X
বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪
৯ শ্রাবণ ১৪৩১

রাশিয়া-উত্তর কোরিয়ার চুক্তি: রুশ রাষ্ট্রদূতকে তলব দক্ষিণ কোরিয়ার

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
২১ জুন ২০২৪, ১৯:১৮আপডেট : ২১ জুন ২০২৪, ২০:৫২

দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে সই হওয়া প্রতিরক্ষা চুক্তির প্রতিবাদ জানাতে দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রুশ রাষ্ট্রদূত জর্জি জিনোভিয়েভকে তলব করেছে। শুক্রবার (২১ জুন) দুপুরে রুশ রাষ্ট্রদূতকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স এ খবর জানিয়েছে।

দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, প্রথম ভাইস পররাষ্ট্রমন্ত্রী কিম হং-কুন রুশ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে সিউলের অবস্থান তুলে ধরে বলেন, রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে সামরিক সহযোগিতা দক্ষিণ কোরিয়ার নিরাপত্তার জন্য ক্ষতিকর এবং সিউল-মস্কো সম্পর্কের ওপর ‘নেতিবাচক প্রভাব’ ফেলবে। কিম জিনোভিয়েভকে ‘দায়িত্বশীল আচরণ’ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

রুশ দূতাবাস থেকে এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রদূত বলেছেন রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার মধ্যে সহযোগিতা কোনও তৃতীয় দেশের বিরুদ্ধে নয়। মন্ত্রণালয়ে তলবের পরপরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্স-এ এই বিবৃতি দেওয়া হয়।

দক্ষিণ কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী চো তায়ে-ইল ও মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন এই চুক্তিকে আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য মারাত্মক হুমকি হিসেবে নিন্দা করেছেন। বৃহস্পতিবার একটি ফোন কলে তারা পুতিন ও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের মধ্যকার সম্মেলনের পরিপ্রেক্ষিতে কীভাবে প্রতিক্রিয়া জানানো যায় তা নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং পরিস্থিতি নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করতে সম্মত হয়েছেন।

ব্লিঙ্কেন বলেছেন, দক্ষিণ কোরিয়ার নিরাপত্তা হুমকির পাল্টা পদক্ষেপগুলোকে সমর্থন করে যুক্তরাষ্ট্র।

কিম ও পুতিনের স্বাক্ষরিত চুক্তির অধীনে মস্কো ও পিয়ংইয়ং ঘোষণা করেছে, সশস্ত্র আগ্রাসনের মুখোমুখি হলে উভয় দেশ একে অপরকে তাৎক্ষণিক সামরিক সহায়তা প্রদান করবে।

বিবৃতিতে চো বলেন, উত্তর কোরিয়ার সামরিক ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে যেকোনও ধরনের সহযোগিতা জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন।

ব্লিঙ্কেন বলেছেন, রাশিয়া ও উত্তর কোরিয়ার পক্ষ থেকে আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতার জন্য হুমকির বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া জানাতে যুক্তরাষ্ট্র বিভিন্ন উপায় বিবেচনা করবে।

চো জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়োকো কামিকাওয়ার সঙ্গেও ফোনে কথা বলেছেন। উভয়েই মস্কো ও পিয়ংইয়ংয়ের চুক্তি নিয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা চ্যাং হো-জিন বৃহস্পতিবার বলেছিলেন, চুক্তির প্রতিক্রিয়ায় দক্ষিণ কোরিয়া ইউক্রেনে অস্ত্র সরবরাহের সম্ভাবনা বিবেচনা করবে।

ইউক্রেনে অস্ত্র পাঠাতে দক্ষিণ কোরিয়ার বিবেচনার ঘোষণার প্রতিক্রিয়ায় দেশটিকে হুমকি দিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেছেন, প্রয়োজনে উত্তর কোরিয়ায় অস্ত্র পাঠাবে রাশিয়া।

তিনি আরও বলেছেন, যদি সিউল কিয়েভকে অস্ত্র সরবরাহের সিদ্ধান্ত নেয় তাহলে মস্কো এমন কিছু সিদ্ধান্ত নেবে, যা দক্ষিণ কোরিয়ার বর্তমান নেতৃত্বের জন্য সুখকর হবে না।

 

/এএ/এমওএফ/
সম্পর্কিত
মার্কিন কংগ্রেসে নেতানিয়াহুর ভাষণ, প্রতিবাদ ও বিভক্তি তুঙ্গে
বাইডেন, হ্যারিস ও ট্রাম্পের সঙ্গে পৃথক বৈঠক করবেন নেতানিয়াহু
ইসরায়েলে অস্ত্র সরবরাহ বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়নি জার্মানি: শলৎস
সর্বশেষ খবর
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
কূটনীতিকরা স্তম্ভিত, বলেছেন বাংলাদেশের পাশে আছেন: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
সংঘাতে ডিএনসিসির ২০৫ কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
নাটকীয় হারে আর্জেন্টিনার অলিম্পিক যাত্রা শুরু
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
‌‌‘আন্দোলনকে ঢাল হিসেবে নিয়ে নারকীয় ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়েছে বিএনপি-জামায়াত’
সর্বাধিক পঠিত
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
ধারণা ছিল একটা আঘাত আসবে: প্রধানমন্ত্রী
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
কোটা নিয়ে রায় ঘোষণার আগে যা বলেছিলেন প্রধান বিচারপতি
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী