সিরিয়ায় বিমান হামলায় নিহত অন্তত ১০

Send
বিদেশ ডেস্ক
প্রকাশিত : ০২:০৭, ডিসেম্বর ০৩, ২০১৯ | সর্বশেষ আপডেট : ১৪:৫৫, ডিসেম্বর ০৩, ২০১৯

সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় ইদলিব প্রদেশে সরকারি বাহিনীর বিমান হামলায় কমপক্ষে ১০ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ১৮ জন। সোমবার (২ ডিসেম্বর) দেশটির বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত মারেত আল নুমান ও সারাকেব শহরের দুইটি বাজারে বিমান হামলা চালানো হয়। তবে সরকারি বাহিনীর পক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। 

চলমান সিরীয় যুদ্ধের এই পর্যায়ে বিদ্রোহীরা একমাত্র ইদলিব প্রদেশের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে সমর্থ হয়েছে। ৩০ লাখের বেশি নাগরিক সেখানে নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছে। গত বছর আসাদ সরকারকে আক্রমণ থেকে বিরত রাখতে ইদলিবকে একটি বেসামরিক অঞ্চল হিসেবে ঘোষণা দেয় তুরস্ক-রাশিয়া। সেই ঘোষণা অনুযায়ী সেখানে হামলা নিষিদ্ধ হলেও সিরীয় শাসকগোষ্ঠী তা মানছে না। রাশিয়া ও তুরস্কের বাধা উপেক্ষা করে আসাদের অনুগত বাহিনী সেখানে হামলা চালিয়ে যাচ্ছে।

সিরিয়ার হোয়াইট হেলমেটস নামে পরিচিত দেশটির বেসামরিক প্রতিরক্ষা বিভাগের মুখপাত্র আহমেদ শেখো বলেছেন, বিমান হামলায় মারেত আল নুমান শহরে অন্তত ৯ জন নিহত ও পাঁচজন আহত আর সারাকেবে একজন নিহত ও ১৫ জন আহত হয়েছে। তিনি জানান, ‘সোমবার স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় সারাকেবে প্রথম বিমান হামলা চালায় বাশারের (প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদ) বাহিনী। আর সকাল সাড়ে ১০টায় দ্বিতীয় হামলা হয় মারেত আল নুমানে।’

মারেত আল নুমান শহরের সবজি বিক্রেতা মাহের মোহাম্মদ (৩৫) জানিয়েছেন, তার দেখা সবচেয়ে বড় বিমান হামলা এটা। তিনি ফরাসি সংবাদমাধ্যম এএফপি’কে বলেছেন, ‘আমরা দৌঁড়ে দোকানে মধ্যে প্রবেশ করি। বিমান হামলার শব্দে আমরা নিচে পড়ে যাই। বাজারের অর্ধেকজুড়ে বোমাবর্ষণ করা হয়েছে। আমাদের প্রতিবেশীরা মারা গেছে।’

/এইচকে/বিএ/

লাইভ

টপ