারিশ্রমিক না পাওয়া। সেটির রেশ ধরে বুধবার বাংলা ট্রিবিউন প্রকাশ করে প্রতিবেদন। ঠিক তার ঘণ্টাখানেকের মাথায় দীপংকর দীপনের বাসায় হাজির হন তানিন খান। সঙ্গে তার প্রতিবাদী ফেসবুক পোস্ট মুছে দেন। মুছে ফেলেন মনের ভেতরে জমা সকল খেদ।

এ প্রসঙ্গে দীপন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘আমি দুপুর থেকেই বলছিলাম, ও (তানিন) অভিযোগ করেছে ঠিক আছে। কিন্তু সেটি খণ্ডাতে হলে তো ওকে পেতে হবে। ওকে আমি ফোনে পাচ্ছিলাম না। অবশেষে ও নিজেই সন্ধ্যার পর আমাকে বিস্মিত করে বাসায় হাজির হলো। বললো, ওর মনে জমা অভিমানের গল্প। এবং আমি ওর এই অভিমান বা ইমোশনকে রেসপেক্ট করি। কারণ, ইমোশন তো একজন ফিল্মমেকারেরই থাকার কথা। এটা না থাকলে সে কীসের মেকার?’

তানিন খানের এই ইমোশনের দায়ভার দীপন নিজের কাঁধেও নেন। বলেন, ‘দেখুন যে ছেলেটা আমার ইউনিটে একদিন হলেও কাজ করেছে, আমি তার নামটাও ছবির ক্রেডিট লাইনে দিয়েছি। ওর (তানিন) নামটাও আছে। ওর আসলে মূল অভিমানের জায়গাটা হচ্ছে, আমরা একটা প্রিমিয়ার শো করেছি গতকাল (২০ সেপ্টেম্বর); সেটাতে দাওয়াতই পায়নি। আমি ওর জায়গায় হলে আমারও অনেক কষ্ট হতো। কিন্তু সমস্যাটা হচ্ছে আমি নিজেই ঢাকায় নেমেছি প্রিমিয়ারের একটু আগে। ফলে সবাইকে ধরে ধরে যে দাওয়াতটা দেবো, সেই সুযোগটাই পাইনি। কিন্তু ও তো ছোট মানুষ। ও তো আর এতসব বুঝতে চাইবে না। তাই অভিমান করে আরও অনেক কিছু মিলিয়ে একটা স্ট্যাটাস দিয়েছে। এবং সে তার ভুলটা ফিল করেছে। দিনশেষে, আমাদের অভিমানের গল্প শেষ হলো। এটাই বড় কথা।’

‘সিনেমাটি এতদিন ধরে চলেছে, অনেকে বিভিন্ন পেশাগত কারণে সিনেমাটার সাথে থাকতে পারেনি। নিজের সিনেমা, তাই চার বছর থেকে কষ্ট করে লেগে আছি আমি। এক বছরের রেমুনারেশনে চার বছর ধরে কাজ করছি। অনেকেই সেটা পারেনি, পেশাগত কারণে তানিন অনেক দিন ধরেই আমার টিম থেকে দূরে। তাই আমাদের এই গ্যাপটা হয়েছে’, যোগ করলেন ক্যাপ্টেন ‘অপারেশন সুন্দরবন’।

এদিকে তানিন খানের সব পাওনা এরমধ্যে র‍্যাব ওয়েলফেয়ার কো-অপারেটিভ সোসাইটি লি. থেকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে নিজের দেওয়া বিস্ফোরক পোস্ট মুছে ফেলে প্রকাশ করেছেন দুঃখ।         

দীপংকর দীপনের সঙ্গে দুটো নতুন ছবি পোস্ট করে এই তরুণ নির্মাতা লিখেছেন, ‘‘দাদা (দীপংকর দীপন) আমার শিক্ষকতুল্য মানুষ। তার কাছেই আমি ছবি বানানোর রেসিপিটা পূর্ণাঙ্গভাবে শিখেছিলাম। তাকে আমি শ্রদ্ধা করি, ভালোবাসি। আমাদের কিছু ভুল বোঝাবুঝি হয়েছিল, দাদাও দূরে ছিলেন, আমিও ছোট হওয়াতে অনেক কিছু ভুল বুঝেছি। দিনশেষে ‘অপারেশন সুন্দরবন’ আমার পরিবার।’’

দীপনের সঙ্গে শেষ বৈঠকের পর তানিন মনে করেন, একটা পরিবারে থাকতে গেলে অনেক কিছু হয়, কিন্তু সব শেষে পরিবার সবার আগে। ‘অপারেশন সুন্দরবন’-এর এই টানটা অনেক শক্ত। বলেন, ‘আমি তার (দীপন) স্নেহ থেকে বঞ্চিত হতে চাইনি কখনও।’

তানিন দুঃখ প্রকাশ করেন র‌্যাবের উপ-পরিচালক (আইন ও গণমাধ্যম শাখা) মেজর হুসাইন রইসুল আজম মনির প্রতিও। যিনি এই ছবিটি নির্মাণের পেছনে তিন বছর ধরে নিরলস কাজ করেছেন। তানিন বলেন, ‘সুন্দরবনের মতো কঠিন ও বিপজ্জনক জায়গায় রাইসুল ভাই আমাদের আগলে রেখেছিলেন পরিবারের মতো। আমাদের নিরাপত্তা ছিল তার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, তাকেও আমি খুব শ্রদ্ধা করি। আমরা সবাই তার কাছে চিরকৃতজ্ঞ। আমি আমার পোস্টের জন্য দুঃখিত। এই পরিবার থেকে আমি দূরে যেতে চাই না।’

মেজর হুসাইন রইসুল আজম মনি প্রসঙ্গে দীপংকর দীপনও আফসোস প্রকাশ করেন বাংলা ট্রিবিউন-এর কাছে। তিনি বলেন, ‘এই ভুল বোঝাবুঝিতে আমার সবচেয়ে খারাপ লাগছে রইসুল ভাইয়ের জন্য। যে মানুষটি ছবিটি নির্মাণের জন্য গত তিনটা বছর সর্বোচ্চ আন্তরিকতা আর শ্রম দিয়েছেন। সেই মানুষটা আমাদের কারণে আজ বিব্রত হলেন। তানিনের মতো আমি নিজেও দুঃখ প্রকাশ করছি এই অনভিপ্রেত ঘটনার জন্য।’

প্রসঙ্গত, ‘অপারেশন সুন্দরবন’ ছবির বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন রিয়াজ, সিয়াম, রোশান, নুসরাত ফারিয়া, দর্শনা বণিক, সামিনা বাশার, শতাব্দী ওয়াদুদ, মনির খান শিমুল, তাসকিন রহমান, মনোজ প্রামাণিক, দীপু ইমাম, এহসানুর রহমান প্রমুখ। ছবিটি মুক্তি পাচ্ছে ২৩ সেপ্টেম্বর দেশের বেশিরভাগ প্রেক্ষাগৃহে।

র‍্যাব ওয়েলফেয়ার কো-অপারেটিভ সোসাইটি লি. প্রযোজিত এই ছবিটি নির্মাণ হয়েছে সুন্দরবনে র‌্যাবের দুঃসাহসিক অভিযানের ঘটনা নিয়ে।

যেভাবে অভিমানের সূত্রপাত:

‘অপারেশন সুন্দরবন’ নিয়ে সহকারী পরিচালকের বিস্ফোরক অভিযোগ

/এমএম/এমওএফ/
সম্পর্কিত
ঢালিউডের শুটিং এবার আকাশে!
ঢালিউডের শুটিং এবার আকাশে!
সিডনি থেকে শুরু হচ্ছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’র বিদেশ ভ্রমণ
সিডনি থেকে শুরু হচ্ছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’র বিদেশ ভ্রমণ
বাঘ যখন সিনেমা হলের সামনে!
অপারেশন সুন্দরবনবাঘ যখন সিনেমা হলের সামনে!
দর্শকদের ভালোবাসা জয় করেছে ‘অপারেশন সুন্দরবন’: আইজিপি
আইজিপি জানালেন ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ও ‘অপারেশন সুন্দরবন’ নির্মাণের গল্প
বিনোদন বিভাগের সর্বশেষ
১২ মাস পর পর্দায় ফেরার গল্প...
১২ মাস পর পর্দায় ফেরার গল্প...
দ্য কাশ্মীর ফাইলস: ইসরায়েলি নির্মাতা বললেন ‘অশ্লীল’
দ্য কাশ্মীর ফাইলস: ইসরায়েলি নির্মাতা বললেন ‘অশ্লীল’
নুহাশ হুমায়ূনের সিনেমায় যুক্ত হলেন দুই অস্কারজয়ী
নুহাশ হুমায়ূনের সিনেমায় যুক্ত হলেন দুই অস্কারজয়ী
বছর না ঘুরতেই স্বামীর বিরুদ্ধে সারিকার মামলা
বছর না ঘুরতেই স্বামীর বিরুদ্ধে সারিকার মামলা
এক ফ্রেমে দুই রণবীর!
এক ফ্রেমে দুই রণবীর!