X
বুধবার, ২৪ জুলাই ২০২৪
৯ শ্রাবণ ১৪৩১

‘হামাসকে ধ্বংস করা সম্ভব নয়’

আন্তর্জতিক ডেস্ক
০২ ডিসেম্বর ২০২৩, ১১:৩৩আপডেট : ০২ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৭:১২

ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসকে ধ্বংস করার যে প্রতিজ্ঞা ইসরায়েল নিয়েছে তা অর্জন করা সম্ভব নয়। হামাস কোনও ব্যক্তি বা সরঞ্জাম এবং কোনও অবকাঠামোর তালিকায় নয় যে তা ধ্বংস করা যাবে, বরং এটি একটি ব্র্যান্ডের নাম, একটি ধারণার নাম। ফরাসি সংবাদমাধ্যম ফ্রান্স টুয়েন্টি ফোরকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব কথা বলেছেন লেবানিজ-আমেরিকান গবেষক হুসেন ইবিশ। হামাসকে ধ্বংস করার যে লক্ষ্য তা স্বল্প মেয়াদে অর্জন করা সম্ভব কিনা এ প্রশ্নের জবাবে এমন মন্তব্য করেন তিনি। শুক্রবার (১ ডিসম্বের) এক প্রতিবেদনে এই খবর প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যমটি।

টানা দেড় মাসেরও বেশি সময় ধরে অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলের সামরিক আগ্রাসনের পর গত ২৪ নভেম্বর একটি সাময়িক যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় ইসরায়েল ও হামাস। ৪ দিনের এ যুদ্ধবিরতি দুবার বেড়ে ৭ দিনে গড়ালেও অষ্টম দিনে আবারও শুরু হয় যুদ্ধ। বিশ্ব যখন গাজা উপত্যকায় একটি দীর্ঘস্থায়ী যুদ্ধবিরতির আশা করছিল, এসময় পুনরায় যুদ্ধের এ দামামা বেজে ওঠায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়গুলোর মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে। নেতানিয়াহু সরকার যে লক্ষ্যে এ যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছে তা স্বল্প সময়ে অর্জন করা সম্ভব না বলে মনে করছেন গবেষক হুসেন ইবিশ।

তিনি বলেন, ইসরায়েল আক্রমণ চালিয়ে নিছক প্রতিশোধ নিতে চাইছে। ‘হামাসকে ধ্বংস করার’ লক্ষ্যে যুদ্ধ জয় সম্ভব নয়, কারণ হামাস একটি ব্র্যান্ডের নাম এবং একটি ধারণা; কোনও ব্যক্তি বা সরঞ্জাম এবং অবকাঠামোর তালিকা নয় যেটি হত্যা বা ধ্বংস করা যেতে পারে। ইসরাইল যা-ই করুক না কেন এ সংগঠন টিকে থাকবে।

ইবিশ বলেন, সুতরাং, ‘প্রশ্ন হল মূল যুদ্ধ শেষে গাজায় ইসরায়েল কী করতে চায় এবং তাদের কাছে এ প্রশ্নের কোনও উত্তর নেই। তারা তা বিবেচনা করছে বলেও মনে হয় না। হামাস যোদ্ধাদের হত্যা করা এবং টানেল, তাদের সব সরঞ্জাম ও অবকাঠামো ধ্বংস করার আপ্রাণ চেষ্টার বাইরে তারা আর কিছু ভাবছে বলে আমার বিশ্বাস হয় না।’

গাজা যুদ্ধে ইসরায়েলের পরিকল্পনা বিষয়ে তিনি বলেন, ‘কোনও রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট ছাড়াই এ কাজ করছে ইসরায়েল, যেটি যেকোনও যুদ্ধরত শক্তির জন্য একটি বিপর্যয়, কেননা ক্লজউইৎস (প্রুশিয়ান জেনারেল কার্ল ভন ক্লজউইৎজ) বলেছেন, যুদ্ধ হল অন্য উপায়ে রাজনীতি।’

এ যুদ্ধে হামাসের অবস্থানে নিয়ে ইবিশ বলেন, ‘অন্যদিকে, হামাসের খুব স্পষ্ট একটি লক্ষ্য রয়েছে: সংগঠনটি চায় ইসরায়েল গাজায় থাকুক, যাতে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে দখলদার এ বাহিনীর বিরুদ্ধে তারা একটি বিদ্রোহ গড়ে তুলতে পারে। সংগঠনটিকে এখন ইসরায়েলের বিরুদ্ধে একটি ‘চিরস্থায়ী যুদ্ধ রাষ্ট্র’ হিসেবে দেখা হচ্ছে।’

চলমান এই যুদ্ধে হামাসের একটি স্পষ্ট রাজনৈতিক কাঠামো রয়েছে। শুধু ইসরায়েল সঙ্গে যুদ্ধই নয়, সংগঠনটি বিদ্রোহকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে ব্যবহার করতে চায়—যা বিপজ্জনক। কেননা, এর অর্থ দাঁড়ায় গাজার জনগণ এবং সমাজের জন্য একটি তাত্ক্ষণিক ধ্বংসযজ্ঞ—তারা রক্তমাখা শার্ট ফেলে নিজেদের ফিলিস্তিনি জাতীয় আন্দোলনের একমাত্র বৈধ নেতা হিসেবে দাবি করবে। কেননা, গাজায় ফিলিস্তিনি ভূখন্ড নিয়ন্ত্রণে তারা একাই প্রতিদিন ইসরায়েলি দখলদার বাহিনীর সঙ্গে লড়াই করছে।

/এএকে/
সম্পর্কিত
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন: জনমত জরিপে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে কমলা
ইথিওপিয়ায় ভূমিধসে নিহত বেড়ে অন্তত ২২৯
কোভিড আক্রান্ত হয়ে প্রচারণায় বিরতি, নতুন চাপে বাইডেন
সর্বশেষ খবর
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন: জনমত জরিপে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে কমলা
মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন: জনমত জরিপে ট্রাম্পের চেয়ে এগিয়ে কমলা
পাঁচ দিন পর খুললো অফিস-আদালত
পাঁচ দিন পর খুললো অফিস-আদালত
টি-টোয়েন্টিতে লঙ্কানদের নতুন অধিনায়ক
টি-টোয়েন্টিতে লঙ্কানদের নতুন অধিনায়ক
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
সর্বাধিক পঠিত
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
চাকরিতে কোটা: প্রজ্ঞাপনে যা আছে
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কোটা আন্দোলন: প্রধানমন্ত্রীর বর্ণনায় ক্ষয়ক্ষতির চিত্র 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
কারফিউ বা সান্ধ্য আইন কী 
ইন্টারনেটে বিঘ্ন ঘটায় বাংলা ট্রিবিউন পাঠকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখপ্রকাশ
ইন্টারনেটে বিঘ্ন ঘটায় বাংলা ট্রিবিউন পাঠকদের সাময়িক অসুবিধার জন্য দুঃখপ্রকাশ
পাঁচ দিন পর খুললো অফিস-আদালত
পাঁচ দিন পর খুললো অফিস-আদালত